দক্ষিণ সুদান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
দক্ষিণ সুদান প্রজাতন্ত্র
Republic of South Sudan

পতাকা Coat of arms
নীতিবাক্য"Justice, Liberty, Prosperity"
"ন্যায়, স্বাধীনতা, প্রগতি"
জাতীয় সঙ্গীত: "সাউথ সুদান ওয়ে!"
রাজধানী জুবা
০৪°৫১′ উত্তর ৩১°৩৬′ পূর্ব / ৪.৮৫০° উত্তর ৩১.৬০০° পূর্ব / 4.850; 31.600
বৃহত্তম শহর capital
রাষ্ট্রীয় ভাষাসমূহ ইংরেজি[১][২]
স্বীকৃত জাতীয় ভাষাসমূহ দিনকা, নুয়ের, বারি, মারলে, জান্ডে
ও ৬০টি অন্য ভাষা
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ দক্ষিণ সুদানি
সরকার যুক্তরাষ্ট্রীয় রাষ্ট্রপতি-শাসিত গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র
 •  রাষ্ট্রপতি সালভা কির মায়ারডিট
 •  উপরাষ্ট্রপতি রেইক মাচার টেনি
আইন-সভা ন্যাশানাল লেজিসলেচার
 •  উচ্চকক্ষ কাউন্সিল অফ স্টেটস
 •  নিম্নকক্ষ ন্যাশানাল লেজিসলেটিভ অ্যাসেম্বলি
সুদানের থেকে স্বাধীনতালাভ
 •  অ্যাংলো-মিশরীয় সুদানের অবলুপ্তি ৩১ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ 
 •  কমপ্রিহেনসিভ পিস এগ্রিমেন্ট ৬ ডিসেম্বর, ২০০৫ 
 •  সাউদার্ন সুদান সরকার (২০০৫-১১ স্বশাসন) ৯ জুলাই, ২০০৫ 
 •  স্বাধীনতা লাভ ৯ জুলাই, ২০১১ 
 •  মোট ৬,১৯,৭৪৫ কিমি (৪২তম)
২,৩৯,২৮৫ বর্গ মাইল
জনসংখ্যা
 •  ২০০৮ আদমশুমারি 8,260,490 (disputed)[৩] (৯৪তম)
 •  ঘনত্ব 13.33/কিমি (২১৪তম)
৩৪.৫২/বর্গ মাইল
মোট দেশজ উৎপাদন
(ক্রয়ক্ষমতা সমতা)
২০১২ আনুমানিক
 •  মোট $১০.৪৫০ বিলিয়ন[৪]
 •  মাথা পিছু $১,০০৬[৪]
মোট দেশজ উৎপাদন (নামমাত্র) ২০১২ আনুমানিক
 •  মোট $১২.২০২ বিলিয়ন[৪]
 •  মাথা পিছু $১,১৭৪[৪]
মুদ্রা সাউথ সুদানিজ পাউন্ড (SSP)
সময় অঞ্চল পূর্ব আফ্রিকা প্রমাণ সময় (ইউটিসি+৩)
গাড়ী চালনার দিক ডানদিকে
কলিং কোড +২১১[৫]
আইএসও ৩১৬৬ কোড SS
ইন্টারনেট টিএলডি .ss[৬]a
ক. Registered, but not yet operational.

দক্ষিণ সুদান বা সাউথ সুদান (শুনুনi/ˌsθ sˈdæn/ or /sˈdɑːn/), সরকারি নাম রিপাবলিক অফ সাউথ সুদান[৭] এবং আগেকার নাম সাউদার্ন সুদান, হল পূর্ব-মধ্য আফ্রিকার একটি রাষ্ট্র।[৭] বর্তমান রাজধানী জুবা। এটিই দেশের বৃহত্তম শহর। তবে ভবিষ্যতে দেশের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত রামসিয়েল শহরে রাজধানী স্থানান্তরণের পরিকল্পনা রয়েছে।[৮] দক্ষিণ সুদানের পূর্বদিকে ইথিওপিয়া, দক্ষিণপূর্বে কেনিয়া, দক্ষিণে উগান্ডা, দক্ষিণপশ্চিমে কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, পশ্চিমে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র এবং উত্তরে সুদান। শ্বেতনীল নদের সৃষ্ট বিরাট জলাভূমি অঞ্চল এই দেশের অন্তর্গত; এই অঞ্চলটির স্থানীয় নাম "বার আল জাবাল"।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

অধুনা দক্ষিণ সুদান ও সুদানের অন্তর্গত ভূখণ্ডটি মুহাম্মদ আলি রাজবংশের শাসনকালে মিশরের অধীনে ছিল। পরে এটি যুক্তরাজ্য ও মিশরের যৌথমালিকানাধীন এলাকায় পরিণত হয়। ১৯৫৬ সালে সুদান স্বাধীন হয়। সুদানের প্রথম গৃহযুদ্ধের পর ১৯৭২ সালে "সাউদার্ন সুদান অটোনমাস রিজিয়ন" (সুদান দক্ষিণাঞ্চলীয় স্বশাসিত এলাকা) গঠিত হয়। ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত এই স্বশাসন বজায় ছিল। সুদানের দ্বিতীয় গৃহযুদ্ধের পর ২০০৫ সালে "কমপ্রিহেনসিভ পিস এগ্রিমেন্ট" (সার্বিক শান্তি চুক্তি) সাক্ষরিত হয়। ওই বছরের শেষ দিকে গঠিত হয় "অটোনমাস গভর্নমেন্ট অফ সাউদার্ন সুদান" (সুদান দক্ষিণাঞ্চলীয় স্বশাসিত সরকার)। ২০১১ সালে একটি গণভোটে দক্ষিণ সুদানের ৯৮.৮৩% মানুষ স্বাধীন দক্ষিণ সুদানের পক্ষে মত দেন। এরপর ওই বছর ৯ জুলাই দক্ষিণ সুদান স্বাধীন হয়।[৯][১০] এটি রাষ্ট্রসংঘ [১১][১২], আফ্রিকান ইউনিয়ন [১৩], এবং ইন্টারগভর্নমেন্টাল অথরিটি অন ডেভেলপমেন্ট-এর[১৪] একটি সদস্য রাষ্ট্র। ২০১২ সালের জুলাই মাসে, দক্ষিণ সুদান জেনেভা কনভেনশন সাক্ষর করেছে।[১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Transitional Constitution of the Republic of South Sudan, 2011"। Government of South Sudan। সংগৃহীত ১২ জুলাই ২০১১  Part One, 6(2). "English shall be the official working language in the Republic of South Sudan".
  2. "At a Glance"Official portal। Government of Southern Sudan। ১২ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ২০১১-০৭-২৪ 
  3. "Discontent over Sudan census"News24.com। AFP। ২১ মে ২০০৯। সংগৃহীত ২০১১-০৭-১৪ 
  4. "Report for Selected Countries and Subjects"World Economic Outlook Database, April 2013International Monetary Fund। এপ্রিল ২০১৩। সংগৃহীত ১৮ এপ্রিল ২০১৩ 
  5. "New country, new number: Country code 211 officially assigned to South Sudan" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। International Telecommunication Union। ১৪ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ২০১১-০৭-২০ 
  6. ".ss Domain Delegation Data"Internet Assigned Numbers AuthorityICANN। সংগৃহীত ২০১১-০৯-০১ 
  7. "South Sudan"The World FactbookCIA। ১১ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ২০১১-০৭-১৪ 
  8. "South Sudan profile"। BBC। ৫ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ২৪ জুলাই ২০১১ 
  9. Broadcast of Declaration of Independence (part 1)
  10. Broadcast of Declaration of Independence (part 2)
  11. Worsnip, Patrick (১৪ জুলাই ২০১১)। "South Sudan admitted to U.N. as 193rd member"Reuters। সংগৃহীত ২০১১-০৭-২৪ 
  12. "UN welcomes South Sudan as 193rd Member State"। United Nations News Service। ১৪ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ১৪ জুলাই ২০১১ 
  13. "South Sudan Becomes African Union's 54th Member"। Voice of America News। ২৮ জুলাই ২০১১। সংগৃহীত ২৮ জুলাই ২০১১ 
  14. "Ethiopia Agrees to Back Somalia Army Operations, IGAD Says"। Bloomberg Businessweek। ২৫ নভেম্বর ২০১১। সংগৃহীত ২৫ নভেম্বর ২০১১ 
  15. "Freedom House Congratulates South Sudan for Signing the Geneva Conventions"। Freedom House। ২০ জুলাই ২০১২। সংগৃহীত ২০১২-০৭-২০