২০২১–২২ ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০২১–২২ ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর
Flag of Australia.svg
অস্ট্রেলিয়া
Flag of England.svg
ইংল্যান্ড
তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২২ – ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২
অধিনায়ক মেগ ল্যানিং হেদার নাইট
সিরিজ সেরা তালিয়া ম্যাকগ্রা (অস্ট্রেলিয়া)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ১ ম্যাচের সিরিজ ০–০ ব্যবধানে ড্র হয়
সর্বাধিক রান মেগ ল্যানিং (১০৫) হেদার নাইট (২১৬)
সর্বাধিক উইকেট অ্যানাবেল সাদারল্যান্ড (৫) ক্যাথরিন ব্রান্ট (৮)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ৩–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান অ্যালিসা হিলি (৯১) নাতালি সিভার (৯৯)
সর্বাধিক উইকেট তালিয়া ম্যাকগ্রা (৬) কেট ক্রস (৫)
টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ১–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান তালিয়া ম্যাকগ্রা (৯১) ড্যানিয়েল ওয়ায়াট (৮৪)
সর্বাধিক উইকেট তালিয়া ম্যাকগ্রা (৩) সোফি একলস্টোন (১)
অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট
অস্ট্রেলিয়া ১২, ইংল্যান্ড ৪

ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দল ২০২২ সালের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে নারী অ্যাশেজের অংশ হিসেবে একটি টেস্ট, তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) ও তিনটি টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) ম্যাচের সিরিজ খেলার জন্য অস্ট্রেলিয়া সফর করে।[১][২][৩][৪] সিরিজে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে জয়ী দল নির্ধারণে একটি পয়েন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়।[৫]

২০২২ সালের ১৭ জানুয়ারি ঘোষিত হয় যে এ সিরিজের মধ্য দিয়েই নারীদের অ্যাশেজে প্রথমবারের মত সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা পদ্ধতি (ডিআরএস) ব্যবহৃত হবে।[৬]

টি২০আই সিরিজের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জয়ী হয়।[৭] বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় ম্যাচের খেলা বিঘ্নিত হয় ও তৃতীয় ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়, ফলে অস্ট্রেলিয়া ১-০ ব্যবধানে সিরিজে জয়লাভ করে।[৮] সিরিজের একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি ড্র হয়।[৯] ওডিআই সিরিজের তিনটি ম্যাচেই অস্ট্রেলিয়া জয়ী হয় ও ১২-৪ ব্যবধানে অ্যাশেজ সিরিজে জিতে অ্যাশেজ নিজেদের কাছে রাখতে সক্ষম হয়।[১০] অ্যাশেজ সিরিজের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন অস্ট্রেলিয়ার তালিয়া ম্যাকগ্রা।[১১][১২]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 অস্ট্রেলিয়া[১৩]  ইংল্যান্ড[১৪]

সিরিজ শুরুর পূর্বে অনুশীলনের সময়ে অস্ট্রেলিয়ার বেথ মুনি চোয়ালে আঘাত পান।[১৫] অস্ট্রেলিয়া দলে তাঁর পরিবর্তে গ্রেস হ্যারিসকে নেয়া হয়।[১৬] টি২০আই সিরিজের প্রথম ম্যাচের সময় ডান পায়ে চোট পাওয়ায় অস্ট্রেলিয়া দলের টেইলা ভ্লেমিংক সিরিজের বাকি ম্যাচগুলো থেকে ছিটকে যান।[১৭] ২০২২ সালের ২৫ জানুয়ারি স্টেলা ক্যাম্পবেলকে সিরিজের টেস্ট ম্যাচের জন্য অস্ট্রেলিয়া দলে নেয়া হয়।[১৮] একই দিনে লরেন বেলকে সিরিজের টেস্ট ম্যাচের জন্য ইংল্যান্ড দলে নেয়া হয়।[১৯]

নারী টি২০আই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম নারী টি২০আই[সম্পাদনা]

২০ জানুয়ারি ২০২২
১৮:৪০ (রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৬৯/৪ (২০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৭০/১ (১৭ ওভার)
ড্যানিয়েল ওয়ায়াট ৭০ (৫৪)
তালিয়া ম্যাকগ্রা ৩/২৬ (৪ ওভার)
তালিয়া ম্যাকগ্রা ৯১* (৪৯)
সোফি একলস্টোন ১/২৯ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৯ উইকেটে জয়ী
অ্যাডিলেড ওভাল, অ্যাডিলেড
আম্পায়ার: ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: তালিয়া ম্যাকগ্রা (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • আলানা কিং (অস্ট্রেলিয়া)-এর নারী টি২০আই অভিষেক হয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ২, ইংল্যান্ড ০।

২য় নারী টি২০আই[সম্পাদনা]

২২ জানুয়ারি ২০২২
১৩:৪০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
২৫/০ (৪.১ ওভার)
ফলাফল হয়নি
অ্যাডিলেড ওভাল, অ্যাডিলেড
আম্পায়ার: ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া) ও মাইকেল গ্রাহাম-স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির কারণে আর খেলা সম্ভব হয়নি।
  • শার্লট ডিন (ইংল্যান্ড)-এর নারী টি২০আই অভিষেক হয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১, ইংল্যান্ড ১।

৩য় নারী টি২০আই[সম্পাদনা]

২৩ জানুয়ারি ২০২২
১৩:৪০
স্কোরকার্ড
ম্যাচ পরিত্যক্ত
অ্যাডিলেড ওভাল, অ্যাডিলেড
আম্পায়ার: এলোইস শেরিডান (অস্ট্রেলিয়া) ও ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া)
  • টস হয়নি।
  • বৃষ্টির কারণে কোনও খেলা সম্ভব হয়নি।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১, ইংল্যান্ড ১।

একমাত্র নারী টেস্ট[সম্পাদনা]

২৭–৩০ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
৩৩৭/৯ঘো (১০৪.১ ওভার)
মেগ ল্যানিং ৯৩ (১৭০)
ক্যাথরিন ব্রান্ট ৫/৬০ (২১.১ ওভার)
২৯৭ (১০৫.৫ ওভার)
হেদার নাইট ১৬৮* (২৯৪)
এলিস পেরি ৩/৫৭ (২০.৫ ওভার)
২১৬/৭ঘো (৬৪ ওভার)
বেথ মুনি ৬৩ (১৩৭)
ক্যাথরিন ব্রান্ট ৩/২৪ (৯ ওভার)
২৪৫/৯ (৪৮ ওভার)
নাতালি সিভার ৫৮ (৬২)
অ্যানাবেল সাদারল্যান্ড ৩/৬৯ (১৩ ওভার)
খেলা ড্র
মানুকা ওভাল, ক্যানবেরা
আম্পায়ার: এলোইস শেরিডান (অস্ট্রেলিয়া) ও মাইকেল গ্রাহাম-স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: হেদার নাইট (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • তৃতীয় দিনে বৃষ্টির কারণে ৭৪.২ ওভার খেলা সম্ভব হয়নি।
  • আলানা কিং (অস্ট্রেলিয়া) ও শার্লট ডিন (ইংল্যান্ড)-এর নারী টেস্ট অভিষেক হয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ২, ইংল্যান্ড ২।

নারী ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম নারী ওডিআই[সম্পাদনা]

৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২
১৪:১০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২০৫/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৭৮ (৪৫ ওভার)
বেথ মুনি ৭৩ (৯১)
কেট ক্রস ৩/৩৩ (১০ ওভার)
নাতালি সিভার ৪৫ (৬৬)
ডার্সি ব্রাউন ৪/৩৪ (১০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২৭ রানে জয়ী
মানুকা ওভাল, ক্যানবেরা
আম্পায়ার: ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া) ও মাইকেল গ্রাহাম-স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: বেথ মুনি (অস্ট্রেলিয়া)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • আলানা কিং (অস্ট্রেলিয়া)-এর নারী ওডিআই অভিষেক হয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ২, ইংল্যান্ড ০।

২য় নারী ওডিআই[সম্পাদনা]

৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২
১০:০৫
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১২৯ (৪৫.২ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৩১/৫ (৩৫.২ ওভার)
সোফি একলস্টোন ৩২* (৬৫)
তালিয়া ম্যাকগ্রা ৩/৪ (৩.২ ওভার)
এলিস পেরি ৪০ (৬২)
কেট ক্রস ২/৪৬ (৮ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেটে জয়ী
জংশন ওভাল, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: এলোইস শেরিডান (অস্ট্রেলিয়া) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: এলিস পেরি (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ২, ইংল্যান্ড ০।

৩য় নারী ওডিআই[সম্পাদনা]

৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২
১০:০৫
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৬৩ (৪৯.৩ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৬৪/২ (৩৬.২ ওভার)
ট্যামসিন বউমন্ট ৫০ (১০১)
অ্যানাবেল সাদারল্যান্ড ৪/৩১ (৯ ওভার)
মেগ ল্যানিং ৫৭* (৭০)
সোফি একলস্টোন ১/১৮ (১০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৮ উইকেটে জয়ী
জংশন ওভাল, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: এলোইস শেরিডান (অস্ট্রেলিয়া) ও ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: অ্যানাবেল সাদারল্যান্ড (অস্ট্রেলিয়া)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এমা ল্যাম্ব (ইংল্যান্ড)-এর নারী ওডিআই অভিষেক হয়।
  • অ্যাশেজ সিরিজের পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ২, ইংল্যান্ড ০।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "England Ashes schedule confirmed for 2021-22"ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  2. "Fixture confirmed for dual Ashes series, Afghan Test"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  3. "Ashes 2021-22 schedule: Dates announced for men's and women's series"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  4. "Australia's Test drought poses possible Ashes problems"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  5. "Dual Ashes series headline Australia's bumper summer schedule"আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  6. "Women's Ashes: Review system to be used for first time in 2022 series"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 
  7. "The Tahlia McGrath all-round show sinks England in Ashes opener"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 
  8. "Third Ashes T20 called off without a ball bowled"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 
  9. "Test ends in thrilling draw after brave England score record fourth-innings total"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০২২ 
  10. "Sutherland, top order give Australia unbeaten Ashes campaign"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  11. "Annabel Sutherland stars in ODI sweep as Australia finish Ashes in style"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  12. "Breakout summer has McGrath primed for world stage"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  13. "King grabs spin spot as Australia name Ashes squad"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০২২ 
  14. "England Women announce Women's Ashes squad and England Women's A squad"ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০২১ 
  15. "Mooney faces surgery on fractured jaw after nets blow"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  16. "Australia call-up Grace Harris after Beth Mooney's injury"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২২ 
  17. "Tayla Vlaeminck ruled out of Ashes and ODI World Cup with stress fracture"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 
  18. "'Unplayable' Stella Campbell added to Australia's squad amid hunt for 20 wickets"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 
  19. "Uncapped bowler Lauren Bell added to England squad for Ashes Test"দ্য ক্রিকেটার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]