২০১৬-১৭ আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৬-১৭ আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ
Flag of Afghanistan.svg
আফগানিস্তান
তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর – ১ অক্টোবর, ২০১৬
অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা আসগর স্তানিকজাই
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ বাংলাদেশ ২–১ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান তামিম ইকবাল (২১৮) রহমত শাহ (১০৭)
সর্বাধিক উইকেট তাসকিন আহমেদ (৭) রশীদ খান (৭)
সিরিজ সেরা তামিম ইকবাল (বাংলাদেশ)

আফগানিস্তান ক্রিকেট দল পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর, ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফর করে। এ সফরে দলটি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়।[১][২] জিম্বাবুয়ের পর এ সফরটি আফগানিস্তানের পূর্ণাঙ্গ টেস্ট দলের বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ সিরিজরূপে বিবেচিত হয়। এছাড়াও, ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডের সফরের পর সহযোগী দেশ হিসেবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো দ্বি-পক্ষীয় ওডিআই সিরিজ।[৩] সবগুলো খেলাই মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

সিরিজ আরম্ভের পূর্বে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একাদশ বনাম আফগান একাদশের মধ্যে একটি ৫০-ওভারের প্রস্তুতিমূলক খেলা ফতুল্লায় আয়োজন করা হয়।[৪] ঐ খেলায় আফগানিস্তান দল ৬৬ রানে জয় পায়।[৫] সম্প্রচারস্বত্ত্বজনিত কারণে সিরিজটি রকেট ওডিআই সিরিজ নামে পরিচিতি পায়। এ সিরিজে বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধানে জয়লাভ করে।

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 বাংলাদেশ[৬]  আফগানিস্তান[৭]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) কর্তৃক সন্দেহজনক বোলিং ভঙ্গীমার বিষয় থেকে অব্যহতি পাবার পর তাসকিন আহমেদকে বাংলাদেশ দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[৮] রুবেল হোসেনকে বাদ দেয়ার পর তৃতীয় ওডিআইয়ের জন্য মোশাররফ হোসেনকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[৯]

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

একদিনের: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একাদশ ব আফগান একাদশ[সম্পাদনা]

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
স্কোরকার্ড
আফগান একাদশ 
২৩৩ (৪৯.৩ ওভার)
আফগানিস্তান ৬৬ রানে জয়ী
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, ফতুল্লা
আম্পায়ার: আনিসুর রহমান (বাংলাদেশ) ও শরফুদ্দৌলা (বাংলাদেশ)
  • বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একাদশ টসে জয়ী হয় ও ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • প্রতি দলে ১৭ জন খেলোয়াড় (১১ জন ব্যাটিং, ১১ জন ফিল্ডিং)।

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৬৫ (৫০ ওভার)
 আফগানিস্তান
২৫৮ (৫০ ওভার)
তামিম ইকবাল ৮০ (৯৮)
দৌলত জাদরান ৪/৭৩ (১০ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • নবীন-উল-হকের (আফগানিস্তান) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • ওডিআইয়ে সাকিব আল হাসান বাংলাদেশীদের মধ্যে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হন।[১০]

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২০৮ (৪৯.২ ওভার)
 আফগানিস্তান
২১২/৮ (৪৯.৪ ওভার)
মোসাদ্দেক হোসেন ৪৫* (৪৫)
রশীদ খান ৩/৩৫ (১০ ওভার)
  • আফগানিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • মোসাদ্দেক হোসেনের (বাংলাদেশে) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • ওডিআইয়ে প্রথম বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে মোসাদ্দেক হোসেন তার প্রথম বলেই উইকেট পান।[১১]

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

১ অক্টোবর, ২০১৬
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৭৯/৮ (৫০ ওভার)
 আফগানিস্তান
১৩৮ (৩৩.৫ ওভার)
তামিম ইকবাল ১১৮ (১১৮)
রশীদ খান ২/৩৯ (১০ ওভার)
রহমত শাহ ৩৬ (৭৩)
মোশাররফ হোসেন ৩/২৪ (৮ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশ ১০০তম ওডিআই জয় করে।[১২]
  • বাংলাদেশের পক্ষে তামিম ইকবাল ওডিআইয়ে সপ্তম শতক হাঁকান।[১২]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

ওডিআই
ব্যাটিং[১৩]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
তামিম ইকবাল  বাংলাদেশ ২১৮ ৭২.৬৬ ১১৮
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ  বাংলাদেশ ১১৯ ৫৯.৫০ ৬২
রহমত শাহ  আফগানিস্তান ১০৭ ৩৫.৬৬ ৭১
হাশমতুল্লাহ শহীদি  আফগানিস্তান ৮৬ ২৮.৬৬ ৭২
মোহাম্মাদ নবী  আফগানিস্তান ৮২ ২৭.৩৩ ৪৯
বোলিং[১৪]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
রশীদ খান  আফগানিস্তান ৩০ ১৫.৮৫ ৩/৩৫
তাসকিন আহমেদ  বাংলাদেশ ১৯.৪ ১৭.৪২ ৪/৫৯
মোহাম্মাদ নবী  আফগানিস্তান ৩০ ১৬.১৬ ২/১৬
সাকিব আল হাসান  বাংলাদেশ ২৬ ১৭.৮৩ ৪/৪৭
মিরওয়াইজ আশরাফ  আফগানিস্তান ২৩ ২৩.৪০ ২/২৩

সম্প্রচার ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

নিম্নবর্ণিত দেশসমূহে এ সিরিজটি সরাসরি সম্প্রচারণ করা হয়:[১৫]

টেলিভিশন সম্প্রচার দেশ
জিটিভি
বাংলাদেশ টেলিভিশন
মাছরাঙ্গা টিভি
 বাংলাদেশ
ওয়ানটিভি  আফগানিস্তান
সুপার স্পোর্ট  দক্ষিণ আফ্রিকা
উইলো  যুক্তরাষ্ট্র
ওএসএন স্পোর্টস  সংযুক্ত আরব আমিরাত, মধ্যপ্রাচ্য, উত্তর আফ্রিকা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Afghanistan ODI series in Bangladesh confirmed"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৬ 
  2. "Afghanistan to tour Bangladesh for the first time"আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। ৩১ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৬ 
  3. "Taskin set to return for Bangladesh's first ODI in 2016"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  4. "Anamul, Sabbir named in BCB XI to face Afghanistan"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  5. "Nabi, Shahidi deliver Afghanistan big win in low-scorer"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  6. "Uncapped Mosaddek Hossain picked for Afghanistan ODIs"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  7. "Afghanistan pick three uncapped players for Bangladesh ODIs"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  8. "Taskin and Sunny cleared to bowl after remedial work"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  9. "Mosharraf Hossain returns for Bangladesh after eight years"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  10. "Shakib becomes Bangladesh's highest ODI wicket-taker"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  11. "Debutant Mossadek's golden touch"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  12. "DTamim, Mosharraf send Afghanistan packing"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ১ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৬ 
  13. "Records / Afghanistan in Bangladesh ODI Series, 2016/17 / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। 
  14. "Records / Afghanistan in Bangladesh ODI Series, 2016/17 / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। 
  15. bangladesh vs afghanistan 1st odi live streaming gazi tv channels match preview prediction playing xi

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]