২০১৬-১৭ পাকিস্তান ক্রিকেট দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০১৬-১৭ পাকিস্তান ক্রিকেট দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর
WestIndiesCricketFlagPre1999.svg
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
Flag of Pakistan.svg
পাকিস্তান
তারিখ ২৬ মার্চ – ১৪ মে ২০১৭
অধিনায়ক জেসন হোল্ডার (টেস্ট ও ওডিআই)
কার্লোস ব্রাদওয়েট (টি২০আই)
মিসবাহ-উল-হক (টেস্ট)
সরফরাজ আহমেদ (ওডিআই ও টি২০আই)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ পাকিস্তান ২–১ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান রস্টন চেজ (৪০৩) মিসবাহ-উল-হক (২৭১)
সর্বাধিক উইকেট শ্যানন গ্যাব্রিয়েল (১৫) ইয়াসির শাহ (২৫)
সিরিজ সেরা ইয়াসির শাহ (পাকিস্তান)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ পাকিস্তান ২–১ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান জেসন মোহাম্মদ (১৫৪) মোহাম্মদ হাফিজ (২০১)
সর্বাধিক উইকেট অ্যাশলে নার্স (৬) হাসান আলী (৬)
সিরিজ সেরা শোয়েব মালিক (পাকিস্তান)
টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৪-ম্যাচের সিরিজ পাকিস্তান ৩–১ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান এভিন লুইস (১১১) বাবর আজম ১৩৭)
সর্বাধিক উইকেট কার্লোস ব্রাদওয়েট (৫)
স্যামুয়েল বদ্রি (৫)
শাদাব খান (১০)
সিরিজ সেরা শাদাব খান (পাকিস্তান)

পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল তিনটি টেস্ট ক্রিকেট, তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক এবং চারটি টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক খেলার জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করে, যা মার্চ থেকে এপ্রিল ২০১৭-এ অনুষ্ঠিত হয়।

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

টি২০আই ওডিআই টেস্ট
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ  পাকিস্তান  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  পাকিস্তান  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  পাকিস্তান

প্রথম শ্রেণির খেলা: ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ ব পাকিস্তান[সম্পাদনা]

১৫–১৭ এপ্রিল ২০১৭
৪১৯ (১২৬.১ ওভার)
বিশল সিং ১৩৫ (২৩৪)
মোহাম্মাদ আমির ৩/৬৬ (২২.১ ওভার)
১৯২ (৬৮ ওভার)
আহমেদ শেহজাদ ৫৫ (১৫১)
ড্যামিয়ন জ্যাকবস ৪/৪৫ (১৬ ওভার)
১৫২/২ (৪২ ওভার)
কাইরেন পাওয়েল ৮৪* (১১৭)
মোহাম্মাদ আসগর ১/৪১ (১৩ ওভার)
খেলা ড্র
ট্রেলাওনি স্টেডিয়াম, জ্যামাইকা
আম্পায়ার: গ্রিগোরি ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ সভাপতি একাদশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

টি২০আই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টি২০আই[সম্পাদনা]

২৬ মার্চ ২০১৭
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১১১/৮ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১১৫/৪ (১৭.১ ওভার)
শোয়েব মালিক ৩৮* (২৯)
জেসন হোল্ডার ২/২৩ (৩ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, ব্রিজটাউন, বার্বাডোস
আম্পায়ার: গ্রিগোরি ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: শাদাব খান (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শাদাব খান (পাকিস্তান) ও রভম্যান পাওয়েল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) উভয়ই তার টি২০আই অভিষেক হয়।
  • শাদাব খান (পাকিস্তান) একটি বোলার একটি টি২০আই মধ্যে অভিষেক তার চার ওভারে পূরণ করার জন্য সবচেয়ে লাভজনক পরিসংখ্যান রেকর্ড করা।

২য় টি২০আই[সম্পাদনা]

৩০ মার্চ ২০১৭
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১৩২ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১২৯/৮ (২০ ওভার)
শোয়েব মালিক ২৮ (২০)
সুনীল নারাইন ৩/২২ (৪ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ফখর জামান (পাকিস্তান) তার টি২০আই অভিষেক হয়।

৩য় টি২০আই[সম্পাদনা]

১ এপ্রিল ২০১৭
পাকিস্তান 
১৩৭/৮ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৩৮/৩ (১৪.৫ ওভার)
এভিন লুইস ৯১ (৫১)
ওয়াহাব রিয়াজ ১/৬ (২ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে জয়ী
কুইন্স পার্ক ওভাল, পোর্ট অব স্পেন, ত্রিনিদাদ ও টোবাগো
আম্পায়ার: গ্রিগোরি ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও লেসলি রেইফার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: এভিন লুইস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • জেসন মোহাম্মদ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) তার টি২০আই অভিষেক হয়।
  • এভিন লুইস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) টি২০আইতে পাকিস্তানের বিপক্ষে যে কোনও ব্যাটসম্যান সর্বোচ্চ রান করেছিলেন।

৪র্থ টি২০আই[সম্পাদনা]

২ এপ্রিল ২০১৭
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১২৪/৮ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১২৭/৩ (১৯ ওভার)
চাদউইক ওয়ালটন ৪০ (৩১)
হাসান আলী ২/১২ (৪ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

৭ এপ্রিল ২০১৭
পাকিস্তান 
৩০৮/৫ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
৩০৯/৬ (৪৯ ওভার)
জেসন মোহাম্মদ ৯১* (৫৮)
শাদাব খান ২/৫২ (৯ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪ উইকেটে জয়ী
প্রভিডেন্স স্টেডিয়াম, জর্জটাউন, গায়ানা
আম্পায়ার: সাইমন ফ্রাই (অস্ট্রেলিয়া) ও জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: জেসন মোহাম্মদ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শাদাব খান (পাকিস্তান) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • এটি ওডিআইতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সর্বোচ্চ সফল রান তাড়া।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

৯ এপ্রিল ২০১৭
পাকিস্তান 
২৮২/৫ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২০৮ (৪৪.৫ ওভার)
বাবর আজম ১২৫* (১৩২)
শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ২/৫০ (১০ ওভার)
জেসন হোল্ডার ৬৮ (৮৭)
হাসান আলী ৫/৩৮ (৮.৫ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাবর আজম (পাকিস্তান) ওডিআইতে তার প্রথম ২৫ ইনিংসের পরে সবচেয়ে বেশি রান (১,৩০৬)।

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

১১ এপ্রিল ২০১৭
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
২৩৩/৯ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
২৩৬/৪ (৪৩.১ ওভার)
শাই হোপ ৭১ (১১২)
মোহাম্মাদ আমির ২/৪১ (৯ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী
প্রভিডেন্স স্টেডিয়াম, জর্জটাউন, গায়ানা
আম্পায়ার: সাইমন ফ্রাই (অস্ট্রেলিয়া) ও জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: শোয়েব মালিক (পাকিস্তান)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

২১–২৫ এপ্রিল ২০১৭
২৮৬ (৯৫ ওভার)
রস্টন চেজ ৬৩ (১৫১)
মোহাম্মাদ আমির ৬/৪৪ (২৬ ওভার)
৪০৭ (১৩৮.৪ ওভার)
মিসবাহ-উল-হক ৯৯* (২২৩)
আলজারি জোসেফ ৩/৭১ (৩১ ওভার)
১৫২ (৫২.৪ ওভার)
কাইরেন পাওয়েল ৪৯ (৮৪)
ইয়াসির শাহ ৬/৬৩ (২১.৪ ওভার)
৩৬/৩ (১০.৫ ওভার)
মিসবাহ-উল-হক ১২* (৩)
আলজারি জোসেফ ১/৬ (৩ ওভার)
পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয়ী
সাবিনা পার্ক, কিংস্টন, জ্যামাইকা
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ইয়াসির শাহ (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ভেজা আউটফিল্ড এবং বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় দিন কেবল ১১.৩ ওভারের খেলাই সম্ভব হয়েছিল।
  • মোহাম্মদ আব্বাস (পাকিস্তান), শিমরন হেটমায়ারভিশল সিং (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) সব তার টেস্ট অভিষেক হয়।
  • ইউনুস খান (পাকিস্তান) পাকিস্তানের হয়ে প্রথম ব্যাটসম্যান হয়েছিলেন টেস্টে ১০,০০০ রান ও এই মাইলফলকটিতে পৌঁছানোর সবচেয়ে পুরনো খেলোয়াড়।
  • সরফরাজ আহমেদমিসবাহ-উল-হক (পাকিস্তান) টেস্টে যথাক্রমে তাদের ২,০০০তম এবং ৫,০০০তম রান করেছেন।
  • মিসবাহ-উল-হক ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান এবং পাকিস্তানের হয়ে ৯৯ রানের ইনিংস শেষ করা প্রথম অপরাজিত

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

৩০ এপ্রিল–৪ মে ২০১৭
৩১২ (৯৮.৫ ওভার)
রস্টন চেজ ১৩১ (২১০)
মোহাম্মদ আব্বাস ৪/৫৬ (২৩ ওভার)
৪/৫৬ (২৩ ওভার)
আজহার আলী ১০৫ (২৭৮)
শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ৪/৮১ (৩২ ওভার)
২৬৮ (১০২.৫ ওভার)
শাই হোপ ৯০ (২০৯)
ইয়াসির শাহ ৭/৯৪ (৩৯.৫ ওভার)
৮১ (৩৪.৪ ওভার)
সরফরাজ আহমেদ ২৩ (৫০)
শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ৫/১১ (১১ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০৬ রানে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, ব্রিজটাউন, বার্বাডোস
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: শ্যানন গ্যাব্রিয়েল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শাদাব খান (পাকিস্তান) তার টেস্ট অভিষেক হয়।
  • ইয়াসির শাহ (পাকিস্তান) টেস্টে তার দশম পাঁচ উইকেট শিকার করেছেন।
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পাকিস্তানের মোট ৮১ রান ছিল তাদের সর্বনিম্ন স্কোর।

৩য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১০–১৪ মে ২০১৭
৩৭৬ (১৪৬.৩ ওভার)
আজহার আলী ১২৭ (৩৩৪)
রস্টন চেজ ৪/১০৩ (৩২ ওভার)
২৪৭ (১১৫ ওভার)
রস্টন চেজ ৬৯ (১৫৫)
মোহাম্মদ আব্বাস ৫/৪৬ (২৫ ওভার)
১৭৪/৮ঘো (৫৭ ওভার)
ইয়াসির শাহ ৩৮* (৫৫)
আলজারি জোসেফ ৩/৫৩ (15 ওভার)
২০২ (৯৬ ওভার)
রস্টন চেজ ১০১* (২৩৯)
ইয়াসির শাহ ৫/৯২ (৩৭ ওভার)
পাকিস্তান ১০১ রানে জয়ী
উইন্ডসর পার্ক, রোজো, ডোমিনিকা
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: রস্টন চেজ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • প্রথম দিন ২১ ওভারের খেলা বৃষ্টির কারণে হেরে গেছে।
  • হাসান আলী (পাকিস্তান) তার টেস্ট অভিষেক হয়।
  • মিসবাহ-উল-হকইউনুস খান (পাকিস্তান) উভয়ই তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে।
  • মোহাম্মদ আব্বাস (পাকিস্তান) টেস্ট ক্রিকেটে তার প্রথম পাঁচ-উইকেট নিয়েছিল।
  • এটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের পাকিস্তানের প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]