২০১৭ মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৭ মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
২০১৭ আইসিসি মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব.png
তারিখ৭ – ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
ব্যবস্থাপকআইসিসি
ক্রিকেটের ধরন৫০ ওভার
আয়োজক শ্রীলঙ্কা
বিজয়ী ভারত
অংশগ্রহণকারী১০
খেলার সংখ্যা৩০
প্রতিযোগিতার সেরা
খেলোয়াড়
দক্ষিণ আফ্রিকা সুন লুস

২০১৭ আইসিসি মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব মহিলাদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রতিযোগিতাবিশেষ। এ প্রতিযোগিতাটি ৭ থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় অনুষ্ঠিত হয়। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য ২০১৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব হিসেবে এ বাছাইপর্ব প্রক্রিয়া চলে। এ প্রতিযোগিতাটি ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের চতুর্থ আসর এবং প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হয়।[১]

ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে চূড়ান্ত খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় ভারত ১ উইকেটে জয়ী হয়ে শিরোপা জয় করে।[২] চূড়ান্ত খেলায় অংশগ্রহণকারী দুই দলের সাথে শ্রীলঙ্কাপাকিস্তান ২০১৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।[৩] ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জনকারী চার দলের সাথে সুপার সিক্স পর্বে খেলার সুবাদে বাংলাদেশআয়ারল্যান্ড দল তাদের ওডিআই মর্যাদা ২০২১ সাল পর্যন্ত ধরে রাখে।[৩]

অংশগ্রহণকারী দেশ[সম্পাদনা]

দশটি দল অংশ নিচ্ছে। তন্মধ্যে একদিনের আন্তর্জাতিকের মর্যাদা পাওয়ায় বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ড দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে অংশ নেয়। অন্যদিকে বাদ-বাকী আটটি দলের মধ্যে রয়েছে আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের নীচের দিকের চার দল ও আঞ্চলিক পর্যায়ের বিজয়ী চাল দল। বিশ্বকাপে বাছাইপর্বের শীর্ষ চার দল বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।[৪]

  1.  ভারত (আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের নীচের ৪ দলের একটি)
  2.  দক্ষিণ আফ্রিকা (আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের নীচের ৪ দলের একটি)
  3.  পাকিস্তান (আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের নীচের ৪ দলের একটি)
  4.  শ্রীলঙ্কা (আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের নীচের ৪ দলের একটি)
  5.  বাংলাদেশ (ওডিআই মর্যাদা পাওয়ায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন)
  6.  আয়ারল্যান্ড (ওডিআই মর্যাদা পাওয়ায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন)
  7.  জিম্বাবুয়ে (আফ্রিকা অঞ্চল থেকে যোগ্যতা অর্জন)
  8.  থাইল্যান্ড (এশিয়া অঞ্চল থেকে যোগ্যতা অর্জন)
  9.  পাপুয়া নিউ গিনি (পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল থেকে যোগ্যতা অর্জন)
  10.  স্কটল্যান্ড (ইউরোপ অঞ্চল থেকে যোগ্যতা অর্জন)

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

২৪ জানুয়ারি, ২০১৭ তারিখে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) সকল দলের সদস্যদের তালিকার বিষয়ে নিশ্চিত হয়।[৫]

 বাংলাদেশ[৬]  ভারত[৭]  আয়ারল্যান্ড[৮]  পাকিস্তান[৯]  পাপুয়া নিউ গিনি[১০]
 স্কটল্যান্ড[১১]  দক্ষিণ আফ্রিকা[১২]  শ্রীলঙ্কা[১৩]  থাইল্যান্ড[১৪]  জিম্বাবুয়ে[১৫]

খেলার ধরন[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতায় দশ দল শুরুতে দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে খেলবে। প্রত্যেক গ্রুপে শীর্ষ তিন দল সুপার সিক্স পর্বে খেলবে ও পরবর্তী বিশ্বকাপ পর্যন্ত ওডিআই মর্যাদা উপভোগ করবে। সুপার সিক্সের শীর্ষ চার দল পরবর্তী বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা লাভ করবে। তাস্বত্ত্বেও বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের বিজয়ী নির্ধারণে চূড়ান্ত খেলার আয়োজন করা হবে।[১] ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে আইসিসি খেলার সময়সূচী ও প্রতিযোগিতার ধরন বিষয়ে প্রকাশ করে।[১৬]

প্রথম পর্ব[সম্পাদনা]

এ গ্রুপ[সম্পাদনা]

দল
খেলা জয় পরাজয় এনআর পয়েন্ট এনআরআর
 ভারত +৩.২৪৫
 শ্রীলঙ্কা +০.৭৩৩
 আয়ারল্যান্ড –০.৫৩০
 জিম্বাবুয়ে –১.৫৬৫
 থাইল্যান্ড –১.৪৯১
সর্বশেষ হালনাগাদ: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭[১৭]

     সুপার সিক্স পর্বে উত্তীর্ণ

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৫৯/৪ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৪৫/৮ (৫০ ওভার)
ভারত ১১৪ রানে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া) ও লেসলি রেইফার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: দেবিকা বৈদ্য (ভারত)

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২৩৭/৬ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
১১৮ (৩৭.৫ ওভার)
কিম গার্থ ৬৩ (১১৪)
জোসেফিন এনকোমো ২/৪৬ (১০ ওভার)
  • জিম্বাবুয়ে টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৩৯/৮ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
৯৩ (৩৬.১ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • রবিন লুইসের (আয়ারল্যান্ড) ডব্লিউওডিআই অভিষেক ঘটে।

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
থাইল্যান্ড 
৫৫ (২৯.১ ওভার)
 ভারত
৫৯/১ (১২.৪ ওভার)
  • থাইল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এটি থাইল্যান্ডের প্রথম ৫০-ওভারের খেলা।[১৮]

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৫০/২ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১২৫ (৪৯.১ ওভার)
থিরুশ কামিনি ১১৩* (১৪৬)
কিম গার্থ ১/৩৮ (১০ ওভার)
গ্যাবি লুইস ৩৩ (৭০)
পুণম যাদব ৩/৩০ (১০ ওভার)
ভারত ১২৫ রানে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ইয়ান রামাগে (স্কটল্যান্ড) ও সু রেডফার্ন (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: থিরুশ কামিনী (ভারত)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ভারতের পক্ষে মানসী জোশী’র ডব্লিউওডিআই অভিষেক ঘটে।

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৯১/৮ (৫০ ওভার)
 থাইল্যান্ড
১৫৫ (৪৭.৩ ওভার)
  • থাইল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৪৯ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৫৩/২ (৩৬.৫ ওভার)
চামারি আতাপাত্তু ৫৮ (৬০)
লরেন তশুমা ২/৩১ (১০ ওভার)
  • জিম্বাবুয়ে টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২১৮/৭ (৫০ ওভার)
 থাইল্যান্ড
১৭২/৯ (৫০ ওভার)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
৬০ (২৮.৫ ওভার)
 ভারত
৬১/১ (৯ ওভার)
ভারত ৯ উইকেটে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ক্যাথি ক্রস (নিউজিল্যান্ড) ও ইয়ান রামাগে (স্কটল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: পুণম যাদব (ভারত)
  • জিম্বাবুয়ে টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
থাইল্যান্ড 
১২২/৮ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১২৩/৩ (৩৪.৪ ওভার)
  • থাইল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

বি গ্রুপ[সম্পাদনা]

দল
খেলা জয় পরাজয় এনআর পয়েন্ট এনআরআর
 দক্ষিণ আফ্রিকা +২.১৬৮
 পাকিস্তান +১.৭২৫
 বাংলাদেশ +০.০৭৪
 স্কটল্যান্ড –০.৯৫৬
 পাপুয়া নিউ গিনি –২.৬২৩
সর্বশেষ হালনাগাদ: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭[১৯]

     সুপার সিক্স পর্বে উত্তীর্ণ

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৫৮/৯ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
১৯৫/৬ (৫০ ওভার)
ক্লো ট্রায়ন ৭৯ (৬৯)
নাশ্রা সান্ধু ৩/৫১ (১০ ওভার)

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২১৫/৬ (৫০ ওভার)
 পাপুয়া নিউ গিনি
৯৭ (৩২.১ ওভার)
শারমিন আক্তার ৫৬ (৮৬)
রাভিনা ওয়া ২/২৩ (১০ ওভার)
পুকে সিয়াকা ৩২ (৪১)
রুমানা আহমেদ ২/১৩ (৭ ওভার)
বাংলাদেশ ১১৮ রানে বিজয়ী
কলম্বো ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ড, কলম্বো
আম্পায়ার: ইয়ান রামাগে (স্কটল্যান্ড) ও সু রেডক্লিফ (ইংল্যান্ড)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২২৭ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৬০ (৪৯.৩ ওভার)
রাবিয়া শাহ ৩৪ (৩৩)
রুমানা আহমেদ ৩/৪০ (১০ ওভার)
নিগার সুলতানা ৪১ (৭২)
গুলাম ফাতিমা ৩/২৮ (৯.৩ ওভার)
পাকিস্তান ৬৭ রানে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া) ও রবীন্দ্র উইমালাসিরি (শ্রীলঙ্কা)
সেরা খেলোয়াড়: গুলাম ফাতিমা (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • পাকিস্তানের পক্ষে আইমান আনোয়ারের ডব্লিউওডিআই অভিষেক ঘটে।
  • পাকিস্তানের প্রথম মহিলা ক্রিকেটার হিসেবে সানা মীর ডব্লিউওডিআইয়ে ১০০ উইকেট পান।[২০]

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৪২ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৪৩/৪ (৩৩.১ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে বিজয়ী
মার্কেন্টাইল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন গ্রাউন্ড, কলম্বো
আম্পায়ার: সু রেডফার্ন (ইংল্যান্ড) ও লেসলি রেইফার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: আয়াবোঙ্গা খাকা (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২৭৬/৫ (৫০ ওভার)
 পাপুয়া নিউ গিনি
৪০ (২৪.৫ ওভার)
আয়েশা জাফর ১১৫ (৯৮)
পুকে সিয়াকা ২/৩৪ (১০ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৪০ (৪৯.১ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৪৩/৩ (৩৭.৩ ওভার)
ফারজানা হক ৫৩* (১০৯)
র‌্যাচেল সোলস ১/২৭ (৬.৩ ওভার)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১০০ (৪৬.৫ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১০১/৪ (২৫.২ ওভার)
লিজেল লি ৩৪ (৩২)
সালমা খাতুন ১/১৪ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: অনিল চৌধুরী (ভারত) ও জ্যাকুলিন উইলিয়ামস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: শাবনিম ইসমাঈল (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশের পক্ষে সুরাইয়া আজমিনের ডব্লিউওডিআই অভিষেক ঘটে।

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৬৯ (৫০ ওভার)
 পাপুয়া নিউ গিনি
১৬২ (৫০ ওভার)
  • পাপুয়া নিউগিনি টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাপুয়া নিউ গিনি 
৭৬ (৩২.৪ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
৭৭/০ (১৩.৫ ওভার)
ব্রেন্ডা টাও ৩০ (৬৮)
সুন লুস ২/১৩ (৫ ওভার)
  • পাপুয়া নিউগিনি টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
৯১ (৩৯.১ ওভার)
 পাকিস্তান
৯৪/৪ (২৭.১ ওভার)
ক্যাথরিন ব্রাইস ১৫ (৪২)
সানা মীর ৫/১৪ (১০ ওভার)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

সুপার সিক্স পর্ব[সম্পাদনা]

দল
খেলা জয় পরাজয় এনআর পয়েন্ট এনআরআর
 ভারত ১০ +১.৯৮১
 দক্ষিণ আফ্রিকা +০.৯৫৩
 শ্রীলঙ্কা +০.১৪৬
 পাকিস্তান -০.১৫০
 বাংলাদেশ –১.১২৭
 আয়ারল্যান্ড –২.০১৩
সর্বশেষ হালনাগাদ: ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭[২১]

     ২০১৭ মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপে উত্তীর্ণ

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
ভারত 
২০৫/৭ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৫৬ (৪৬.৪ ওভার)
মিতালী রাজ ৬৪ (৮৫)
মারিজান কাপ ২/২৩ (১০ ওভার)
তৃষা ছেত্তি ৫২ (৮১)
শিখা পাণ্ডে ৪.৩৪ (৯.৪ ওভার)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ভারতের মিতালী রাজ ডব্লিউওডিআইয়ে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ৫,৫০০ রান সংগ্রহ করেন।[২২]
  • দক্ষিণ আফ্রিকার ডেন ফন নাইকার্ক ডব্লিউওডিআইয়ে সপ্তম খেলোয়াড় হিসেবে ১,০০০ রান সংগ্রহ করেন। এছাড়াও, প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে ডব্লিউওডিআইয়ে ১০০ উইকেট পান।[২৩]

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২১২/৭ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২১৬/৫ (৪৭.৪ ওভার)
নাহিদা খান ৬৪ (৯২)
ইনোকা রাণাবীরা ২/৩৩ (৮ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৪৪ (৪৭.১ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৪৫/৩ (৩৯.১ ওভার)
শারমিন আক্তার ৫২ (৮৬)
গাবি লুইস ১/৩১ (৬.১ ওভার)
বাংলাদেশ ৭ উইকেটে বিজয়ী
কলম্বো ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ড, কলম্বো
আম্পায়ার: লেসলি রেইফার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও জ্যাকুলিন উইলিয়ামস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: জাহানারা আলম (বাংলাদেশ)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৪২/৯ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৪৫/১ (৩৬.১ ওভার)
নিপুণী হংসিকা ৪৮ (৯৬)
সুন লুস ৩/৪০ (১০ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৯ উইকেটে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া) ও ইয়ান রামাগে (স্কটল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: সুন লুস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৫৫/৮ (৫০ ওভার)
 ভারত
১৫৮/১ (৩৩.৩ ওভার)
ফারজানা হক ৫০ (১০৭)
মানসী জোশী ৩/২৫ (১০ ওভার)
মোনা মেশরাম ৭৮* (১২৫)
খাদিজা তুল কুবরা ১/৩৭ (৮.৩ ওভার)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২৭১/৫ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৮৫ (৪৮.৫ ওভার)
সেসেলিয়া জয়েস ৪১ (৬৪)
সানা মীর ২/৩২ (৯.৫ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
৬৭ (৪৩.৪ ওভার)
 ভারত
৭০/৩ (২২.৩ ওভার)
আয়েশা জাফর ১৯ (৩৩)
একতা বিস্ত ৫/৮ (১০ ওভার)
দীপ্তি শর্মা ২৯* (৭৩)
সাদিয়া ইউসুফ ২/১৯ (৮ ওভার)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৯৭/৯ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
৬৮/৫ (২১ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৬৬ (৪৯.৫ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
৮২/১ (২১ ওভার)
মেরি ওয়ালড্রন ৩৩* (৪১)
লিজেল লি ২/১২ (৫.৫ ওভার)
লরা উলভার্ট ৩২* (৬১)
কিম গার্থ ১/৩৫ (৬ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৬ রানে বিজয়ী (ডি/এল পদ্ধতি)
কলম্বো ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ড, কলম্বো
আম্পায়ার: ইয়ান রামাগে (স্কটল্যান্ড) ও লেসলি রেইফার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

চূড়ান্ত খেলা[সম্পাদনা]

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৪৪ (৪৯.৪ ওভার)
 ভারত
২৪৫/৯ (৫০ ওভার)
দীপ্তি শর্মা ৭১ (৮৯)
মারিজান কাপ ২/৩৬ (১০ ওভার)
ভারত ১ উইকেটে বিজয়ী
পি. সারা ওভাল, কলম্বো
আম্পায়ার: ক্যাথি ক্রস (নিউজিল্যান্ড) ও ক্লেয়ার পোলোসাক (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: দীপ্তি শর্মা (ভারত)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ডব্লিউওডিআইয়ের ইতিহাসে এটি ভারতের সর্বোচ্চ সফলতম লক্ষ্যমাত্রা অর্জন।[২৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Colombo to host ICC Women’s World Cup Qualifier 2017" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৬ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে, International Cricket Council, 30 October 2016. Retrieved 30 October 2016.
  2. "India pulls off thrilling last-ball win over South Africa to win ICC Women's World Cup Qualifier 2017"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  3. "India, South Africa ready for final of ICC Women's World Cup Qualifier 2017"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  4. "Two ICC Women’s World Cup qualifier spots up for grabs" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৪ জুলাই ২০১৬ তারিখে, ICC, 11 July 2016. Retrieved 30 July 2016.
  5. "All 10 squads for the ICC Women's World Cup Qualifier 2017 confirmed"International Cricket Council। ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  6. "Bangladesh Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  7. "Meshram left out of India squad for World Cup qualifiers"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৭ 
  8. "Ireland Women Name World Cup Qualifying Squad"Cricket Ireland। সংগ্রহের তারিখ ২২ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  9. "Pakistan Women Team announced for ICC Women World Cup Qualifier, 2017"Pakistan Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০১৭ 
  10. "Papua New Guinea Women Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  11. "Scotland Women's squad named for ICC Global Qualifier"Cricket Scotland। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০১৭ 
  12. "South Africa Women Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  13. "Sri Lanka Women Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  14. "Thailand Women Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  15. "Zimbabwe Women Women Squad: Players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  16. "ICC Women's World Cup Qualifier 2017 schedule announced"। International Cricket Council। ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  17. "2017 Women's Cricket World Cup Qualifier points table"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  18. "India favourites in lopsided tournament"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  19. "2017 Women's Cricket World Cup Qualifier points table"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  20. "Mir looks at big picture after 1000-100 double"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  21. "Women's World Cup Qualifier Groups"। International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  22. "Meshram-Raj and spin quartet to the fore in emphatic India win"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  23. "Special day for van Niekerk despite loss to India"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  24. "India pulls off record chase in finale thriller"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]