২০১৪-১৫ ভারত ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৪ ভারত ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর
Flag of Australia.svg
অস্ট্রেলিয়া
Flag of India.svg
ভারত
তারিখ ২৪ নভেম্বর, ২০১৪ – ১০ জানুয়ারি, ২০১৫
অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক (১ম টেস্ট)
স্টিভ স্মিথ (২য়-৪র্থ টেস্ট)
বিরাট কোহলি (১ম ও ৪র্থ টেস্ট)
মহেন্দ্র সিং ধোনি (২য় ও ৩য় টেস্ট)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ৪-ম্যাচের সিরিজ অস্ট্রেলিয়া ২–০ তে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান স্টিভ স্মিথ (৭৬৯) বিরাট কোহলি (৬৯২)
সর্বাধিক উইকেট নাথান লায়ন (২৩) মোহাম্মদ শমী (১৫)
সিরিজ সেরা স্টিভ স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
২০১১-১২ (পূর্ববর্তী) (পরবর্তী) ২০১৫-১৬

ভারত ক্রিকেট দল পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ২৪ নভেম্বর, ২০১৪ তারিখ থেকে ১০ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া সফর করে। সফরে দলটি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বিপক্ষে দুইটি প্রস্তুতিমূলক খেলাসহ চার টেস্টের সিরিজে অংশগ্রহণ করে।[১][২][৩]

প্রথম টেস্ট ৪ ডিসেম্বর, ২০১৪ তারিখ থেকে ব্রিসবেনে শুরু হবার কথা থাকলেও অস্ট্রেলিয়ার উদীয়মান ক্রিকেটার ফিলিপ হিউজের আকস্মিক মৃত্যুতে স্থগিত রাখা হয়। এরফলে অ্যাডিলেডে ৯ ডিসেম্বরে প্রথম টেস্ট অনুষ্ঠিত হয় ও ব্রিসবেনে ২য় টেস্ট ১৭ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়।[২][৩][৪] মেলবোর্নের তৃতীয় টেস্ট ড্রয়ের পরক্ষণেই ভারতের অধিনায়ক এমএস ধোনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে তার অবসরের ঘোষণা দেন।[৫] সিডনিতে অনুষ্ঠিত চূড়ান্ত টেস্ট ড্রয়ের ফলে অস্ট্রেলিয়া ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়ের পাশাপাশি বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি জয় করে।

টেস্ট খেলার পর ইংল্যান্ডসহ ভারত ও অস্ট্রেলিয়া কার্লটন মিড ত্রি-দেশীয় সিরিজের একদিনের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

সাম্প্রতিককালে ভারত ইংল্যান্ড সফরে ৩-১ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজে পরাজিত হয়। অন্যদিকে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত পাকিস্তানের কাছে ২-০ ব্যবধানে টেস্টে হেরে যায়। এছাড়াও, সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে ২-১ ব্যবধানে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক ও ৪-১ ব্যবধানে একদিনের আন্তর্জাতিকের সিরিজে পরাজিত করে।

দলের সদস্য[সম্পাদনা]

ভারতীয় নির্বাচকমণ্ডলী ৪-টেস্ট সিরিজের জন্য ১৯জন ক্রিকেটারকে মনোনীত করে। প্রথম টেস্টে উইকেট-রক্ষক ঋদ্ধিমান সাহাকে সহযোগিতার জন্য নমন ওঝাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। আঘাতজনিত কারণে ব্রিসবেন টেস্টে মহেন্দ্র সিং ধোনি অংশগ্রহণ করতে পারেননি।[৬] অন্যদিকে অস্ট্রেলীয় নির্বাচকমণ্ডলী টেস্ট সিরিজের জন্য ১২-সদস্যের তালিকা প্রকাশ করে। শারীরিক যোগ্যতার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরপরই গাব্বায় অনুষ্ঠিত প্রথম টেস্টের জন্য মাইকেল ক্লার্ককে অধিনায়কের দায়িত্ব প্রদান করা হয়।[৭]

টেস্ট
 অস্ট্রেলিয়া  ভারত

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

২৪-২৫ নভেম্বর, ২০১৪
স্কোরকার্ড
২১৯ (৭১.৫ ওভার)
রায়ান কার্টার্স ৫৮ (১৫১)
বরুণ আরন ৩/৮০ (১৮ ওভার)
৩৬৩/৮ (৯১ ওভার)
বিরাট কোহলি ৬০ (১১৪)
জোশ লালোর ২/৫৫ (২০ ওভার)
খেলা ড্র
গ্লেনেলগ ওভাল, গ্লেনেলগ
আম্পায়ার: ড্যামিয়েন মিলে (অস্ট্রেলিয়া) ও পল উইলসন (অস্ট্রেলিয়া)
  • ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আমন্ত্রিত একাদশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • উভয় দলে খেলোয়াড় সংখ্যা - ১৩ (ব্যাটিং ১১, ফিল্ডিং ১১)
৪-৫ ডিসেম্বর, ২০১৪
স্কোরকার্ড
২৪৩ (৬৮.৩ ওভার)
জর্দান সিল্ক ৫৮ (১০৪)
বরুণ আরন ৪/৪১ (১৪.৩ ওভার)
৩৭৫ (৯০ ওভার)
বিরাট কোহলি ৬৬ (৯৪)
জোশ লালোর ৪/৫৯ (১৭ ওভার)
৮৩/৫ (২১ ওভার)
জর্দান সিল্ক ৪১ (৭১)
ইশান্ত শর্মা ২/৮ (৫ ওভার)
খেলা ড্র
গ্লেনেলগ ওভাল, গ্লেনেলগ
আম্পায়ার: মিক মার্টেল (অস্ট্রেলিয়া) ও স্যাম নোগাজস্কি (অস্ট্রেলিয়া)
  • ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আমন্ত্রিত একাদশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়
  • অস্ট্রেলিয়ার উদীয়মান ক্রিকেটার ফিলিপ হিউজের আকস্মিক মৃত্যুতে খেলাটি ২৮-২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়নি। পরবর্তীতে পুণরায় তারিখ নির্ধারণ করা হয়।[৮]
  • উভয় দলে খেলোয়াড় সংখ্যা - ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশ ১২ (ব্যাটিং ১১, ফিল্ডিং ১১) ও ভারতীয় একাদশ ১৪ (ব্যাটিং ১১, ফিল্ডিং ১১)

টেস্ট সিরিজ (বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি)[সম্পাদনা]

ট্রফি প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

সিরিজ শুরুর পূর্বে ভারত দল ২০১২-১৩ মৌসুমে ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে ও বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি লাভ করে। এরপূর্বে ২০১১-১২ মৌসুমে স্বদেশে অস্ট্রেলিয়া দল ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়ের মাধ্যমে ট্রফি লাভ করেছিল।

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৯-১৩ ডিসেম্বর, ২০১৪
স্কোরকার্ড
৫১৭/৭ডি (১২০ ওভার)
স্টিভ স্মিথ ১৬২* (২৩১)
কর্ণ শর্মা ২/১৪৩ (৩৩ ওভার)
৪৪৪ (১১৬.৪ ওভার)
বিরাট কোহলি ১১৫ (১৮৪)
নাথান লায়ন ৫/১৩৪ (৩৬ ওভার)
৫/২৯০ডি. (৬৯ ওভার)
ডেভিড ওয়ার্নার ১০২ (১৬৬)
কর্ণ শর্মা ২/৯৫ (১৬ ওভার)
৩১৫ (৮৭.১ ওভার)
বিরাট কোহলি ১৪১ (১৭৫)
নাথান লায়ন ৭/১৫২ (৩৪.১ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৪৮ রানে বিজয়ী
অ্যাডিলেড ওভাল, অ্যাডিলেড
আম্পায়ার: ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড) ও মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
ম্যাচসেরা: নাথান লায়ন (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দ্বিতীয় দিন বৃষ্টির জন্য ৩২ ওভার খেলা হয়।
  • ভারতের পক্ষে কর্ণ শর্মা’র টেস্ট অভিষেক ঘটে।
  • ফিলিপ হিউজের মৃত্যুতে ও তার সম্মানার্থে ত্রয়োদশ ব্যক্তি হিসেবে মনোনীত করা হয়।

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১৭-২১ ডিসেম্বর, ২০১৪
স্কোরকার্ড
৪০৮ (১০৯.৪ ওভার)
মুরালি বিজয় ১৪৪ (২১৩)
জোশ হজলউড ৫/৬৮ (২৩.২ ওভার)
৫০৫ (১০৯.৪ ওভার)
স্টিভ স্মিথ ১৩৩ (১৯১)
উমেশ যাদব ৩/১০১ (২৫ ওভার)
২২৪ (৬৪.৩ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ৮১ (১৪৫)
মিচেল জনসন ৪/৪১ (১৭.৩ ওভার)
১৩০/৬ (২৩.১ ওভার)
ক্রিস রজার্স ৫৫ (৫৭)
ইশান্ত শর্মা ৩/৩৮ (৯ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৪ উইকেটে বিজয়ী
গাব্বা, ব্রিসবেন
আম্পায়ার: ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড) ও মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
ম্যাচসেরা: স্টিভ স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দ্বিতীয় দিন মন্দালোকে পূর্বেই খেলা শেষ হয়।
  • অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে জোশ হজলউডের টেস্ট অভিষেক ঘটে।

৩য় টেস্ট[সম্পাদনা]

২৬-৩০ ডিসেম্বর, ২০১৪
স্কোরকার্ড
৫৩০ (১৪২.৩ ওভার)
স্টিভ স্মিথ ১৯২ (৩০৫)
মোহাম্মদ শমী ৪/১৩৮ (২৯ ওভার)
৪৬৫ (১২৮.৫ ওভার)
বিরাট কোহলি ১৬৯ (২৭২)
রায়ান হ্যারিস ৪/৭০ (২৬ ওভার)
৩১৮/৯ডি. (৯৮ ওভার)
শন মার্শ ৯৯ (২১৫)
ইশান্ত শর্মা ২/৪৯ (২০ ওভার)
১৭৪/৬ (৬৬ ওভার)
বিরাট কোহলি ৫৪ (৯৯)
রায়ান হ্যারিস ২/৩০ (১৬ ওভার)
খেলা ড্র
মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও কুমার ধর্মসেনা (শ্রীলঙ্কা)
ম্যাচসেরা: রায়ান হ্যারিস (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির জন্য ৪র্থ দিন ১ ঘন্টা খেলা বন্ধ থাকে।
  • অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে জো বার্নস এবং ভারতের পক্ষে লোকেশ রাহুলের টেস্ট অভিষেক ঘটে।

৪র্থ টেস্ট[সম্পাদনা]

৬-১০ জানুয়ারি, ২০১৫
স্কোরকার্ড
৫৭২/৭ডি. (১৫২.৩ ওভার)
স্টিভ স্মিথ ১১৭ (২০৮)
মোহাম্মদ শমী ৫/১১২ (২৩.৮ ওভার)
৪৭৫ (১৬২ ওভার)
বিরাট কোহলি ১৪৭ (২৩০)
মিচেল স্টার্ক ৩/১০৬ (৩২ ওভার)
২৫১/৬ডি (৪০ ওভার)
স্টিভ স্মিথ ৭১ (৭০)
রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৪/১০৫ (১৯ ওভার)
২৫২/৭ (৮৯.৫ ওভার)
মুরালি বিজয় ৮০ (১৬৫)
জোশ হজলউড ২/৩১ (১৭ ওভার)
খেলা ড্র
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড, সিডনি
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও কুমার ধর্মসেনা (শ্রীলঙ্কা)
ম্যাচসেরা: স্টিভ স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়লাভ করে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলীয় শীর্ষ ছয় ব্যাটসম্যান টেস্টের প্রথম ইনিংসে কমপক্ষে অর্ধ-শতক করেছেন।[৯]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

সর্বোচ্চ রান[সম্পাদনা]

নাম দল রান মাঠ ব্যাটিং অবস্থান ম্যাচ ইনিংস
স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ১৯২ মেলবোর্ন
কোহলি ভারত ১৬৯ মেলবোর্ন
স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ১৬২* এডিলেড
রাহানে ভারত ১৪৭ মেলবোর্ন
কোহলি ভারত ১৪৭ সিডনি
ওয়ার্নার অস্ট্রেলিয়া ১৪৫ এডিলেড
বিজয় ভারত ১৪৪ ব্রিসবেন
কোহলি ভারত ১৪১ এডিলেড
স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ১৩৩ ব্রিসবেন
ক্লার্ক অস্ট্রেলিয়া ১২৮ এডিলেড
স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ১১৭ সিডনি
কোহলি ভারত ১১৫ এডিলেড
রাহুল ভারত ১১০ সিডনি
ওয়ার্নার অস্ট্রেলিয়া ১০২ এডিলেড
ওয়ার্নার অস্ট্রেলিয়া ১০১ সিডনি
বিজয় ভারত ৯৯ এডিলেড
শন মার্শ অস্ট্রেলিয়া ৯৯ মেলবোর্ন
ক্রিস রজার্স অস্ট্রেলিয়া ৯৫ সিডনি
জনসন অস্ট্রেলিয়া ৮৮ ব্রিসবেন
রাহানে ভারত ৮১ ব্রিসবেন

সেরা বোলিং[১০][সম্পাদনা]

নাম দল উইকেট মাঠ প্রথম ৫ জন ব্যাট্সমেনের মধ্যে ম্যাচ ইনিংস
লিয়ন অস্ট্রেলিয়া এডিলেড
হাজলেউড অস্ট্রেলিয়া ব্রিসবেন
শামি ভারত সিডনি
লিয়ন অস্ট্রেলিয়া এডিলেড
জনসন অস্ট্রেলিয়া ব্রিসবেন
হ্যারিস অস্ট্রেলিয়া মেলবোর্ন
অশ্বিন ভারত সিডনি
শামি ভারত মেলবোর্ন
ইশান্ত ভারত ব্রিসবেন
উমেশ ভারত ব্রিসবেন
লিয়ন অস্ট্রেলিয়া ব্রিসবেন
স্টার্ক অস্ট্রেলিয়া সিডনি
ইশান্ত ভারত ব্রিসবেন
উমেশ ভারত মেলবোর্ন
অশ্বিন ভারত মেলবোর্ন

কার্লটন মিড ওডিআই ত্রি-দেশীয় সিরিজ[সম্পাদনা]

কার্লটন মিড ওডিআই ত্রি-দেশীয় সিরিজ প্রতিযোগিতায় স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়াসহ ভারত ও ইংল্যান্ড দল অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতাটি দ্বৈত রাউন্ড-রবিন পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়। ১৬ জানুয়ারি, ২০১৫ থেকে ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ তারিখ পর্যন্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

দল খেলা জয় পরাজয় টাই ফলাফল হয়নি বোনাস পয়েন্ট পয়েন্ট নেট রান রেট
 অস্ট্রেলিয়া ১৫ +০.৪৬৭
 ইংল্যান্ড +০.৪২৫
 ভারত −০.৯৪২

সম্প্রচার ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

দেশ টেলিভিশন সম্প্রচারক
 অস্ট্রেলিয়া নাইন নেটওয়ার্ক
 ভারত স্টার স্পোর্টস ১ (ইংরেজি)
স্টার স্পোর্টস ৩ (হিন্দি)
ডিডি ন্যাশনাল (কেবলমাত্র ওডিআই)
মধ্যপ্রাচ্য অরবিট শো নেটওয়ার্ক
 পাকিস্তান পিটিভি স্পোর্টস
 দক্ষিণ আফ্রিকা সুপারস্পোর্ট
 যুক্তরাজ্য স্কাই স্পোর্টস
 নিউজিল্যান্ড স্কাই স্পোর্ট

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Border-Gavaskar Trophy, 2014/15"ইএসপিএনক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ 
  2. Australia's summer schedule released
  3. India could face 4-0 loss in Australia - McGrath
  4. "Border-Gavaskar Trophy, 2014/15"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ 
  5. "Mahendra Singh Dhoni: India captain quits Test cricket"বিবিসি স্পোর্টস। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  6. "Indian squad for border-gavaskar trophy 2014-15"। myluxidream। ১০ নভেম্বর ২০১৪। ১২ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৪ 
  7. "Australia Test squad announced"। ২৪ নভেম্বর ২০১৪। 
  8. "Indians' tour game cancelled after Hughes' death"। ইএসপিএনক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২৭ নভেম্বর ২০১৪ 
  9. "Australia on top after making 572"ইএসপিএনক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৭ জানুয়ারি ২০১৫ 
  10. "Best Bowling" 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:ভারত-অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট সিরিজ