ক্রিস রজার্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্রিস রজার্স
Chris Rogers.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্রিস্টোফার জন লিউলিন রজার্স
জন্ম (1977-08-31) ৩১ আগস্ট ১৯৭৭ (বয়স ৪২)
সেন্ট জর্জ, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া
ডাকনামবাকি, দ্য স্যান্ডম্যান
উচ্চতা১.৭৭ মিটার (৫ ফুট ১০ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ-ব্রেক ও গুগলি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩৯৯)
১৬ জানুয়ারি ২০০৮ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট২০ আগস্ট ২০১৫ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৮-২০০৮ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া
২০০৩শ্রপশায়ার
২০০৪-২০০৫ ও ২০০৮-২০১০ডার্বিশায়ার
২০০৫লিচেস্টারশায়ার
২০০৫উইল্টশায়ার
২০০৬-২০০৭নর্দাম্পটশায়ার
২০০৮-ভিক্টোরিয়া
২০১১-২০১৪মিডলসেক্স
২০১৫-বর্তমানসমারসেট
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ২৫ ২৯৭ ১৬৭ ৪৩
রানের সংখ্যা ২,০১৫ ২৪,৪৬০ ৫,৩৪৬ ৬২৭
ব্যাটিং গড় ৪২.৮৭ ৪৯.৮১ ৩৬.৮৬ ১৭.৪১
১০০/৫০ ৫/১৪ ৭৩/১১৬ ৫/৩৬ ০/৩
সর্বোচ্চ রান ১৭৩ ৩১৯ ১৪০ ৫৮
বল করেছে ২৩৬ ২৪
উইকেট
বোলিং গড় ১৩৩.০০ ১৩.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/১৬ ২/২২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৫/– ২৩৬/– ৭৪/– ২২/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ২৩ আগস্ট ২০১৫

ক্রিস্টোফার জন লিউলিন রজার্স (ইংরেজি: Christopher John Llewellyn Rogers; জন্ম: ৩১ আগস্ট, ১৯৭৭) অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস প্রদেশের সিডনি এলাকার সেন্ট জর্জ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারবামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবেই মূলতঃ তিনি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলে অংশগ্রহণ করেছেন। এছাড়াও দলের প্রয়োজনে মাঝে-মধ্যে লেগ-ব্রেক বোলিং করেছেন ১.৭৭ মিটার উচ্চতার অধিকারী ক্রিস রজার্স[১] কাউন্টি ক্রিকেটে ডার্বিশায়ারের সাবেক অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দশ বছর ধরে খেলেছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

রজার্সের বাবা জন রজার্স ১৯৬৯ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত নিউ সাউথ ওয়েলস ক্রিকেট দলের হয়ে খেলেছেন। এছাড়াও তা চাচাতো ভাই ইয়ান রজার্স দাবায় অস্ট্রেলীয় গ্র্যান্ডমাস্টার।[২]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রায় ৫০টি খেলায় অংশগ্রহণ করলেও ৩০ বছর বয়স হবার পূর্ব-পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দলে অংশগ্রহণের সুযোগ ঘটেনি ক্রিস রজার্সের। তবে তিনি অস্ট্রেলিয়া এ দলের সদস্যরূপে তিনবার ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণ করেছেন। পঁয়ত্রিশ বছর বয়সে ২০১৩ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত অ্যাশেজ সিরিজে জাতীয় দলের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

মে, ২০০৭ সালে রজার্স প্রথমবারের মতো জাতীয় পর্যায়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সাথে চুক্তিতে আবদ্ধ হন।[৩] ১৩ জানুয়ারি, ২০০৮ তারিখে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত ম্যাথু হেইডেনের অনুপস্থিতিজনিত কারণে অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দলে অন্তর্ভুক্ত হন।[৪] ১৫ জানুয়ারি তারিখে ওয়াকা গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত ভারতের বিরুদ্ধে ৩য় টেস্টে অংশগ্রহণের জন্য তার নাম ঘোষণা করা হয়।[৫] অস্ট্রেলিয়া তাদের ধারাবাহিক ১৭শ টেস্ট বিজয়ের বিশ্বরেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে আসে। কিন্তু প্রথম ইনিংসের ২১২ রানের মধ্যে তার সংগ্রহ ছিল মাত্র চার এবং দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি মাত্র ১৫ রান সংগ্রহ করেন। ফলে চারশতাধিক রানের লক্ষ্যমাত্রা টপকে যাবার লক্ষ্য ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়।[৬] ফলশ্রুতিতে জাতীয় পর্যায়ে তার চুক্তি এপ্রিল, ২০০৮ সাল পর্যন্ত স্থগিত থাকে।[৭] এ বিষয়ে রজার্সের মন্তব্য ছিল যে, “আমি মনে করিনি এ সুযোগ আবারো আসবে। আমি এটিকে মেনে নিয়েছি এবং আবারো দলে ফিরে আসবো।”[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Chris Rogers"cricket.com.auCricket Australia। ১৬ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৪ 
  2. For this couple, chess is a game for life, Hindustan Times, November 17, 2013
  3. Gillespie keeps his contract; Cricinfo; 2007-05-01. Retrieved on 2008-04-29.
  4. "Rogers added as cover for Hayden"BBC Sport। BBC। ১৩ জানুয়ারি ২০০৮। 
  5. "Rogers set for Australian debut"BBC Sport। BBC। ১৫ জানুয়ারি ২০০৮। 
  6. "India dent Australia record hopes"BBC Sport। BBC। ১৮ জানুয়ারি ২০০৮। 
  7. "Rogers loses Australian contract"BBC Sport। BBC। ৯ এপ্রিল ২০০৮। 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
নেইল ডেক্সটার
মিডলসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট অধিনায়ক
২০১৪
উত্তরসূরী
এ্যাডাম ভোজেস