১৯৬০-৬১ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(West Indian cricket team in Australia in 1960–61 থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
১৯৬০-৬১ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়া সফর
তারিখ৯ ডিসেম্বর, ১৯৬০ - ১৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১
অবস্থানঅস্ট্রেলিয়া অস্ট্রেলিয়া
ফলাফলঅস্ট্রেলিয়া ৫-টেস্টের সিরিজে ২-১-১ ব্যবধানে বিজয়ী
দলসমূহ
 অস্ট্রেলিয়া  ওয়েস্ট ইন্ডিজ
অধিনায়ক
অস্ট্রেলিয়া রিচি বেনো ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ফ্রাঙ্ক ওরেল
সর্বাধিক রান
সর্বাধিক উইকেট

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল ১৯৬০-৬১ মৌসুমে ফ্রাঙ্ক ওরেলের অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়া গমন করে। ফ্রাঙ্ক ওরেল ও তার প্রতিপক্ষীয় অধিনায়ক রিচি বেনো স্ব-স্ব দলকে আক্রমণধর্মী খেলার জন্যে উৎসাহিত করেন। পাঁচ-টেস্ট নিয়ে গড়া সিরিজের প্রথম টেস্টটি ইতিহাসের প্রথম টাই টেস্ট হিসেবে স্বীকৃতি পায় ও নাটকীয়ভাবে শেষ হয়। ঐ টেস্টটি ইতিহাসের মাত্র দুইটি ঘটনার মধ্যে প্রথম ছিল। তাসত্ত্বেও, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল স্বল্প ২-১ ব্যবধানে পরাজিত হয়। একটি ড্র ও অপরটি টাই হয়েছিল। দলটি খুব সহজেই শেষ দুই খেলায় জয় পেয়ে ৩-১ ব্যবধানে নিজেদের অনুকূলে নিয়ে আসতে পারতো। চিত্তাকর্ষক সিরিজ উপহার দেয়ায় অস্ট্রেলীয়দের কাছে দলটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে। অস্ট্রেলিয়া ত্যাগ করার পূর্বে দলটিকে মেলবোর্নে উন্মুক্ত গাড়ীতে আরোহণের মাধ্যমে ১৭ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১ তারিখে কুচকাওয়াজের আয়োজন করা হয় ও অগণিত দর্শক হর্ষোৎফুল্লে মেতে উঠে।

অধিনায়ক হিসেবে ফ্রাঙ্ক ওরেলের সফলতা ঈর্ষণীয় ছিল। কেননা, তার পূর্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সকল অধিনায়কই ছিলেন শ্বেতাঙ্গ। ব্যতিক্রম হিসেবে জর্জ হ্যাডলি নিজ দেশে ১৯৪৭-৪৮ মৌসুমে একটি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।[১]

প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন সিরিজের সবকটি খেলা সরাসরি সম্প্রচার করে। এ সফরকে ঘিরে ২০০০ সালে কর্পোরেশনটি দুই পর্বে ‘ক্যালিপ্সো সামার’ শিরোনামীয় প্রামাণ্যচিত্র প্রচার করেছিল।[২] এতে খেলার উল্লেখযোগ্য অংশ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের সাথে বর্তমানের চিন্তাধারার মিশেল ঘটিয়ে পাঁচ ঘণ্টায় ধারন করা হয়। ২০০৫ সালে তিনটি ডিভিডিতে প্রামাণ্যচিত্রটি প্রকাশ করা হয়।[৩]

সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান দল[সম্পাদনা]

সফরকারী দলটিতে - এফএমএম ওরেল (অধিনায়ক), এফসিএম আলেকজান্ডার (সহঃ অধিনায়ক), ডিটি ডিউডনি, এলআর গিবস, ডব্লিউডব্লিউ হল, জেএল হেনড্রিকস, সিসি হান্ট, আরবি কানহাই, পিডি ল্যাশলি, এসএম নার্স, এস রামাদিন, সিডব্লিউ স্মিথ, জিএস সোবার্স, জেএস সলোমন, এএল ভ্যালেন্টাইন, সিডি ওয়াটসন ছিলেন। দলীয় ব্যবস্থাপক জিই গোমেজ তিনটি গুরুত্বহীন আপ কান্ট্রি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। তার সহকারী ডব্লিউএমএম মার্শাল নিজস্ব একমাত্র প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলা তাসমানিয়ার বিপক্ষে খেলেন।

সংক্ষিপ্ত ফলাফল[সম্পাদনা]

সকল খেলা:[৪] খেলা - ২২, জয় - ১০, পরাজয় - ৫, ড্র - ৫, টাই - ২

প্রথম-শ্রেণীর খেলা:[৫] খেলা - ১৪, জয় - ৪, পরাজয় - ৫, ড্র - ৪, টাই - ১

টেস্ট খেলা: খেলা - ৫, জয় - ১, পরাজয় - ২, ড্র - ১, টাই - ১

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৯ - ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৬০
স্কোরকার্ড
৪৫৩ (১০০.৬ ওভার)
গারফিল্ড সোবার্স ১৩২
অ্যালেন ডেভিডসন ৫/১৩৫ (৩০ ওভার)
৫০৫ (১৩০.৩ ওভার)
নর্ম ও’নীল ১৮১
ওয়েস হল ৪/১৪০ (২৯.৩ ওভার)
২৮৪ (৯২.৬ ওভার)
ফ্রাঙ্ক ওরেল ৬৫
অ্যালেন ডেভিডসন ৬/৮৭ (২৪.৬ ওভার)
২৩২ (৬৮.৭ ওভার)
অ্যালেন ডেভিডসন ৮০
ওয়েস হল ৫/৬৩ (১৭.৭ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়লাভ করে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে ক্যামি স্মিথপিটার ল্যাশলি’র টেস্ট অভিষেক ঘটে।
  • ১১ ডিসেম্বর বিশ্রামবার ছিল।
  • টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে এটিই প্রথম টাই টেস্ট।

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

৩০ ডিসেম্বর, ১৯৬০ - ৩ জানুয়ারি, ১৯৬১
স্কোরকার্ড
৩৪৮ (৬৬.১ ওভার)
কেন ম্যাককে ৭৪ (১৩৬)
ওয়েস হল ৪/৫১ (১২ ওভার)
১৮১ (৬৯.২ ওভার)
রোহন কানহাই ৮৪ (১৬৫)
অ্যালেন ডেভিডসন ৬/৫৩ (২২ ওভার)
৭০/৩ (১৮.৪ ওভার)
বব সিম্পসন ২৭* (৬২)
ওয়েস হল ২/৩২ (৯.৪ ওভার)
২৩৩ (৮০.৪ ওভার) (এফ/ও)
কনরাড হান্ট ১১০ (২৪৯)
জনি মার্টিন ৩/৫৬ (২০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৭ উইকেটে বিজয়ী
মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড, মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া
আম্পায়ার: কলিন এগারকল হয়
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়লাভ করে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে জনি মার্টিনফ্রাঙ্ক মিসনের একযোগে টেস্ট অভিষেক ঘটে।
  • ১ জানুয়ারি, ১৯৬১ তারিখে বিশ্রামবার ছিল।

৩য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১৩ - ১৮ জানুয়ারি, ১৯৬১
স্কোরকার্ড
৩৩৯ (৮১.৬ ওভার)
গারফিল্ড সোবার্স ১৬৮ (২৩৪)
অ্যালান ডেভিডসন ৫/৮০ (২১.৬ ওভার)
২০২ (৭৪.২ ওভার)
নর্ম ও’নীল ৭১ (১৪৮)
আল্ফ ভ্যালেন্টাইন ৪/৬৭ (২৪.২ ওভার)
৩২৬ (১০২.৪ ওভার)
জেরি আলেকজান্ডার ১০৮ (১৯০)
রিচি বেনো ৪/১১৩ (৪৪ ওভার)
২৪১ (৭২.২ ওভার)
নীল হার্ভে ৮৫ (১৮৫)
ল্যান্স গিবস ৫/৬৬ (২৬ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২২২ রানে বিজয়ী
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড, সিডনি
আম্পায়ার: কলিন এগারকল হয়
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়লাভ করে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ১৫ জানুয়ারি বিশ্রামবার ছিল।

৪র্থ টেস্ট[সম্পাদনা]

২৭ জানুয়ারি - ১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১
স্কোরকার্ড
৩৯৩ (৮৮.৫ ওভার)
রোহন কানহাই ১১৭
রিচি বেনো ৫/৯৬ (২৭ ওভার)
৩৬৬ (১০৯.৬ ওভার)
বব সিম্পসন ৮৫
ল্যান্স গিবস ৫/৯৭ (৩৫.৬ ওভার)
৪৩২/৬ডি. (৯২ ওভার)
রোহন কানহাই ১১৫
কেন ম্যাককে ২/৭২ (১২ ওভার)
২৭৩/৯ (১২০ ওভার)
নর্ম ও’নীল ৬৫
ফ্রাঙ্ক ওরেল ৩/২৭ (১৭ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়লাভ করে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ২৯ জানুয়ারি বিশ্রামবার ছিল।
  • অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে ডেস হোর তার একমাত্র টেস্টে অংশ নেন।

৫ম টেস্ট[সম্পাদনা]

১০ - ১৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১
স্কোরকার্ড
২৯২ (৮৯.৭ ওভার)
গারফিল্ড সোবার্স ৬৪ (১৭৯)
ফ্রাঙ্ক মিসন ৪/৫৮ (১৪ ওভার)
৩৫৬ (১২১.৪ ওভার)
কলিন ম্যাকডোনাল্ড ৯১ (১৭৫)
গারফিল্ড সোবার্স ৫/১২০ (৪৪ ওভার)
৩২১ (৯৫.৭ ওভার)
জেরি আলেকজান্ডার ৭৩ (১২৬)
অ্যালান ডেভিডসন ৫/৮৪ (২৪.৭ ওভার)
২৫৮/৮ (১১১.৭ ওভার)
বব সিম্পসন ৯২ (২৩১)
ফ্রাঙ্ক ওরেল ৩/৪৩ (৩১ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২ উইকেটে বিজয়ী
মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: কলিন এগারকল হয়
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়লাভ করে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ১২ ফেব্রুয়ারি বিশ্রামবার ছিল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Legend behind the Worrell Trophy"BBC News। ২ এপ্রিল ২০০৩। 
  2. "Calypso Summer"Australian Broadcasting Corporation। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০০৭ 
  3. "Calypso Summer"ABC shop। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০০৭ 
  4. Includes first-class matches
  5. Includes Test matches

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]