পল স্টার্লিং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পল স্টার্লিং
Paul Stirling.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামপল রবার্ট স্টার্লিং
জন্ম (1990-09-03) ৩ সেপ্টেম্বর ১৯৯০ (বয়স ২৯)
বেলফাস্ট, উত্তর আয়ারল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ-ব্রেক
ভূমিকাউদ্বোধনী ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২৮)
১ জুলাই ২০০৮ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ বনাম সংযুক্ত আরব আমিরাত
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ১৬)
১৫ জুন ২০০৯ বনাম পাকিস্তান
শেষ টি২০আই২১ মার্চ ২০১৪ বনাম নেদারল্যান্ডস
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১০-বর্তমানমিডলসেক্স
২০১৩-বর্তমানসিলেট রয়্যালস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০ এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৫৩ ২৬ ২৬ ১১৩
রানের সংখ্যা ১,৮২১ ৫৮৪ ১,২৮২ ৩,৪০৬
ব্যাটিং গড় ৩৫.৭০ ২৬.৫৪ ৩২.০৫ ৩২.৭৫
১০০/৫০ ৫/৭ ০/৫ ৩/৯ ৮/১২
সর্বোচ্চ রান ১৭৭ ৭৯ ১১৫ ১৭৭
বল করেছে ১,৪৭৭ ৩০০ ৭৫৩ ২,১২৯
উইকেট ২৯ ১২ ৪৯
বোলিং গড় ৩৬.৭২ ২৮.৮৩ ৫৬.২৮ ৩৩.৪২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ৪/১১ ৩/২১ ২/৪৩ ৪/১১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৪/– ৭/– ১৩/– ৪৮/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

পল রবার্ট স্টার্লিং (ইংরেজি: Paul Stirling; জন্ম: ৩ সেপ্টেম্বর, ১৯৯০) উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্টে জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট আইরিশ ক্রিকেটারআয়ারল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য হিসেবে তিনি স্বীকৃত। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতি অফ-ব্রেক বোলিং করে থাকেন পল স্টার্লিং। দলে তিনি মূলতঃ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন। আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট দলের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের সাথে পূর্ণাঙ্গকালীন চুক্তিতে আবদ্ধ তিনি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মার্চ, ২০০৮ সালে আন্তঃমহাদেশীয় কাপে আয়ারল্যান্ডের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে স্টার্লিংয়ের। একই বছরেই একদিনের আন্তর্জাতিকে (ওডিআই) অভিষিক্ত হন। জুলাই, ২০০৯ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তিনি তার প্রথম সেঞ্চুরি করেন। ২০০৯-১০ মৌসুমের আইসিসি আন্তঃমহাদেশীয় কাপে জেরেমি ব্রে’র সাথে উদ্বোধনী জুটিতে ১ম ইনিংসে ১০০ রান করেন।[১] মিডলসেক্সের যুব ও দ্বিতীয় একাদশের প্রতিনিধিত্ব করেন ও ক্লাবের সাথে ডিসেম্বর, ২০০৯ সাল পর্যন্ত চুক্তিতে আবদ্ধ হন তিনি। এর এক মাস পর পূর্ণাঙ্গভাবে খেলার জন্য আয়ারল্যান্ডের ছয় খেলোয়াড়ের একজন হিসেবে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের সাথে চুক্তি করেন। ২০১০ ও ২০১১ সালে মিডলসেক্সের পক্ষে টুয়েন্টি২০লিস্ট এ ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।

জানুয়ারি, ২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট দলের সদস্য ছিলেন। প্লেট চ্যাম্পিয়নশীপে বাংলাদেশের পর তারা রানার্স আপ হয় ও ১৬ দলের মধ্যে ১০ম স্থান অধিকার করে।[২] প্রতিযোগিতায় ৫ খেলায় ২০৯ রান করে স্টার্লিং দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন।[৩]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড কর্তৃপক্ষ ৫ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখে ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য স্টার্লিংসহ ১৫-সদস্যের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে।[৪] ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ তারিখে আয়ারল্যান্ড দল গ্রুপ-পর্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম খেলায় অংশগ্রহণ করে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশাল ৩০৪/৭ রানকে তাড়া করতে গিয়ে এড জয়েসের সাথে ২য় উইকেটে ১০৬ রানে জুটি গড়েন। পরবর্তীতে নায়ল ও’ব্রায়ানের ৬০ বলে অপরাজিত ৭৯* রানের সুবাদে চার ওভারেরও বেশি বল বাকী থাকতে তার দল ৪ উইকেটে জয় পায়। ক্রিকেট বিশ্বকাপের ইতিহাসে টেস্টখেলুড়ে দলের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ডের চতুর্থ জয়লাভ।[৫] ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ তারিখে অনুষ্ঠিত গ্রুপ-পর্বের দ্বিতীয় খেলায় সংযুক্ত আরব আমিরাত দলের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করে। খেলায় তিনি আটোঁসাটোঁ বোলিং করে (১০-০-২৭-২) দলকে ২ উইকেটের ব্যবধানে জয়লাভে সহায়তা করেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Stirling sparkles but Tikolo strikes back, Cricinfo, ৩ জুলাই ২০০৯, সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০০৯ 
  2. Bangladesh take Plate championship, Cricinfo, ২৮ জানুয়ারি ২০১০, সংগ্রহের তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  3. ICC Under-19 World Cup, 2009/10 / Records / Most runs, Cricinfo, সংগ্রহের তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  4. ""World Cup 2015: Ireland name unchanged squad""। BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১৫ 
  5. "Cricket World Cup 2015: Ireland stun West Indies in Nelson"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  6. "Wilson, K O'Brien seal tense win"espncricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]