ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামপিন্নাদুয়াগে ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা ডি সিলভা
জন্ম (1997-07-29) ২৯ জুলাই ১৯৯৭ (বয়স ২১)
গালে, শ্রীলঙ্কা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ-ব্রেক
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কচতুরঙ্গ ডি সিলভা (জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৮০)
২ জুলাই ২০১৭ বনাম জিম্বাবুয়ে
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১৫শ্রীলঙ্কা বন্দর কর্তৃপক্ষ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১২
রানের সংখ্যা - ৭৭৫ ৮২
ব্যাটিং গড় - ৪৫.৫৮ ২৭.৩৩
১০০/৫০ -/- ১/৫ ০/০
সর্বোচ্চ রান - ১১৬* ৩৮
বল করেছে ১৬ ৬৭২ ৩০৪
উইকেট ১৬ ১৫
বোলিং গড় ৫.০০ ২৪.৬৮ ১৩.৪০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/১৫ ৫/১৫ ৫/২২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/০ ১০/০ ২/০
উৎস: ক্রিকইনফো, ৫ জুলাই ২০১৭

পিন্নাদুয়াগে ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা ডি সিলভা (জন্ম: ২৯ জুলাই, ১৯৯৭) গালে এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার[১] শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কা বন্দর কর্তৃপক্ষ দলের পক্ষে খেলে থাকেন রিচমন্ড কলেজের ছাত্র ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা। দলে তিনি মূলতঃ লেগ-স্পিনার। তার জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা চতুরঙ্গ ডি সিলভা জাতীয় দলে খেলছেন।[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

৩০ নভেম্বর, ২০১৫ তারিখে লিস্ট এ ক্রিকেটের আইয়া প্রিমিয়ার সীমিত ওভার প্রতিযোগিতায় অভিষেক ঘটে তার।[৩]

ডিসেম্বর, ২০১৫ সালে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলার জন্য শ্রীলঙ্কা দলের সদস্য হিসেবে মনোনীত হন।[৪] ঢাকায় অনুষ্ঠিত ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত একাদশ আসরটিতে তার দল চতুর্থ স্থান লাভ করেছিল।

২০১৫-১৬ মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে। ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে শ্রীলঙ্কা বন্দর কর্তৃপক্ষ ক্রিকেট ক্লাবের পক্ষে তার এ অভিষেক পর্বটি সম্পন্ন হয়।[৫]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

জুন, ২০১৭ সালে সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫-খেলার একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজে খেলার জন্য তাকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[৬] সিরিজের দ্বিতীয় ওডিআইয়ে তার অভিষেক ঘটে।[৭] ২ জুলাই, ২০১৭ তারিখে গালে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তিনি জিম্বাবুয়ের ইনিংসে উপর্যুপরি তিন বলে শেষ তিন উইকেট নিয়ে হ্যাট্রিক লাভ করেন। এরফলে ওডিআইয়ের ইতিহাসের ৪২তম হ্যাট্রিক লাভকারীর মর্যাদা লাভসহ অভিষেকে সর্বকনিষ্ঠ বোলারের মর্যাদা লাভ করেন।[৮] এছাড়াও, ওডিআইয়ের ইতিহাসে বাংলাদেশের তাইজুল ইসলামদক্ষিণ আফ্রিকান কাগিসো রাবাদা’র পর তৃতীয় অভিষেক খেলোয়াড় হিসেবে হ্যাট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন।[৯] তিনি একে-একে ম্যালকম ওয়ালার, ডোনাল্ড তিরিপানোটেন্ডাই চাতারাকে বোল্ড করে এ সাফল্য পান। ঐ খেলায় তার দল খুব সহজেই ৭ উইকেটে জয়লাভ করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Wanidu Hasaranga"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  2. "Chaturanga de Silva"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৭ 
  3. "AIA Premier Limited Over Tournament, Group A: Sri Lanka Ports Authority Cricket Club v Tamil Union Cricket and Athletic Club at Colombo (CCC), Nov 30, 2015"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  4. "SL include Charana Nanayakkara in U-19 World Cup squad"ESPNCricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  5. "AIA Premier League Tournament, Plate Championship: Sri Lanka Ports Authority Cricket Club v Bloomfield Cricket and Athletic Club at Panagoda, Feb 26-28, 2016"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  6. "Chandimal left out for first two Zimbabwe ODIs"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  7. "Zimbabwe tour of Sri Lanka, 2nd ODI: Sri Lanka v Zimbabwe at Galle, Jul 2, 2017"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৭ 
  8. "Sri Lanka vs Zimbabwe, 2nd ODI: Wanidu Hasaranga becomes youngest player to take hat-trick on debut" (ইংরেজি ভাষায়)। Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৭ 
  9. "Hasaranga hat-trick, Sandakan four; Zimbabwe 155" (ইংরেজি ভাষায়)। ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৭ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]