বিজয় শঙ্কর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিজয় শঙ্কর
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামবিজয় শঙ্কর
জন্ম (1991-01-26) ২৬ জানুয়ারি ১৯৯১ (বয়স ২৮)
তিরুনেলভেলি, তামিলনাড়ু, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২২৬)
১৮ জানুয়ারি ২০১৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই১৩ মার্চ ২০১৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৭৪)
৬ মার্চ ২০১৮ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ টি২০আই২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১২-বর্তমানতামিলনাড়ু
২০১৪চেন্নাই সুপার কিংস
২০১৬-২০১৭, ২০১৯-বর্তমানসানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ
২০১৮দিল্লি ডেয়ারডেভিলস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৪১ ৬৪
রানের সংখ্যা ১৬৫ ১০১ ২,০৯৯ ১,৫৩৯
ব্যাটিং গড় ৩৩.০০ ২৫.২৫ ৪৭.৭০ ৩৭.৫৩
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ৫/১৫ ২/৮
সর্বোচ্চ রান ৪৬ ৪৩ ১১১ ১২৯
বল করেছে ২০১ ১২৬ ৩,০৬৫ ১,৭৩৮
উইকেট ৩২ ৪৫
বোলিং গড় ৯৪ ৩৮.২০ ৫০.৯৩ ৩২.৩৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ২/১৫ ২/৩২ ৪/৫২ ৪/৩৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫/– ২/– ২৬/– ২৬/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৩ মার্চ, ২০১৯

বিজয় শঙ্কর (তামিল: விஜய் சங்கர்; জন্ম: ২৬ জানুয়ারি, ১৯৯১) তামিলনাড়ুর তিরুনেলভেলি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে তামিলনাড়ু দলের প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলে থাকেন। ডানহাতে মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী।

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

কিশোর অবস্থায় আবদ্ধ ঘেরা জালে স্বীয় পিতা ও তামিলনাড়ুর নিম্ন বিভাগের ক্রিকেটে অংশগ্রহণকারী ভ্রাতা অজয়ের সহায়তায় অনুশীলন করতেন। ২০ বছর বয়স হবার পূর্ব-পর্যন্ত অফ স্পিন বোলিং করতেন। এর পরপরই অতিরিক্ত স্পিন নির্ভর তামিলনাড়ু দলে মিডিয়াম পেস বোলারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। মাঝারিসারির ডানহাতি ব্যাটসম্যান বিজয় শঙ্কর তার কার্যকরী মিডিয়াম পেস বোলিং দলে বেশ ভূমিকা রাখে।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১২ সাল থেকে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে তামিলনাড়ুর প্রতিনিধিত্ব করছেন। ১ ডিসেম্বর, ২০১২ তারিখে নাগপুরে বিদর্ভের বিপক্ষে অভিষিক্ত হন তিনি। খেরায় ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন ও দুই উইকেট লাভ করেন। মাঝামাঝি অবস্থানে ব্যাট হাতে মাঠে নামতেন।

২০১৪-১৫ মৌসুমে স্বর্ণালী সময় অতিবাহিত করেন। এ মৌসুমে তামিলনাড়ু দলের অন্যতম প্রধান খেলোয়াড় হিসেবে অগ্রযাত্রায় বেশ সহায়তা করে। তবে, এ মৌসুমে বলের তুলনায় প্যাড পরিধান করেই অগ্রসর হয়েছেন বেশী। বল উঠিয়ে মারতেই বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তিনি। মৌসুমে শেষে ৫৭.৭০ গড়ে ৫৭৭ রান তুলেছিলেন। তবে, এর পরপরই আঘাতের কবলে পড়েন। রঞ্জী ট্রফি প্রতিযোগিতার নক-আউট পর্বে দুইবার ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেছিলেন তিনি। তন্মধ্যে, বিদর্ভের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে ১১১ ও ৮২ রান তুলেন। খেলাটি ড্রয়ে পরিণত হলেও প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকার সুবাদে তামিলনাড়ু দল পরবর্তী রাউন্ডে উপনীত হয়েছিল। একইভাবে সেমি-ফাইনালে ৯১ রান তোলার পাশাপাশি ২/৪৭ পান। এ খেলায়ও প্রথম ইনিংসে শ্রেষ্ঠত্ব প্রদর্শনের কারণে তার দল ফাইনালে খেলার সুযোগ পায়। মুম্বইয়ে অনুষ্ঠিত চূড়ান্ত খেলায় কর্ণাটকের বিপক্ষে ৫ ও ১০৩ রান এবং ১/৯২ পান। তবে, প্রতিপক্ষীয় দল ইনিংস ব্যবধানে জয় পেলে তামিলনাড়ুর শিরোপা হাতছাড়া হয়ে যায়।[১]

অক্টোবর, ২০১৮ সালে দেওধর ট্রফি প্রতিযোগিতায় ভারত ‘গ’ দলের সদস্যরূপে নামাঙ্কিত হন।[২] ঐ প্রতিযোগিতায় তিনি তিন খেলায় অংশ নিয়ে সাতটি উইকেট পান ও শীর্ষস্থানীয় উইকেট শিকারীতে পরিণত হন।[৩] পরের মাসেই ২০১৮-১৯ মৌসুমের রঞ্জী ট্রফিতে পর্যবেক্ষণে থাকা আটজন খেলোয়াড়ের একজন ছিলেন।[৪]

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ[সম্পাদনা]

বিশেষ প্রাধিকারপ্রাপ্ত দল চেন্নাই সুপার কিংস, সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ, দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের পক্ষে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে খেলেছেন বিজয় শঙ্কর। ২০১৬ সালের আইপিএল নিলামে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের সদস্য হন। তন্মধ্যে, ২০১৪ সালে চেন্নাই সুপার কিংসের পক্ষে একটি[৫] ও ২০১৭ সালে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের পক্ষে চারটি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন।

১৩ মে, ২০১৭ তারিখে গুজরাত লায়ন্সের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ অপরাজিত ৬৩ রানের ইনিংস খেলেন।[৬][৭] জানুয়ারি, ২০১৮ সালে আইপিএলের নিলামে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের পক্ষে চুক্তিবদ্ধ হন।[৮]

২০১৯ সালের আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদে চলে যান। ২০১৯ সালের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ প্রতিযোগিতাকে ঘিরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) আটজন পর্যবেক্ষণে থাকা একজন খেলোয়াড় হিসেবে তাকে তালিকায় রাখে।[৯]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ঘরোয়া ক্রিকেটে সুন্দর ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ভারত এ দলের পক্ষে খেলার জন্যে আহুত হন। অভিষেক ঘটা প্রথম খেলাতেই অস্ট্রেলিয়া এ দলের বিপক্ষে গুরিন্দার সান্ধু, অ্যান্ড্রু ফেকেট, শন অ্যাবটস্টিভ ও’কিফের ন্যায় বোলারদের মোকাবেলা করে অপরাজিত অর্ধ-শতকের দায়িত্বশীল ইনিংস উপহার দেন। এছাড়াও, দক্ষিণ আফ্রিকা এ দলের বিপক্ষেও বেশ ভালো খেলেন। এভাবেই তিনি প্রকৃতমানের অল-রাউন্ডারে পরিণত হন। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি মাঝে-মধ্যেই কার্যকরী বোলিং করেন।

২০ নভেম্বর, ২০১৭ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলার জন্যে ভুবনেশ্বর কুমারের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি। তবে, কোন টেস্টেই অংশগ্রহণের সুযোগ হয়নি বিজয় শঙ্করের।[১০] ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সালে কলম্বোয় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফি প্রতিযোগিতাকে ঘিরে রোহিত শর্মার অধিনায়কত্বে ভারতের টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) দলে তাকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[১১] ৬ মার্চ, ২০১৮ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি২০আইয়ে অভিষেক ঘটে তার।[১২] দ্বিতীয় খেলায় আম্পায়ার সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা পদ্ধতির সহায়তা নিয়ে বাংলাদেশের মুশফিকুর রহিমকে আউটের মাধ্যমে প্রথম টি২০আই উইকেট পান।[১৩] ঐ খেলায় তিনি ২/৩২ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করিয়ে ভারতকে ৬ উইকেটের বিজয় এনে দেন ও প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেন।[১৪]

অস্ট্রেলিয়া গমন, ২০১৭[সম্পাদনা]

টেলিভিশন অনুষ্ঠানে বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে হার্দিক পাণ্ড্যকে খেলায় সাময়িক নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হলে জানুয়ারি, ২০১৯ সালে তার স্থলাভিষিক্ত হন বিজয় শঙ্কর। এরফলে অস্ট্রেলিয়া সফরে তিনি ওডিআই সিরিজের বাদ-বাকী দুই খেলা ও ২০১৮-১৯ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড সফরে সীমিত ওভারের সিরিজ খেলার সুযোগ পান।[১৫] ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ তারিখে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ওডিআই সিরিজের তৃতীয় খেলায় স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওডিআইয়ে অভিষেক ঘটে তার।[১৬]

৫ মার্চ, ২০১৯ তারিখে নাগপুরের বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেন। ব্যাট হাতে ৪৬ রান করেন।[১৭] মার্কাস স্টইনিসকে আউট করে প্রথম ওডিআই উইকেট পান। এরপর খেলার শেষ ওভারে অ্যাডাম জাম্পাকে আউট করে ভারতকে নাটকীয়ভাবে ৮ রানের জয় এনে দেন।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ, ২০১৯[সম্পাদনা]

১৫ এপ্রিল, ২০১৯ তারিখে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই) ক্রিকেট বিশ্বকাপকে ঘিরে ১৫-সদস্যের খেলোয়াড়ের তালিকা প্রকাশ করে। বিরাট কোহলি’র নেতৃত্বাধীন ঐ দলে লোকেশ রাহুলদিনেশ কার্তিকের সাথে তাকে দলের অন্যতম সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[১৮][১৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Final, Ranji Trophy at Mumbai, Mar 8-12 2015"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১৭ 
  2. "Rahane, Ashwin and Karthik to play Deodhar Trophy"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৮ 
  3. "Deodhar Trophy, 2018/19: Most wickets"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৮ 
  4. "Eight players to watch out for in Ranji Trophy 2018-19"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১৮ 
  5. "Pepsi Indian Premier League, 37th match: Chennai Super Kings v Rajasthan Royals at Ranchi, May 13, 2014"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  6. "All you need to know about Vijay Shankar"The Hindu। ২১ নভেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১৭ 
  7. "53rd match (D/N), Indian Premier League at Kanpur, May 13 2017"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১৭ 
  8. "List of sold and unsold players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১৮ 
  9. "Indian Premier League 2019: Players to watch"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৯ 
  10. "Bhuvneshwar, Dhawan released from India Test squad"ESPN Cricinfo। ২০ নভেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৭ 
  11. "Rohit Sharma to lead India in Nidahas Trophy 2018"BCCI Press Release। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  12. "1st Match (N), Nidahas Twenty20 Tri-Series at Colombo, Mar 6 2018,7.00PM"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ মার্চ ২০১৮ 
  13. "Dhawan, Unadkat brush aside Bangladesh"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৮ 
  14. "2nd Match (N), Nidahas Twenty20 Tri-Series at Colombo, Mar 8 2018"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৮ 
  15. "Vijay Shankar replaces Hardik Pandya in Australia, Shubman Gill added for New Zealand tour"HindustanTimes। ১৩ জানুয়ারি ২০১৯। 
  16. "India vs Australia 3rd ODI: Vijay Shankar to debut; India make three changes"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  17. "Kohli and Shankar helps India win"Cricbuzz। ৫ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৯ 
  18. "Rahul and Karthik in, Pant and Rayudu out of India's World Cup squad"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৯ 
  19. "Dinesh Karthik, Vijay Shankar in India's World Cup squad"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]