স্পোর্টিং সিপি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্পোর্টিং সিপি
স্পোর্টিং সিপি লোগো.svg
পূর্ণ নামস্পোর্টিং ক্লাব পর্তুগাল
ডাকনামলেওয়েস (সিংহ)
ভের্দে এ ব্রাঙ্কোস (সবুজ এবং সাদা)
সংক্ষিপ্ত নামস্পোর্টিং
প্রতিষ্ঠিত১ জুলাই ১৯০৬; ১১৪ বছর আগে (1906-07-01)
মাঠএস্তাদিও জোসে আলভালাদে[১]
ধারণক্ষমতা৫০,০৯৫
সভাপতিপর্তুগাল ফ্রেদেরিকো ভারান্দাস
ম্যানেজারপর্তুগাল রুবেন আমোরিম[২]
লীগপ্রিমেইরা লিগা
২০১৯–২০৪র্থ
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

স্পোর্টিং ক্লাব পর্তুগাল (পর্তুগিজ উচ্চারণ: [ˈspɔɾtĩɡ(ɨ) ˈkluβ(ɨ) ðɨ puɾtuˈɣaɫ], ইংরেজি: Sporting CP; এছাড়াও স্পোর্তিং ক্লুবে দে পর্তুগাল অথবা শুধুমাত্র স্পোর্টিং সিপি নামে পরিচিত) হচ্ছে লিসবন ভিত্তিক একটি পর্তুগিজ পেশাদার ফুটবল ক্লাব।[৩] এই ক্লাবটি বর্তমানে পর্তুগালের শীর্ষ স্তরের ফুটবল লীগ প্রিমেইরা লিগায় খেলে। এই ক্লাবটি ১৯০৬ সালের ১লা জুলাই তারিখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। স্পোর্টিং সিপি তাদের সকল হোম ম্যাচ লিসবনের এস্তাদিও জোসে আলভালাদে-এ খেলে থাকে; যার ধারণক্ষমতা হচ্ছে ৫০,০৯৫। বর্তমানে এই ক্লাবের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন রুবেন আমোরিম এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন ফ্রেদেরিকো ভারান্দাস। উরুগুয়েয়ীয় রক্ষণভাগের খেলোয়াড় সেবাস্তিয়ান কোয়াতেস এই ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।[৪]

ঘরোয়া ফুটবলে, স্পোর্টিং সিপি এপর্যন্ত ৪৯টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে ১৮টি প্রিমেইরা লিগা, ১৭টি তাসা দা পর্তুগাল, ২টি তাসা দা লিগা, ৮টি সুপারতাসা কান্দিদো দে অলিভেইরা এবং ৪টি কাম্পেওনাতো দে পর্তুগাল শিরোপা রয়েছে। অন্যদিকে ইউরোপীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়, এপর্যন্ত ১টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যা হচ্ছে ইউরোপিয়ান কাপ উইনার্স কাপ

অর্জন[সম্পাদনা]

ঘরোয়া[সম্পাদনা]

বিজয়ী (১৮): ১৯৪০–৪১, ১৯৪৩–৪৪, ১৯৪৬–৪৭, ১৯৪৭–৪৮, ১৯৪৮–৪৯, ১৯৫০–৫১, ১৯৫১–৫২, ১৯৫২–৫৩, ১৯৫৩–৫৪, ১৯৫৭–৫৮, ১৯৬১–৬২, ১৯৬৫–৬৬, ১৯৬৯–৭০, ১৯৭৩–৭৪, ১৯৭৯–৮০, ১৯৮১–৮২, ১৯৯৯–২০০০, ২০০১–০২[৫]
বিজয়ী (১৭): ১৯৪০–৪১, ১৯৪৪–৪৫, ১৯৪৫–৪৬, ১৯৪৭–৪৮, ১৯৫৩–৫৪, ১৯৬২–৬৩, ১৯৭০–৭১, ১৯৭২–৭৩, ১৯৭৩–৭৪, ১৯৭৭–৭৮, ১৯৮১–৮২, ১৯৯৪–৯৫, ২০০১–০২, ২০০৬–০৭, ২০০৭–০৮, ২০১৪–১৫, ২০১৮–১৯[৫]
বিজয়ী (২): ২০১৭–১৮, ২০১৮–১৯
বিজয়ী (৮): ১৯৮২, ১৯৮৭, ১৯৯৫, ২০০০, ২০০২, ২০০৭, ২০০৮, ২০১৫
বিজয়ী (৪): ১৯২২–২৩, ১৯৩৩–৩৪, ১৯৩৫–৩৬, ১৯৩৭–৩৮

ইউরোপীয়[সম্পাদনা]

বিজয়ী (১): ১৯৬৩–৬৪[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "স্টেডিয়াম"ট্রান্সফারমার্কেট। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  2. "ম্যানেজার এবং অন্যান্য কর্মকর্তা"ট্রান্সফারমার্কেট। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  3. "ক্লাবের অবস্থান"ট্রান্সফারমার্কেট। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  4. "স্পোর্টিং সিপি: বর্তমান দল"ট্রান্সফারমার্কেট। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  5. "স্পোর্টিং সিপি – উয়েফা.কম"উয়েফা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:স্পোর্টিং সিপি টেমপ্লেট:প্রিমেইরা লিগা