মাখায়া এনটিনি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাখায়া এনটিনি
Ntini.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মাখায়া এনটিনি
জন্ম (১৯৭৭-০৭-০৬) ৬ জুলাই ১৯৭৭ (বয়স ৩৮)
এমডিঙ্গি, কিং উইলয়াম’স টাউন, দক্ষিণ আফ্রিকা
ডাকনাম দ্য এমডিঙ্গি এক্সপ্রেস
উচ্চতা ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি (১.৭৫ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরণ ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরণ ডানহাতি ফাস্ট
ভূমিকা বোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক (ক্যাপ ২৬৯) ১৯ মার্চ ১৯৯৮ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ টেস্ট ২৬ ডিসেম্বর ২০০৯ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক (ক্যাপ ৪৭) ১৬ জানুয়ারি ১৯৯৮ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই ১৭ এপ্রিল ২০০৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই শার্ট নং ১৬
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
১৯৯৫-২০০৩ বর্ডার
২০০৪-২০১২ ওয়ারিয়র্স
২০০৫ ওয়ারউইকশায়ার
২০০৮-২০১০ চেন্নাই সুপার কিংস
২০১০ কেন্ট
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১০১ ১৭৩ ১৯০ ২৭৫
রানের সংখ্যা ৬৯৯ ১৯৯ ১,২৮৪ ২৮৪
ব্যাটিং গড় ৯.৮৪ ৮.৬৫ ৯.৪৪ ৭.২৮
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩২* ৪২* ৩৪* ৪২*
বল করেছে ২০,৮৩৪ ৮,৬৮৭ ৩৫,০৩৯ ১৩,০৫৩
উইকেট ৩৯০ ২৬৬ ৬৫১ ৩৮৮
বোলিং গড় ২৮.৮২ ২৪.৬৫ ২৮.৯৮ ২৫.২৮
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৮ ২৭
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৭/৩৭ ৬/২২ ৭/৩৭ ৬/২২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৫/– ৩০/– ৪০/– ৫০/–
উত্স: CricketArchive, ৩০ নভেম্বর ২০১৩

মাখায়া এনটিনি (ইংরেজি: Makhaya Ntini; জন্ম: ৬ জুলাই, ১৯৭৭) দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ক্রিকেটারফাস্ট বোলারদক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় হিসেবে বিবেচিত হয়ে আছেন। শন পোলক এবং অ্যালান ডোনাল্ডের পর তৃতীয় বোলার হিসেবে তিন শতাধিক টেস্ট উইকেট লাভ করেছেন। আইসিসি প্রণীত বোলিং রেটিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম জনপ্রিয় ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব হিসেবে এনটিনি দক্ষিণ আফ্রিকান প্রেস অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃক আয়োজিত ভোটের ফলাফলে সেরা ক্রীড়াবিদের মর্যাদা পান।[১]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯ মার্চ, ১৯৯৮ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক ঘটে তার। ২০০৩ সালে প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে লর্ড’স ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ১০ উইকেট নেন। এরপর ২০০৫ সালে পোর্ট অব স্পেনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৩২ রানের বিনিময়ে ১৩ জনকে আউট করেন।

এছাড়াও, ৩ মার্চ, ২০০৬ তারিখে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে একদিবসীয় ক্রিকেটে সেরা বোলিং নৈপুণ্যের স্বাক্ষর রাখেন। ঐদিন এনটিনি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২২ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট লাভ করেন।

বিতর্ক[সম্পাদনা]

চমৎকার ক্রীড়া জীবন শুরু করলেও ১৯৯৯ সালে তা প্রায় শেষ হয়ে যাচ্ছিল এনটিনির।[২] তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়।[৩] কিন্তু পরবর্তীতে তিনি এ অভিযোগ থেকে মুক্তি পান। এ মামলাটি বিশ্বজুড়ে আলোচিত বিষয়াবলী হয়ে দাড়ায় এবং প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করেছিল। কিন্তু এনটিনি তার আবেগকে সংযত রাখেন ও আপিল করেন এবং সফলভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পুণরায় ফিরে আসেন।[৪] দক্ষিণ আফ্রিকা দলে পুণরায় স্থলাভিষিক্ত করায় ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান তিনি।[৫]

৯ জানুয়ারি, ২০১১ তারিখে ভারতের বিপক্ষে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণের পর সকল স্তরের ক্রিকেট খেলা থেকে মাখায়া এনটিনি অবসর গ্রহণ করেন।[৫][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ntini voted South Africa's favorite sportsperson | South Africa Cricket News | ESPN Cricinfo. Content-usa.cricinfo.com (30 December 2005). Retrieved on 2012-08-20.
  2. South African cricketer Makhaya Ntini to be charged with rape (14 January 1999) | Cricket News | South Africa | ESPN Cricinfo. Content-usa.cricinfo.com (14 January 1999). Retrieved on 2012-08-20.
  3. Lemke, Gary (২২ জুন ২০০৩)। "Ntini and company ready for a sting after the sorry tales"The Independent (London)। 
  4. Cricinfo – Players and Officials – Makhaya Ntini. Content-aus.cricinfo.com. Retrieved on 2012-08-20.
  5. ৫.০ ৫.১ "'People's champ' of SA cricket retires" (Press release)। South African Government Online। ৩ নভেম্বর ২০১০। সংগৃহীত ৩১ অক্টোবর ২০১১ 
  6. "India wins one-off T20I at Durban"। IndiaVoice। ১১ জানুয়ারি ২০১১। সংগৃহীত ২০১১-০১-১২