শিশু দিবস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শিশু দিবস
উইকিপিডিয়া দ্বারা শিশু দিবসের জন্য প্রতীক
পালনকারীবিশ্বব্যাপী
ধরনঐতিহাসিক
তারিখবিভিন্ন আঞ্চলিকভাবে (বিশ্ব শিশু দিবস ২০শে নভেম্বর উদ্‌যাপন করা হয়, এবং আন্তর্জাতিক শিশু দিবস ১লা জুন উদ্‌যাপন করা হয়)
সম্পর্কিতপিতৃ দিবস, মাতৃদিবস, আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস, আন্তর্জাতিক নারী দিবস, পিতামহ/মাতামহ দিবস

শিশু দিবস একটি স্মরণীয় দিন যা শিশুদের সম্মানে প্রতি বছর উদযাপিত হয়, এটি উদযাপনের তারিখ দেশ অনুসারে পরিবর্তিত হয়। ১৯২৫ সালে জেনেভায় বিশ্ব শিশু কল্যাণ সম্মেলনে প্রথম আন্তর্জাতিক শিশু দিবস ঘোষণা করা হয়। ১৯৫০ সাল থেকে, এটি বেশিরভাগ কমিউনিস্ট এবং পোস্ট-কমিউনিস্ট দেশগুলোতে ১ জুন উদযাপিত হয়।[১] ১৯৫৯ সালের ২০ নভেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ কর্তৃক শিশু অধিকারের ঘোষণাকে স্মরণ করার জন্য ২০ নভেম্বর বিশ্ব শিশু দিবস পালন করা হয়।[২] কিছু দেশে, এটি শিশু সপ্তাহ হিসেবে পালিত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

উৎপত্তি[সম্পাদনা]

ম্যাসাচুসেটসের চেলসিতে ইউনিভার্সালিস্ট চার্চ অফ দ্য রিডিমারের যাজক রিভারেন্ড ডা. চার্লস লিওনার্ড ১৮৫৭ সালের জুন মাসের দ্বিতীয় রবিবার শিশু দিবস পালন শুরু করেন। লিওনার্ড তাদের এবং শিশুদের জন্য উৎসর্গকৃত একটি বিশেষ সেবার আয়োজন করেন। লিওনার্ড প্রথমে দিনটির নামকরণ করেন রোজ ডে, যদিও পরে ফ্লাওয়ার সানডে নামকরণ করা হয় এবং এরপরে শিশু দিবস হিসেবে নামকরণ করা হয়।[৩][৪][৫]

১৯২০ সালে তুরস্ক প্রজাতন্ত্র ২৩ এপ্রিল শিশু দিবসকে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করে। ১৯২০ সাল থেকে জাতীয়ভাবে শিশু দিবস পালিত হয়ে আসছে এবং তৎকালীন সরকার ও সংবাদপত্রগুলো দিনটিকে শিশুদের জন্য একটি দিন হিসাবে ঘোষণা করে। এটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, উদযাপনটি স্পষ্ট এবং ন্যায়সঙ্গত করার জন্য একটি আনুষ্ঠানিক নিশ্চিতকরণ প্রয়োজন। তুরস্ক প্রজাতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা ও রাষ্ট্রপতি মুস্তাফা কামাল আতাতুর্ক ১৯২৯ সালে জাতীয়ভাবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেন।[৬][৭][৮]

বৈশ্বিক উদযাপন[সম্পাদনা]

১৯২৫ সালে জেনেভায় বিশ্ব শিশু কল্যাণ সম্মেলনে প্রথম আন্তর্জাতিক শিশু দিবস ঘোষণা করা হয়। ১৯৪৯ সালের ৪ নভেম্বর মস্কোতে উইমেন্স ইন্টারন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফেডারেশন কর্তৃক শিশু সুরক্ষার জন্য আন্তর্জাতিক দিবস হিসাবে ১ জুন নির্ধারিত হয়।[১] ১৯৫০ সাল থেকে অনেক কমিউনিস্ট ও পোস্ট-কমিউনিস্ট দেশে ১ জুন শিশু দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

১৯৫৮: শিশু দিবস স্মরণে সোভিয়েত ডাকটিকিট

১৯৫৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর ভারত ও উরুগুয়ের একটি যৌথ প্রস্তাব জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে পাস হয়, যাতে সব দেশকে সর্বজনীন শিশু দিবস পালনে উৎসাহিত করা হয়। প্রথমত শিশুদের মধ্যে পারস্পরিক বিনিময় ও বোঝাপড়া বৃদ্ধি করা এবং দ্বিতীয়ত জাতিসংঘ সনদের আদর্শ প্রচার ও বিশ্বের শিশুদের কল্যাণে পদক্ষেপ গ্রহণ করা।[৯] ১৯৫৯ সালের ২০ নভেম্বর জাতিসংঘ শিশু অধিকারের ঘোষণাপত্র গ্রহণ করে।[১০] ১৯৫৯ সালের ২০ নভেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ কর্তৃক শিশু অধিকার ঘোষণার স্মরণে ২০ নভেম্বর বিশ্ব শিশু দিবস পালন করা হয়।[২]

বাংলাদেশে[সম্পাদনা]

জাতীয় শিশু দিবসের লোগো।

১৯৯৬ সালে বাংলাদেশের তৎকালীন মন্ত্রিসভা ১৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনকে "জাতীয় শিশু দিবস" হিসেবে ঘোষণা করে। ১৯৯৭ সালের ১৭ মার্চ থেকে দিনটি সরকারিভাবে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।[১১]

এর আগে ১৯৯৪ সালের ১৭ মার্চ বেসরকারিভাবে শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনকে জাতীয় শিশু কিশোর দিবস হিসেবে পালন করে "বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা" নামক সংগঠন। ১৯৯৩ সালে দিবসটির প্রস্তাব করেন নীলিমা ইব্রাহিম[১২]

অক্টোবর মাসের প্রথম সোমবার বাংলাদেশে বিশ্ব শিশু দিবস পালিত হয়।[১৩]

ভারতে[সম্পাদনা]

১৯৬৪ সালের ২৭ মে জওহরলাল নেহরুর জন্মদিন ১৪ নভেম্বরকে "জাতীয় শিশু দিবস" পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তখন থেকে দিনটি ভারতে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। জওহরলাল নেহরুর মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত ২০ নভেম্বরকে শিশু দিবস হিসেবে পালন করা হতো। যেটি জাতিসংঘ ১৯৫৪ সালে ঘোষণা করে।[১৪]

অন্যান্য দেশে[সম্পাদনা]

তারিখসমূহ খ্রিস্টাব্দে
দিন/তারিখ দেশ

জানুয়ারির প্রথম শুক্রবার

 বাহামা দ্বীপপুঞ্জ

জানুয়ারি ১১

 তিউনিসিয়া

জানুয়ারির দ্বিতীয় শনিবার

 থাইল্যান্ড

ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় রবিবার

 কুক দ্বীপপুঞ্জ
 নাউরু
 নিউই
 টোকেলাউ
 কেইম্যান দ্বীপপুঞ্জ

মার্চের প্রথম রবিবার

 নিউজিল্যান্ড

চৈত্র ৩
(মার্চ ১৭)

 বাংলাদেশ

এপ্রিল ৪

 হংকং
 তাইওয়ান

এপ্রিল ৫

 ফিলিস্তিনী অঞ্চলসমূহ

এপ্রিল ১২

 বলিভিয়া
 হাইতি

এপ্রিলের শেষ শনিবার[১৫]

 কলম্বিয়া

এপ্রিল ২৩

 তুরস্ক

এপ্রিল ২৪

 জাম্বিয়া

এপ্রিল ৩০

 মেক্সিকো

মে ৫

 জাপান
 দক্ষিণ কোরিয়া

মে-র দ্বিতীয় রবিবার

 স্পেন

মে ১০

 মালদ্বীপ

মে ১৭

 নরওয়ে

মে ২৭

 নাইজেরিয়া

মে-র শেষ রবিবার

 হাঙ্গেরি

আসেনশন উৎসব

 আমেরিকান সামোয়া
 ফক্‌ল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জ
 সলোমন দ্বীপপুঞ্জ

জুন ১

 আলবেনিয়া
 অ্যাঙ্গোলা
 আর্মেনিয়া
 আজারবাইজান
 বেলারুশ
 বেনিন
 বুলগেরিয়া
 বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা

 গণচীন
 কম্বোডিয়া
 চেক প্রজাতন্ত্র
 পূর্ব তিমুর
 ইকুয়েডর
 ইস্তোনিয়া
 ইথিওপিয়া
 জর্জিয়া (রাষ্ট্র)

 গিনি-বিসাউ
 কাজাখস্তান
 কসোভো
 কিরগিজিস্তান
 লাওস
 লাতভিয়া
 লেবানন
 লিথুয়ানিয়া
 ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র
 মাকাও

 মলদোভা
 মঙ্গোলিয়া
 মন্টিনিগ্রো
 মোজাম্বিক
 মায়ানমার
 নিকারাগুয়া
 পোল্যান্ড

 পর্তুগাল
 রোমানিয়া
 রাশিয়া
 সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি
 সার্বিয়া
 স্লোভাকিয়া
 স্লোভেনিয়া

 তাজিকিস্তান
 তানজানিয়া
 তুর্কমেনিস্তান
 ইউক্রেন
 উজবেকিস্তান
 ভিয়েতনাম
 ইয়েমেন

জুন ২

 উত্তর কোরিয়া

জুনের দ্বিতীয় রবিবার

 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

জুলাই ১

 পাকিস্তান

জুলাইর তৃতীয় রবিবার

 কিউবা
 পানামা
 ভেনেজুয়েলা

জুলাই ২৩

 ইন্দোনেশিয়া

জুলাই ২৪

 ভানুয়াটু

আগস্টের প্রথম রবিবার

 উরুগুয়ে

আগস্টের দ্বিতীয় রবিবার

 আর্জেন্টিনা

আগস্ট ১৬

 প্যারাগুয়ে

আগস্টের তৃতীয় রবিবার

 পেরু

সেপ্টেম্বর ৯

 কোস্টা রিকা

সেপ্টেম্বর ১০

 হন্ডুরাস

সেপ্টেম্বর ১৪

   নেপাল

সেপ্টেম্বর ২০

 জার্মানি

অক্টোবর ১

 এল সালভাদোর
 গুয়াতেমালা
 শ্রীলঙ্কা

অক্টোবরের প্রথম শুক্রবার

 সিঙ্গাপুর

অক্টোবরের প্রথম বুধবার (স্বীকৃতি এবং সাক্ষাৎ)
আগস্টের দ্বিতীয় রবিবার (উদ্যাপন)

 চিলি

অক্টোবর ৮

 ইরান

অক্টোবর ১২

 ব্রাজিল

অক্টোবরের ৪র্থ শনিবার

 অস্ট্রেলিয়া
 মালয়েশিয়া

নভেম্বরের প্রথম শনিবার

 দক্ষিণ আফ্রিকা

নভেম্বর ১১

 ক্রোয়েশিয়া

নভেম্বর ১৪

 ভারত

নভেম্বর ২০

আরব লীগ আরব বিশ্ব
 আজারবাইজান
 কানাডা
 ক্রোয়েশিয়া
 মিশর
 ইথিওপিয়া
 ফিনল্যান্ড
 ফ্রান্স
 গ্রিস
 প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড
 ইসরায়েল
 কেনিয়া

 মালয়েশিয়া
 ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র
 নেদারল্যান্ডস
 ফিলিপাইন
 রাশিয়া
 সার্বিয়া
 স্লোভেনিয়া
 দক্ষিণ আফ্রিকা
 স্পেন
 সুইডেন
  সুইজারল্যান্ড
 সংযুক্ত আরব আমিরাত
 ত্রিনিদাদ ও টোবাগো

ডিসেম্বর ৫

 সুরিনাম

ডিসেম্বর ২৩

 দক্ষিণ সুদান
 সুদান

ডিসেম্বর ২৫

 কঙ্গো প্রজাতন্ত্র
 গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র
 ক্যামেরুন

 বিষুবীয় গিনি
 গাবন
 চাদ
 মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র

ডিসেম্বরের শেষ শুক্রবার

 ডোমিনিকা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Yang, Unity Elias (২০১৫)। Women's and Children's Chambers of Parliament। Bloomington, IN, US: AuthorHouse। আইএসবিএন 978-1-5049-4192-1 
  2. "World Children's Day"। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২০ 
  3. "Reading Eagle – Google News Archive Search"। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৬ 
  4. "The Sharon Baptist Church"। ১ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৬ 
  5. "Today is Universal Children's Day – Christian Adoption Services"। ১৬ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৬ 
  6. Veysi Akın (1997). "23 Nisan Millî Hâkimiyet ve Çocuk Bayramı'nın Tarihçesi" (akademik yayın). PAÜ Eğitim Fakültesi Dergisi 3. sayı: s. 91.
  7. Veysi Akın (1997). "23 Nisan Millî Hâkimiyet ve Çocuk Bayramı'nın Tarihçesi" (akademik yayın). PAÜ Eğitim Fakültesi Dergisi 3. sayı: s. 92.
  8. "23 Nisan" (তুর্কি ভাষায়)। ৬ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  9. "UN Yearbook"www.unmultimedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১৪ 
  10. "United Nations"। United Nations। ১৪ ডিসেম্বর ১৯৫৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৩ 
  11. "১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস কেন"বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০২৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  12. "জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে যেভাবে জাতীয় শিশু দিবস প্রবর্তিত হলো"bskmelabd.org। ২১ মে ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০২৩ 
  13. "বিশ্ব শিশু দিবস আজ"প্রিয়.কম। ২০১৭-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-০২ 
  14. "জওহরলাল নেহরুর জন্মদিনে কেন শিশুদিবস"। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১১ 
  15. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৯ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ নভেম্বর ২০১৪