কুক দ্বীপপুঞ্জ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

স্থানাঙ্ক: ১৫° দক্ষিণ ১৬১° পশ্চিম / ১৫° দক্ষিণ ১৬১° পশ্চিম / -15; -161

কুক দ্বীপপুঞ্জ
কুকি, আইরানি
কুক দ্বীপপুঞ্জের কোট অফ আর্মস
পতাকা কোট অফ আর্মস
অবস্থা Area of the Realm of New Zealand
and Associated State
রাজধানী
এবং বৃহত্তম নগরী
আভারুয়া
২১°১২′ দক্ষিণ ১৫৯°৪৬′ পশ্চিম / ২১.২০০° দক্ষিণ ১৫৯.৭৬৭° পশ্চিম / -21.200; -159.767
রাষ্ট্রীয় ভাষাসমূহ
ব্যবহৃত ভাষাসমূহ
জাতিগোষ্ঠী([১] )
  • ৮৭.৭% মাওরি
  • ৫.৮% আংশিক-মাওরি
  • ৬.৫% অন্যান্য
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ কুক দ্বীপবাসী
সরকার সাংবিধানিক রাজতন্ত্র
 •  রাজতন্ত্র ২য় এলিজাবেথ
 •  রানীর প্রতিনিধি টম মারস্টারস
 •  প্রধান মন্ত্রী হেনরি পুনা
আইন-সভা সংসদ
 •  মোট  কিমি (২১০তম)
 বর্গ মাইল
জনসংখ্যা
 •  2011[২] আদমশুমারি ১৪৯৭৪
 •  ঘনত্ব ৪২/কিমি (১২৪তম)
/বর্গ মাইল
মোট দেশজ উৎপাদন
(ক্রয়ক্ষমতা সমতা)
২০০৫ আনুমানিক
 •  মোট $১৮৩.২ মিলিয়ন
 •  মাথা পিছু $৯১০০
মুদ্রা নিউজিল্যান্ড ডলার (NZD)
কুক দ্বীপপুঞ্জের ডলার
সময় অঞ্চল সিকেটি (ইউটিসি-১0)
গাড়ী চালনার দিক বাম
কলিং কোড ৬৮২
আইএসও ৩১৬৬ কোড CK
ইন্টারনেট টিএলডি .সিকে

কুক দ্বীপপুঞ্জ (শুনুনi/ˈkʊk ˈləndz/; Cook Islands Māori: Kūki 'Āirani[৩]) দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত নিউজিল্যান্ডের সাথে স্বাধীনভাবে সংযুক্ত একটি দ্বীপরাষ্ট্র। ১৫টি দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত দেশটির মোট আয়তন ২৪০ বর্গকিলোমিটার (৯২.৭ মা)। যদিও কুক দ্বীপপুঞ্জের স্বতন্ত্র অর্থনৈতিক অঞ্চল ১৮,০০,০০০ বর্গকিলোমিটার (৬,৯০,০০০ মা) অংশ জুড়ে রবস্থিত।[৪]


২০১০-১১ অর্থবছরে প্রায় লক্ষাধিক পর্যটক দেশটিতে ভ্রমণ করেন,[৫] যা দেশটির প্রধান শিল্প, এবং অর্থনীতির প্রধান চাবিকা। যার পরেই রয়েছে মুক্তা, সামুদ্রিক এবং ফলের রপ্তানি।

ভৌগোলিক অবস্থান[সম্পাদনা]

কুক দ্বীপপুঞ্জ দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে নিউজিল্যান্ডের উত্তর পূর্বে, ফ্রেঞ্চ পলিনেসিয়া এবং আমেরিকান সামাও এর মাঝে অবস্থিত। ১৫ টি প্রধান দ্বীপ ২২,০০,০০০ কিমি (৮,৪৯,৪২৫ মা) নিয়ে এটি গঠিত, যাদেরকে দু'ভাগে ভাগ করা হয়েছে: দক্ষিণীয় কুক দ্বীপসমূহ এবং উত্তরের কুক দ্বীপসমূহ। [৬]


কুক দ্বীপপুঞ্জ মানচিত্র

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রারোটোঙ্গা সমুদ্রসৈকত

৬ষ্ঠ শতকে কুক দ্বীপ্পুঞ্জের উত্তরপূর্বাংশে প্রথম বসতি স্থাপন করে পলিনেসিয়ানরা, যারা তাহিতি থেকে এসেছিল।[৭]। দ্বীপটি ১,১৫৪ কিলোমিটার (৭১৭ মা) দীর্ঘ।

স্প্যানিশ জাহাজ ষোড়শ শতকে দ্বীপটিতে আসা শুরু করে; প্রথম লিখিত বিবরণ পাওয়া যায় যখন স্প্যানিশ নাবিক আলভারো দে মেনডানা দে নেইরা ১৫৯৫ সালে পুকাপুকা আসেন। তিনি দ্বীপটির নাম দেন সান বারনারদো (সেইন্ট বারনার্দ)।

ব্রিটিশ ক্যাপ্টেন জেমস কুক কুক দ্বীপুঞ্জে আসেন ১৭৭৩ এবং ১৭৭৭ সালে[৮] এবং দ্বীপপুঞ্জটির নামকরণ করেন হার্ভি দ্বীপপুঞ্জ; "কুক দ্বীপপুঞ্জ" নামটি, ক্যাপ্টেন কুকের স্মরণে, ১৮২০ সালে প্রকাশিত একটি রাশিয়ান নৌ চার্টে প্রথম উল্লেখিত হয়।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Cook Islands. CIA World Fact Book
  2. "কুক দ্বীপপুঞ্জের ২০১১ সালের আদমশুমারি"। সংগৃহীত ২২ মার্চ ২০১৫ 
  3. Cook Islands Maori dictionary by Jasper Buse & Raututi Taringa, Cook Islands Ministry of Education (1995) page 200
  4. A View from the Cook Islands. SOPAC
  5. "The Cook Islands Half Year Economic and Fiscal Update For the Financial Year 2010/2011"। Cook Islands Ministry of Finance & Economic Management। ডিসেম্বর ২০১০। পৃ: ৭। 
  6. "Cook Islands Travel Guide" (with description), World Travel Guide, Nexus Media Communications, 2006. Webpage: WTGuide-Cook-Islands.
  7. Cook Islands (archived from the original on 19 March 2012).
  8. Thomas, Nicholas (2003). Cook : the extraordinary voyages of Captain James Cook, Walker & Company, আইএসবিএন ০৮০২৭১৪১২৯, pp. 310–311.
  9. "Cook Islands Government website"। Cook-islands.gov.ck। সংগৃহীত ১৮ নভেম্বর ২০১১