নীলিমা ইব্রাহিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নীলিমা ইব্রাহিম
[[File:|215px]]
জন্ম নীলিমা রায় চৌধুরী
(১৯২১-০১-১১)১১ জানুয়ারি ১৯২১
মুলঘর, ফকিরহাট, বাগেরহাট জেলা, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমানে- বাংলাদেশ)
মৃত্যু ১৮ জুন ২০০২(২০০২-০৬-১৮) (৮১ বছর)
ঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তা বাংলাদেশী
শিক্ষা পিএইচডি (বাংলা ভাষা ও সাহিত্য)
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশা লেখিকা, শিক্ষাবিদ
উল্লেখযোগ্য কাজ আমি বীরঙ্গনা বলছি, উনবিংশ শতাব্দীর বাঙালি সমাজ ও বাংলা নাটক
দম্পতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম (বি. ১৯৪৫)
সন্তান খুকু, ডলি, পলি, বাবলি, ইতি
পিতা-মাতা প্রফুল্ল রায় চৌধুরী
কুসুম কুমারী দেবী
পুরস্কার বাংলা একাডেমি পুরস্কার (১৯৬৯)
একুশে পদক (২০০০)
স্বাধীনতা পুরস্কার (২০১১)

নীলিমা ইব্রাহিম (১১ অক্টোবর ১৯২১১৮ জুন ২০০২) হলেন বাংলাদেশের একজন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক ও সমাজকর্মী। ১৯৫৬ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন এবং ১৯৭২ সালে অধ্যাপক পদে উন্নীত হন। ১৯৭৪-৭৫ সালে তিনি বাংলা একাডেমির অবৈতনিক মহাপরিচালক ছিলেন।

পুরস্কার ও সম্মননা[সম্পাদনা]

  • বাংলা একাডেমি পুরস্কার (১৯৬৯)
  • জয় বাংলা পুরস্কার (১৯৭৩)
  • মাইকেল মধুসূদন পুরস্কার (১৯৮৭)
  • লেখিকা সংঘ পুরস্কার (১৯৮৯)
  • বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী স্মৃতি পদক (১৯৯০)
  • অনন্য সাহিত্য পদক (১৯৯৬)
  • বেগম রোকেয়া পদক (১৯৯৬)
  • বঙ্গবন্ধু পুরস্কার (১৯৯৭)
  • শেরে বাংলা পুরস্কার (১৯৯৭)
  • থিয়েটার সম্মামনা পদক (১৯৯৮)
  • একুশে পদক (২০০০)

মৃত্যু[সম্পাদনা]

অধ্যাপিকা নীলিমা ইব্রাহিম ২০০২ সালের ১৮ জুন মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]