বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
National emblem of Bangladesh.svg
 এই নিবন্ধটি বাংলাদেশের রাজনীতি ও সরকার
ধারাবাহিকের অংশ

উর্দ্ধতন বিচার বিভাগ (সুপ্রীম কোর্ট) এবং অধস্তন বিচার বিভাগ (নিম্ন আদালতসমূহ) সমন্বয়ে বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে।

বিচার বিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

উর্দ্ধতন বিচার বিভাগ[সম্পাদনা]

==== আপীল বিভাগ ==== বাংলাদেশের উচ্চ আদালত দুইভাগে বিভক্ত। এর মধ্যে আপীল বিভাগ উচ্চতম। প্রধান বিচারপতি ও অন্যান্য বিচারপতিদের নিয়ে এটি গঠিত হয়।

হাইকোর্ট বিভাগ[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

অধস্তন বিচার বিভাগ[সম্পাদনা]

দেওয়ানি বিচার বিভাগ[সম্পাদনা]

অর্থঋণ আদালত[সম্পাদনা]

পারিবারিক আদালত[সম্পাদনা]

পারিবারিক বিষয় সংক্রান্ত মোকদ্দমার নিষ্পত্তি করে পারিবারিক আদালত।

১৯৬১ সালের মুসলিম পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ এর বিধানাবলী সাপেক্ষে কোন পারিবারিক আদালতের পাঁচটি বিষয়াদির সকল অথবা যেকোনটির সঙ্গে সম্পর্কিত বিষয়ে যেকোন মামলা গ্রহণ, বিচার এবং নিষ্পত্তি করার একক এখতিয়ার থাকবে ৷ [১] 

বিষয়গুলো হলো: (ক) বিবাহবিচ্ছেদ, (খ) দাম্পত্য অধিকার পুনরুদ্ধার, (গ) দেনমোহর, (ঘ) ভরণপোষণ এবং (ঙ) সন্তান-সন্ততিগণের অভিভাবকত্ব ও তত্ত্বাবধান ৷

দেউলিয়া আদালত[সম্পাদনা]

ফৌজদারী আদালত[সম্পাদনা]

প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

শ্রম আদালত[সম্পাদনা]

কোর্ট অব সেটেলমেন্ট[সম্পাদনা]

সালিশি ট্রাইব্যুনাল ও সালিশি আপীল ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পন ট্রাইব্যুনাল ও আপীল ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

ভূমি জরীপ ট্রাইব্যুনাল ও আপীল ট্রাইব্যুনাল[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ধারা ৫, পারিবারিক আদালত অধ্যাদেশ, ১৯৮৫

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]