সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভূগোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভূগোল
সংযুক্ত আরব আমিরাতের
মহাদেশএশিয়া
অঞ্চলমধ্যপ্রাচ্য
স্থানাংক২৪° উত্তর ৫৪° পূর্ব / ২৪° উত্তর ৫৪° পূর্ব / 24; 54
আয়তন৮৩,৬০০ কিমি (৩২,৩০০ মা)১১৪তম
১০০% ভূমি
০% জল
উপকূলরেখা১,৩১৮ কিমি (৮১৯ মা)
সীমানামোট ৮৬৭ কিমি (৫৩৯ মা)
সর্বোচ্চ বিন্দুজেবেল আল মেব্রাহ
১,৭২৭ মি (৫,৬৬৬ ফু)[১][২]
সর্বনিম্ন বিন্দুপারস্য উপসাগর
০ মি
দীর্ঘতম নদীনেই
বৃহত্তম হ্রদজাকের লেক
জলবায়ুশুকনো হালকা, মনোরম শীত; খুব গরম, আর্দ্র গ্রীষ্ম
ভূখণ্ডআলগা বালু এবং নুড়ি দ্বারা আবৃত পাহাড়ী ও অনুর্বর মরুভূমি
প্রাকৃতিক সম্পদখনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস, সামুদ্রিক সম্পদ
প্রাকৃতিক বিপদসমূহধোঁয়াশা, ধুলো ঝড়, সাধারণ বালির ঝড়
পরিবেশগত ইস্যুসীমিত প্রাকৃতিক মিঠা পানির সংস্থানগুলির বড় আকারের বিশোধন সুবিধার উপর নির্ভরতা বেড়ে চলেছে

সংযুক্ত আরব আমিরাত মধ্য প্রাচ্যদক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়ায় ওমান উপসাগরপারস্য উপসাগরের সীমানায় ওমানসৌদি আরবের মধ্যে অবস্থিত; এটি হরমুজ প্রণালীর উত্তরের পন্থাগুলি সহ একটি কৌশলগত অবস্থান, যা বিশ্বের খনিজ তেলের এক গুরুত্বপূর্ণ ট্রানজিট পয়েন্ট। সংযুক্ত আরব আমিরাত ২২°৫০′ থেকে ২৬° উত্তর অক্ষাংশ এবং ৫১° থেকে ৫৬°২৫′ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত। এর উত্তর-পশ্চিমে কাতারের সাথে ১৯ কিমি (১২ মা), পশ্চিম, দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্বে সৌদি আরবের সাথে ৫৩০ কিমি (৩৩০ মা) এবং দক্ষিণ-পূর্ব ও উত্তরপূর্বে ওমানের সাথে ৪৫০ কিমি (২৮০ মা) বিস্তৃত সীমানা সীমানা রয়েছে।

কাতারের সঙ্গে খওর আল উদয়দ এলাকার সীমানা একটি চলমান বিতর্কের উৎস (যদিও আসলে এর কাতারের সাথে সীমানে রয়েছে কিনা তা নিয়েই বিরোধ রয়েছে)।, সংযুক্ত আরব আমিরাতের মোট ক্ষেত্রফল প্রায় ৮৩,৬০০ বর্গকিলোমিটার (৩২,৩০০ বর্গমাইল)। পারস্য উপসাগরে কয়েকটি দীপপুঞ্জে বিতর্কিত দাবি রয়েছে এবং এর অনেকগুলি দ্বীপের সঠিক আঁকার না জানায় এবং এর অধিকাংশ ভুমি সীমানা বিশেষ করে সৌদি আরবের সাথে সীমানা অনির্দিষ্ট হওয়ার কারনে দেশটির সঠিক আকার অজানা। বৃহত্তম আমিরাত আবুধাবিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মোট ক্ষেত্রফলের (৭২,৭৩২ কিমি (২৮,০৮২ মা)) ৮৭% বিদ্যমান। ক্ষুদ্রতম আমিরাত আজমানের আয়তন শুধুমাত্র ২৫৯ কিমি (১০০ মা).

ক্ষেত্রফল এবং সীমানা[সম্পাদনা]

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভূসংস্থান

সংযুক্ত আরব আমিরাত ৬৫০ কিমি (৪০০ মা) এরও বেশি প্রসারিত পারস্য উপসাগরের দক্ষিণ তীর বরাবর অবস্থিত। উপকূলের বেশিরভাগ অংশে লবণের ডেকচিগুলি রয়েছে যা দূরবর্তী স্থলাভিমুখে প্রসারিত। বৃহত্তম বন্দরটি দুবাইতে রয়েছে। যদিও অন্যান্য বন্দরগুলি আবুধাবি, শারজাহ এবং অন্য স্থানে খনন করা হয়েছে। পারস্য উপসাগরে অসংখ্য দ্বীপপুঞ্জ রয়েছে এবং এর মধ্যে কয়েকটির মালিকানা নিয়ে ইরান ও কাতার উভয়ের সাথেই আন্তর্জাতিক বিরোধের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ছোট দ্বীপগুলির পাশাপাশি অনেকগুলি প্রবাল প্রাচীর এবং স্থানান্তরিত স্যান্ডবার নেভিগেশনের জন্য বিপদজনক। প্রবল জোয়ার এবং মাঝেমধ্যে বাতাসের ঝড় তীরের কাছাকাছি জাহাজ চলাচল আরও জটিল করে তোলে।

পর্বতমালা[সম্পাদনা]

সংযুক্ত আরব আমিরাত ওমান উপসাগর বরাবর আল-বাতিনাহ উপকূল হিসাবে পরিচিত প্রায় ৯০ কিমি (৫৬ মা) প্রসারিত একটি অঞ্চলে বিদ্যমান। পশ্চিম হাজর পর্বতমালা [৩] ( জিবল আল-আজর আল-ঘার্বি ) জায়গায় জায়গায় বৃদ্ধি পেয়ে ২,৫০০ মি (৮,২০০ ফু) উচু হয়ে আল-বাতিনাহ উপকূলকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাকি অংশ থেকে পৃথক করেছে। রস মুসান্দামের (মুসান্দাম উপদ্বীপ) পারস্য উপসাগরীয় উপকূলে সংযুক্ত আরব আমিরাত-ওমান সীমান্ত থেকে শুরু করে পশ্চিমা পর্বতগুলি দক্ষিণ-পূর্ব দিকে ওমান উপসাগরের সংযুক্ত আরব আমিরাত-ওমানের দক্ষিণতম সীমান্তে প্রায় ১৫০ কিমি (৯৩ মা) এর মতো বিস্তৃত। এটি পূর্ব হাজর পর্বতমালা ( জিবল আল-আজর আশ-শারিকা ) হিসেবে ৫০০ কিমি (৩১০ মা) এরও বেশি দূরে বিস্তৃত হয়ে ওমানে প্রবেশ করেছে। খাড়া পাহাড়ের ঢাল অনেক জায়গায় সরাসরি তীরে চলে যায়। তবুও ওমান উপসাগরের দিব্বা আল-হিসন, কালবা এবং খোর ফাক্কানে ছোট ছোট বন্দর রয়েছে। ফুজাইরার আশেপাশে যেখানে পাহাড় উপকূলের কাছে পৌঁছায় না, সেখানে বালুকাময় সৈকত রয়েছে

জলবায়ু[সম্পাদনা]

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবহাওয়া সাধারণত দিনের বেলাতে খুব গরম এবং রোদ থাকে তবে রাতে খুব শীত পড়ে। সবচেয়ে উষ্ণ মাসগুলি হলো জুলাই এবং আগস্ট, যখন উপকূলীয় সমভূমিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৫০ °সে (১২২.০ °ফা) এর উপরে পৌঁছে যায়। পশ্চিম হাজার পর্বতমালায় উচ্চতা বৃদ্ধির কারনে তাপমাত্রা তুলনামুলকভাবে শীতল থাকে। জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারিতে গড় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ থেকে ১৪ °সে (৫০.০ থেকে ৫৭.২ °ফা) এর মধ্যে থাকে। গ্রীষ্মের শেষের দিকে, শার্কি নামে পরিচিত একটি আর্দ্র দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় বায়ুপ্রবাহ উপকূলীয় অঞ্চলকে অপ্রীতিকর করে তোলে। উপকূলীয় অঞ্চলে গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত ১২০ মিমি (৪.৭ ইঞ্চি) এরও কম হয়। তবে কিছু পার্বত্য অঞ্চলে প্রায়শই ৩৫০ মিমি (১৩.৮ ইঞ্চি) বার্ষিক বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে। গ্রীষ্মের মাসগুলিতে উপকূলীয় অঞ্চলে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য মুষলধারে বৃষ্টিপাত হয়। যা কখনও কখনও সচরাচর শুকনো উপত্যকায় বন্যার সৃষ্টি করে। অঞ্চলটিতে মাঝেমধ্যে হিংস্র ধূলি ঝড়ের ঝুঁকিতে রয়েছে, যা দৃশ্যমানতা মারাত্মকভাবে হ্রাস করতে পারে। রস আল খাইমাহের জেবেল জাইস পর্বতগুচ্ছটিতে রেকর্ড শুরু হওয়ার পর থেকে মাত্র চারবার (২০০৪, ২০০৯, ২০১৭ এবং ২০২০) তুষারপাত হয়েছে। [৪][৫]

উদ্ভিদ ও প্রাণীজগত[সম্পাদনা]

সাধারণত মরুদ্যানগুলিতে খেজুরের পাশাপাশি বাবলা এবং ইউক্যালিপটাস গাছগুলি পাওয়া যায়। মরুভূমির মধ্যে উদ্ভিদ অনেক বেশি বিরল এবং মূলত ঘাস এবং কাঁটাঝোলা নিয়ে গঠিত।

প্রচুর পরিমানে শিকারের কারণে এই অঞ্চলের স্থানীয় প্রানীজগত পূর্বে বিলুপ্তির কাছাকাছি এসেছিল, যা শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান কর্তৃক বনি ইয়াস দ্বীপে ১৯৭০-এর দশকের সংরক্ষণ কর্মসূচির সূচনা করেছিল; এর ফলস্বরূপ অন্যান্যদের মধ্যে আরবীয় মৃগ এবং চিতাবাঘের প্রজাতি রক্ষা পেয়েছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] অঞ্চলটির উপকূলীয় মাছের মধ্যে মূলত ম্যাক্রেল, পার্চ, টুনা, হাঙ্গর এবং তিমি রয়েছে।

ক্ষেত্রফল এবং সীমানা[সম্পাদনা]

ক্ষেত্রফল:

  • মোট: ৮৩,৬০০ কিমি (৩২,৩০০ মা)
  • জমি: ৮৩,৬০০ কিমি (৩২,৩০০ মা)
  • পানি: ০   কিমি²

ভূমির সীমানা:

  • মোট: ৮৬৭ কিমি (৫৩৯ মা)
  • সীমান্ত দেশ: ওমান ৪১০ কিমি (২৫০ মা) ; সৌদি আরব ৪৫৭ কিমি (২৮৪ মা)

উপকূলরেখা: ১,৩১৮ কিমি (৮১৯ মা)

সামুদ্রিক দাবি:

  • স্বচ্ছ জোন: ২৪ নটিক্যাল মাইল (২৭.৬ মা; ৪৪.৪ কিমি)
  • মহীসোপান: ২০০ নটিক্যাল মাইল (২৩০.২ মা; ৩৭০.৪ কিমি) বা মহাদেশীয় প্রান্তের প্রান্তে
  • একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চল : ৫৮,২১৮ কিমি (২২,৪৭৮ মা) ২০০ নটিক্যাল মাইল (২৩০.২ মা; ৩৭০.৪ কিমি)
  • রাষ্ট্রাধীন সমুদ্র: ১২ নটিক্যাল মাইল (১৩.৮ মা; ২২.২ কিমি)

উচ্চতা:

সম্পদ এবং ভূমি ব্যবহার[সম্পাদনা]

  • প্রাকৃতিক সম্পদ: খনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস
  • ভূমির ব্যবহার:
    • আবাদযোগ্য জমি: ০.৭৭%
    • স্থায়ী ফসল: ২.২৭%
    • অন্যান্য: ৯৬.৯৬% (২০০৫)
    • সেচ জমি: ২,৩০০ কিমি (৮৯০ মা) (২০০৩)
  • মোট নবায়নযোগ্য জল সংস্থান: ০.২   কিমি 2

পরিবেশগত উদ্বেগ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

মন্তব্য[সম্পাদনা]

  1. Jebel Jais is the highest mountain in the UAE with a height of ১,৯৩৪ মি (৬,৩৪৫ ফু), but because its peak is in Oman, Jebel Yibir or Mebrah has the highest peak[১][২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Jabal Yibir"। Dangerousroads.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-১২ 
  2. "Geography of United Arab Emirates, Landforms - World Atlas"www.worldatlas.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  3. Lancaster, Fidelity; Lancaster, William (২০১১)। Honour is in Contentment: Life Before Oil in Ras Al-Khaimah (UAE) and Some Neighbouring RegionsWalter de Gruyter। পৃষ্ঠা 3–598। আইএসবিএন 3-1102-2339-2 
  4. Nasouh Nazzal (২০০৯-০১-২৪)। "Heavy snowfall on Ras Al Khaimah's Jebel Jais mountain cluster"Gulf News। ২০০৯-০২-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০১-৩১ 
  5. "Watch: Snowfall in UAE, temperature hits -2.2 degree"Khaleej Times। ২০১৭-০২-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-০৫