আবুল আহসান চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডঃ

আবুল আহসান চৌধুরী
জন্ম (1953-01-13) ১৩ জানুয়ারি ১৯৫৩ (বয়স ৬৬)
মজমপুর, কুষ্টিয়া জেলা, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ)
পেশাঅধ্যাপক, লেখক, গবেষক
ভাষাবাংলা
জাতীয়তাবাংলাদেশী
শিক্ষাপিএইচডি (বাংলা সাহিত্য)
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিস্বদেশ আমার বাঙলা
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারবাংলা একাডেমি পুরস্কার
সক্রিয় বছর১৯৭১-বর্তমান

আবুল আহসান চৌধুরী (জন্ম: ১৩ জানুয়ারি, ১৯৫৩) হলেন একজন বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ, লেখক, গবেষক ও লোকসাহিত্য বিশারদ। তাঁর লেখার বিষয়বস্তু লোকসাহিত্য, উনিশ শতকের কবি-সাহিত্যিক, আধুনিক সাহিত্য এবং ইতিহাস। লালন, কাঙাল হরিনাথ, মীর মশাররফ হোসেনরবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে তিনি বিশদ গবেষণা করেছেন। গবেষণায় অবদানের জন্য তিনি ২০১০ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আবুল আহসান চৌধুরী ১৯৫৩ সালের ১৩ জানুয়ারি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) কুষ্টিয়া জেলার মজমপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ফজলুল বারি চৌধুরী (১৯০৪-১৯৭৪) ছিলেন একজন সাহিত্যিক, সমাজসেবী ও সাবেক অনানারি ম্যাজিস্ট্রেট। তার মাতা সালেহা খাতুন (১৯১৪-১৯৮৯)। আবুল আহসান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে ১৯৭৫ সালে স্নাতক, ১৯৭৬ সালে স্নাতকোত্তর ও ১৯৯৫ সালে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

শিক্ষকতা দিয়ে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়া তিনি ১৯৭৫ থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত লোকসাহিত্য গবেষণা বিষয়ক সাহিত্য পত্রিকা লোকসাহিত্য পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন।

সাহিত্যকর্ম[সম্পাদনা]

কাব্যগ্রন্থ
  • স্বদেশ আমার বাঙলা (১৯৭১, কবিকন্ঠ প্রকাশনী, কলকাতা)
  • নীলকণ্ঠ জীবন তুমি (১৯৭৪, জাগরনী প্রকাশন)

গবেষণা গ্রন্থ

  • কুষ্টিয়ার বাউলসাধক (১৯৭৪, গনলোক প্রকাশনী)
  • কাঙাল হরিনাথ মজুমদার (১৯৮৮, বাংলা একাডেমি)
  • জগদীশ গুপ্ত (১৯৮৮, বাংলা একাডেমি)
  • মুন্সী শেখ জিমিরুদ্দিন (১৯৮৯, বাংলা একাডেমি)
  • ভাই গিরিশচন্দ্র সেন (১৯৮৯, বাংলা একাডেমি)
  • লালন শাহ (১৭৭৪ - ১৮৯০) (১৯৯০, বাংলা একাডেমি)
  • জলধর সেন (১৯৯০, বাংলা একাডেমি)
  • মোহাম্মদ দাদ আলী (১৯৯২, বাংলা একাডেমি)
  • নেয়ামাল বাসির (১৯৯৩, বাংলা একাডেমি)
  • মীর মশাররফ হোসেন (১৯৯৩, বাংলা একাডেমি)
  • মনের মানুষের সন্ধানে (১৯৯৫, শিল্পতরু প্রকাশনী)
  • পাগলা কানাই (১৯৯৫, বাংলা একাডেমি)
  • সমাজ, সমকাল ও লালন শাঁই (১৯৯৬, সূচনা, কলকাতা)
  • মীর মশাররফ হোসেন: সাহিত্যকর্ম ও সমাজচিন্তা (১৯৯৬, বাংলা একাডেমি)
  • লোক সংস্কৃতি বিবেচনা ও অন্যান্য প্রসঙ্গ (১৯৯৭, বাংলা একাডেমি)
  • সাহিত্যের রুপকার – পূনর্বিচারের অবলোকন (১৯৯৯, বাংলা একাডেমি)
  • আব্দুল হামিদ খান ইউসুফজয়ী (২০০১, বাংলা একাডেমি)
  • সৈয়দ আব্দুর রব (২০০২, বাংলা একাডেমি)
  • আব্বাসউদ্দিন (২০০২, লোকসংস্কৃতি ও আদিবাসী সংস্কৃতি কেন্দ্র, কলকাতা)
  • অন্তরঙ্গ অন্নদাশঙ্কর (২০০৪)
  • আলাপচারী আহমদ শরীফ (২০০৭)
  • বাঙালির কলের গান (২০১২, বেঙ্গল পাবলিকেশন্স)[১]
  • অন্তরঙ্গ দেবযানী (২০১৬)
  • মীর মশাররফ হোসেন অপ্রকাশিত ডায়েরি
  • কালান্তরের পথিক লালন
  • মূল্যায়নের মানচিত্র
  • অজ্ঞাত নজরুলের সন্ধানে
  • লালন সাঁই ও উত্তরসূরি
  • রবীন্দ্রনাথ : বাউলসংস্কৃতি ও অন্যান্য
  • হাসন রাজা: মরমি মৃত্তিকার ফসল
  • রবীন্দ্রনাথ ও লালন
  • লালন সাঁইয়ের সন্ধানে
  • অবিদ্যার অন্তঃপুরে : নিষিদ্ধ পল্লীর অন্তরঙ্গ কথকতা
  • রবীন্দ্রনাথ ও লোকসংস্কৃতি
  • রবীন্দ্রনাথ-সংগৃহীত লালনের গানের পাণ্ডুলিপি
  • সুফিয়া কামাল: অন্তরঙ্গ আত্মভাষ্য
  • তিন পাগলের মেলা : লালন-কাঙাল-মশাররফ
  • সৃজন-মননের চালচিত্র

সম্পাদিত গ্রন্থ

  • লালন স্মারকগ্রন্থ (১৯৭৪, বাংলাদেশ জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র)
  • মীর মোশাররফ হোসেনের ‘সঙ্গীত লহরী’ (১৯৭৬, গণলোক প্রকাশনী)
  • কুষ্টিয়ার ইতিহাস - ঐতিহ্য (১৯৭৮, কুষ্টিয়া সাহিত্য পরিষদ)
  • ভাষা আন্দোলনের দলিল (১৯৮৮, বাংলাদেশ ভাষা সমিতি)
  • কাজী মোতাহের হোসেন রচনাবলী (১৯৯২, বাংলা একাডেমি)
  • মহিন শাহের পদাবলী (১৯৯৩, বাংলা একাডেমি)
  • প্রসঙ্গ হাছন রাজা (১৯৯৮, বাংলা একাডেমি)
  • কাজী আব্দুল ওদুদের পত্রাবলী (১৯৯৯, বাংলা একাডেমি)
  • রবীন্দ্রনাথের অপ্রকাশিত পত্রাবলী (২০০০, পাঠক সমাবেশ)
  • বিস্মৃত সুরশিল্পীকে, মল্লিক, অপ্রকাশিত আত্মকথা (২০০১, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর)
  • লালনসমগ্র (২০০৮, পাঠক সমাবেশ)
  • অন্নদাশঙ্কর রায় মন-মননের পত্রাবলি (২০১৬)[২]
  • মীর মশাররফ হোসেন নাট্যসমগ্র
  • আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ ঐতিহ্য অন্বেষার প্রাজ্ঞ পুরুষ
  • নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর অপ্রকাশিত পত্রাবলি
  • তিরিশের কবিদের অপ্রকাশিত পত্রাবলী (পাঠক সমাবেশ)
  • জমীদার দর্পণ
  • বিষাদ সিন্ধু
  • রবীন্দ্রভাবনায় মুসলিম পড়শি

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • পশ্চিমবঙ্গ লালনমেলা সমিতি থেকে লালন পুরস্কার (২০০০)
  • ফরিদপুর থেকে সৈয়দ আব্দুর রব সংবর্ধনা (২০০১)
  • গবেষণায় বাংলা একাডেমি পুরস্কার (২০১০)[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাঙালির কলের গান"বেঙ্গল পাবলিকেশন্স। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  2. "অমর একুশে বইমেলার নতুন বই"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  3. "বাংলা একাডেমী পুরস্কার ঘোষণা"দৈনিক প্রথম আলো। ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]