গুণ (গণিত)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
৪টি থলের প্রতিটিতে ৩টি করে মার্বেলের গুলি থাকলে মোট ১২টি গুলি আছে (৪ × ৩ = ১২)।

গুণ বা গুণন হল দুই বা ততোধিক সংখ্যার মধ্যে এক প্রকার গাণিতিক ক্রিয়া। এটা প্রাথমিক অঙ্কশাস্ত্রের চারটি মৌলিক ক্রিয়ার একটি (অন্যান্য ক্রিয়াগুলি হল যোগ, বিয়োগ এবং ভাগ)।

গুণকে প্রায়ই আড়াআড়ি ক্রশ চিহ্ন "×" দ্বারা সূচিত করা হয়। এছাড়া গুণে ব্যবহৃত সংখ্যাগুলির অভ্যন্তরে বিন্দু বসিয়ে, কিংবা এগুলিকে একে অপরের পাশাপাশি বসিয়ে অথবা কম্পিউটারের ক্ষেত্রে এগুলির মধ্য তারাচিহ্ন "∗" বসিয়ে গুণন ক্রিয়া নির্দেশ করা হতে পারে।

দুইটি পূর্ণ সংখ্যার গুণকে পৌনঃপূণিক যোগ ক্রিয়া হিসেবে কল্পনা করা যেতে পারে। অর্থাৎ দুইটি পূর্ণ সংখ্যা "ক" এবং "খ"-এর মধ্যকার গুণ হচ্ছে "ক"-এর যে সংখ্যামান আছে, "খ"-কে তার নিজের সাথে সেই সংখ্যক বার যোগ করা। এক্ষেত্রে "ক"-কে গুণক এবং "খ"-কে 'গুণনীয় বলা হয়। গুণ ক্রিয়ার ফলাফলকে গুণফল বলা হয়। "ক" এবং "খ"-কে এই গুণফলের গুণনীয়ক বা উৎপাদক-ও বলা হয়।

উদাহরণস্বরূপ, ৪-কে ৩ দিয়ে গুণ করার সময় ৪-এর তিনটি অনুলিপি যোগ করে গুণফল বের করা সম্ভব:

৪ × ৩ = ৪ + ৪ + ৪ = ১২

এখানে ৩ (গুণক) ও ৪ (গুণনীয়) হল গুণনীয়ক এবং ১২ হল গুণফল।

গুণের প্রধান একটি ধর্ম হল এর বিনিময়যোগ্যতা। ৩-কে ৪ দিয়ে গুণ করলে কিংবা ৪-কে ৩ দিয়ে গুণ করলে একই গুণফল পাওয়া যাবে।

৩ × ৪ = ৩ + ৩ + ৩ + ৩ = ১২

অর্থাৎ গুণক বা গুণনীয় অভিধাগুলি গুণফলের কোন পরিবর্তন করে না।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]