লাভ ইন নেপাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লাভ ইন নেপাল
লাভ ইন নেপাল.jpg
লাভ ইন নেপাল চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালকরজত মুখার্জী
প্রযোজকরজত অরোরা
রচয়িতাসমীর অরোরা
শ্রেষ্ঠাংশেসোনু নিগম
রাজপাল যাদব
ফ্লোরা সাইনি
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকটি-সিরিজ
মুক্তি
  • ৫ মার্চ ২০০৪ (2004-03-05)
দেশভারত
ভাষাহিন্দি

লাভ ইন নেপাল (ইংরেজি: Love in Nepal) একটি বলিউড নির্মিত, হিন্দি ভাষার রহস্য ও প্রেমকাহিনী মূলক চলচ্চিত্র। এই সিনেমাটি ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয়। এতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন ভারতীয় গায়ক সোনু নিগম। লাভ ইন নেপালের পরিচালক ছিলেন রজত মুখার্জী।[১][২]

কাহিনী[সম্পাদনা]

অভিনব ওরফে এব্বি একজন সৃষ্টিশীল কিন্তু বেহিসেবি চরিত্রের মানুষ। সে কোম্পানীর ক্রিয়েটিভ প্রধান হিসেবে কাজ করে। তার বন্ধু কোম্পানীর ম্যানেজার জর্জ তাকে জানায় নামকরা মার্কিন কোম্পানি আটলান্টা তাদের কোম্পানীর সাথে একত্র হতে ইচ্ছুক। সেই বিষয়ের মিটিং এ এব্বি উপস্থিত হতে পারেনা নিজের খামখেয়ালীপনার জন্যে। যদিও জর্জ ও কোম্পানির আরেক কর্মী এব্বির ঘনিষ্ঠ বান্ধবী স্যান্ডি সবসময় তার পাশে থাকে। দুই কোম্পানী একত্রিত হলে নতুন প্রধান হয়ে আসেন শ্রীমতি মিনাক্ষী ওরফে ম্যাক্সি। প্রথমে এব্বির কাজকর্ম ম্যাক্সির অপছন্দ হলেও সে বুঝতে পারে এব্বি প্রতিভাবান এবং নিয়ম শৃংখলা মানেনা। তারা কোম্পানীর বিজ্ঞাপনের চিত্রগ্রহণ কর‍তে নেপালে রওনা দেয়। প্লেনে তানিয়া নামক একটি মেয়ের সাথে এব্বির আলাপ হয়। নেপাল পৌঁছে তাদের গাইডের কাজ করে বান্টি। শুটিং এর সময় ম্যাক্সি ও এব্বির ঘনিষ্ঠতা হলে তারা একে অপরকে ভালবাসতে শুরু করে কিন্তু তানিয়াকে নিয়ে নিজেদের মধ্যে সমস্যা শুরু হয়। এব্বি হতাশ হয়ে অতিরিক্ত মদ্যপান করে এবং সেই অবস্থায় তানিয়া তাকে ঘরে নিয়ে যায়। জ্ঞান ফিরে আসার পর এব্বি দেখে তানিয়াকে কেউ নৃশংস ভাবে হত্যা করে বিছানায় তার পাশে শুইয়ে রেখেছে। এব্বি আতঙ্কিত হয়ে নিজের ঘরে চলে আসে। ইতিমধ্যে বার টেন্ডার ও ড্যান্স গার্লকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ অফিসার পৃথ্বী সিং সন্দেহ করে এব্বিকে। এসময় স্যান্ডি ও ম্যাক্সি এব্বিকে সাহায্য করে পালাতে। এব্বি বার বার গুজ্জি বলে ব্যক্রির ফোন পেতে থাকে যে হুমকি দেয় প্রচুর টাকার মাল ফেরত দিতে। সে বুঝতে পারেনা এই 'মাল' কি এবং তার সাথে তানিয়া হত্যার যোগাযোগ কিভাবে ঘটল। বান্টি গাইড এব্বিকে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দেয়। সে জানায় তানিয়াকে সে চিনতো এবং নিয়মিত তানিয়া একটি নাইট ক্লাবে যেত। বান্টি তাকে সেই ক্লাবে নিতে যায় যেখানে তানিয়ার যাতায়াত ছিল। এব্বি ও ম্যাক্সি সেখানে গিয়ে তানিয়ার খোঁজ করতে গেলে তারা টনির খপ্পরে পড়ে। টনি পোখরা'র বিরাট মাদক পাচারকারী। গুজ্জু তারই বন্ধু। টনিকে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে বান্টির সাহায্যে তারা পালাবার চেষ্টা করে ভারতে। বান্টি তাদের রাত্রে একটি নির্জন বাংলোয় রেখে আসে ও বলে পরের দিন নিরাপদে পালাতে সাহায্য করবে। টনির দলবল আচমকা হানা দেয় সেই বাড়িতে। ভুত সেজে দুজনে অপরাধীদের হাত থেকে বাঁচার চেষ্টা করে। এদিকে স্যান্ডি পুলিশকে পুরো ঘটনা খুলে বলে সাহায্য চায় কারণ আসল অপরাধী এব্বি নয়। অন্য কেউ যে সেই মাল অর্থাৎ ড্রাগস সরিয়ে রেখেছে ও তানিয়াকে খুন করেছে।

অভিনয়[সম্পাদনা]

সঙ্গীত[সম্পাদনা]

  • এক আনজান লেডকি সে - সোনু নিগম
  • বোলো ক্যায়া খ্যায়াল হ্যায় - সোনু নিগম, সুনিধি চৌহান
  • কাতরা কাতরা - সুনিধি চৌহান
  • লাভ ইন নেপাল - সোনু নিগম
  • মুশকিল হ্যায় - সোনু নিগম
  • সাট্টা মার লে - সোনু নিগম, হেমা সরদেশাই

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Love in Nepal (2004)"imdb.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৭ 
  2. "Love In Nepal"bollywoodlife.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৭