ব্যবহারকারী:Owais Al Qarni/খেলাঘর ১১

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন
অধ্যাপক, ওমর গণি এম.ই.এস কলেজ
অফিসে
১৯৯৩ – ২০১৯
ব্যক্তিগত
জন্ম১৯৫৬
সাতকানিয়া, চট্টগ্রাম
ধর্মইসলাম
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পিতামাতা
  • মাওলানা মুহাম্মাদ হাবিবুল্লাহ (পিতা)
জাতিসত্তাবাঙালি
যুগআধুনিক
আখ্যাসুন্নি
ব্যবহারশাস্ত্রহানাফি
আন্দোলনদেওবন্দি
প্রধান আগ্রহহাদীস শাস্ত্র, ইসলামি ইতিহাস, লেখালেখি, গবেষণা
যেখানের শিক্ষার্থী
স্বাক্ষরSignature of AFM Khalid Hossain.png
ঊর্ধ্বতন পদ

ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন একজন বাংলাদেশি ইসলামি পন্ডিত, হানাফি সুন্নি আলেম, ধর্মীয় লেখক, সম্পাদক ও ইসলামি আলোচক। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক নয়া দিগন্তের উপসম্পাদক ও আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ার মুখপাত্র মাসিক আত তাওহীদের সম্পাদক। ২০১৯ এর শেষের দিকে তিনি চট্টগ্রাম উমর গণি এম.ই.এস কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগে অধ্যাপনা থেকে অবসর গ্রহণ করেন।[১]

জন্ম ও বংশ[সম্পাদনা]

খালিদ হোসেন ১৯৫৯ সালে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম হাবিবুল্লাহ।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

১৯৬৯ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত তিনি আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ায় লেখাপড়া করেন।

১৯৭১ সালে সাতকানিয়া আলিয়া মাহমুদুল উলুম মাদরাসা হতে প্রথম বিভাগে আলিম ও ১৯৭৩ সালে ফাযিল পাশ করেন।

১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত চট্টগ্রাম চন্দনপূরা দারুল উলুমে হাদীস অধ্যয়ন করেন। ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড থেকে হাদীসে কামিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। আশরাফ আলী থানভীর শিষ্য মাওলানা মুহাম্মদ আমিনের কাছে বোখারী শরিফ, মাওলানা মতিউর রহমান নিযামীর কাছে মুসলিম শরিফ, মাওলানা ইসমাইল আরাকানী কাছেমীর কাছে তিরমিযি শরিফ, মাওলানা নাওয়াব হাসান কাছেমির কাছে আবু দাউদ শরিফ পড়েছেন।

১৯৮২ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তারীখে ইসলাম ওয়াস সাকাফাহ বিষয়ে বিএ (অনার্স) ও ১৯৮৩ সালে একই বিষয়ে এমএ পাশ করেন।

২০০৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কলারশিপ নিয়ে হাদীসে রাসূল (সা.)-এর ওপর পিএইচডি সম্পন্ন করেন।

চট্টগ্রামের আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ার আচার্য মাওলানা আব্দুল হালিম বুখারী তার উস্তাদ।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি সাতকানিয়া মাহমুদুল উলুম আলিয়া মাদরাসায় প্রায় ৬ বছর আরবী ও ইসলামিয়াতের শিক্ষক ছিলেন।

আল্লামা হারুন ইসলামাবাদীর আমলে পটিয়া মাদরাসায় বাংলা ও গবেষণা বিভাগে তিনি ৫ বছর শিক্ষকতা করেছেন।

আল্লামা সুলতান যওক নদভীর আহ্বানে তিনি চট্টগ্রাম দারুল মাআরিফে ‘ওসিলাতুল ইলাম’ বিষয়ে ১ বছর দরস প্রদান করেন।

তিনি প্রায় ২৬ বছর চট্টগ্রাম এম.ই.এস কলেজে ইসলামের ইতিহাস বিভাগে অধ্যাপনা করেছেন।

তাসাউফ[সম্পাদনা]

তিনি নানুপুর মাদ্রাসার শাহ জমির উদ্দীনের কাছে বায়আত গ্রহণ করেন এবং খেলাফত লাভ করেন। নানুপুরীর ইন্তেকালের পর তিনি শাহ আহমদ শফীর হাতে বায়আত হন।

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

তিনি আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়া থেকে নিয়মিত প্রকাশিত মাসিক আত তাওহীদের সম্পাদক ও আরবি পত্রিকা বালাগুশ শরকের সহকারী সম্পাদক। বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক নয়া দিগন্তের তিনি উপসম্পাদক। এছাড়াও তিনি দেশ বিদেশের বিভিন্ন পত্রিকা ও সাময়িকীতে সমসাময়িক ইস্যুতে প্রবন্ধ-নিবন্ধ লিখে থাকেন।

তার রচিত ও সম্পাদিত গ্রন্থ সমূহের মধ্যে রয়েছেঃ

১. মাসলাকে ওলামায়ে দেওবন্দ (অনুবাদ) মূলঃ কারী মুহাম্মদ তৈয়ব

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বিশেষজ্ঞ আলেমের প্রয়োজন খুব বেশি: ড. আফম খালিদ হুসাইন"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-০৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

বিষয়শ্রেণী:১৯৫৬-এ জন্ম বিষয়শ্রেণী:জীবিত ব্যক্তি বিষয়শ্রেণী:দেওবন্দী আলেম বিষয়শ্রেণী:দেওবন্দি উলামা বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশের ইসলামী চিন্তাবিদ বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশী লেখক বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশী গবেষক বিষয়শ্রেণী:চট্টগ্রাম জেলার ইসলামী ব্যক্তিত্ব বিষয়শ্রেণী:আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ার প্রাক্তন শিক্ষার্থী বিষয়শ্রেণী:চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী বিষয়শ্রেণী:সুন্নি ইসলামের পণ্ডিত বিষয়শ্রেণী:হানাফি ফিকহ পণ্ডিত বিষয়শ্রেণী:২০শ শতাব্দীর ইসলামের মুসলিম পণ্ডিত