জীবন মেন্ডিস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
জীবন মেন্ডিস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম বালাপুবাদুগে মানুকুলাসুরিয়া অমিত জীবন মেন্ডিস
জন্ম (১৯৮৩-০১-১৫) ১৫ জানুয়ারি ১৯৮৩ (বয়স ৩৫)
কলম্বো, ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স, শ্রীলঙ্কা
ব্যাটিংয়ের ধরন বামহাতি
বোলিংয়ের ধরন লেগ ব্রেক
ভূমিকা অল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৪৫)
১ জুন ২০১০ বনাম জিম্বাবুয়ে
শেষ ওডিআই ২৯ নভেম্বর ২০১৪ বনাম ইংল্যান্ড
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৮)
২৫ জুলাই ২০১১ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টি২০আই ২ আগস্ট ২০১৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
টি২০আই শার্ট নং
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১৩ দিল্লি ডেয়ারডেভিলস[১]
২০১০-১১ রুহুনা
২০০৯-১০ ঢাকা বিভাগ
২০০৮/০৯9–২০০৯/১০ কন্দুরাতা
২০০৮/০৯–বর্তমান তামিল ইউনিয়ন ক্রিকেট ও অ্যাথলেটিক ক্লাব
২০০২/০৩–২০০৭/০৮ সিংহলীজ স্পোর্টস ক্লাব
২০০০/০১ ব্লুমফিল্ড ক্রিকেট ও অ্যাথলেটিক ক্লাব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৯ ১৬ ১১১ ১৪১
রানের সংখ্যা ৪৬৮ ১৯৭ ৫,৩১৭ ২,৫১৩
ব্যাটিং গড় ২০.৩৪ ২১.৮৮ ৩৫.২১ ২৪.৮৮
১০০/৫০ –/১; ০/০ ১১/২৭ –/১২
সর্বোচ্চ রান ৭২ ৪৩* ২০৬* ৯৯*
বল করেছে ৯৪৭ ১৫৮ ৭,৪১০ ২,৯৮৩
উইকেট ২৩ ১৩২ ৭৯
বোলিং গড় ৩৩.৯৫ ১৯.৩৩ ২৬.৩৫ ২৯.৩২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/১৫ ৩/২৪ ৬/৩৭ ৫/২৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮/– ৪/– ৯৭/– ৪৮/১
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ক্রিকইনফো, ১২ আগস্ট ২০১৩

বালাপুবাদুগে মানুকুলাসুরিয়া অমিত জীবন মেন্ডিস (জন্ম: ১৫ জানুয়ারি, ১৯৮৩) কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারশ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য জীবন মেন্ডিস বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছেন। শ্রীলঙ্কার অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলে অধিনায়কত্ব করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০০-০১ মৌসুমে তার অভিষেক ঘটে। পরের মৌসুমেই তিনি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলকে নেতৃত্ব দেন। ২০০৫ সালে শ্রীলঙ্কা এ-দলে প্রতিনিধিত্ব করেন। বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট লীগে ঢাকা ডিনামাইটস দলেও টুয়েন্টি২০ ক্রিকেট খেলেছেন তিনি।

১ জুন, ২০১০ তারিখে জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠিত ত্রি-দেশীয় সিরিজের তৃতীয় খেলায় তার অভিষেক হয়। খেলায় তিনি ব্যাটিং করার সুযোগ না পেলেও বল হাতে ৪ ওভার বোলিং করে ১২ রান দিয়ে ২ উইকেট লাভ করেন। অবশেষে নিজস্ব দ্বিতীয় খেলায় ব্যাটিং করে ৩৫ বলে ৩৫ রান সংগ্রহ করেন।

টুয়েন্টি২০ বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

শ্রীলঙ্কার হাম্বানতোতায় অনুষ্ঠিত ২০১২ সালে টুয়েন্টি২০ বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দারুণ খেলেন তিনি। দলের সংগ্রহ ১১.৩ ওভারে ৮২/৩ উইকেট হলে, তিনি ৩০ বলে অপরাজিত ৪৩* রান করেন। তার ইনিংসে ৪ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কার মার ছিল। কুমার সাঙ্গাকারা’র জুটি গড়ে ৪৯ বলে ৯৪ রান তোলেন। তার অসামান্য নৈপুণ্যে দল জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ১৮২/৪। এরপূর্বে বোলিংয়ে নেমে ৪ ওভারে ২৪ রানে তিন উইকেট পান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]