ডেভিড হুকস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডেভিড হুকস
ডেভিড হুকস.jpg
২০০৪ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে ডেভিড হুকস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামডেভিড উইলিয়াম হুকস
জন্ম(১৯৫৫-০৫-০৩)৩ মে ১৯৫৫
মাইল এন্ড, অ্যাডিলেড, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু১৯ জানুয়ারি ২০০৪(2004-01-19) (বয়স ৪৮)
প্রাহরান, মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান, কোচ, ধারাভাষ্যকার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৭৬)
১২ মার্চ ১৯৭৭ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৬ ডিসেম্বর ১৯৮৫ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩২)
২ জুন ১৯৭৭ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই১২ জানুয়ারি ১৯৮৬ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৫-১৯৯২দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৩ ৩৯ ১৭৮ ৮২
রানের সংখ্যা ১৩০৬ ৮২৬ ১২৬৭১ ২০৪১
ব্যাটিং গড় ৩৪.৩৬ ২৪.২৯ ৪৩.৯৯ ২৭.৫৮
১০০/৫০ ১/৮ ০/৫ ৩২/৬৫ ১/১১
সর্বোচ্চ রান ১৪৩* ৭৬ ৩০৬* ১০১
বল করেছে ৯৬ ২৯ ৪২৯০ ৫৯১
উইকেট ৪১ ১৫
বোলিং গড় ৪১.০০ ২৮.০০ ৫৮.০২ ৩৩.৪৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৪ ১/২ ৩/৫৮ ৫/৪১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১২/– ১১/– ১৬৭/– ৩৭/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ আগস্ট ২০১৭

ডেভিড উইলিয়াম হুকস (ইংরেজি: David Hookes; জন্ম: ৩ মে, ১৯৫৫ - মৃত্যু: ১৯ জানুয়ারি, ২০০৪) অ্যাডিলেডের মাইল এন্ড এলাকায় জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলিয়ার প্রথিতযশা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার, কোচ ও ধারাভাষ্যকার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। আক্রমণধর্মী বামহাতি ব্যাটসম্যান ডেভিড হুকস মূলতঃ মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান ছিলেন।[১] এছাড়াও তিনি দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে অধিনায়কত্ব করেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ কয়েকবছর শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটারের মর্যাদা পান। এ প্রসঙ্গে উইজডেন অভিহিত করে যে, ‘তিনি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সাফল্য পেয়েছেন মূলতঃ দ্বিতীয় শ্রেণীর বোলিংয়ের কারণে।’[২] ১৯৮২ সালে ভিক্টোরিয়ার বিপক্ষে মাত্র ৩৪ বলে শতরান করেন।

১৯৮৩-৮৪ মৌসুমে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে নিয়মিত অধিনায়কের দায়িত্বে থাকাকালে তার অনুপস্থিতিতে দলের অধিনায়কত্ব লাভ করেন কেভিন রাইট

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৭৭ সালে মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত শতবার্ষিকী টেস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। খেলায় তিনি ইংরেজ অধিনায়ক টনি গ্রেগের বলে ধারাবাহিকভাবে পাঁচটি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন। তা স্বত্ত্বেও অস্ট্রেলিয়া দলে নিয়মিত সদস্য হতে পারেননি। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনি মাত্র ২৩ টেস্টে অংশ নিতে পেরেছেন।[২]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

শেফিল্ড শিল্ডে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হিসেবে খেলোয়াড়ী জীবনের সমাপ্তি ঘটান। ১৯৯০-৯১ মৌসুমে ডেভিড হুকসকে প্রথমবারের মতো সাউথ অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ আর্থিক সুবিধা গ্রহণের বছর হিসেবে সম্মাননা প্রদান করে। পরের মৌসুমে পিটার স্লিপকে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে সম্মানিত করে।[৩]

বিতর্কিত ভূমিকা[সম্পাদনা]

২০০৩ সালে সফরকারী বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে টেস্ট খেলার পূর্বে সফরকারী দলের বিরুদ্ধে বিরূপ মন্তব্য করে বিতর্কের সৃষ্ট করেন। তিনি বলেছিলেন যে, অস্ট্রেলিয়া টেস্টের প্রথম দিনেই ফলাফল এনে দিতে সক্ষম।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Cricinfo - Playing hooky
  2. Cricinfo.com: David Hookes player profile.
  3. Grose, J. (1990) Hookesy – David Hookes Testimonial Year, South Australian Cricket Association: Adelaide.
  4. Isam, Mohammad। "Hannan Sarkar's Cricinfo Profile"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
কিম হিউজ
অস্ট্রেলীয় ওডিআই অধিনায়ক
১৯৮৩
উত্তরসূরী
অ্যালান বর্ডার