জেমি কক্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জেমি কক্স
Jamie Cox.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজেমি কক্স
জন্ম (1969-10-15) ১৫ অক্টোবর ১৯৬৯ (বয়স ৪৯)
বার্নি, তাসমানিয়া, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮৭-২০০৬তাসমানিয়া
২০০১-২০০৪সমারসেট
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ২৬৪ ১৯২
রানের সংখ্যা ১৮৬১৪ ৫৭১৬ ১৩৯
ব্যাটিং গড় ৪২.৬৯ ৩১.৭৫ ২৩.১৬
১০০/৫০ ৫১/৮১ ৬/৩৯ ০/১
সর্বোচ্চ রান ২৫০ ১৩১ ৫৩
বল করেছে ৭২৯ ১৮০
উইকেট
বোলিং গড় ৯৪.০০ ৩৬.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৩/৪৬ ৩/২৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১২৪/– ৬৩/– ২/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ৫ মে ২০১৮

জেমি কক্স (ইংরেজি: Jamie Cox; জন্ম: ১৫ অক্টোবর, ১৯৬৯) তাসমানিয়ার বার্নি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা প্রথম-শ্রেণীর সাবেক অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে তাসমানিয়ান টাইগার্স ও ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে সমারসেটের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শীতা দেখিয়েছেন তিনি।

১৯৮৭ থেকে ২০০৬ সালে পর্যন্ত তাসমানিয়া ও ২০০১ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত সমারসেটের পক্ষে খেলেছেন তিনি। কাউন্টিতে সমারসেটের অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন জেমি কক্স। এছাড়াও, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দল নির্বাচকমণ্ডলীর সাবেক সদস্য ছিলেন।[১] এরপূর্বে সাউথ অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনে ক্রিকেট পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন তিনি।[২] বর্তমানে এএফএলে সেন্ট কিল্ডা ফুটবল ক্লাবে জেনারেল ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন।[৩]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

১৫ অক্টোবর, ১৯৬৯ তারিখে তাসমানিয়ার বার্নি এলাকায় জেমি কক্সের জন্ম। তরুণ বয়সেই বেশকিছু ব্যাটিং রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেন। উচ্চ বিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালীন বিল লরি’র গড়া পূর্বেকার ব্যাটিং রেকর্ড ভঙ্গ করেন। ১৫ বছর বয়সে ১৯৮৪ সালে উইনইয়ার্ডের পক্ষে প্রথম স্তরের ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন।

তরুণ অবস্থায় জেমি কক্স অস্ট্রেলিয়ান রুলস ফুটবলে স্থানীয় দল উইনইয়ার্ডের পক্ষাবলম্বন করেন। এরপর ১৯৮৭ সালে ভিক্টোরিয়ান ফুটবল লীগে এসেনডন ফুটবল ক্লাবে প্রাথমিকভাবে যুক্ত হন। তবে, তিনি কখনো বোম্বার্সের সাথে বড়দের খেলায় অংশ নেননি। এর পরিবর্তে ক্রিকেটের দিকেই মনোনিবেশ ঘটান।

প্রথম মৌসুমেই প্রথম স্তরের ক্রিকেটে তাসমানিয়ার সদস্যরূপে ডেন হিলসের সাথে জুটি গড়ে নতুন রেকর্ড স্থাপন করেন। এরপর ১৯৮৭ সালে ১৮তম জন্মদিনের পূর্বেই প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের দিকে ধাবিত হন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে খেলার প্রত্যাশা পূরণের পর টেস্ট ক্রিকেটে দলের অধিনায়কত্ব লাভের স্বপ্ন ছিল তাঁর। প্রথম পাঁচ মৌসুমে হিলসের দূর্দান্ত ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন স্বত্ত্বেও কক্সের ব্যাটিং গড় ৩০-এর নীচে ছিল।

১৯৯২ সালে ২৩ বছর বয়সে জেমি কক্স প্রথমবারের মতো তাঁর সেরা মৌসুম অতিবাহিত করেন। এ পর্যায়ে তাঁর ব্যাটিং গড় ৫০-এর অধিক ছিল। এরপর থেকে পরবর্তী আট মৌসুম ধারাবাহিকভাবে পঞ্চাশোর্ধ্ব গড়ের ধারা অব্যাহত রাখেন।

কাউন্টি ক্রিকেটে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

২০০১ সালে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে সমারসেটের প্রতিনিধিত্ব করেন। এ সময় সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে খেলেন তিনি।

২০০৪ মৌসুমে সমারসেটের পক্ষে খেলার পর কাউন্টি দল থেকে বাদ পড়েন তিনি। তখন তিনি অবসর গ্রহণের দিকে ধাবিত হচ্ছিলেন ও তাসমানিয়া কর্তৃপক্ষও তাঁকে দলে রাখেনি। পরবর্তী মৌসুমে মাঝে-মধ্যে খেলায় অংশ নিতে থাকেন। এরপর মার্চ, ২০০৬ সালে প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর গ্রহণের কথা ঘোষণা করেন জেমি কক্স।

অবসর[সম্পাদনা]

খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর নেয়ার পর ক্রিকেট জগতে বিশ্লেষক/সাংবাদিক এবং তাসমানিয়ান স্পোর্ট ইনস্টিটিউটে অ্যাথলেট ক্যারিয়ার ও এডুকেশন কনসালট্যান্ট হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছিলেন।[৪]

পোস্টকার্ডস সিরিজে খেলোয়াড় থাকা অবস্থাতেই লিখতে শুরু করেন ও বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত হতে থাকে। এরপূর্বেই অস্ট্রেলিয়া ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের মুদ্রিত মাধ্যমেও হাজির হতে থাকেন। তন্মধ্যে, ইনসাইড ক্রিকেট সাময়িকী ও এবিসি টেলিভিশনে ধারাভাষ্যকার হিসেবে অংশ নেন।

নভেম্বর, ২০০৬ সালে আকস্মিকভাবে জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন তিনি। তিনি অ্যালান বর্ডারের পরিবর্তে মনোনীত হয়েছিলেন। তবে, ২০১১ সালে তাঁকে এ দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।[৫]

২০০৮ সালের মাঝামাঝি সময় থেকে সাউথ অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[৬] ২০১৪ সালে তাঁকে বরখাস্ত করা হয়।[৭]

ডিসেম্বর, ২০১৪ সালে এএফএল ক্লাব সেন্ট কিল্ডার জেনারেল ম্যানেজার - ফুটবল পারফরমেন্স হিসেবে জেমি কক্সকে মনোনয়ন দেয়া হয়।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
রড টাকার
তাসমানীয় প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৯৯/২০০০–২০০২/০৩
উত্তরসূরী
রিকি পন্টিং
পূর্বসূরী
রড টাকার
তাসমানীয় একদিনের ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৯৬/৯৭–২০০২/০৩
উত্তরসূরী
রিকি পন্টিং
পূর্বসূরী
পিটার বোলার
সমারসেট কাউন্টি ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৯৯–২০০২
উত্তরসূরী
মাইক বার্নস