কাবুলিওয়ালা (১৯৫৭-এর চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
কাবুলিওয়ালা
Kabuliwala1956cover.jpg
কাবুলিওয়ালা ছবির পোস্টার
পরিচালক তপন সিংহ
প্রযোজক চারুচিত্র
চিত্রনাট্যকার তপন সিংহ
গল্পকার রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
অভিনেতা ছবি বিশ্বাস
ঐন্দ্রিলা ঠাকুর (টিঙ্কু)
আশা দেবী
সুরকার রবিশঙ্কর
চিত্রগ্রাহক অনিল বন্দ্যোপাধ্যায়
সম্পাদক সুবোধ রায়
মুক্তি
  • ৪ জানুয়ারি ১৯৫৬ (১৯৫৬-০১-০৪)
দৈর্ঘ্য ১১৬ মিনিট
দেশ ভারত
ভাষা বাংলা

কাবুলিওয়ালা হল ১৯৫৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি ভারতীয় বাংলা নাট্য চলচ্চিত্র। ছবিটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কাবুলিওয়ালা ছোটগল্প অবলম্বনে নির্মিত। এই ছবির পরিচালক ছিলেন তপন সিংহ

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

রহমত (ছবি বিশ্বাস) একজন মধ্যবয়সী আফগান ফল বিক্রেতা। সে ফল বিক্রি করতে কলকাতায় আসে। সেখানে মিনি (ঐন্দ্রিলা ঠাকুর ওরফে টিঙ্কু) নামে একটি ছোটো বাঙালি মেয়ের সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্ব হয়। মিনিকে দেখে তার নিজের মেয়ের কথা মনে পড়ে যায়, যাকে সে আফগানিস্তানে রেখে এসেছিল। রহমত একটি বোর্ডিং হাউসে নিজের দেশের লোকেদের সঙ্গে থাকত।

একদিন রহমত এক চিঠিতে তার মেয়ের অসুস্থতার খবর পায়। সে ঠিক করে দেশে ফিরে যাবে। তার টাকার অভাব থাকায় সে ঠিক করে ব্যবসা বাড়ানোর জন্য ধারে জিনিস বিক্রি করবে। পরে টাকা আদায় করতে গেলে তার এক খদ্দের তাকে অপমান করে। এতে দুজনের মধ্যে হাতাহাতি হয়। রহমত বলে সে অপমান সহ্য করবে না। তাও লোকটি তাকে অপমান করতে থাকলে রহমত তাকে ছুরি মেরে বসে।

আদালতে রহমতে উকিল তাকে রক্ষা করার চেষ্টা করেন। কিন্তু সরল মনস্ক রহমত সহজভাবেই সব কিছু স্বীকার করে নেয়। বিচারক রহমতের সততায় সন্তুষ্ট হয়ে মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে তাকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার দিন রহমত মিনির সঙ্গে দেখা করতে যায়। সে দেখে মিনি বড়ো হয়েছে। এখন সে চোদ্দো বছরের মেয়ে। শীঘ্রই তার বিয়ে। মিনি তাকে চিনতে পারে না। রহমত বুঝতে পারে, তার মেয়েও নিশ্চয় তাকে ভুলে গিয়েছে। মিনির বাবা মিনির বিয়ের খরচের টাকা থেকে রহমতকে দেশে ফিরে যাওয়ার টাকা দেন আর রহমতের মেয়ের জন্য একটি উপহার পাঠান।

কুশীলব[সম্পাদনা]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "4th National Film Awards" (PDF)। Directorate of Film Festivals। সংগৃহীত ২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  2. "7th Berlin International Film Festival: Prize Winners"berlinale.de। সংগৃহীত ২০১০-১০-১১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]