২০১৪ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৪ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর
WestIndiesCricketFlagPre1999.svg
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ
তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৪ – ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪
অধিনায়ক ডোয়াইন ব্রাভো মুশফিকুর রহিম
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ২-ম্যাচের সিরিজ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২–০ তে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান ক্রেগ ব্রেদওয়েট (৩২৪) মুশফিকুর রহিম (১৭৯)
সর্বাধিক উইকেট সুলেইমান বেন (১৪) তাইজুল ইসলাম (৮)
সিরিজ সেরা ক্রেগ ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩–০ তে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান দীনেশ রামদিন (২৭৭) তামিম ইকবাল (১১৮)
সর্বাধিক উইকেট রবি রামপাল (৭) আল-আমিন হোসেন (১০)
সিরিজ সেরা দীনেশ রামদিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ১-ম্যাচের সিরিজ ০–০ তে ড্র হয়
২০০৯ (পূর্ববর্তী) (পরবর্তী) ২০১৮

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ২০ আগস্ট, ২০১৪ তারিখ থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ তারিখ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করে। সফরে তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) একটি টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) এবং দুইটি টেস্ট খেলায় অংশগ্রহণ করে। ২০০৯ সালের পূর্বতন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বাংলাদেশ দূর্বলতর ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল।

দলের সদস্য[সম্পাদনা]

ওডিআই টি২০আই টেস্ট
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ[১]  বাংলাদেশ[২]  ওয়েস্ট ইন্ডিজ[৩]  বাংলাদেশ  ওয়েস্ট ইন্ডিজ[৪]  বাংলাদেশ[৫]

প্রতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ একাদশ বনাম গ্রেনাডা[সম্পাদনা]

১৭ আগস্ট ২০১৪
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ একাদশ বাংলাদেশ
৩২২/৬ (৫০ ওভার)
 গ্রেনাডা
২২৭/৯ (৫০ ওভার)
তামিম ইকবাল ৯১ (৮৬)
জোশ থমাস ২/৫৪ (৮ ওভার)
কেওন জর্জ ৬২ (৮৯)
মাশরাফি বিন মর্তুজা ৩/৪৪ (৮ ওভার)
বাংলাদেশ একাদশ ৯৫ রানে বিজয়ী
প্রোগ্রেস পার্ক, সেন্ট আন্ড্রু, গ্রেনাডা
আম্পায়ার: এম ফ্রেজার এবং এ ম্যাথেরসন
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • প্রতি দলের খেলোয়াড়: ১৫ (১১ ব্যাটিং, ১১ ফিল্ডিং)

সেন্ট কিট্‌স ও নেভিস বনাম বাংলাদেশ একাদশ[সম্পাদনা]

৩০ আগস্ট ২০১৪
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ একাদশ বাংলাদেশ
৩৭৭/৭ (১০৩.৩ ওভার)
মুশফিকুর রহিম ১০৬* (১৭০)
কুইন্টন বোটসোয়েইন ২৪৭ (২২ ওভার)
৩৯৯ (১২৭ ওভার)
শিবনারায়ণ চন্দরপল ১৮৩ (৩১৫)
রুবেল হোসেন ৩/৯০ (২৫ ওভার)
১৪৮/৪ (৩৬ ওভার)
শামসুর রহমান ৪৬* (৬৩)
শাকুইলে মার্টিনা ১/৪৫ (১০ ওভার)
ম্যাচ ড্র
ওয়ার্নার পার্ক, বাসসেতেররে, সেন্ট কিটস
আম্পায়ার: নাইজেল ডুগুইড (গায়ানা) ও পিটার নিরো (ত্রিওটো)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • প্রতি দলের খেলোয়াড়: ১১ (১১ ব্যাটিং, ১১ ফিল্ডিং)

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

২০ আগস্ট ২০১৪
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২১৭/৯ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২১৯/৭ (৩৯.৪ ওভার)
কিরণ পোলার্ড ৮৯ (৭০)
আল-আমিন হোসেন ৪/৫১ (৮.৪ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩ উইকেটে বিজয়ী
জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সেন্ট জর্জেস, গ্রেনাডা
আম্পায়ার: জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) এবং রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: কিরণ পোলার্ড (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ড করার সিদ্ধান্ত নেয়।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২২ আগস্ট ২০১৪
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
২৪৭/৭ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
৭০ (২৪.৪ ওভার)
ক্রিস গেইল ৫৮ (৬৭)
মাশরাফি মুর্তজা ৩/৩৯ (১০ ওভার)
তামিম ইকবাল ৩৭ (৫০)
সুনীল নারাইন ৩/১৩ (৭ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৭৭ রানে বিজয়ী
জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সেন্ট জর্জেস, গ্রেনাডা
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) এবং গ্রিগোরি ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
সেরা খেলোয়াড়: সুনীল নারাইন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২৫ আগস্ট ২০১৪ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
৩৩৮/৭ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
২৪৭/৮ (৫০ ওভার)
দীনেশ রামদিন ১৬৯ (১২১)
আল-আমিন হোসেন ৪/৫৯ (১০ ওভার)
মুশফিকুর রহিম ৭২ (১১৩)
রবি রামপাল ৪/২৯ (১০ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯১ রানে বিজয়ী
ওয়ার্নার পার্ক স্টেডিয়াম, বাসসেতেররে, সেন্ট কিটস
আম্পায়ার: জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) এবং রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: দীনেশ রামদিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।

টি২০আই সিরিজ[সম্পাদনা]

একমাত্র টি২০আই[সম্পাদনা]

২৭ আগস্ট ২০১৪
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩১/০ (৪.৪ ওভার)
  • বাংলাদেশীরা টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশের ইনিংসের সময় ভারি বৃষ্টি কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে খেলা কোন ফলাফল ছাড়াই শেষ করার সিন্ধান্ত নেয় হয়।

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৫-৯ সেপ্টেম্বর ২০১৪
স্কোরকার্ড
৪৮৪/৭ঘো (১৬০ ওভার)
ক্রেগ ব্রেদওয়েট ২১২ (৪৪৭)
তাইজুল ইসলাম ৫/১৩৫ (৪৭ ওভার)
১৮২ (৭১.৪ ওভার)
মমিনুল হক ৫১ (১১২)
সুলেইমান বেন ৫/৩৯ (২৪.৪ ওভার)
১৩/০ (২.৪ ওভার)
ক্রিস গেইল ৯* (১০)
৩১৪ (১১৩.৩ ওভার) (ফ/ও)
মুশফিকুর রহিম ১১৬ (২৪৩)
কেমার রোচ ৪/৬৪ (২২ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০ উইকেটে বিজয়ী
আর্নোস ভ্যাল স্টেডিয়াম, কিংসটাউন, সেন্ট ভিনসেন্ট
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) এবং রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ক্রেগ ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১৩-১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪
২য় টেস্ট
৩৮০ (১২৪ ওভার)
শিবনারায়ণ চন্দরপল ৮৪* (১৯৮)
আল-আমিন হোসেন ৩/৮০ (৩১ ওভার)
১৬১ (৬২.৩ ওভার)
মাহমুদুল্লাহ ৫৩ (১০০)
কেমার রোচ ৫/৪২ (২০ ওভার)
২৬৯/৪ঘো (৭৭ ওভার)
শিবনারায়ণ চন্দরপল ১০১* (১৩৪)
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ২/৬৪ (১৬ ওভার)
১৯২ (৭৭.৪ ওভার)
তামিম ইকবাল ৬৪ (১৮১)
সুলেইমান বেন ৫/৭২ (৩২ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৯৬ রানে বিজয়ী
বিউসেজাউর স্টেডিয়াম, গ্রোস আইলেট, সেন্ট লুসিয়া
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) এবং রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: শিবনারায়ণ চন্দরপল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে লিওন জনসনের টেস্ট ক্রিকেট অভিষেক হয়।
  • এই ম্যাচটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের ৫০০তম টেস্ট ম্যাচ ছিল।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

টেস্ট
ব্যাটিং[৬]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
ক্রেগ ব্রেদওয়েট  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩২৪ ১০৮.০০ ২১২
শিবনারায়ণ চন্দরপল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৭০ ১০১*
মুশফিকুর রহিম  বাংলাদেশ ১৭৯ ৫৯.৬৬ ১১৬
তামিম ইকবাল  বাংলাদেশ ১৬৬ ৪১.৫০ ৬৪
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ  বাংলাদেশ ১২৬ ৩১.৫০ ৬৬
বোলিং[৭]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
সুলেইমান বেন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯৩.১ ১৪ ১২.৪২ ৫/৩৯
কেমার রোচ  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭০.৪ ১১ ১৬.৩৬ ৫/৪২
তাইজুল ইসলাম  বাংলাদেশ ৯৮ ৩৮.৬২ ৫/১৩৫
জেরোমি টেলর  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬৪.৩ ২৭.১৪ ৩/৩৯
শ্যানন গ্যাব্রিয়েল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫৬ ২৯.৬০ ২/২৫
ওডিআই
ব্যাটিং[৮]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
দিনেশ রামদিন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৭৭ ৯২.৩৩ ১৬৯
ড্যারেন ব্র্যাভো  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৮৪ ৬১.৩৩ ১২৪
কিরণ পোলার্ড  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১২৫ ৪১.৬৬ ৮৯
তামিম ইকবাল  বাংলাদেশ ১১৮ ৩৯.৩৩ ৫৫
এনামুল হক বিজয়  বাংলাদেশ ১১৬ ৩৮.৬৬ ১০৯
বোলিং[৯]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
আল-আমিন হোসেন  বাংলাদেশ ২৮.৪ ১০ ১৭.০০ ৪/৫১
রবি রামপাল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৫.৪ ১৪.০০ ৪/২৯
ডোয়েন ব্র্যাভো  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১২ ১২.৮০ ৪/৩২
মাশরাফি বিন মর্তুজা  বাংলাদেশ ২৮ ২৬.০০ ৩/৩৯
সুনীল নারাইন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৭ ১৮.২৫ ৩/১৩

সম্প্রচারক[সম্পাদনা]

এলাকা টিভি সম্প্রচারক
পাকিস্তান টেন স্পোর্টস নিও ক্রিকেট স্টার ক্রিকেট এবং টেন এইচডি
বাংলাদেশ বিটিভি এবং গাজী টেলিভিশন
ভারত টেন ক্রিকেট
শ্রীলঙ্কা এমটিভি
অস্ট্রেলিয়া ফক্সস্পোর্টস
দক্ষিণ আফ্রিকা সুপারস্পোর্ট
সংযুক্ত আরব আমিরাত টেন স্পোর্টস
যুক্তরাষ্ট্র উইলো

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.banglanews24.com/beta/fullnews/bn/313991.html
  2. http://bangla.bdnews24.com/cricket/article826407.bdnews
  3. http://www.protimuhurto.com/index.php/sports2/47-sports-7/25342-2014-08-25-03-09-32[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. http://www.prothomalo.com/sports/article/306172
  5. http://bangla.bdnews24.com/cricket/article841304.bdnews
  6. "Records / Bangladesh in West Indies Test Series, 2014 / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১২ 
  7. "Records / Bangladesh in West Indies Test Series, 2014 / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১২ 
  8. "Records / Bangladesh in West Indies ODI Series, 2014 / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১২ 
  9. "Records / Bangladesh in West Indies ODI Series, 2014 / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১২