মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মোসাদ্দেক হোসেন
Mosaddek Hossain Saikat (2) (cropped).jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমোসাদ্দেক হোসেন
জন্ম (1995-12-10) ১০ ডিসেম্বর ১৯৯৫ (বয়স ২৩)
ময়মনসিংহ, বাংলাদেশ
ডাকনামসৈকত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮৬)
১৫ মার্চ ২০১৭ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১১৯)
২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ বনাম আফগানিস্তান
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৫৩)
২০ জানুয়ারি ২০১৬ বনাম জিম্বাবুয়ে
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১৩-২০১৪ঢাকা বিভাগ
২০১৩-২০১৬আবাহনী লিমিটেড
২০১৪-বর্তমানবরিশাল বিভাগ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৮
রানের সংখ্যা ৪৫ ১৫ ১,৯৮৫
ব্যাটিং গড় - - ১৫.০০ ৭০.৮৯
১০০/৫০ - - ০/০ ৭/৬
সর্বোচ্চ রান ৪৫* ১৫ ২৮২
বল করেছে ৬০ ১২ ১,৩১৮
উইকেট ১৬
বোলিং গড় ১৫.০০ ৪৫.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ২/৩০ ৪/৩৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ০/– ১৫/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬

মোসাদ্দেক হোসেন (জন্ম: ১০ ডিসেম্বর, ১৯৯৫) ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশের উদীয়মান ক্রিকেটারবাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলে থাকেন। পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়েও পারদর্শী। তার নামে নারী ও শিশু নির্যাতনে মামলা রয়েছে।

ঘরোয়া ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১৩ সাল থেকে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটলিস্ট এ ক্রিকেট খেলছেন। ২০১৪-১৫ মৌসুমে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে উপর্যুপরি ২৫০ ও ২৮২ রান করেন। এছাড়াও, নিজস্ব ১০ম খেলায় সহস্রাধিক প্রথম-শ্রেণীর রান তোলেন। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে তিনটি দ্বি-শতক রান করেছেন।

অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়া ও ২০১৩-১৪ মৌসুমে আবুধাবিতে অনুষ্ঠিত আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে দুইবার বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। এপ্রিল, ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চারদিনের দুইখেলার সিরিজে অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন। প্রথম খেলায় ১০৭ ও দ্বিতীয় খেলায় ৭৪ করেন। এর অব্যবহিত পরই পাঁচ খেলার সীমিত ওভারে দুইশতাধিক রান তোলেন। তন্মধ্যে, তৃতীয় খেলায় ৯৮ তোলে বাংলাদেশকে এক উইকেটের নাটকীয় বিজয়ে প্রভূতঃ সহায়তা করেন।[১] ঐ বছরে ইংল্যান্ডেও তিনি চমকপ্রদ অল-রাউন্ড ক্রীড়াশৈলী অব্যাহত রাখেন।[২] ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিরুদ্ধে ১১৩ বলে অপরাজিত ১১০* ও ১০ ওভারে ৩/৩৮ লাভ করে ৩৮ রানের বিজয় এনে দেন।[৩]

অক্টোবর-নভেম্বর, ২০১৫ সালে বাংলাদেশ এ দলের সদস্যরূপে দক্ষিণ আফ্রিকাজিম্বাবুয়ে সফরে যান। জিম্বাবুয়ে এ দলের বিপক্ষে দুইখেলার সিরিজে শীর্ষস্থানীয় রান সংগ্রহকারী ছিলেন তিনি। ৬৪.৬৬ গড়ে ১৯৪ রান সংগ্রহ করেন।[৪]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০ জানুয়ারি, ২০১৬ তারিখে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ৩য় টি২০আইয়ে তার সাথে আবু হায়দার, মুক্তার আলীমোহাম্মাদ শহীদেরও অভিষেক হয়েছিল।[৫] কিন্তু এ অভিষেক পর্বটি তেমন সুখকর হয়নি। খেলায় তার দল ৩১ রানে পরাজিত হয়।

সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর, ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফরে আসা আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নেয়ার জন্য ১৩-সদস্যের তালিকা ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ তারিখে প্রকাশ করা হয়। এতে ক্যাপবিহীন অবস্থায় তাকেও অন্যতম সদস্য মনোনীত করা হয়।[৬] ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ তারিখে বাংলাদেশের ১১৯তম ওডিআই ক্রিকেটার হিসেবে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের কাছ থেকে ক্যাপ গ্রহণ করেন ও ঐদিনই আফগানিস্তানের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত সিরিজের ২য় ওডিআইয়ে অভিষেক ঘটে তার।[৭] প্রথম ইনিংসে ৭ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৫ বলের মোকাবেলায় মহামূল্যবান ও দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৫ রান তোলেন। এরপর বোলিংয়ে নেমে প্রথম বলেই হাশমতউল্লাহ শহীদির উইকেট তুলে নেন।[৮] নির্ধারিত ১০ ওভারে তার বোলিং পরিসংখ্যান ছিল ২/৩১। এছাড়াও একটি ক্যাচ নেন তিনি। এ অল-রাউন্ড ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন স্বত্ত্বেও বাংলাদেশ দল ২ উইকেটে পরাজিত হয়।

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে ভারতের বিপক্ষে খেলার জন্য দলে অন্তর্ভূক্ত হন। ইমরুল কায়েসের স্থলাভিষিক্ত হলেও একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ ঘটেনি তার।[৯] পরবর্তীতে ১৫ মার্চ, ২০১৭ তারিখে শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশের শততম টেস্টে অভিষেক ঘটে তার।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sri Lanka Under-19s in Bangladesh 2013"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  2. Wisden 2014, p. 789-90.
  3. "England Under-19 v Bangladesh Under-19, Sleaford 2013"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  4. "Bangladesh A in Zimbabwe unofficial Test Series, 2015/16 - Bangladesh A"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৫ 
  5. "Zimbabwe tour of Bangladesh (Jan 2016), 3rd Match: Bangladesh v Zimbabwe at Khulna, Jan 20, 2016"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  6. "Uncapped Mosaddek Hossain picked for Afghanistan ODIs"ESPNcricinfo। ESPN Sports Media। ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  7. "Afghanistan tour of Bangladesh, 2nd ODI: Bangladesh v Afghanistan at Dhaka, Sep 28, 2016"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  8. "Wicket with first ball in career"ESPNcricinfo। ESPN Sports Media। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  9. "Thigh injury rules out Imrul Kayes"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  10. "Bangladesh tour of Sri Lanka, 2nd Test: Sri Lanka v Bangladesh at Colombo (PSS), Mar 15-19, 2017"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০১৭ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]