স্টিভ ও’কিফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্টিভ ও’কিফ
Stephen O'Keefe.jpg
নভেম্বর, ২০০৮ সালে ও’কিফ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামস্টিফেন নরম্যান জন ও’কিফ
জন্ম (১৯৮৪-১২-০৯) ৯ ডিসেম্বর ১৯৮৪ (বয়স ৩৪)
মালয়েশিয়া
ডাকনামসক
উচ্চতা১.৭৫ মিটার (৫ ফুট ৯ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৩৯)
২২ অক্টোবর ২০১৪ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট৪ মার্চ ২০১৭ বনাম ভারত
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৪৬)
৬ জুলাই ২০১০ বনাম পাকিস্তান
শেষ টি২০আই১৬ অক্টোবর ২০১১ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৫-বর্তমাননিউ সাউথ ওয়েলস (দল নং ৭২)
২০১১কোচি তুস্কার্স কেরালা
২০১১-বর্তমানসিডনি সিক্সার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৬৭ ৪৮
রানের সংখ্যা ৪৫ ৩২ ১,৯০৩ ৫৮৩
ব্যাটিং গড় ৭.৫০ ৬.৪০ ২৮.৪০ ২৩.৩২
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/৯ ০/১
সর্বোচ্চ রান ২৩ ২২ ৯৯ ৭০*
বল করেছে ১,৩০৩ ১১৪ ১৩,০৪৬ ১,৯৯২
উইকেট ২৯ ২৪০ ২৯
বোলিং গড় ২০.৮৬ ২৪.৮৩ ২২.৯৩ ৫৫.৮৯
ইনিংসে ৫ উইকেট ১০
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৬/৩৫ ৩/২৯ ৭/৩৫ ৩/৬৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ১/– ২৯/– ২১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ৭ মার্চ ২০১৭

স্টিফেন নরম্যান জন ও’কিফ (ইংরেজি: Steve O'Keefe; জন্ম: ৯ ডিসেম্বর, ১৯৮৪) মালয়েশিয়ায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলে খেলার পাশাপাশি নিউ সাউথ ওয়েলসের পক্ষে খেলছেন। নভেম্বর, ২০০৫ সালে নিউ সাউথ ওয়েলসের পক্ষে তাসমানিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।[১] ঐ খেলায় ২ উইকেটের পাশাপাশি ১০ রান করেন। তন্মধ্যে প্রথম বলেই তিনি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

২০১০ মৌসুমে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজ দলের পক্ষে সকল ধরনের খেলায় অংশ নেন ও দলের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গে পরিণত হন। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তার বোলিং গড় ২৫ ও ব্যাটিং গড় ৫০-এর কাছাকাছি হওয়ার প্রেক্ষিতে তিনি অস্ট্রেলিয়ার সর্বাপেক্ষা উদীয়মান ক্রিকেটারদের অন্যতম হিসেবে গণ্য হন। ২০১০ মৌসুমে অ্যাসেজ সিরিজ আরম্ভ হবার পূর্বে ও’কিফ পূর্ণাঙ্গ শক্তিমত্তার অধিকারী ইংল্যান্ডের ব্যাটিং মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দেন ৪/৮৮ করে। এ বোলিং পরিসংখ্যান যে-কোন অস্ট্রেলীয় স্পিনারদের তুলনায় শ্রেষ্ঠ ছিল। এছাড়াও ব্যাট হাতে দলের মধ্যে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৬৬ রান তোলেন।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে কোচি তুস্কার্স কেরালা দলের সাথে ২০,০০০ ডলারে চুক্তিবদ্ধ হন। সিডনি গ্রেড ক্রিকেটে ম্যানলি ওয়ারিঙ্গা দলে খেললেও প্রকৃতপক্ষে তিনি হকসবারি দলে খেলছেন।

২০১৩-১৪ মৌসুমে ঘরোয়া শেফিল্ড শিল্ডে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজের প্রতিনিধিত্ব করেন। ঐ মৌসুমে ৪১ উইকেট নিয়ে পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার জেসন বেহরেনডর্ফের পিছনে থেকে শীর্ষস্থানীয় উইকেট-সংগ্রাহকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন ও’কিফ।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

ও’কিফ পাকিস্তানের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত সিরিজ আঘাতপ্রাপ্ত নাথান হারিতৎজের স্থলাভিষিক্ত হন। কিন্তু তিনি কোন টেস্টে খেলার সুযোগ পাননি। ইংল্যান্ড সফরে তার টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে।

২২ অক্টোবর, ২০১৪ তারিখে সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরে পাকিস্তানের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে।[২] কিন্তু ঐ টেস্টের পরই তিনি বাদ পড়েন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New South Wales v Tasmania at Sydney, Nov 18-20, 2005"। Cricinfo.com। 
  2. "Australia tour of United Arab Emirates, 1st Test: Australia v Pakistan at Dubai (DSC), Oct 22–26, 2014"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]