আশীষ কাপুর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আশীষ কাপুর
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামআশীষ রাকেশ কাপুর
জন্ম (1971-03-25) ২৫ মার্চ ১৯৭১ (বয়স ৪৮)
মাদ্রাজ, তামিলনাড়ু, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২০১)
১০ ডিসেম্বর ১৯৯৪ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট৮ ডিসেম্বর ১৯৯৬ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৯২)
২২ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই১৪ ডিসেম্বর ২০০০ বনাম জিম্বাবুয়ে
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৭ ১২৮ ৯৩
রানের সংখ্যা ৯৭ ৪৩ ৩,৪৪৯ ৮০১
ব্যাটিং গড় ১৯.৩৯ ৭.১৬ ২৪.৬৩ ১৪.৫৬
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ৩/১৯ ০/১
সর্বোচ্চ রান ৪২ ১৯ ১৮১ ৫৭
বল করেছে ৬৪২ ৯০০ ২৬,২২০ ৪,৭৮১
উইকেট ৩৯৮ ৮৬
বোলিং গড় ৪২.৫০ ৭৬.৫০ ৩১.৯৩ ৩৫.৩৯
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৭
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/১৯ ২/৩৩ ৭/৫৯ ৫/৩৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ১/– ৮২/– ১৫/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

আশীষ রাকেশ কাপুর (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; তামিল: ஆசிஷ் கபூர்; জন্ম: ২৫ মার্চ, ১৯৭১) তামিলনাড়ুর মাদ্রাজ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৯৪ থেকে ২০০০ সময়কালে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে হিমাচলপ্রদেশ, পাঞ্জাব, রাজস্থান, তামিলনাড়ু ও ত্রিপুরা দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি অফ ব্রেক বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে ব্যাটিং করতেন আশীষ কাপুর

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৮৯-৯০ মৌসুম থেকে আশীষ কাপুরের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ডানহাতি অফ স্পিন বোলিং করতেন। পাঞ্জাব দলে অল-রাউন্ডার হিসেবে সুনাম কুড়ান। ঘরোয়া ক্রিকেটে ক্রমাগত সুন্দর ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন সত্ত্বেও রহস্যজনক কারণে দল নির্বাচকমণ্ডলীর কৃপাদৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষমতা দেখাতে পারেননি তিনি। বলকে বিভিন্নভাবে ফেলতে পারতেন। সর্বদাই মিতব্যয়ী ভাব বজায় রেখেছিলেন। ব্যাট হাতে নিয়ে খাঁটিমানের ভাব বজায় রাখতেন। সচরাচর ৭ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামতেন। তবে, ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমে যথেষ্ট পরিচিতি লাভ করেছিলেন তিনি।

তামিলনাড়ু দলের পক্ষে রঞ্জী ট্রফি প্রতিযোগিতায় খেলার সুযোগ না পাওয়ায় পাঞ্জাব দলের সদস্য হন। ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমে পাঞ্জাব থেকে রাজস্থানের দিকে চলে যান। এরপর রাজস্থানে খেলেন। সেখানে তিনি অধিনায়ক হিসেবে কিছুটা সফলতার স্বাক্ষর রাখেন। দৃশ্যতঃ দলে স্থায়ী আসন গাড়তে পারেননি তিনি। অবশেষে ১৯৯৯-২০০০ মৌসুমে তামিলনাড়ু দলে খেলতে সমর্থ হন। ঐ মৌসুমে দলের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহকে পরিণত হয়েছিলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে চারটিমাত্র টেস্ট ও সতেরোটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন আশীষ কাপুর। ১০ ডিসেম্বর, ১৯৯৪ তারিখে মোহালিতে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ৮ ডিসেম্বর, ১৯৯৬ তারিখে কানপুরে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি। ভারতের পক্ষে প্রতিনিধিত্বকারী ২০১তম টেস্ট খেলোয়াড়ের মর্যাদা লাভ করেছেন।

একদিনের ক্রিকেটে প্রতিশ্রুতিশীলতার স্বাক্ষর রাখেন। ফলশ্রুতিতে ভারতীয় দলের সদস্যরূপে বিশ্বকাপে খেলার জন্যে মনোনীত হন। ১৯৯৬ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ভারত দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। তবে, শ্রীলঙ্কা দলের কাছে ভারতের পরাজয়ের ফলে দলের বাইরে চলে আসতে হয় ও দল থেকে বাদ পড়েন। ২০০০ সালের পর তাকে আর ভারতের ওডিআই দলে খেলতে দেখা যায়নি।

২০১৮ সালে ভারতের জুনিয়র দল নির্বাচকমণ্ডলীর সভাপতি হিসেবে মনোনীত হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of India Test Cricketers
  2. "India – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জানুয়ারি ২০২০ 
  3. "India – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জানুয়ারি ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]