পর্তুগাল–বাংলাদেশ সম্পর্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পর্তুগাল–বাংলাদেশ সম্পর্ক সম্পর্ক
মানচিত্র Bangladesh এবং Portugal অবস্থান নির্দেশ করছে

বাংলাদেশ

পর্তুগাল

পর্তুগালবাংলাদেশ সম্পর্ক বলতে উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বোঝায়। এই দুই দেশের মধ্যে অত্যন্ত বন্ধুসুলভ সম্পর্ক বিদ্যমান।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পর্তুগিজরা সর্বপ্রথম বাংলাদেশে আসে ষষ্ঠাদশ শতকে। বাংলায় তারা এসেছিলো ব্যবসা করার জন্য। তারা তখন অনেক বাণিজ্য-কুঠি বানিয়েছিলো। ব্যবসায়ী কার্যক্রমের জন্য তারা চট্টগ্রামের বঙ্গোপসাগরের বন্দর ব্যবহার করত। সেই সময় তারা চট্টগ্রামের ওপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে। কিন্তু মোগল এবং আরাকানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে তারা বেশিদিন সেই নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে পারে নি। সপ্তাদশ শতকের মধ্যেই তারা চট্টগ্রামের নিয়ন্ত্রণ হারায়। তাদের বংশধরেরা এখনো চট্টগ্রামের পুরাতন অংশে বসবাস করছে।পর্তুগীজরা সর্বপ্রথম বাংলা ভাষার ব্যাকরণ রচনা করে। বাংলাদেশে খ্রিস্টান ধর্মের প্রসারে পর্তুগিজ মিশনারিরা ছিল অগ্রদূত।[১]

উচ্চ পর্যায়ের পরিদর্শন[সম্পাদনা]

২০১০ সালে বাংলাদেশের সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনি একটি সরকারি সফরে লিসবন গিয়েছিলেন।[২]

অর্থনৈতিক সহযোগিতা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ ও পর্তুগাল দ্বিপাক্ষিক অর্থনৈতিক কার্যক্রম প্রসারিত করতে তাদের গভীর আগ্রহ দেখিয়েছে এবং তা বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে।[৩] ২০১০ সালে দ্বৈত-কর পরিহার করতে দুই দেশের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।[৪] পারস্পরিক ব্যবসায়িক প্রতিনিধি প্রেরণের মাধ্যমে উভয় দেশের মধ্যে ব্যবসায়িক সম্পর্ক জোরদার করার ব্যাপারে উভয় দেশ একমত হয়েছে।[৫]

পর্তুগালে বাংলাদেশী প্রবাসী[সম্পাদনা]

২০১২ সালের হিসাব অনুযায়ী প্রায় ১৫,০০০ জন বাংলাদেশী  পর্তুগালে গিয়ে কাজ করছেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. অনিরুদ্ধ রায় (২০১২)। "পর্তুগিজ, জাতি"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743 
  2. "Portugal urged to support Dhaka's cause within EU"The Independent (ইংরেজি ভাষায়)। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  3. "Press remains free under emergency"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  4. "Bangladesh-Portugal agree to avoid double taxation"Bangladesh Business News (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  5. "Bangladesh to open mission in Lisbon"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  6. "President for opening new missions in potentials countries"Bangladesh Sangbad Sangstha (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-০২-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪