কাজী মোরশেদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কাজী মোরশেদ
Kazi Morshed1.jpg
জন্ম(১৯৫০-০৪-২৪)২৪ এপ্রিল ১৯৫০
মিরসরাই, চট্টগ্রাম, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু৩ অক্টোবর ২০১৪(2014-10-03) (বয়স ৬৪)
জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতাল, ঢাকা, বাংলাদেশ
সমাধিমিরপুর ১১, ঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পেশাচলচ্চিত্র পরিচালক
কার্যকাল১৯৮১২০১৩
উল্লেখযোগ্য কর্ম
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

কাজী মোরশেদ (২৪ এপ্রিল, ১৯৫০ - ৩ অক্টোবর, ২০১৪[১]) একজন স্বনামধন্য বাংলাদেশী চলচ্চিত্র পরিচালক। তিনি কাহিনীকার, চিত্রনাট্যকার, সংলাপ রচয়িতা ও প্রযোজক হিসেবেও সফল ছিলেন। তিনি চলচ্চিত্র পরিচালক এস এম শফির সহযোগী হিসেবে চলচ্চিত্রাঙ্গনে প্রবেশ করেন।[২] তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ছলনা (১৯৮৯)। সান্ত্বনা (১৯৯১) চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। তার পরিচালিত ঘানি (২০০৬) চলচ্চিত্রটি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ও শ্রেষ্ঠ পরিচালকসহ ১২টি বিভাগে ১৩টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে। তার পরিচালিত সর্বশেষ চলচ্চিত্র একই বৃত্তে ২০১৩ সালে মুক্তি পায়।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

কাজী মোরশেদ সত্তরের দশকে চলচ্চিত্রকার এস এম শফির সহকারী হিসেবে কাজ চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ বেতার-এর প্রোগ্রাম পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। চিত্রপরিচালক আমজাদ হোসেনের অনুপ্রেরনায় তিনি আবার চলচ্চিত্রে ফিরেন। এ সময় তিনি আমজাদ হোসেনের সহকারী হিসেবে জন্ম থেকে জ্বলছি, দুই পয়সার আলতা, ভাত দে চলচ্চিত্রের সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। এছাড়াও কাজ করেছেন এ জে মিন্টুর লালু মাস্তান চলচ্চিত্রের সহকারী পরিচালক হিসেবে।

কাজী মোরশেদ পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ছলনা। চলচ্চিত্রটি ১৯৮৯ সালে মুক্তি পায়।[৩] ১৯৯১ সালে তার পরিচালিত সান্ত্বনা চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এরপর তার পরিচালিত কিছু উল্লেখযোগ্য ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র শুধু তুমি, প্রেম যমুনা, নয়নের নয়ন। ২০০৬ সালে পরিচালনা করেন কলুদের দুঃখ-আনন্দ, জীবন সংগ্রাম ও বাস্তবতার নিরিখে চলচ্চিত্র ঘানি। চলচ্চিত্রটি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রসহ মোট ১২ বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেয়, যার মধ্যে সেরা প্রযোজক ও পরিচালকসহ ৫টি পুরস্কার পান কাজী মোরশেদ।[৪] ২০১৩ সালে নির্মাণ করেন একজন ফল বিক্রেতা ও তার স্বামী পরিত্যক্তা মেয়ের দুঃখ-দুর্দশার জীবন নিয়ে একই বৃত্তে। এরপর তিনি দ্য লক নামে একটি চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করেছিলেন।[৫]

চলচ্চিত্র পরচালনার পাশাপাশি তিনি আমজাদ হোসেন পরিচালিত জন্ম থেকে জ্বলছি, ও শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত পালাবি কোথায়, ম্যাডাম ফুলি চলচ্চিত্রসহ ২৮টি চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেন। তিন কুতুব নামে একটি চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লিখেছেন কাজী মোরশেদ কিন্তু পরিচালক শহীদুল ইসলাম খোকন-এর অসুস্থতার কারণে তা এখনও নির্মিত হয় নি।[৬] এছাড়াও তিনি কয়েকটি নাটক পরিচালনা করেছেন।[৭]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম পরিচালক কাহিনীকার চিত্রনাট্যকার সংলাপ রচয়িতা টীকা
১৯৮১ জন্ম থেকে জ্বলছি হ্যাঁ
১৯৮৯ ছলনা হ্যাঁ পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র
১৯৯১ সান্ত্বনা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ বিজয়ী: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার
১৯৯৬ পালাবি কোথায় হ্যাঁ হ্যাঁ
১৯৯৭ শুধু তুমি হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ
১৯৯৯ ম্যাডাম ফুলি হ্যাঁ
প্রেম যমুনা হ্যাঁ
নয়নের নয়ন হ্যাঁ
২০০৬ ঘানি হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ বিজয়ী: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ৫টি বিভাগে[৮]
২০১৩ একই বৃত্তে হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ পরিচালিত সর্বশেষ চলচ্চিত্র[৯]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

বছর পুরস্কার বিভাগ চলচ্চিত্র ফলাফল
১৯৯১ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার সান্ত্বনা বিজয়ী
২০০৬ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র (প্রযোজক) ঘানি বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ পরিচালক ঘানি বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার ঘানি বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার ঘানি বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা ঘানি বিজয়ী[১০]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের ১ অক্টোবর বুকে ব্যাথার কারণে তাকে রাজধানী ঢাকার জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।[১১] ৩ অক্টোবর সকালে তিনি হৃদরোগে মারা যান।[১২] জুমার পর তার বাসবভন কালসীতে জানাজার নামাজের পর তাকে ঢাকার মিরপুর ১১ নম্বরে তার বাবার কবরের পাশে দাফন করা হয়।[১৩]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সমকাল প্রতিবেদক (৪ অক্টোবর ২০১৪)। "চলচ্চিত্র পরিচালক কাজী মোরশেদের ইন্তেকাল"দৈনিক সমকাল। ঢাকা, বাংলাদেশ। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  2. "চলে গেলেন কাজী মোরশেদ"বাংলামেইল। ৩ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "চলে গেলেন চিত্রপরিচালক কাজী মোরশেদ"দৈনিক মানবজমিন। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৪ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  4. "চলে গেলেন ঘানি ছবির পরিচালক"এসবিডি টোয়েন্টিফোর। ৩ অক্টোবর ২০১৪। ৪ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  5. মাসুদ মুস্তফা। "কাজী মোরশেদ: আমার শিক্ষক, অগ্রজ বন্ধু"কারেন্ট ওয়ার্ল্ড। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  6. "খোকনের দুই সিনেমা"বিডিনিউজ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ১৬ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  7. "চলচ্চিত্র পরিচালক কাজী মোরশেদ আর নেই"সংবাদ প্রতিদিন। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৩ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  8. "Kazi Morshed on his National Award-winning film "Ghani""The Daily Star। সেপ্টেম্বর ৪, ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৩, ২০১৬ 
  9. পাভেল (৩ অক্টোবর ২০১৪)। "থেমে গেছে নির্মাতা কাজী মোরশেদের দেহঘড়ি"রাইজিংবিডি। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  10. "চার বছরের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘোষণা"নবদেশ। ২০০৮। ২৬ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  11. "চলে গেলেন পরিচালক কাজী মোরশেদ"দৈনিক মানবকণ্ঠ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৪ অক্টোবর ২০১৪। ৮ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  12. "প্রখ্যাত চিত্রপরিচালক কাজী মোরশেদ আর নেই"দৈনিক সংগ্রাম। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৪ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  13. "বাবার কবরের পাশে পরিচালক কাজী মোর্শেদ"বিনোদন সারাবেলা। ৪ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]