আয়ারল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আয়ারল্যান্ড
আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট লোগো
আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট লোগো
ডাকনাম
আইসিসি সদস্যপদ অনুমোদন ১৯৯৩
সংস্থা ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড
আইসিসি সদস্য মর্যাদা সহযোগী
অঞ্চল ইউরোপ
অধিনায়ক লরা ডেলানি
কোচ আরন হ্যামিল্টন
১ম আনুষ্ঠানিক খেলা আয়ারল্যান্ড আয়ারল্যান্ডনেদারল্যান্ডস 
(আট্রেখট; ২৬ জুলাই, ১৯৮৩)
ক্রিকেট বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ ৫ (১ম অংশগ্রহণ ১৯৮৮)
সেরা ফলাফল ৪র্থ, ১৯৮৮
ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
অংশগ্রহণ ৩ (১ম অংশগ্রহণ ২০০৩)
সেরা ফলাফল চ্যাম্পিয়ন (২০০৩)
মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০
অংশগ্রহণ ১ (১ম অংশগ্রহণ ২০১৪)
সেরা ফলাফল প্রথম রাউন্ড (২০১৪)
মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্ব
অংশগ্রহণ ২ (১ম অংশগ্রহণ ২০১৩)
সেরা ফলাফল চ্যাম্পিয়ন (২০১৫)
২৫ নভেম্বর, ২০১৫ অনুযায়ী


আইরিশ মহিলা ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে আয়ারল্যান্ডের প্রতিনিধিত্বকারী মহিলা ক্রিকেট দল। পুরুষ দল টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিকে মর্যাদাপ্রাপ্ত না হলেও এ মহিলা দলটির তা রয়েছে। ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড কর্তৃক দলটি পরিচালিত হচ্ছে। আয়ারল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জের রাজনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ডউত্তর আয়ারল্যান্ড - উভয় অংশের অধিবাসীরা দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন। দলের বর্তমান অধিনায়ক হিসেবে রয়েছেন লরা ডেলানি ও কোচের দায়িত্ব পালন করছেন আরন হ্যামিল্টন। ২৮ জুন, ১৯৮৭ তারিখে উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্টে অস্ট্রেলিয়া মহিলা ক্রিকেট দলের বিপক্ষে সর্বপ্রথম ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণ করে। ১৯৮৮ সালের বিশ্বকাপে দলটি ৪র্থ স্থান নিয়ে তাদের সেরা ফলাফল করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আইরিশ মহিলা দল তাদের পুরুষ দলের পূর্বেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে প্রবেশ করে। ১৯৮৭ সালে অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে ৩টি ওডিআই নিয়ে গঠিত সিরিজে অংশগ্রহণ করে যা পুরুষ দলের তুলনায় ১৯ বছর পূর্বে। যদিও দলটি প্রতিটি খেলাতেই ১০০ রানের নিচে সংগ্রহ করতে পেরেছিল, তবুও পরের বছর দলটিকে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত মহিলাদের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। ঐ বিশ্বকাপে দলটি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের বিপক্ষে হেরে চতুর্থ স্থান দখল করে। প্রতিযোগিতায় সর্বমোট ৫টি দল অংশ নিয়েছিল। পুরো প্রতিযোগিতায় নেদারল্যান্ডস দল বিরুদ্ধেসহ মোট দুইটি জয়লাভ করে তারা।

পরের বছর আয়ারল্যান্ড দল ডেনমার্কে অনুষ্ঠিত মহিলাদের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপে অংশগ্রহণ করে। স্বাগতিক ড্যানিশ ক্রিকেট দলকে হারিয়ে রান রেটে ৪র্থ স্থান দখল করেছিল আইরিশরা।

২০০৯ সালে নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে দলটি ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা জয় করে।[১] ২০১৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের স্বাগতিকের মর্যাদা লাভ করে।

বর্তমান আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

আইসিসি মহিলাদের র‌্যাঙ্কিংয়ে টেস্ট, ওডিআই ও টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকের ফলাফলকে একটিমাত্র র‌্যাঙ্কিং ব্যবস্থায় তুলে ধরেছে। টেমপ্লেট:আইসিসি মহিলা র‌্যাঙ্কিং

বর্তমান দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ২০১৭ সালের মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে ঘোষিত আয়ারল্যান্ড মহিলা দলের সদস্যদের তালিকা নিম্নরূপ:[২]

লরা ডেলানি (অঃ), কিম গার্থ (সহঃ অঃ), সেসেলিয়া জয়েস, ইসোবেল জয়েস, শনা কাভানা, মেগ ক্যান্ডল (উইঃ), অ্যামি কেনিলি, গাবি লুইস, রবিন লুইস, সিয়ারা মেটকাফে, লুইস ম্যাকার্থি, লুসি ও’রিলি, ক্লার শিলিংটন, মেরি ওয়ালড্রন (উইঃ), ক্যাথেরিন ডাল্টন, জেনি গ্রে

প্রধান কোচ: আরন হ্যামিল্টন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Cricinfo staff (৫ আগস্ট ২০০৯), All-round Richardson guides Ireland to title, Cricinfo, সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০০৯ 
  2. "Ireland Women Name World Cup Qualifying Squad"Cricket Ireland। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭