সংযুক্ত আরব আমিরাত জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সংযুক্ত আরব আমিরাত
Flag of the United Arab Emirates.svg
সংযুক্ত আরব আমিরাতের জাতীয় পতাকা
সংঘআমিরাত ক্রিকেট বোর্ড
কর্মীবৃন্দ
অধিনায়কহুমারিয়া তাসনীম
কোচস্মিথা হরিকৃষ্ণা
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
আইসিসি মর্যাদাসহযোগী সদস্য (১৯৯০)
আইসিসি এলাকাএশিয়া
নারী টেস্ট
প্রথম আন্তর্জাতিকবনাম  বাংলাদেশ - জহর, মালয়েশিয়া; ১১ জুলাই ২০০৭
মহিলাদের টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক
প্রথম টি২০আইবনাম  নেদারল্যান্ডস - স্পোর্টপার্ক মার্সচালকেরওয়ের্ড, উটরেক্ট; ৭ জুলাই ২০১৮
সর্বশেষ টি২০আইবনাম  থাইল্যান্ড ব্যাংকক; ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
নারী টি২০আই ম্যাচ জয়/হার
মোট [১] ১৫ ৮/৬
(টাই-১টি, ফল হয়নি-০)
এই বছর [২] ১০ ৭/৩
(টাই-০, ফল হয়নি-০)
মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্ব উপস্থিতি১ (প্রথম ২০১৮ সালে)
সেরা ফলাফল৭ম (২০১৮)
৩০ এপ্রিল ২০১৯ অনুযায়ী

সংযুক্ত আরব আমিরাত জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক মহিলা ক্রিকেট অঙ্গনে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)-এর প্রতিনিধিত্ব করে। দলটি আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) কর্তৃক সংগঠিত, যা ১৯৯০ সাল থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এর সহযোগী সদস্য হয়েছে।

২০০৭ সালে এসিসি কর্তৃক মালয়েশিয়ায় আয়োজিত মহিলা ক্রিকেট টুর্ণামেন্টে দলটির আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অভিষেক হয়।[৩] দলটি তাদের নির্ধারিত ৩টি ম্যাচের সবকটিতে বিরাট ব্যবধানে পরাজিত হয়, এবং বাংলাদেশের সাথে তাদের অভিষেক খেলায় মাত্র ৯ রানে অল-আউট হয়ে যায়, এবং মাত্র এক ঘন্টায় ম্যাচ সম্পন্ন হয়ে যায়।[৪] আরব আমিরাতের দলটিকে "মা ও মেয়ে" নিয়ে গঠিত দল মনে করা হত,[৫] এবং ক্যাপ্টেন নাতাশা চেরিয়াথ-এর বয়স ছিল মাত্র ১২ বছর।[৬] দলের কোচ ছিলেন স্মিথা হরিকৃষ্ণা, যিনি ভারতের হয়ে একদিনের আন্তর্জাতিক খেলেছেন এবং অপর অবসরপ্রাপ্ত ভারতীয় খেলোয়াড় প্রমিলা ভাট দলের প্রাক-টুর্নামেন্ট প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সাথে সংযুক্ত ছিলেন[৭]

২০০৯ এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল মহিলা টুয়েন্টি২০ চ্যাম্পিয়ানশিপে ওমানকে ৪৯ রানে হারিয়ে তাদের প্রথম আন্তর্জাতিক জয় অর্জন করে। পরে একই টুর্নামেন্টে কুয়েতকে হারিয়ে ছয় দলের গ্রুপে ৪র্থ স্থান দখল করে এবং প্লে-অফে ইরানকে স্বল্প ব্যবধানে পরাজিত করে সার্বিকভাবে ৭ম অবস্থানে (১২টি দলের মধ্যে) টুর্নামেন্ট সমাপ্ত করে।[৮] ২০১১ এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল মহিলা টুয়েন্টি২০ চ্যাম্পিয়ানশিপে দলের জয়ে হার ছিল খুবই নগন্য, তবুও দুটি জয় নিয়ে ১০ দলের টুর্নামেন্টে নিজেদেরকে ৯ম স্থানে রেখে টুর্নামেন্ট সমাপ্ত করে।[৯] থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৩ এসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে দলটি কোন জয় পায়নি, ফলে ১১ দলের টুর্নামেন্টে নিজেদের ১০ম অবস্থান নিয়ে ফিরে আসে (শুধুমাত্র কুয়েত এর আগে থাকে)[১০] অতপর, দলটি তাদের আঞ্চলিক টুর্নামেন্টে ভাল করতে থাকে। কাতার ও ওমানে অনুষ্ঠিত গাল্‌ফ ক্রিকেট কাউন্সিল (জিসিসি) আয়োজিত উভয় সংস্করণেই জয় পায়।[১১]

জুন ২০১৬ তে অস্ট্রেলিয়ার মহিলা বিগ বাশ লীগ এর দুই দল সিডনি সিক্সার্স এবং সিডনি থান্ডার প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের জন্য আমিরাত ভ্রমণে আসে। তারা দুবাই শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়াম-এ একটি টুয়েন্টি২০ প্রীতি ম্যাচ খেলে এবং সেখানে আরব আমিরাত মহিলা জাতীয় দলের খেলোয়াড়েরা (নাতাশা মাইকেল, ছায়া মোঘল) আঘাতপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের বদলী হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।[১২][১৩]

এপ্রিল ২০১৮ তে আইসিসি তার সকল সদস্য দেশের জন্য পূর্ণ মহিলা টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক মর্যাদা অনুমোদন করে। ফলে ১ জুলাই ২০১৮ এর পরে সংযুক্ত আরব আমিরাত জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল এর সাথে অন্য যে কোন আন্তর্জাতিক দলের মধ্যকার অনুষ্ঠিত সকল খেলাকেই টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক হিসাবে বিবেচিত হবে।[১৪]

স্কোয়াড[সম্পাদনা]

২০১৮ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্ব-এ সংযুক্ত আরব আমিরাতের খেলোয়াড়দের তালিকা ছিল নিম্নরূপ:[১৫]

রেকর্ড[সম্পাদনা]

মহিলা টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক রেকর্ড[সম্পাদনা]

প্রতিপক্ষ খেলা জয় পরাজয় টাই ড্র হার প্রথম শেষ প্রথম জয়
আইসিসি পূর্ণ সদস্য
 বাংলাদেশ ০.০০ ২০১৮ ২০১৮
আইসিসি সহযোগী সদস্য
 চীন ১০০.০০ ২০১৯ ২০১৯ জানুয়ারী ২০১৯
 ইন্দোনেশিয়া ১০০.০০ ২০১৯ ২০১৯ জানুয়ারী ২০১৯
 মালয়েশিয়া ১০০.০০ ২০১৯ ২০১৯ জানুয়ারী ২০১৯
   নেপাল ০.০০ ২০১৯ ২০১৯
 নেদারল্যান্ডস ৭৫.০০ ২০১৮ ২০১৮ ৭ জুলাই ২০১৮
 পাপুয়া নিউ গিনি ০.০০ ২০১৮ ২০১৮
 থাইল্যান্ড ০.০০ ২০১৮ ২০১৯
মোট ১০ ৪৫.০০ ২০১৮ ২০১৯ -
হালনাগাদ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ Results Summary

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "WT20I matches - Team records"। ESPNcricinfo। 
  2. "WT20I matches - 2018 Team records"। ESPNcricinfo। 
  3. "Other matches played by United Arab Emirates women" (ইংরেজি ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  4. "UAE embarrassed by Bangladesh" (ইংরেজি ভাষায়)। ESPNcricinfo। ১১ জুলাই ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  5. "Bangladesh crush UAE" (ইংরেজি ভাষায়)। Asian Cricket Council। ১১ জুলাই ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  6. "Natasha Cherriath: Emirates high-flyer" (ইংরেজি ভাষায়)। Asian Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  7. "Natasha to lead UAE women's team" (ইংরেজি ভাষায়)। গালফ নিউজ। ৩ জুলাই ২০০৭। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  8. "Asian Cricket Council Women's Twenty20 Championship 2009" (ইংরেজি ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  9. "Asian Cricket Council Women's Twenty20 Championship 2010/11" (ইংরেজি ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  10. "Asian Cricket Council Women's Championship 2012/13" (ইংরেজি ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  11. "UAE women retain Gulf T20 cricket title" (ইংরেজি ভাষায়)। Emirates 24/7। ৬ ডিসেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  12. "WBBL teams Sydney Sixers and Sydney Thunder to tour UAE to promote women's cricket" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য ন্যাশনাল। ২৬ মে ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  13. "Dream come true' as UAE women's cricketers to share field with Big Bash League stars" (ইংরেজি ভাষায়)। The National। ৪ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৬ 
  14. "All T20I matches to get international status"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৮ 
  15. "ICC announces umpire and referee appointments for ICC Women's World Twenty20 Qualifier 2018"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৮ 
  16. "Records / UAE Women / Women's Twenty20 Internationals / Highest totals"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  17. "Records / UAE Women / Women's Twenty20 Internationals / Lowest totals"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  18. "Records / UAE Women / Women's Twenty20 Internationals / Top Scores"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  19. "Records / UAE Women / Women's Twenty20 Internationals / Best Bowling figures"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮