২০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০
২০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ এর লোগো.svg
২০১৪ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ এর লোগো
তারিখ১৬ মার্চ – ৬ এপ্রিল
ব্যবস্থাপকআন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনটুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনগ্রুপ পর্ব ও নক-আউট
আয়োজক বাংলাদেশ
বিজয়ী অস্ট্রেলিয়া (৩য় শিরোপা)
অংশগ্রহণকারী১০
খেলার সংখ্যা২৭
প্রতিযোগিতার সেরা
খেলোয়াড়
ইংল্যান্ড অ্যানিয়া শ্রাবসোল
সর্বোচ্চ রানঅস্ট্রেলিয়া মেগ ল্যানিং (২৫৭)
সর্বোচ্চ উইকেটইংল্যান্ড অ্যানিয়া শ্রাবসোল (১৩)
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটiccworldtwenty20.com

২০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ (ইংরেজি: 2014 ICC Women's World Twenty20) মহিলাদের চতুর্থ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতা, একটি আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট যা বাংলাদেশে ১৬ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল ২০১৪ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়।[১][২] ২০১০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল কর্তৃক এই আসরের স্বাগতিক হিসেবে বাংলাদেশের নাম ঘোষণা করা হয়।[৩] প্রথমবারের মত এই প্রতিযোগিতায় ৮টি দলের পরিবর্তে ১০টি দল খেলে। এ টুর্নামেন্ট আয়োজনের ফলে দ্বিতীয়বারের মতো এশিয়ার কোন দেশে আইসিসি মহিলা টুয়েন্টি২০ বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

দলসমূহ[সম্পাদনা]

এই প্রথমবারের মত ১০টি দল টুর্ণামেন্টে অংশ নেয়। ২০১২ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ থেকে শীর্ষ ৬টি দল ও স্বাগতিক হিসাবে বাংলাদেশ সরাসরি টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। বাকি ৩টি দল ২০১৩ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্ব খেলে টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।

মাঠ[সম্পাদনা]

০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০’র মাঠ

২০১৪ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০তে মোট ২৭টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। অনুশীলন ম্যাচগুলি সাভারের বিকেএসপির মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। গ্রুপ পর্বের সবগুলি ম্যাচ সিলেটের সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। তবে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ঢাকার মিরপুরে শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

 বাংলাদেশ
ঢাকা সিলেট
শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়াম
স্থানাঙ্ক:২৩°৪৮′২৪.৯৫″ উত্তর ৯০°২১′৪৮.৮৭″ পূর্ব / ২৩.৮০৬৯৩০৬° উত্তর ৯০.৩৬৩৫৭৫০° পূর্ব / 23.8069306; 90.3635750 স্থানাঙ্ক:২৪°৫৫′১৪.৮১″ উত্তর ৯১°৫২′০৭.১৫″ পূর্ব / ২৪.৯২০৭৮০৬° উত্তর ৯১.৮৬৮৬৫২৮° পূর্ব / 24.9207806; 91.8686528
ধারণক্ষমতা: ২৬,০০০ ধারণক্ষমতা: ১৩,৫০০[৪]
Sher-e-Bangla National Cricket Stadium.jpg

সময়সূচী[সম্পাদনা]

অনুশীলন ম্যাচ[সম্পাদনা]

সর্বমোট ১০টি প্রস্তুতিমূলক খেলা ১৮ থেকে ২১ মার্চ পর্যন্ত সাভারের বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত হয়।[৫]

অনুশীলন ম্যাচ
১৮ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৪৪/৫ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১২৫/৫ (২০ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৮ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১০৭/৮ (১৯.৫ ওভার)
 পাকিস্তান
১০৬/৬ (২০ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৮ মার্চ
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
ভারত 
১২১/৮ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১৩৮/৮ (২০ ওভার)
মিতালী রাজ ৫৩ (৪৭)
মরনা নিয়েলসন ৩/৯ (৪ ওভার)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৮ মার্চ
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
৭১ (১৮.৫ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১২৩/৪ (২০ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২০ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৭৬/৬ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
৮১ (১৯.৫ ওভার)
নাহিদা খান ৩০ (২৯)
সালমা খাতুন ৩/১১ (৩.৫ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২০ মার্চ
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১২১/৯ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৭০/৫ (২০ ওভার)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১২৮/৭ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৪৪/৩ (২০ ওভার)
ডিন্দ্রা ডটিন ৭৮* (৪৮)
জেস জোনাসেন ২/২৪ (৪ ওভার)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৪৯/২ (৯.২ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৪৮ (১৫.২ ওভার)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ মার্চ
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৮৫/৮ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
৮৮/২ (১৫.৩ ওভার)
শায়লা শারমিন ২১ (২০)
সানি লুস ১/৫ (২ ওভার)
লিজলি লি ৫০* (৪৫)
খাদিজা তুল কুবরা ১/১৬ (৪ ওভার)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ মার্চ
০৯:৩০
স্কোরকার্ড
ভারত 
১৪৮/৪ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১২২/৯ (২০ ওভার)
পুনম রাউত ৫০* (৪০)
এলিনা টাইস ১/২৪ (৪ ওভার)
ক্লার শিলিংটন ৪৭ (৪৩)
শিখা পান্ডে ৩/২৪ (৪ ওভার)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

দল খেলা জয় পরাজয় ফলাফল হয়নি এনআরআর পয়েন্ট
 অস্ট্রেলিয়া +২.২০৫
 দক্ষিণ আফ্রিকা +১.৬০৬
 নিউজিল্যান্ড +১.২৭৫
 পাকিস্তান -২.২৮৮
 আয়ারল্যান্ড -২.৭৫০
২৩ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১২৮/৮ (২০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১২১ (১৯.৩ ওভার)
এলিসা হিলি ৪১ (৪১)
হলি হাডলস্টোন (২/২৩ ৪ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৭ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: নিকোলা ব্রাউন (নিউজিল্যান্ড)
  • অস্ট্রেলিয়া মহিলা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।

২৩ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৬৩/০ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১১৯/৯ (২০ ওভার)
নিদা দার ৩২ (২৬)
মারিজান কাপ ৩/১৬ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৪৪ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (নিউজিল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: ডেন ফন নাইকার্ক (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • পাকিস্তান মহিলা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।

২৫ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১২৯/৫ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১৭১/৩ (২০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৪২ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: সুজি বেটস (নিউজিল্যান্ড)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৫ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১১৬/৪ (১৮.৪ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১১৫/৯ (২০ ওভার)
এলিসি পেরি ৪১* (২৯)
শাবনিম ইসমাইল ১/১২ (৩ ওভার)
তৃষা ছেত্তি ৩০ (২৮)
জুলি হান্টার ২/১৩ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও র‌্যানমোর মার্টিনেজ (শ্রীলঙ্কা)
সেরা খেলোয়াড়: এলিসি পেরি (অস্ট্রেলিয়া)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৭ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৯১/৪ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১১৩/৭ (২০ ওভার)
মেগ ল্যানিং ১২৬ (৬৫)
এলিনা টাইস ১/২৫ (৪ ওভার)
ইসোবেল জয়েস ২৮ (৩৫)
এলিসি পেরি ২/১৭ (৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৭৮ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও এস. রবি (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: মেগ ল্যানিং (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৭ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৬৭/৩ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১০৮/৭ (২০ ওভার)
সুজি বেটস ৯৪* (৬১)
সাদিয়া ইউসুফ ২/২৪ (৪ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৫৯ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: র‌্যানমোর মার্টিনেজ (শ্রীলঙ্কা) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: সুজি বেটস (নিউজিল্যান্ড)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৯ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
৭৯ (১৯.৫ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৬৫/৫ (২০ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৮৬ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: ক্লো ট্রায়ন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৯ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৮৫/২ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
৯১/৯ (২০ ওভার)
বিসমাহ মারুফ ২৮ (৩৫)
এলিসি পেরি ৩/১২ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৯৪ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও এস. রবি (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: এলিস ভিলানি (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩১ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১০৫ (১৯.৩ ওভার)
 পাকিস্তান
১১৯/৬ (২০ ওভার)
পাকিস্তান ১৪ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: বিসমাহ মারুফ (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩১ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১১৪/৮ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১১৬/৫ (১৯.২ ওভার)
সোফি ডিভাইন ৪০ (৪৩)
মারিজান কাপ ৩/২৩ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৫ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও র‌্যানমোর মার্টিনেজ (শ্রীলঙ্কা)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

দল খেলা জয় পরাজয় ফলাফল হয়নি এনআরআর পয়েন্ট
 ইংল্যান্ড +১.৩৬৩
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ +০.৭৭৩
 ভারত +০.৭৮১
 শ্রীলঙ্কা -০.৪৩৭
 বাংলাদেশ -২.৩৮৮
২৪ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১২৪/৯ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৩৩/৭ (২০ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও র‌্যানমোর মার্টিনেজ (শ্রীলঙ্কা)
সেরা খেলোয়াড়: ডিন্দ্রা ডটিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৪ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
১০৬/৯ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১২৮/৮ (২০ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৬ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৭৯ (১৭.৩ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১১৫ (২০ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩৬ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: শাকুয়ানা কুইন্টিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৬ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৯৮/৫ (১৮.১ ওভার)
 ভারত
৯৫/৯ (২০ ওভার)
সারাহ টেইলর ২৮ (২৯)
সোনিয়া দাবির ২/২১ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও র‌্যানমোর মার্টিনেজ (শ্রীলঙ্কা)
সেরা খেলোয়াড়: অ্যানিয়া শ্রাবসোল (ইংল্যান্ড)
  • ভারত দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৫৮/৯ (২০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৩৭/৫ (২০ ওভার)
ইংল্যান্ড ৭৯ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: এস. রবি (ভারত) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: শার্লত এডওয়ার্ডস (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৮৪ (১৬.৫ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
৮৭/২ (১৫ ওভার)
যশোদা মেন্ডিস ২১ (১৭)
শনেল ডালি ৪/১৫ (৪ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: শনেল ডালি (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • শ্রীলঙ্কা দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মার্চ
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৫১/৫ (২০ ওভার)
 ভারত
৭২/৮ (২০ ওভার)
সালমা খাতুন ১৯ (১৮)
ঝুলন গোস্বামী ৩/১১ (৩ ওভার)
  • ভারত দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মার্চ
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৮৬/৩ (১৬ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
৮৫/৯ (২০ ওভার)
ইংল্যান্ড ৭ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও এস. রবি (ভারত)
  • শ্রীলঙ্কা দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ এপ্রিল
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১১৫/৯ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১১২/৯ (২০ ওভার)
যশোদা মেন্ডিস ৩৩ (৩৩)
পান্না ঘোষ ৩/১৮ (৪ ওভার)
বাংলাদেশ ৩ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও এস. রবি (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: রুমানা আহমেদ (বাংলাদেশ)
  • বাংলাদেশ দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ এপ্রিল
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
১২১/১ (১৭.৪ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১১৭/৭ (২০ ওভার)
পুনম রাউত ৫৬ (৫২)
শাকিরা সেলমান ১/২১ (৩ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

বাছাইপর্বে স্থান নির্ধারণী[সম্পাদনা]

২ এপ্রিল
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৩৫/৪ (১৯ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৩১/৭ (২০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৬ উইকেটে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও এস. রবি (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: র‌্যাচেল প্রিস্ট (নিউজিল্যান্ড)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২ এপ্রিল
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
১০৬/৭ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১০০/৯ (২০ ওভার)
মিতালী রাজ ৩৯ (৪৩)
সানিয়া খান ৩/১৫ (৪ ওভার)
নাহিদা খান ২৬ (৩২)
সোনিয়া দাবির ৩/১৪ (৪ ওভার)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

স্থান নির্ধারণী[সম্পাদনা]

৭ম স্থান নির্ধারণী[সম্পাদনা]

৩ এপ্রিল
১৫:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১২২/৫ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১০৮/৮ (২০ ওভার)
ঈশানী কৌশল্যা ৩৭ (২৯)
সানিয়া খান ৩/২৪ (৪ ওভার)
পাকিস্তান ১৪ রানে বিজয়ী
সিলেট স্টেডিয়াম, সিলেট
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: বিসমাহ মারুফ (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৯ম স্থান নির্ধারণী[সম্পাদনা]

৩ এপ্রিল
১৯:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১০৬/৭ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৮৯ (১৯.৩ ওভার)
শারমিন আক্তার ৩৫ (৪৬)
লুসি ও’রিলি ৩/১৫ (৪ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

নকআউট পর্ব[সম্পাদনা]

  সেমিফাইনাল ফাইনাল
                 
এ১   অস্ট্রেলিয়া ১৪০/৫ (২০ ওভার)  
বি২   ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩২/৪ (২০ ওভার)  
    এ১   অস্ট্রেলিয়া ১০৬/৪ (১৫.১ ওভার)
  বি১   ইংল্যান্ড ১০৫/৮ (২০ ওভার)
বি১   ইংল্যান্ড ১০২/১ (১৬.৫ ওভার)
এ২   দক্ষিণ আফ্রিকা ১০১ (১৯.৫ ওভার)  
সেমি-ফাইনাল
৩ এপ্রিল
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৪০/৫ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৩২/৪ (২০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৮ রানে বিজয়ী
শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: ইরিন অসবোর্ন (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া দল টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

সেমি-ফাইনাল
৪ এপ্রিল
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১০২/১ (১৬.৫ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১০১ (১৯.৫ ওভার)
সারাহ টেইলর ৪৪* (৪৫)
সান লুস ১/১৫ (৩ ওভার)
ইংল্যান্ড ৯ উইকেটে বিজয়ী
শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: অ্যানিয়া শ্রাবসোল (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

ফাইনাল
৬ এপ্রিল
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১০৬/৪ (১৫.১ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১০৫/৮ (২০ ওভার)
মেগ ল্যানিং ৪৪ (৩০)
নাতালি শিভার ২/১২ (২ ওভার)
হিদার নাইট ২৯ (২৪)
সারাহ কোয়েত ৩/১৬ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে বিজয়ী
শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর
দর্শক:৪,৩১৩
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Logo for ICC World Twenty20 2014 Bangladesh launched in Dhaka"। Cricket.com.pk। ৬ এপ্রিল ২০১৩। ২৩ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৩ 
  2. "BCB optimistic about World Twenty20 preparation"Cricinfo। ৬ এপ্রিল ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৯ এপ্রিল ২০১৩ 
  3. "Bangladesh to host World Twenty20 2014"Cricinfo। ১ জুলাই ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৯ এপ্রিল ২০১৩ 
  4. সাড়ে ১৩ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার সিলেট স্টেডিয়াম
  5. "ICC Women's World Twenty20 Warm-up Matches, 2013/14"CricInfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৩-০৩