আফগানিস্তান জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আফগানিস্তান
Flag of Afghanistan (2013–2021).svg
আফগানিস্তানের পতাকা
সংঘআফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড
কর্মীবৃন্দ
অধিনায়কখালি
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট
প্রথম আন্তর্জাতিকvs তাজিকিস্তান তাজিকিস্তান
২৩ মার্চ ২০১৫ অনুযায়ী

আফগানিস্তান জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল ছিল সেই দল যা আন্তর্জাতিক মহিলা ক্রিকেট ম্যাচে আফগানিস্তান দেশের প্রতিনিধিত্ব করে।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০১০-২০১৪[সম্পাদনা]

দলটি প্রথম ২০১০ সালে গঠিত হয়েছিল,[২] কিন্তু ২০১৪ সালে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল।[১] যদিও দলটি আইসিসি প্রতিযোগিতায় কখনো প্রতিনিধিত্বমূলক ক্রিকেট খেলেনি, তবে কুয়েতে ২০১১ এসিসি মহিলা টুয়েন্টি২০ তে অংশ নেওয়ার কথা ছিল, যা ১৭-২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলেছিল। আফগানিস্তানে খেলাধুলায় মহিলাদের অংশগ্রহণের বিরোধিতা করার কারণে দলটি কুয়েত ভ্রমণের আগে টুর্নামেন্ট থেকে সরে যেতে বাধ্য হয়।[৩]

২০১২ সালে, দলটি তাজিকিস্তানের দুশান্বেতে ৬টি টিম টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে[৪] এবং চারটি ম্যাচ জিতে এবং একটি টাই করে চ্যাম্পিয়ন হয়।[৫]

২০২০-আগস্ট ২০২১[সম্পাদনা]

২০২০ সালের নভেম্বরে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড পঁচিশ জন খেলোয়াড়কে কেন্দ্রীয় চুক্তি প্রদান করে, আইসিসি টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার জন্য জাতীয় দল গঠনের লক্ষ্যে।[৬][৭] ২০২০ সালের অক্টোবরে এসিবি প্রতিভা পুল থেকে নির্বাচিত খেলোয়াড়দের জন্য অলকোজাই কাবুল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট গ্রাউন্ডে দক্ষতা ও ফিটনেস শিবিরের পাশাপাশি জাতীয় দলের ট্রায়াল ক্যাম্পের আয়োজন করে।[৮] [৯]

২০২১ সালের এপ্রিল মাসে আইসিসি সকল পূর্ণ সদস্য মহিলা দলকে স্থায়ী টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিক (ওয়ানডে) মর্যাদা প্রদান করে।[১০]

আগস্ট ২০২১ -বর্তমান[সম্পাদনা]

আফগানিস্তানের নারী ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা এবং আফগানিস্তানে নারী ক্রিকেটের বিকাশ নিয়ে উদ্বেগ উত্থাপিত হয়েছিল ২০২১ সালের তালেবান আক্রমণ এবং ১৫ আগস্ট ২০২১ কাবুলের পতনের পর[১১][১২][১৩]

৩১ আগস্ট ২০২১ পর্যন্ত আফগান মহিলা ক্রিকেট দলের তিনজন রোয়া সামিম ও তার দুই বোন কানাডায় নির্বাসিত ছিলেন। সামিম বলেছিলেন যে আফগানিস্তানে অবশিষ্ট দলের সদস্যরা তালিবানদের ভয় পান। তিনি বলেন যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিতে চাওয়া দলের সদস্যদের কাছ থেকে সাহায্যের আহ্বান জানিয়ে ইমেইলের জবাব দিতে ব্যর্থ হয়েছে এবং আফগান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি) "অপেক্ষা করুন" বলা ছাড়া কোন সাহায্য দেয়নি। আইসিসি বলেছে যে তারা সাহায্য চেয়ে ইমেল পাওয়ার বিষয়ে অবগত নয় এবং তারা পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। দ্য গার্ডিয়ান-এর মতে, একতরফা ভাবে কাজ করা এড়াতে আইসিসি এসিবির সাথে যোগাযোগ রাখছিল। এসিবির একজন মুখপাত্র বলেছেন যে তালেবানরা পুরুষদের ক্রিকেট অব্যাহত রাখার সমর্থন করছে বলে মনে হচ্ছে।

কাবুলের পতনের পর দলের একজন সদস্যকে তালেবানরা হুমকি দিয়েছিল "যদি [আবার] ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করে"। দলের আরেক সদস্য, ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ (2021-09-02)-এর হিসাব অনুযায়ী বলেন, আইসিসি "নারী ক্রিকেট দলকে কখনো সাহায্য করে না, দলকে" সর্বদা হতাশ করে এবং শুধুমাত্র মহিলা দলের সাথে সরাসরি যোগাযোগ না করে কেবল এসিবি-র সঙ্গে যোগাযোগ করে। দলের বেশ কয়েকজন সদস্য মহিলা দলকে পুনর্গঠনের জন্য তাদের প্রত্যাশা এবং আশা প্রকাশ করেছেন।

এসিবি-র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হামিদ শিনওয়ারি ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরের শুরুতে বলেছিলেন যে তিনি আশা করেছিলেন আফগান মহিলা ক্রিকেট দলকে "বন্ধ করা হবে"। তালেবান আরও বলেছে যে আফগান মহিলাদের খেলাধুলায় বাধা দেওয়া হবে।[১৪]

টুর্নামেন্টের ইতিহাস[সম্পাদনা]

হোস্ট/বছর রাউন্ড/র্যাঙ্ক
তাজিকিস্তানদুশান্বে মহিলা টুর্নামেন্ট, ২০১২ চ্যাম্পিয়ন

প্রধান কোচ[সম্পাদনা]

  • আফগানিস্তান ডায়ানা বারাকজাই ২০১০-২০১৪
  • আফগানিস্তান তুবা সাগর ২০১৪-[১৫]

ক্যাপ্টেন[সম্পাদনা]

  • ডায়ানা বারাকজাই ২০১০-২০১৪

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Afghan Girls Want A (Cricket) League Of Their Own"। Radio Liberty। ১৮ এপ্রিল ২০১৮। 
  2. First women's cricket team for Afghanistan
  3. "Afghanistan's Pioneer Women"Asian Cricket Council। ১৫ আগস্ট ২০১১। 
  4. "Archived copy"। ২ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৫ 
  5. "Archived copy"। ৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৫ 
  6. "ACB to award central contracts to 25 female cricketers"Afghanistan Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০২০ 
  7. "ACB shortlists 25 for national women's team"CricBuzz। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০২০ 
  8. Foundation, Thomson Reuters। "Women cricketers defy threats to play for Afghanistan"news.trust.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৮ 
  9. "Afghanistan Cricket Board urges patience with women's initiatives"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৮ 
  10. "The International Cricket Council (ICC) Board and Committee meetings have concluded following a series of virtual conference calls"। ICC। ১ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০২১ 
  11. "Return of Taliban deals a body blow to Afghanistan cricket and women's football teams"Sify (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-০৮-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৮ 
  12. "Afghan female athletes told to go into hiding and delete online profiles in fear of Taliban"inews.co.uk (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-০৮-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৮ 
  13. "Afghan women's team expected to be stopped"BBC Sport। ১৮ আগস্ট ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০২১ 
  14. "Afghan women to be banned from playing sport, Taliban say"The Guardian (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  15. http://www.thenational.ae/world/central-asia/afghan-womens-cricket-crushed-by-threats-and-tradition