ইসোবেল জয়েস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইসোবেল জয়েস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামইসোবেল মেরি হেলেন সেসেলিয়া জয়েস
জন্ম (1983-07-25) ২৫ জুলাই ১৯৮৩ (বয়স ৩৬)
উইকলো, আয়ারল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি মিডিয়াম
সম্পর্কইসি জয়েস, এ জয়েস,
ডিআই জয়েস, সিএনআইএম জয়েস (ভাই-বোন)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ )
৩০ জুলাই ২০০০ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই অভিষেক২৬ জুন ১৯৯৯ বনাম ভারত
শেষ ওডিআই১৪ জানুয়ারি ২০১৪ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই শার্ট নং
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৯-বর্তমানআয়ারল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই
ম্যাচ সংখ্যা ৬৭ ২৮
রানের সংখ্যা ৭৪০ ৫৫৬
ব্যাটিং গড় ১৫.১০ ২২.২৪
১০০/৫০ –/– ০/২ ০/১
সর্বোচ্চ রান ৬৭* ৫৬*
বল করেছে ৬৭ ২,৬০২ ৫৮০
উইকেট ৫৯ ১৯
বোলিং গড় ৩.৫০ ২৮.৮৪ ২৬.৪৭
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৬/২১ ৪/২০ ২/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ২০/– ৬/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৩ এপ্রিল ২০১৪

ইসোবেল মেরি হেলেন সেসেলিয়া জয়েস (ইংরেজি: Isobel Joyce; জন্ম: ২৫ জুলাই, ১৯৮৩) উইকলো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট আইরিশ প্রমিলা ক্রিকেটার। আয়ারল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডারের ভূমিকা পালনসহ দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন। ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও বামহাতি মিডিয়াম পেস বোলার ইসোবেল জয়েস দলের সদস্যরূপে এ পর্যন্ত এক টেস্ট ও ৬৭ একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছেন।[১]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

জুন, ১৯৯৯ সালে মিল্টন কেনেসে সফরকারী ভারতের বিপক্ষে জয়েসের ওডিআই অভিষেক ঘটে।[২] পরের মাসেই মহিলাদের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নেন।[৩] ২০০০ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে চারটি ওডিআই খেলেন।[৪] একই দলের বিপক্ষে টেস্ট খেলায়ও অংশ নেন তিনি যা অদ্যাবধি আয়ারল্যান্ডের একমাত্র টেস্ট হিসেবে বিবেচিত।[৫][৬] বছরের শেষদিকে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত মহিলাদের বিশ্বকাপে খেলেন।

এরপর অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ওডিআইয়ে আয়ারল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করেন।[৪] এছাড়াও, ২০০১[৭] ও ২০০৫ সালের[৮] ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপ এবং ২০০৩ সালে নেদারল্যান্ডসে অনুষ্ঠিত আইডব্লিউসিসি ট্রফিতে খেলেন।[৯]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

এক ক্রিকেট পরিবার থেকে এসেছেন ইসোবেল জয়েস। তার যমজ বোন সেসেলিয়াও আয়ারল্যান্ডের পক্ষে খেলছেন। অন্যদিকে, তার তিন ভাই - ডমিনিক, এড এবং গাস প্রত্যেকেই আইরিশ পুরষ ক্রিকেট দলে খেলছেন। এছাড়াও, এড ইংল্যান্ডের পক্ষে খেলেছেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]