২০২২ দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ইংল্যান্ড সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০২২ দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ইংল্যান্ড সফর
Flag of England.svg
ইংল্যান্ড
Flag of South Africa.svg
দক্ষিণ আফ্রিকা
তারিখ ২৭ জুন ২০২২ – ২৫ জুলাই ২০২২
অধিনায়ক হেদার নাইট সুনে লুস
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ১ ম্যাচের সিরিজ ০–০ ব্যবধানে ড্র হয়
সর্বাধিক রান নাতালি সিভার (১৬৯) মারিজান কাপ (১৯৩)
সর্বাধিক উইকেট কেট ক্রস (৬) আন্নেকে বশ (৩)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ড ৩–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান এমা ল্যাম্ব (২৩৪) ক্লোয়ি-লেসলি ট্রাইঅন (১৬৬)
সর্বাধিক উইকেট শার্লট ডিন (৮) নাদিন দে ক্লের্ক (৫)
সিরিজ সেরা এমা ল্যাম্ব (ইংল্যান্ড)
টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ড ৩–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান নাতালি সিভার (৮৪) আন্নেকে বশ (৯৬)
সর্বাধিক উইকেট ক্যাথরিন ব্রান্ট (৫)
সোফি একলস্টোন (৫)
আয়াবোংগা খাকা (৪)
সিরিজ সেরা সোফি একলস্টোন (ইংল্যান্ড)
সিরিজের পয়েন্ট
ইংল্যান্ড ১৪, দক্ষিণ আফ্রিকা ২

দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দল ২০২২ সালের জুন ও জুলাই মাসে একটি টেস্ট, তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) ও তিনটি টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) ম্যাচ খেলার জন্য ইংল্যান্ড সফর করে।[১][২][৩] ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড সফরের সূচি নিশ্চিত করে।[৪] ২০১৪ সালের পর এ সিরিজেই দক্ষিণ আফ্রিকা দল প্রথমবারের মত কোনও টেস্ট ম্যাচে অংশ নেয়।[৫] সফরে সব ফরম্যাট মিলিয়ে জয়ী দল নির্ধারণের জন্য একটি পয়েন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়।[৬]

সিরিজের একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি বৃষ্টিবিঘ্নিত হওয়ার কারণে ড্র হয়।[৭][৮][৯] ওডিআই সিরিজে ইংল্যান্ড ৩–০ ব্যবধানে জয়ী হয়।[১০] টি২০আই সিরিজেও ইংল্যান্ড ৩–০ ব্যবধানে জয়লাভ করে ও পয়েন্ট পদ্ধতি অনুসারে পুরো সফরে বড় ব্যবধানে বিজয় অর্জন করে।[১১][১২][১৩][১৪]

প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

প্রাথমিকভাবে সফরটি ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।[১৫] সফরে চারটি ওডিআই ও দুটি টি২০আই ম্যাচ খেলা হওয়ার কথা ছিল।[১৬] প্রথমে সবগুলো ম্যাচ ভিন্ন ভিন্ন মাঠে আয়োজন করার পরিকল্পনা থাকলেও পরবর্তীতে শুধু ডার্বির কাউন্টি ক্রিকেট মাঠে জৈবসুরক্ষিত পরিবেশে সব ম্যাচ খেলা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।[১৭][১৮] কিন্তু ২০২০ সালের আগস্ট মাসে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা কোভিড-১৯ মহামারির কারণে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের ইংল্যান্ডে সফরে না যাওয়ার কথা নিশ্চিত করে।[১৯][২০] ওয়েস্ট ইন্ডিজ সে সময় ইংল্যান্ড সফরে আসতে রাজি থাকায় ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে একটি সিরিজ খেলা হয়।[২১]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 ইংল্যান্ড  দক্ষিণ আফ্রিকা
টেস্ট[২২] ওডিআই[২৩] টি২০আই[২৪] টেস্ট ও ওডিআই[২৫][২৬] টি২০আই[২৭]

ইসাবেল ওংকে প্রাথমিকভাবে ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে রিজার্ভ খেলোয়াড় হিসেবে রাখা হয়েছিল।[২৮] এমিলি আর্লটের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হওয়ায় ২০২২ সালের ২৫ জুন ইসাবেল ওংকে মূল দলে নেয়া হয়।[২৯][৩০] ওডিআই সিরিজ শুরুর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার লিজেল লি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন।[৩১] দ্বিতীয় ওডিআই ম্যাচের আগে ডেলমি টাকার ও মাসাবাতা ক্লাসকে সিরিজের বাকি ম্যাচগুলোর জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা দলে যুক্ত করা হয়।[৩২] টি২০আই সিরিজের আগে দক্ষিণ আফ্রিকার তুমি সেখুখুনে ও মারিজান কাপ দল থেকে বাদ পড়ে গেলে তাজমিন ব্রিটসকে দক্ষিণ আফ্রিকার টি২০আই দলে যোগ করা হয়।[৩৩]

প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ[সম্পাদনা]

২১–২৩ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
৩০১ (৮০ ওভার)
লরা ভোলফার্ড্‌ট ১০১ (১৪৮)
সারা গ্লেন ৫/৪৭ (২০ ওভার)
২৭৬/৯ঘো (৭৮ ওভার)
জর্জিয়া এলউইস ১০০* (১২২)
আন্নেকে বশ ৩/১৭ (৮ ওভার)
৩২৫/৯ঘো (৮৯ ওভার)
আন্দ্রি স্টেইন ৬৩ (১৪৪)
গ্রেস পটস ৩/৪১ (১১ ওভার)
১২৩/৩ (৩৬ ওভার)
এভলিন জোনস ৫৯ (৯৮)
নোনকুলুলেকো ম্লাবা ২/৩৩ (১৪ ওভার)
খেলা ড্র
অ্যারানডেল দুর্গ ক্রিকেট মাঠ, অ্যারানডেল
আম্পায়ার: অ্যানা হ্যারিস (ইংল্যান্ড) ও জেসমিন আরওয়েন (ইংল্যান্ড)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

৪ জুলাই ২০২২
১৪:০০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড এ ইংল্যান্ড
১৫৫/৫ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৪০/৬ (২০ ওভার)
মায়া বুশিয়ের ৪৯ (৪২)
সুনে লুস ১/৭ (২ ওভার)
সুনে লুস ৪৫ (৩৪)
লিনজি স্মিথ ২/১৮ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড এ ১৫ রানে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেনস, কার্ডিফ
আম্পায়ার: জেসমিন আরওয়েন (ইংল্যান্ড) ও সারা বার্টলেট (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড এ টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

৭ জুলাই ২০২২
১১:০০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৬৪/৭ (৫০ ওভার)
ইংল্যান্ড ইংল্যান্ড এ
২৬৭/৩ (৪৩.৩ ওভার)
লরেন উইনফিল্ড ৯৫* (৬৬)
নোনকুলুলেকো ম্লাবা ২/৫৪ (১০ ওভার)
ইংল্যান্ড এ ৭ উইকেটে জয়ী
গ্রেস রোড, লেস্টার
আম্পায়ার: সারা বার্টলেট (ইংল্যান্ড) ও সোফি ম্যাকলেল্যান্ড (ইংল্যান্ড)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

একমাত্র টেস্ট[সম্পাদনা]

২৭–৩০ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
২৮৪ (৯১.৪ ওভার)
মারিজান কাপ ১৫০ (২১৩)
কেট ক্রস ৪/৬৩ (১৭.৪ ওভার)
৪১৭/৮ঘো (১২০ ওভার)
নাতালি সিভার ১৬৯* (২৬৩)
আন্নেকে বশ ৩/৭৭ (১৮ ওভার)
১৮১/৫ (৬৮.১ ওভার)
মারিজান কাপ ৪৩* (৫৮)
ইসাবেল ওং ২/৪৬ (১৪.১ ওভার)
খেলা ড্র
কাউন্টি মাঠ, টনটন
আম্পায়ার: অ্যানা হ্যারিস (ইংল্যান্ড) ও সুজান রেডফার্ন (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: নাতালি সিভার (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • তৃতীয় ও চতুর্থ দিনে বৃষ্টির কারণে যথাক্রমে ৫৩.১ ওভার ও ৫৬.৫ ওভার খেলা সম্ভব হয়নি।
  • অ্যালিস ডেভিডসন-রিচার্ডস, ইসাবেল ওং, এমা ল্যাম্ব, লরেন বেল (ইংল্যান্ড), আন্দ্রি স্টেইন, আন্নেকে বশ, তুমি সেখুখুনে, নাদিন দে ক্লের্ক, নোনকুলুলেকো ম্লাবা, লরা ভোলফার্ড্‌ট, লারা গুডঅল, সুনে লুসসিনালো জাফতা (দক্ষিণ আফ্রিকা)-এর টেস্ট অভিষেক হয়।
  • মারিজান কাপ (দক্ষিণ আফ্রিকা), নাতালি সিভার ও অ্যালিস ডেভিডসন-রিচার্ডস (ইংল্যান্ড) টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৩৪][৩৫][৩৬]
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ২।

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

১১ জুলাই ২০২২
১৪:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২১৮ (৪৭.৪ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২১৯/৫ (৩২.১ ওভার)
এমা ল্যাম্ব ১০২ (৯৭)
নাদিন দে ক্লের্ক ২/৪৪ (৮ ওভার)
ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী
কাউন্টি মাঠ, নর্থ্যাম্পটন
আম্পায়ার: অ্যানা হ্যারিস (ইংল্যান্ড) ও গ্রাহাম লয়েড (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: এমা ল্যাম্ব (ইংল্যান্ড)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এমা ল্যাম্ব (ইংল্যান্ড) ওডিআই ক্রিকেটে নিজের প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৩৭]
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

১৫ জুলাই ২০২২
১৪:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৩৩৭/৫ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২২৩ (৪১ ওভার)
সোফিয়া ডাংকলি ১০৭ (৯৩)
ক্লোয়ি-লেসলি ট্রাইঅন ২/৩৪ (৭ ওভার)
মারিজান কাপ ৭৩ (৫৯)
শার্লট ডিন ৪/৫৩ (১০ ওভার)
ইংল্যান্ড ১১৪ রানে জয়ী
ব্রিস্টল কাউন্টি মাঠ, ব্রিস্টল
আম্পায়ার: অ্যানা হ্যারিস (ইংল্যান্ড) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: সোফিয়া ডাংকলি (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ইসাবেল ওং ও লরেন বেল (ইংল্যান্ড)-এর ওডিআই অভিষেক হয়।
  • সোফিয়া ডাংকলি (ইংল্যান্ড) ওডিআই ক্রিকেটে নিজের প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৩৮]
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

১৮ জুলাই ২০২২
১৪:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৩৭১/৭ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৬২ (৪৫.৪ ওভার)
ট্যামসিন বউমন্ট ১১৯ (১০৭)
আয়াবোংগা খাকা ২/৬৪ (১০ ওভার)
ক্লোয়ি-লেসলি ট্রাইঅন ৭০ (৫৭)
অ্যালিস ডেভিডসন-রিচার্ডস ৩/৩৫ (৬.৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ১০৯ রানে জয়ী
গ্রেস রোড, লেস্টার
আম্পায়ার: অ্যানা হ্যারিস (ইংল্যান্ড) ও সুজান রেডফার্ন (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ট্যামসিন বউমন্ট (ইংল্যান্ড)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

টি২০আই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টি২০আই[সম্পাদনা]

২১ জুলাই ২০২২
১৯:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১১১/৯ (২০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১১৪/৪ (১৫ ওভার)
সোফিয়া ডাংকলি ৫৯ (৩৯)
আয়াবোংগা খাকা ৩/১৩ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী
কাউন্টি ক্রিকেট মাঠ, চেলমসফোর্ড
আম্পায়ার: রব বেইলি (ইংল্যান্ড) ও সারা বার্টলেট (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ক্যাথরিন ব্রান্ট (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ইসাবেল ওং (ইংল্যান্ড) ও ডেলমি টাকার (দক্ষিণ আফ্রিকা)-এর টি২০আই অভিষেক হয়।
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

২য় টি২০আই[সম্পাদনা]

২৩ জুলাই ২০২২
১৪:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৪৮/৬ (২০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৫১/৪ (১৯ ওভার)
আন্নেকে বশ ৬১ (৫৭)
সারা গ্লেন ২/২৭ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী
নিউ রোড, উরস্টার
আম্পায়ার: সুজান রেডফার্ন (ইংল্যান্ড) ও স্টিভ ও'শনেসি (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ড্যানিয়েল ওয়ায়াট (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • অ্যালিস ক্যাপসি (ইংল্যান্ড)-এর টি২০আই অভিষেক হয়।
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

৩য় টি২০আই[সম্পাদনা]

২৫ জুলাই ২০২২
১৮:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৭৬/৬ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৩৮/৬ (২০ ওভার)
সোফি একলস্টোন ৩৩* (১২)
নোনকুলুলেকো ম্লাবা ৩/২২ (৪ ওভার)
তাজমিন ব্রিটস ৫৯ (৫৭)
ফ্রেয়া কেম্প ২/১৮ (৩ ওভার)
ইংল্যান্ড ৩৮ রানে জয়ী
কাউন্টি ক্রিকেট মাঠ, ডার্বি
আম্পায়ার: রব বেইলি (ইংল্যান্ড) ও সারা বার্টলেট (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: সোফি একলস্টোন (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ফ্রেয়া কেম্প (ইংল্যান্ড)-এর টি২০আই অভিষেক হয়।
  • সিরিজের পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "England set to play women's Test against South Africa in 2022"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০২২ 
  2. "England women to host South Africa and India in 2022"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  3. "England Women to return to Lord's for India ODI, host South Africa for one-off Test in 2022"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  4. "England Women to host South Africa and India in 2022"ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  5. "MOMENTUM PROTEAS' MULTI-FORMAT TOUR TO ENGLAND CONFIRMED"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  6. "England v South Africa, Women's Test: All you need to know"দ্য ক্রিকেটার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুন ২০২২ 
  7. "Marizanne Kapp, Tumi Sekhukhune keep England at bay as rain forces draw"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০২২ 
  8. "Taunton Test ends in stalemate as persistent drizzle wipes out most of Day 4"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০২২ 
  9. "England v South Africa: Test drawn after rain ruins final day"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০২২ 
  10. "Tammy Beaumont ton sets tone as England seal clean-sweep with comprehensive 109-run win"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০২২ 
  11. "Sophie Ecclestone shows the way for youthful England in 3-0 series sweep"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০২২ 
  12. "England v South Africa: Sophie Ecclestone stars in comfortable T20 win"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০২২ 
  13. "Ecclestone shines as England complete South Africa series sweep"আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২২ 
  14. "Unbeaten England sweep T20I leg as well to clinch multi-format series 14-2"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২২ 
  15. "Women's T20 World Cup a chance for England to 'put a few things to right' - Natalie Sciver"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 
  16. "England Women summer fixtures"ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 
  17. "England Women to play summer series at Incora County Ground"দ্য ক্রিকেটার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০২০ 
  18. "India Women cancel England tour due to coronavirus restrictions"স্কাই স্পোর্টস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০২০ 
  19. "Momentum Proteas unable to travel for England Women Tour"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ আগস্ট ২০২০ 
  20. "South Africa Women not to tour England in September 2020"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ আগস্ট ২০২০ 
  21. "England Women to feature live on the BBC as West Indies series confirmed for September"ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০২০ 
  22. "England v South Africa: Emma Lamb one of five uncapped players chosen"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০২২ 
  23. "Alice Davidson-Richards, Issy Wong, Lauren Bell named in England ODI squad"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০২২ 
  24. "Alice Capsey named in England's Commonwealth Games squad, Tammy Beaumont omitted"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২২ 
  25. "CSA CONFIRM MOMENTUM PROTEAS SQUAD FOR TEST AND ODI SERIES VS ENGLAND"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২২ 
  26. "Kapp, Lee and Jafta return as South Africa announce squad for Test and ODIs of England tour"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২২ 
  27. "CSA CONFIRM MOMENTUM PROTEAS SQUAD FOR ENGLAND T20I SERIES"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০২২ 
  28. "Five new faces as England Women begin new era of Test cricket"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০২২ 
  29. "England v South Africa: Issy Wong replaces Emily Arlott in Test squad"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০২২ 
  30. "Emily Arlott out of England Women's Test vs South Africa due to effects of Covid-19; Issy Wong comes in"স্কাই স্পোর্টস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০২২ 
  31. "South Africa's star batter Lizelle Lee announces retirement from international cricket"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২২ 
  32. "KLAAS AND TUCKER ADDED TO MOMENTUM PROTEAS SQUAD FOR REMAINDER OF ODI SERIES"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০২২ 
  33. "MARIZANNE KAPP AND TUMI SEKHUKHUNE RULED OUT OF ENGLAND T20I SERIES"ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০২২ 
  34. "'Extraordinary': Twitter reacts to Marizanne Kapp's Test ton for the Proteas"স্পোর্ট২৪ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০২২ 
  35. "England v South Africa: Sciver and Davidson-Richards make Taunton tons"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০২২ 
  36. "Authoritative maiden Test tons from Sciver and Davidson-Richards put England ahead on Day 2"উইমেন'স ক্রিকজোন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০২২ 
  37. "Emma Lamb reaches century for England"বিবিসি স্পোর্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০২২ 
  38. "Sophia Dunkley century powers England as Charlie Dean, Issy Wong impress with ball"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]