ক্যাথারিন ব্রুন্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্যাথারিন ব্রুন্ট
Katherine Brunt.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্যাথারিন হেলেন ব্রুন্ট
জন্ম (১৯৮৫-০৭-০২) ২ জুলাই ১৯৮৫ (বয়স ৩৩)
দক্ষিণ ইয়র্কশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৪১)
২১ আগস্ট ২০০৪ বনাম নিউজিল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১০৪)
১৩ মার্চ ২০০৫ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ১৩)
২ সেপ্টেম্বর ২০০৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৪–ইয়র্কশায়ার নারী
২০০৪ব্রাভেস
২০০৪নাইট রাইডার্স
২০০৫ভি টিম
২০০৬–২০০৮সাফিরেজ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওয়ানডে টি২০ আই
ম্যাচ সংখ্যা ৭৩ ৪২
রানের সংখ্যা ১১০ ২০৮ ৯৭
ব্যাটিং গড় ১৫.৭১ ৯.৪৫ ১২.১২
১০০/৫০ ০/১ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৫২ ২১* ৩৫
বল করেছে ১৭২২ ৩৫৯৮ ৯১৮
উইকেট ৩৪ ৯৩ ৪১
বোলিং গড় ২০.৭৯ ২১.২৫ ১৭.৯৭
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৬/৬৯ ৫/১৮ ৩/৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ১৭/– ১০/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪

ক্যাথারিন হেলেন ব্রুন্ট (জন্ম: ২ জুলাই ১৯৮৫ ইয়র্কশায়ার) হলেন একজন ইংরেজ প্রমিলা ক্রিকেটার এবং বর্তমান ইংল্যান্ড নারীদের দলের অন্যতম একজন সদস্য। তিনি ২০০৬ এবং ২০১০ সালের ইংল্যান্ড নারী বর্ষসেরা ক্রিকেটারের তালিকায় নাম লেখান।[১] তিনি দক্ষিণ ইয়র্কশায়ার এর "পেনিসটোন গ্রামার স্কুল" এর পড়াশোনা করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

একজন আক্রমণাত্মক ডান হাতি ফাস্ট বোলার হিসেবে ক্লাসিক্যাল এ্যাকশনের সঙ্গে তিনি ফিটনেস নিয়ে উদ্বেগ থাকার কারণে ১৭ বছর বয়সে ক্রিকেট থেকে বিরতি নেওয়ার পূর্বে ইয়র্কশায়ার বয়সভিত্তিক ক্রিকেট খেলেছেন। তিনি ২০০৪ সালে নিউজিল্যান্ড দলের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটের খেলার মাধ্যমে পুনরায় ক্রিকেট অঙ্গনে ফিরে আসেন এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অনুষ্ঠিতব্য ২০০৫ সালের ইংল্যান্ড হয়ে বিশ্বকাপ দলের সদস্য ছিলেন। তিনি ১৪ উইকেট নিয়েছিলেন এবং তার প্রথম অর্ধ-শতক স্কোরও করেন যার ফলে ইংল্যান্ড ২০০৫ সালের এ্যাশেজ সিরিজ জয় লাভ করে। এই সফলতার ভিত্তিতে ইংল্যান্ড হয়ে ২০০৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে তিনি উদ্বোধনী বোলার হিসেবে বল করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]