রব বেইলি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রব বেইলি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবার্ট জন বেইলি
জন্ম (1963-10-28) ২৮ অক্টোবর ১৯৬৩ (বয়স ৫৫)
বিড্ডালফ, স্টোক-অন-ট্রেন্ট, ইংল্যান্ড
উচ্চতা৬ ফুট ৩ ইঞ্চি (১.৯১ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ স্পিন
ভূমিকাআম্পায়ার
সম্পর্করয় উইলিস (শ্বশুর)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৫৩১)
৪ আগস্ট ১৯৮৮ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট১৬ এপ্রিল ১৯৯০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৮৩)
২৬ মার্চ ১৯৮৫ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই১৫ মার্চ ১৯৯০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮২-১৯৯৯নর্দাম্পটনশায়ার
২০০০-২০০১ডার্বিশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৭৪ ৩৯৬
রানের সংখ্যা ১১৯ ১৩৭ ২১,৮৪৪ ১২,০৭৬
ব্যাটিং গড় ১৪.৮৭ ৬৮.৫০ ৪০.৫২ ৩৮.৮২
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ৪৭/১১১ ১০/৭৯
সর্বোচ্চ রান ৪৩ ৪৩* ২২৪* ১৫৩*
বল করেছে ৩৬ ৯,৭১৩ ৩,০৯২
উইকেট ১২১ ৭২
বোলিং গড় ৪২.৫১ ৩৫.৬১
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৫/৫৪ ৫/৪৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ১/– ২৭২/– ১১১/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৪ জুলাই ২০১৪

রবার্ট জন বেইলি (ইংরেজি: Rob Bailey; জন্ম: ২৮ অক্টোবর, ১৯৬৩) স্টাফোর্ডশায়ারের বিড্ডালফে জন্মগ্রহণকারী সাবেক ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও বিশিষ্ট ক্রিকেট আম্পায়ার[১] ১৯৮৫ থেকে ১৯৯০ সময়কালে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষে টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছিলেন রব বেইলি। ২০০১ সালে খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর নিয়ে ইসিবি’র সংরক্ষিত আম্পায়ারের তালিকায় নাম লেখান। এরপর ২০০৬ মৌসুম থেকে ইসিবি’র প্রথম-শ্রেণীর আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

রব বেইলি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)’র আম্পায়ার ও রেফারিদের তালিকার অন্যতম সদস্য। তিনি ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড থেকে প্রতিনিধিত্ব করছেন।[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মাঝারীসারির সাহসী ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্যাট অল্প পিছনে নিয়ে বলকে সজোরে মেরে মাঠের বাইরে ফেলতেন বেইলি।[১] ফিল্ডিংয়েও সমান দক্ষতা প্রদর্শন করে দলের প্রয়োজনে মাঝেমাঝে অফ-স্পিন বোলিং করতেন তিনি। ১৯৮২ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নর্দাম্পটনশায়ারের পক্ষে অভিষেক ঘটে তাঁর। ২০০১ সালে ডার্বির কাউন্টি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে নটিংহ্যামশায়ারের বিপক্ষে কেভিন পিটারসনকে শূন্য রানে আউট করেছিলেন বেইলি।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

বেইলি তাঁর সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ইংল্যান্ডের পক্ষ হয়ে চারটি টেস্ট ও চারটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৮৮ সালে দুর্ধর্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে রব বেইলির। এরপর শীতকালে ভারত সফরের জন্য নির্বাচিত হলেও রাজনৈতিক কারণে সফরটি বাতিল হয়ে যায়। তিনিসহ বেশ কয়েকজন ইংল্যান্ডের খেলোয়াড় দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে ক্রীড়া সম্পর্ক বজায় রাখেন।[৩] ১৯৮৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দলের সফরে ইংল্যান্ডের পক্ষে বিশেষভাবে নির্বাচিত হন তিনি।[১] ১৯৮৯ মৌসুমের শুরুতে তাঁর দূর্বল ক্রীড়াশৈলী চোখে পড়ে। তা স্বত্ত্বেও ১৯৮৯-৯০ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে তাঁকে দলে নেয়া হয়। সিরিজের তৃতীয় ও তাঁর প্রথম খেলায় উভয় ইনিংসেই তিনি শূন্য রান পান। অ্যান্টিগুয়ায় অনুষ্ঠিত চতুর্থ টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ভিভ রিচার্ডসের[৪] অখেলোয়াড়সুলভ আউটের আবেদনে তিনি তাঁর সর্বোচ্চ ৪২ রানের ইনিংস করেন। তাঁর অংশগ্রহণকৃত ছয় ইনিংসের মধ্যে একটিতে অর্ধ-শতক রানের কোটা অতিক্রম করতে পারেননি।[১]

বেইলিকে কাউন্টি ক্রিকেটে অংশগ্রহণকারী চমৎকার ও বিশ্বস্ত খেলোয়াড়দের একজনরূপে গণ্য করা হয়। সতের বছর নর্দাম্পটনশায়ারের খেলার পর ১৯৯৯ সালের শেষ দিকে ডার্বিশায়ারে চলে আসেন। অতঃপর ২০০১ সালে খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর নেন তিনি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 16। আইএসবিএন 1-869833-21-X 
  2. "Emirates International Panel of ICC Umpires"। International Cricket Council। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৩ 
  3. Cricinfo – No admission – England NOT in India, 1988–89
  4. Cricinfo – Within the laws but against the spirit

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]