সুন লুস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুন লুস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামসুন লুস
জন্ম (1996-01-05) ৫ জানুয়ারি ১৯৯৬ (বয়স ২৩)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি লেগ স্পিন
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৬৩)
৬ সেপ্টেম্বর ২০১২ বনাম বাংলাদেশ
শেষ ওডিআই১৭ মার্চ ২০১৫ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই শার্ট নং৯৬
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৩০)
১১ সেপ্টেম্বর ২০১২ বনাম বাংলাদেশ
শেষ টি২০আই২২ মার্চ ২০১৫ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
নর্দার্নস ওম্যান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ডব্লিউওডিআই ডব্লিউটি২০আই
ম্যাচ সংখ্যা ১৪ ২৬
রানের সংখ্যা ৪৫ ১০৬
ব্যাটিং গড় ১১.২৫ ১৭.৬৬
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১৫* ২৯
বল করেছে ৩২২ ৩১৮
উইকেট ১৩ ১৪
বোলিং গড় ১২.৯২ ১৯.৯২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৫/২০ ৪/২১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬/– ৬/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৭ মার্চ ২০১৫

সুন লুস (ইংরেজি: Suné Luus; জন্ম: ৫ জানুয়ারি, ১৯৯৬) প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান প্রমিলা ক্রিকেটার।[১] দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে নর্দার্নসের প্রতিনিধিত্ব করছেন। এছাড়াও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পক্ষেও খেলেছেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ বোলার হিসেবে অংশ নিয়ে থাকেন। ডানহাতে লেগ স্পিন বোলিংয়ের পাশাপাশি নিচের সারিতে ডানহাতে ব্যাটিং করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১২ তারিখে বাংলাদেশের বিপক্ষে তার ওডিআই অভিষেক ঘটে। একই মাসের ১১ তারিখে একই দলের বিপক্ষে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটেছিল তার।

২০১৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে দু প্রিজের নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকা দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। মূল দলে দিনেশা দেবনারায়ণকে অন্তর্ভূক্ত করা হলেও আঘাতের কারণে তাকে দল থেকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। অতঃপর দিনেশার পরিবর্তে তাকে দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।

অর্জনসমূহ[সম্পাদনা]

৫ আগস্ট, ২০১৬ তারিখে ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজের প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিকে সানি লুস অল-রাউন্ড ভূমিকায় অবতীর্ণ হন ও স্মরণীয় ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করেন তিনি। মেরিওন ক্রিকেট ক্লাবে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তিনি অর্ধ-শতকসহ পাঁচ উইকেট দখল করেন। এরফলে মাত্র দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে এ কৃতিত্ব অর্জন করেন তিনি। খেলায় তিনি ৫২ রানসহ ৬/৩৬ লাভ করেন।[২] ক্লো ট্রায়নের ৯২, লরা ওলভার্টের ৫৫ ও লুসের ৫২ রানের কল্যাণে দল ২৮৩/৭ করে। পরবর্তীতে কিম গার্থের অপরাজিত ৭২ ও ৩/৬১-এর বিপরীতে লুস ৬/৩৬ বোলিং পরিসংখ্যান গড়ে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে ৮৯ রানে পরাজিত করে।[৩] একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রথমবারের মতো অর্ধ-শতক করেন। তার ৬/৩৬ দক্ষিণ আফ্রিকার মহিলাদের ক্রিকেট ইতিহাসে দ্বিতীয় সেরা বোলিং নৈপুণ্য ছিল। ষষ্ঠ উইকেটে ক্লো ট্রায়নের সাথে ১৪২ রানের জুটি গড়েন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Suné Luus"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৪ 
  2. "Luus' all-round brilliance underpins thumping SA win"ESPN Cricinfo। ৫ আগস্ট ২০১৬। 
  3. Ireland v South Africa, 1st Women's ODI, Dublin August 5, 2016, Luus' all-round brilliance underpins thumping SA win

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]