২০২১ নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের ইংল্যান্ড সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০২১ নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের ইংল্যান্ড সফর
Flag of England.svg
ইংল্যান্ড
Flag of New Zealand.svg
নিউজিল্যান্ড
তারিখ ২ – ১৪ জুন ২০২১
অধিনায়ক জো রুট কেন উইলিয়ামসন
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ২-ম্যাচের সিরিজ নিউজিল্যান্ড ১–০ তে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান রোরি বার্নস (২৩৮) ডেভন কনওয়ে (৩০৩)
সর্বাধিক উইকেট অলি রবিনসন (৭) টিম সাউদি (৭)
নিল ওয়াগনার (৭)
সিরিজ সেরা রোরি বার্নস (ইংল্যান্ড) ও ডেভন কনওয়ে (নিউজিল্যান্ড)

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল দুইটি টেস্ট ক্রিকেট খেলার জন্য ইংল্যান্ড সফর করে, যা জুন ২০২১-এ অনুষ্ঠিত হয়।

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

টেস্ট
 ইংল্যান্ড  নিউজিল্যান্ড

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

২৭–২৮ মে ২০২১
স্কোরকার্ড
২৮৯/৬ঘো
ডেভন কনওয়ে ৫৫*
নিল ওয়াগনার ২/১৮ (১৫ ওভার)
২৯৪/৫
ড্যারিল মিচেল ৬৪*
কাইল জেমিসন ২/৩০ (১৪ ওভার)
  • লাথাম একাদশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

২–৬ জুন ২০২১
৩৭৮ (১২২.৪ ওভার)
ডেভন কনওয়ে ২০০ (৩৪৭)
অলি রবিনসন ৪/৭৫ (২৮ ওভার)
২৭৫ (১০১.১ ওভার)
রোরি বার্নস ১৩২ (২৯৭)
টিম সাউদি ৬/৪৩ (২৫.১ ওভার)
১৬৯/৬ঘো (৫২.৩ ওভার)
টম ল্যাথাম ৩৬ (৯৯)
অলি রবিনসন ৩/২৬ (১৪ ওভার)
১৭০/৩ (৭০ ওভার)
ডম শিবলি ৬০* (২০৭)
নিল ওয়াগনার ২/২৭ (১৬ ওভার)
ম্যাচ ড্র
লর্ডস, লন্ডন
আম্পায়ার: মাইকেল গফ (ইংল্যান্ড) ও রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ডেভন কনওয়ে (নিউজিল্যান্ড)
  • নিউজিল্যান্ড টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির কারণে ৩য় দিনে কোনও খেলা সম্ভব হয়নি।
  • জেমস ব্রাসি, অলি রবিনসন (ইংল্যান্ড) ও ডেভন কনওয়ে (নিউজিল্যান্ড) সব তার টেস্ট অভিষেক হয়।
  • ডেভন কনওয়ে নিউজিল্যান্ডের হয়ে দ্বাদশ ব্যাটসম্যান হয়েছেন তার টেস্ট অভিষেকের সেঞ্চুরি
  • ডেভন কনওয়ে টেস্ট অভিষেকের পরে ডাবল সেঞ্চুরি করা নিউজিল্যান্ডের হয়ে দ্বিতীয় ও দ্বিতীয় সার্বিক ব্যাটসম্যানও হয়েছিলেন।

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১০–১৪ জুন ২০২১
৩০৩ (১০১ ওভার)
ড্যান লরেন্স ৮১* (১২৪)
ট্রেন্ট বোল্ট ৪/৮৫ (২৯ ওভার)
৩৮৮ (১১৯.১ ওভার)
উইল ইয়ং ৮২ (২০৪)
স্টুয়ার্ট ব্রড ৪/৪৮ (২৩.১ ওভার)
১২২ (৪১.১ ওভার)
মার্ক উড ২৯ (৩৮)
নিল ওয়াগনার ৩/১৮ (১০ ওভার)
৪১/২ (১০.৫ ওভার)
টম ল্যাথাম ২৩* (৩২)
অলি স্টোন ১/৫ (১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী
এজবাস্টন, বার্মিংহাম
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) ও রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: ম্যাট হেনরি (নিউজিল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • টম ল্যাথাম (নিউজিল্যান্ড) তার টেস্টে ৪,০০০ তম রান।

কিউই খেলোয়াড়দের পূর্ব অভিজ্ঞতা[সম্পাদনা]

কিউইরা ইংল্যান্ড মাটিতে টেস্ট
নাম ২০০৮ সফর ২০১৩ সফর ২০১৫ সফর ২০২১ সফর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রদর্শন*
ব্যাটিং
রস টেলর ৬ই ২৪৩রা ৪৮গ ৪ই ১৪২রা ৩৫গ ৪ই ১৩৮রা ৩৪গ ৪ই ১২৭রা ৪২গ
কেন উইলিয়ামসন ৪ই ৮২রা ২০গ ৪ই ১৬৫রা ৪১গ ২ই ১৪রা ৭গ
টম ল্যাথাম - ৪ই ১৪৬রা ৩৬গ ৪ই ৮৮রা ২৯গ
ডেভন কনওয়ে - - ৩ই ৩০৩রা ১০১গ
উইল ইয়াং - - ২ই ৯০রা ৪৫গ
হেনরি নিকোলস ৩ই ১০৫রা ৩৫গ
টম ব্লান্ডেল - - -
বোলিং
টিম সাউদি ১৬-২-৫৯-০ ৮৮-২২-২৩৫-১২ ১০৬-১৭-৩৯২-৮ ৪২-৯-৮০-৭
ট্রেন্ট বোল্ট ৬৬-১৮-১৬৩-৮ ১১৬-২৫-৩২৩-১৩ ২৯-৬-৮৫-৪ ক্রিস উকস
নিল ওয়াগনার ৮১-১৭-২৫৪-৭ ৭১-১৭-১৯৬-৭ বেন স্টোকস
ম্যাট হেনরি - ৮৬-১২-৩৪০-৮ ৩৮-৯-১১৪-৬ আদিল রশিদ
এজাজ প্যাটেল ২৩-৮-৫৯-৪
কাইল জেমিসন - - ৪১-১৪-১১৩-৩
ডগ ব্রেসওয়েল ৩২-৬-১৩২-১ - -

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]