মেগান শুট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মেগান শুট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমেগান লুইজ শুট
জন্ম (1993-01-15) ১৫ জানুয়ারি ১৯৯৩ (বয়স ২৬)
অ্যাডিলেড, দক্ষিণ আফ্রিকা
উচ্চতা১.৬৮ মিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক১১ আগস্ট ২০১৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১১ আগস্ট ২০৫ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক১৭ ডিসেম্বর ২০১২ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই২৭ জুলাই ২০১৫ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই শার্ট নং
টি২০আই অভিষেক২২ জানুয়ারি ২০১৩ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টি২০আই৩১ আগস্ট ২০১৫ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৯-সাউথ অস্ট্রেলিয়ান স্কর্পিয়ন্স
২০১৫-অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই এলও
ম্যাচ সংখ্যা ২০ ১৩ ৩১
রানের সংখ্যা ১১ ৩২ ১০৬
ব্যাটিং গড় ১১.০০ ৬.৪০ ২.০০ ৬.২৩
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১১ ১৪ ২৭
বল করেছে ২৬৮ ৮৫৬ ২২০ ১,৩৭৭
উইকেট ৩০ ৩২
বোলিং গড় ১৩.৫৭ ২০.৯০ ২৬.৫৫ ৩২.১৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ৪/২৬ ৪/১৮ ২/১৮ ৪/২২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ৯/– ১/– ১৪/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

মেগান লুইজ শুট (ইংরেজি: Megan Schutt; জন্ম: ১৫ জানুয়ারি, ১৯৯৩) দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় প্রমিলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ২০১২ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে সাউথ অস্ট্রেলিয়ান স্কর্পিয়ন্স ও অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্সের পক্ষে খেলছেন মেগান শুট[১] কাউন্টি ক্রিকেটে নটিংহ্যামশায়ারের পক্ষে খেলাসহ অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-২১ দলে খেলেছেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ বোলারের দায়িত্ব পালন করে থাকেন। ডানহাতে মিডিয়াম-ফাস্ট বোলিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন তিনি।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৯ সালে সাউথ অস্ট্রেলিয়ান স্কর্পিয়ন্স দলে খেলছেন।[২] ১৭ ডিসেম্বর, ২০১২ তারিখে সিডনিতে সফরকারী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআই অভিষেক হয় তার।[১] প্রথম খেলাতেই বেশ ব্যয়বহুল বোলিং করেন। পাঁচ ওভারে ৩৩ রান দেন।[৩] পরের খেলায় অবশ্য একই দলের বিপক্ষে দুই উইকেট পান।[৪] এরফলে ইএসপিএনক্রিকইনফোর মহিলা ক্রিকেটের পর্যালোচনায় অন্যতম স্থান অধিকার করেন।[৫] একই দলের বিপক্ষে মেলবোর্নে ২২ জানুয়ারি, ২০১৩ তারিখে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অভিষিক্ত হন তিনি। ১১ আগস্ট, ২০১৩ তারিখে ওর্মস্লিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া দলের প্রতিনিধিত্ব করেন।[৬] তবে, ইএসপিএনক্রিকইনফোর জেনি রোসলারের মতে, অস্ট্রেলিয়ার বোলারের অপর্যাপ্ততাই তার অন্তর্ভূক্তির প্রধান কারণ ছিল।[৫] ঐ বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ার অংশগ্রহণকৃত নির্ধারিত সাত খেলার প্রত্যেকটিতেই তার সপ্রতিভ ভূমিকা ছিল তার। ৪.১৩ ইকোনমিতে ১৫ উইকেট পান।[৭] প্রত্যেক খেলাতেই কমপক্ষে একটি উইকেট তুলে নেয়ার গৌরব অর্জন করেন।[৪] এরফলে প্রতিযোগিতার যে-কোন বোলারের তুলনায় তিনি সর্বাগ্রে ছিলেন।[৮]

ডেইলি টেলিগ্রাফ তার এ উত্তরণকে ক্লাব ক্রিকেট খেলার ফসলরূপে বিবেচনা করে মন্তব্য প্রকাশ করে। কিন্তু শুট ভারতে তার সুইং বোলিংয়ে আর্দ্রতাকে অন্যতম নিয়ামক শক্তিরূপে আখ্যায়িত করেন।[৯] চূড়ান্ত খেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বোলিং উদ্বোধনে নেমে তিন ৩৮ রান খরচায় দুই উইকেট পান।[১০] এরফলে তার দল ১১৪ রানের বিরাট ব্যবধানে জয়ী হয়ে শিরোপা লাভ করে। গ্রুপ পর্বের খেলায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩/৪০ পান।[১]

জুন, ২০১৫ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত মহিলাদের অ্যাশেজ সিরিজে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সদস্যরূপে ঘোষিত হন।[১১]

মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০[সম্পাদনা]

ভারতে অনুষ্ঠিত ২০১৬ আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের লক্ষ্যে মেগ ল্যানিংকে অধিনায়কত্ব করে ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যদের তালিকা প্রকাশ করে।[১২] এতে তিনিও অন্যতম সদস্য মনোনীত হন। ৩০ মার্চ, ২০১৬ তারিখে ফিরোজ শাহ কোটলা মাঠে অনুষ্ঠিত ১ম সেমি-ফাইনালে ইংল্যান্ডকে নাটকীয়ভাবে ৫ রানে পরাজিত করে অস্ট্রেলিয়া দল। এতে তিনি নির্ধারিত ৪ ওভারে তিনি ২/১৫ পান। কিন্তু চূড়ান্ত খেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৮ উইকেটে পরাজিত হয় তার দল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Player Profile: Megan Schutt"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  2. "Women's limited overs Matches played by Megan Schutt (31)"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  3. "3rd match: Australia Women v New Zealand Women at Sydney, Dec 17, 2012"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  4. "Statistics / Statsguru / ML Schutt / Women's One-Day Internationals"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  5. Roesler, Jenny (৫ ডিসেম্বর ২০১২)। "For love, not money"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  6. "ICC Women's World Cup / Australia Women Squad"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  7. "ICC Women's World Cup, 2012/13 – Australia Women / Records / Batting and bowling averages"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  8. "ICC Women's World Cup, 2012/13 / Records / Most wickets"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  9. Homfray, Reece (১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩)। "Megan Schutt hits heights with Australia taking most World Cup wickets"The Daily TelegraphNews Limited। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  10. "Final: Australia Women v West Indies Women at Mumbai (BS), Feb 17, 2013"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৩ 
  11. "Women's Ashes: Australia include three potential Test debututants"। BBC। ১ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৫ 
  12. "Stars add experience for World T20 defence"। Cricket Australia। সংগৃহীত ৮ মার্চ, ২০১৭।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]