ম্লেচ্ছ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ম্লেচ্ছ (বৈদিক সংষ্কৃত mlecchá হতে, যার অর্থ "অসভ্য", "বর্বর", স্বচ্ছ এর বিপরীত শব্দ) হল একটি সংস্কৃত পরিভাষা যার দ্বারা প্রাচীন ভারতের অসভ্য ও বর্বর লোকদেরকে বোঝানো হয়। প্রাচীন ভারতীয়রা মূলত ম্লেচ্ছ শব্দটি বিদেশিদের দুর্বোধ্য ভাষা ও অপরিচিত আচরণকে বোঝাতে ব্যবহার করতো পাশাপাশি অপবিত্র ও নিকৃষ্ট লোক বোঝাতে গালি হিসেবেও শব্দটি ব্যবহার করা হতো।

ম্লেচ্ছ শব্দটি সাধারণত যে কোন জাতি বা বর্ণের বহিরাগত বর্বর লোকদেরকে বোঝাতে ব্যবহৃত হতো [১][২]

ভারতীয়রা প্রাচীন যুগের তুলনামূলক কম সভ্য সকল অপরিচিত জাতি ও সংস্কৃতিকে ম্লেচ্ছ বা বর্বর নামে সম্বোধন করতেন [৩] যেসকল গোত্রকে ম্লেচ্ছ নামে ডাকা হতো সেগুলো হলো শক, যবন, হুন, কামবোজা, পাহ্লভ, বহ্লিকাঋষিকা[৪] অমরকোষ কিরাট, খাসা ও পুলিন্দ জাতিকে ম্লেচ্ছ জাতি হিসেবে বর্ননা করেছেন। গ্রীক-ভারতীয়, স্কিথিয়ান,[৫] ও কুশন [৬] জাতিও ম্লেচ্ছ হিসেবে পরিচিত ছিল।[৭]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Basham, A. L. (1954) The wonder that was India, pages 145–146, Sidgwick and Jackson, London.
  2. http://www.dictionary.reference.com/browse/mleccha
  3. Mudrarakshasha by Kashinath Trimbak Telang introduction p12 [১]
  4. National geographer, 1977, p 60, Allahabad Geographical Society – History.
  5. Subramoniam, Vadasery Iyemperumal (১৯৯৫)। Language Multiplicity and Ancient Races in Indiaআইএসবিএন 9788173420290 
  6. Language multiplicity and ancient races in India
  7. Thapar, Romila (১৯৭৮-০১-০১)। Ancient Indian Social History: Some Interpretations (ইংরেজি ভাষায়)। Orient Blackswan। আইএসবিএন 9788125008088 
উৎস্য

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]