ভারত (বৈদিক জাতি)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ভারত হলো ঋগ্বেদে উল্লিখিত একটি প্রাচীন জাতিবিশেষ। বিশেষত ঋষি বিশ্বামিত্র রচিত তৃতীয় মণ্ডলে এদের উল্লেখ পাওয়া যায়। পণ্ডিতদের মতে এই বৈদিক জাতি আধুনিক পাঞ্জাবের রাবী নদীর আশেপাশের অঞ্চলে আনুমানিক খ্রিষ্টপূর্ব দ্বিতীয় সহস্রাব্দে বাস করতো।[১][২][৩] ভারত শব্দটি অগ্নি দেবতার আরেকটি নামকেও নির্দেশ করে (আক্ষরিকভাবে, "পালন বজায় রাখা", ব্যবহারিক অর্থে, "যে আগুন মানুষের যত্ন দ্বারা জ্বালিয়ে রাখা হয়েছে"), .৩৬.৮।[৪]

সপ্তম মণ্ডলে (৭.১৮ ইত্যাদি) ভারত জাতি দাশরাজ্ঞ যুদ্ধে অংশ নেয় বলে জানা যায়। যুদ্ধে ভারতদের পক্ষ জয়লাভ করে। এই যুদ্ধে ভারত জাতির প্রধান সুদাসের জয়লাভের কারণে ভারত জাতির শাসকেরা কুরুক্ষেত্র অঞ্চলে বসতি স্থাপন করতে সক্ষম হয়।[৫] তারা প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন বৈদিক জাতিগুলোর মধ্যে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে সফল হয়েছিল বলে আবির্ভূত হয়।

মহাভারত অনুসারে কুরুদের পূর্বপুরুষ ছিলেন সম্রাট ভরত। তার অধীন সাম্রাজ্যকে ভারত বলা হতো।[৬] মহাভারতে উক্ত ভারত জাতি কুরু জাতির অংশ, যা আবার পুরু গোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। এরা যাদবদের জ্ঞাতি ছিল।[৭] "ভারত" হলো বর্তমান ভারত প্রজাতন্ত্রের সংক্ষিপ্ত নাম।[৮]

অনেকে মনে করেন, ভারত ভূমি নামটি দুষ্যন্ত ভরত (মহাভারত অনুসারে দুষ্যন্ত ও শকুন্তলার পুত্র) থেকে এসেছে। যদিও, ভারত ভূমি নামটি দুষ্যন্ত ভরত থেকে নয় বরং ঋগ্বেদের ভারত জাতি থেকেই এসেছে। ভগবত পুরাণের স্তবক থেকে এটি বোঝা যায়, যার ভাবানুবাদ হলো:

স্বয়ম্ভূর পুত্র মনুর পুত্রসন্তানের নাম ছিল প্রিয়ম্বদা। তার পুত্র ছিল অগ্নিধরা। তার পুত্র নাভি এবং নাভির পুত্র ছিল ঋষভ। তার একশত পুত্র ছিল, যাদের কথা বেদে পাওয়া যায়। তার মধ্যে জ্যেষ্ঠ পুত্র ভরত নারায়ণের ভক্ত ছিলেন। তার নামানুসারে এই "অসাধারণ" ভূমির নামকরণ করা হয়েছে।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Scharfe, Hartmut E. (২০০৬), "Bharat", Stanley Wolpert, Encyclopedia of India, 1 (A-D), Thomson Gale, পৃষ্ঠা 143–144, আইএসবিএন 0-684-31512-2 
  2. Thapar, Romila (২০০২), The Penguin History of Early India: From the Origins to AD 1300, Allen Lane; Penguin Press (প্রকাশিত হয় ২০০৩), পৃষ্ঠা 114, আইএসবিএন 0141937424 
  3. bhjWitzel, Michael (১৯৯৫), "Early Sanskritization. Origins and Development of the Kuru State." (PDF), Electronic Journal of Vedic Studies, 1–4: 1–26, ২০১২-০২-২০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-১৬ 
  4. Pāṇini; Katre, Sumitra Mangesh (১৯৮৯-০১-০১)। Aṣṭādhyāyī of Pāṇini (ইংরেজি ভাষায়)। Motilal Banarsidass। আইএসবিএন 9788120805217 
  5. ORIGINS AND DEVELOPMENT OF THE KURU STATE by Michael Witzel, Harvard University [১] ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১১-১১-০৫ তারিখে
  6. Julius Lipner (2010) "Hindus: Their Religious Beliefs and Practices.", p.23
  7. National Council of Educational Research and Training, History Text Book, Part 1, India
  8. Article 1 of the English version of the Constitution of India: "India that is Bharat shall be a Union of States."
  9. Ambedkar, Dr B. R. (২০১৪-০৭-২৯)। Who Were the Shudras? (ইংরেজি ভাষায়)। Ssoft Group, INDIA।