দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া
Southeast Asia (orthographic projection).svg
আয়তন ৪৫,০০,০০০ কিমি (১৭,০০,০০০ মা)
জনসংখ্যা ৬১০,০০০,০০০
ঘনত্ব ১৩৫.৬ /কিমি (৩৫১ /বর্গমাইল)
দেশসমূহ
অঞ্চলসমূহ
জিডিপি (২০১১) $2.158 trillion (exchange rate)
GDP per capita (2011) $3,538 (exchange rate)
সময় অঞ্চল ইউটিসি+০৫:৩০ ~ ইউটিসি+০৯:০০
রাজধানী শহর

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া হল এশিয়া মহাদেশের একটি উপঅঞ্চল। গণচীনের দক্ষিণে, ভারতের পূর্বে এবং অস্ট্রেলিয়ার উত্তরে অবস্থিত দেশগুলি নিয়ে অঞ্চলটি গঠিত। অঞ্চলটি অনেকগুলি ভূগাঠনিক প্লেটের সংযোগস্থলে অবস্থিত বলে এখানে প্রায়ই ভূমিকম্প ও অগ্ন্যুৎপাত হয়।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া দুইটি ভৌগোলিক অঞ্চলের সমষ্টি: এশীয় মূল ভূখণ্ডে অবস্থিত অংশ, এবং এর পূর্বে ও দক্ষিণ-পূর্বে সমুদ্রে অবস্থিত বিভিন্ন দ্বীপপুঞ্জবৃত্তচাপাকৃতি দ্বীপপুঞ্জ। মূল ভূখণ্ড অংশটি ইন্দোচীন উপদ্বীপ নামে পরিচিত এবং এখানে ক্যাম্বোডিয়া, লাওস, মায়ানমার, থাইল্যান্ডভিয়েতনাম অবস্থিত; এখানে মূলত তাইঅস্ট্রো-এশীয় জাতির লোকেরা বাস করে। সামুদ্রিক দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ব্রুনাই, পূর্ব তিমুর,[১] ইন্দোনেশিয়া, মালয়শিয়া, ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জ এবং সিঙ্গাপুর নিয়ে গঠিত; এখানে মূলত অস্ট্রোনেশীয় জাতির লোকেরা বাস করে।


ভাষা[সম্পাদনা]

আবহাওয়া ও জলবায়ু[সম্পাদনা]

আদি সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

নামকরণঃ

দক্ষিন পূর্ব এশিয়া (Southeast Asia) কথাটি সর্বপ্রথম পাওয়া যায় ১৮৩৯ সালে আমেরিকার একজন ধর্মযাজক হাওয়ার্ড ম্যালকমের(Howard Malcom) এর একটি ভ্রমন বৃত্তান্তে।যিনি আমেরিকার ব্যাপ্টিস্ট মিশনারি সোসাইটির উদ্যোগে নানা অজানা তথ্য আহরনের জন্য এই অঞ্চলে এসেছিলেন। তার বিবরনীটির শিরোনাম ছিলো ট্রাভেলস ইন সাউথ ইস্টার্ন এশিয়া এম্ব্রেসিং হিন্দু স্থান,মালয়,শ্যাম এন্ড চায়না এন্ড দ্যা বার্মা এম্পায়ার (Travels in south eastern Asia embracing Hindustan,Malay,Shyam and China and the Burma Empire)

মূলত এ বিবরনেই প্রথম সাউথ ইষ্ট এশিয়া অর্থ্যাৎ দক্ষিন-পূর্ব এশিয়া কথাটির সচেতন উল্লেখ পাওয়া যায়।[২]

প্রাক ইউরোপীয় যুগ[সম্পাদনা]

ইউরোপীয় যুগ[সম্পাদনা]

আধুনিক যুগ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. United Nations
  2. দক্ষিন পূর্ব এশিয়ার ইতিহাস, জহর সেন ২য় সংস্করণ ১৯৯৬/বি পৃষ্ঠা-১