ইয়োশিনোরি ওসুমি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইয়োশিনোরি ওসুমি
Nobel Laureates 1042 (30647248184).jpg
ইয়োশিনোরি ওসুমি
জন্ম (1945-02-09) ৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৫ (বয়স ৭৬)
ফুকুকা, জাপান
জাতীয়তাজাপানী
কর্মক্ষেত্রকোষ জীবতত্ত্ববিদ
প্রতিষ্ঠানটোকিও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউট
প্রাক্তন ছাত্রটোকিও বিশ্ববিদ্যালয়
পরিচিতির কারণঅটোফাজি
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার (২০১৬)
ওয়েবসাইট
www.ohsumilab.aro.iri.titech.ac.jp/english.html
ওসুমি তার টোকিও টেক ল্যাবে

ইয়োশিনোরি ওসুমি (জাপানি: 大隅 良典; জন্ম: ৯ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৫) বিশিষ্ট জাপানী কোষ জীবতত্ত্ববিদঅটোফাজি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ তিনি। টোকিও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের ফ্রন্টিয়ার গবেষণা কেন্দ্রের অধ্যাপকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ওসুমি জাপানের ফুকুকায় জন্মগ্রহণ করেন। টোকিও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬৭ সালে বিজ্ঞানে স্নাতক ও ১৯৭৪ সালে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত নিউইয়র্ক সিটির রকফেলার বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্টডক্টরাল ফেলো ছিলেন।[১]

১৯৭৭ সালে সহযোগী গবেষক হিসেবে টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে আসেন। ১৯৮৬ সালে প্রভাষক হিসেবে নিযুক্ত হন। ১৯৮৮ সালে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পান। ১৯৯৬ সালে ওকাজাকি সিটিতে অবস্থিত জাতীয় বেসিক বায়োলজি ইনস্টিটিউটে স্থানান্তরিত হন। সেখানে তিনি অধ্যাপকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত হেয়ামার গ্র্যাজুয়েট এডভান্সড স্টাডিজ বিশ্ববিদ্যালয়েও অধ্যাপকের দায়িত্বে ছিলেন। ২০১৪ সালে অবসর নেয়ার পরও ইনোভেটিভ গবেষণা ইনস্টিটিউট ও টোকিও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটে অধ্যাপকের দায়িত্ব চালিয়ে যান।

অর্জনসমূহ[সম্পাদনা]

২০১২ সালে মৌলিক বিজ্ঞানের জন্য কিটো পুরস্কার লাভ করেন।[২][৩] অতঃপর ২০১৬ সালে অটোফেজির কার্যকারিতা রহস্য উন্মোচনে অসামান্য অবদান রাখায় চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন তিনি।[৪][৫][৬]

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

  • Yamamoto, H; Ohsumi, Y (১১ জুলাই ২০১৬)। "The intrinsically disordered protein Atg13 mediates supramolecular assembly of autophagy initiation complexes."। Dev. Cell. (ইংরেজি ভাষায়)। ৩৮ (১): ৮৬–৯৯। পিএমআইডি 27404361 
  • Yamamoto, H; Ohsumi, Y (অক্টোবর ৬, ২০১৫)। "The Thermotolerant Yeast Kluyveromyces marxianus Is a Useful Organism for Structural and Biochemical Studies of Autophagy."। দা জার্নাল অব বায়োলজিক্যাল কেমিস্ট্রি (ইংরেজি ভাষায়)। ২৯০: ২৯৫০৬–২৯৫১৮। ডিওআই:10.1074/jbc.M115.684233 
  • Tsukada, M; Ohsumi, Y (২৫ অক্টোবর ১৯৯৩)। "Isolation and characterization of autophagy-defective mutants of Saccharomyces cerevisiae."। FEBS letters (ইংরেজি ভাষায়)। ৩৩৩ (১-২): ১৬৯–১৭৪। পিএমআইডি 8224160 
  • Mizushima, N; Noda, T; Yoshimori, T; Tanaka, Y; Ishii, T; George, MD; Klionsky, DJ; Ohsumi, M; Ohsumi, Y (২৪ সেপ্টেম্বর ১৯৯৮)। "A protein conjugation system essential for autophagy."। নেচার (ইংরেজি ভাষায়)। ৩৯৫ (৬৭০০): ৩৯৫–৮। পিএমআইডি 9759731 
  • Kabeya, Y.; Mizushima, N.; Ueno, T.; Yamamoto, A.; Kirisako, T.; Noda, T.; Kominami, E.; Ohsumi, Y.; Yoshimori, T. (২০০০)। "LC3, a mammalian homologue of yeast Apg8p, is localized in autophagosome membranes after processing"The EMBO Journal (ইংরেজি ভাষায়)। ১৯ (২১): ৫৭২০–৫৭২৮। ডিওআই:10.1093/emboj/19.21.5720পিএমআইডি 11060023পিএমসি 305793অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  • Ichimura, Y; Kirisako, T; Takao, T; Satomi, Y; Shimonishi, Y; Ishihara, N; Mizushima, N; Tanida, I; Kominami, E; Ohsumi, M; Noda, T; Ohsumi, Y (২৩ নভেম্বর ২০০০)। "A ubiquitin-like system mediates protein lipidation."। নেচার (ইংরেজি ভাষায়)। ৪০৮ (৬৮১১): ৪৮৮–৯২। পিএমআইডি 11100732 
  • Ohsumi, Y (মার্চ ২০০১)। "Molecular dissection of autophagy: two ubiquitin-like systems."। নেচার reviews. Molecular cell biology (ইংরেজি ভাষায়)। (৩): ২১১–৬। পিএমআইডি 11265251 
  • Kuma, A; Hatano, M; Matsui, M; Yamamoto, A; Nakaya, H; Yoshimori, T; Ohsumi, Y; Tokuhisa, T; Mizushima, N (২৩ ডিসেম্বর ২০০৪)। "The role of autophagy during the early neonatal starvation period."। নেচার (ইংরেজি ভাষায়)। ৪৩২ (৭০২০): ১০৩২–৬। পিএমআইডি 15525940 
  • Hanada, T; Noda, NN; Satomi, Y; Ichimura, Y; Fujioka, Y; Takao, T; Inagaki, F; Ohsumi, Y (২৮ ডিসেম্বর ২০০৭)। "The Atg12-Atg5 conjugate has a novel E3-like activity for protein lipidation in autophagy."। দা জার্নাল অব বায়োলজিক্যাল কেমিস্ট্রি (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮২ (৫২): ৩৭২৯৮–৩০২। পিএমআইডি 17986448 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Yoshinori Ohsumi's ওআরসিআইডিয়ে ভুক্তি (ইংরেজি)
  2. Biemiller, Lawrence (২০১২-১১-১০)। "Kyoto Prize Is Awarded to 3 Scholars"The Chronicle of Higher Education Blogs: The Ticker (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-০৪ 
  3. "Yoshinori Ohsumi"Kyoto Prize (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. "The Nobel Prize in Physiology or Medicine 2016" (ইংরেজি ভাষায়)। The Nobel Foundation। ৩ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৬ 
  5. "Yoshinori Ohsumi"Nobel Prize (ইংরেজি ভাষায়)। ৩ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. "Yoshinori Ohsumi wins Nobel prize in medicine for work on autophagy"The Guardian (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]