আলাপ:বাংলা ভাষা আন্দোলন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Featured article বাংলা ভাষা আন্দোলন একটি নির্বাচিত নিবন্ধ; অর্থাৎ, এটি (অথবা এর প্রাক্তন সংস্করণটি) উইকিপিডিয়ানদের সৃষ্ট অন্যতম শ্রেষ্ঠ একটি নিবন্ধরূপে চিহ্নিত। তারপরও আপনি যদি মনে করেন যে, নিবন্ধটির আরো উন্নতি বা হালনাগাদ করা সম্ভব, অনুগ্রহপূর্বক তা করুন

আলোচনা[সম্পাদনা]

  • বিভিন্ন সূত্র থেকে তথ্য নিয়ে ভাষা আন্দোলন পরিক্রমা যোগ করা হলো। এর আলোকে বিস্তারিত ভাবে মূল নিবন্ধ তৈরি করে পরিক্রমাটি বাদ দেয়া যেতে পারে। ধন্যবাদ। --রাজিবুল ১০:৪০, ২ আগস্ট ২০০৬ (UTC)
  • ২১ ফেব্রুয়ারি সবসময় শহীদ দিবস, ভাষা আন্দোলন দিবস কখনো নয়। তাই সেটা ঠিক করলাম। Munirhasan ০৭:৩৩, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ (UTC)

বাংলা ভাষাটা কোন ভাষা থেকে এসেছে Mostofa kamal1993 (আলাপ) ১০:২৭, ৬ অক্টোবর ২০১৮ (ইউটিসি)

মন্তব্য[সম্পাদনা]

  • বানানরীতি প্রসঙ্গে

কিছু বানানে অপ্রয়োজনীয় হাইফেন আছে । যেমন সম-মর্যাদা, বে-আইনি । এ হাইফেনগুলো বিলোপ করা দরকার বলে মনে হয় । প্রবন্ধ লেখকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি । হাসিব ২২:১৯, ১৪ জুলাই ২০০৭ (UTC) হাসিব

  • ২১শে ফেব্রুয়ারীর ঘটনা প্রসঙ্গে

এখানে তৎকালীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনগুলোর সাথে বর্তমান ভবনগুলোর একটু সাযুজ্য আনা দরকার মনে হয় । এ নিবন্ধে ২১শে ফেব্রুয়ারী ঘটনা অংশে বলা হয়েছে ছাত্ররা দৌড়ে মেডিকেল কলেজের দিকে গেলো ।

প্রকৃতপক্ষে এটা হবে কলা ভবনের দিকে গেলো । যে গেটের দিকে ছাত্ররা দৌড়ে গিয়েছিলো সেটা ছিলো তখন কলাভবন । এখন ওটা ঢামেক । গেটটা এখন ভাষা আন্দোলন গেট নামে পরিচিত ।

স্মৃতি থেকে বলছি এসব । ভুল হতে পারে । কেউ একটু নিশ্চিত হয়ে নিন । হাসিব ২২:১৯, ১৪ জুলাই ২০০৭ (UTC) হাসিব

  • বানানবিধি প্রসঙ্গে

আলোচ্য নিবন্ধটি বাংলা ভাষা আন্দোলন বিষয়ক অথচ বাংলা বানানের প্রেক্ষিতে এত ত্রুটিপূর্ণ যে বাঙালি হিসেবে লজ্জিত বোধ করছি। বানানের ক্ষেত্রে এত ত্রুটি ভাষার প্রতি চূড়ান্ত অশ্রদ্ধারই প্রতিফলক। আমি যথাসাধ্য সংশোধন করার প্রয়াস করেছি কিন্তু ভুলের আধিক্যহেতু সংশোধন সম্পূর্ণ করে উঠতে পারিনি। আমি আশা করব ভবিষ্যতে ৱিকিপিডিয়ার কোন প্রাবন্ধিক বানান বিষয়ে আরও যত্নবান হবেন। -সুমঙ্গল, ভারতীয় সময়: সকাল ১১:৩০, ৩০ মাঘ ১৯৩০ শক, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৯।

কালপঞ্জি[সম্পাদনা]

ভাষা আন্দোলনের একটি TimeLine এই নিবন্ধে থাকা দরকার। তবে সেটা আলাদা করেও হতে পারে। বিশেষ করে তারিখগুলোর সঙ্গে এক লাইন করে থাকলে ভাল হয় বলে আমার মনে হচ্ছে। আমি কাজটা শুরু করেছ, আলদা নিবন্ধ হিসাবে। তবে, শেষ পর্যন্ত কী হবে সেটা মনে হয় ভেবে চিন্তে ঠিক করতে হবে। আপাতত নতুন নিবন্ধটা শেষ করি।

লেখা দেখাচ্ছে না কেন???[সম্পাদনা]

এই নিবন্ধে কিছু নতুন তথ্য যোগ করলাম। সেগুলো সংরক্ষণের পর কেন দেখা যাচ্ছে না। সম্পাদনার পাতায় ঠিকই দেখা যাচ্ছে? সমস্যাটা কি?? --মুনতাসির ০৭:১০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)


প্রথম পতিক্রিয়া অংশের পরে নিচের প্যারাটি আছে। এটা সরালে বা কাট ছাট করলেই, এর নিচের একটি অংশ গায়েব হয়ে যায়। সম্পাদনার পাতায় যদিও থাকে তবুও সংরক্ষণ করলেও দেখায় না।-> কেন??
==১৯৫২: ভাষা আন্দোলনের পুনর্জাগরন==

ভাষা আন্দোলনের পুনরায় জোরালো হওয়ার পিছনে ২৭শে জানুয়ারি ১৯৫২ সালের খাজা নাজিমুদ্দিনের ভাষন প্রধান নিয়ামক হিসেবে কাজ করে[১]। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন খাজা নাজিমুদ্দিন ২৫শে জানুয়ারি ঢাকায় আসেন এবং ২৭শে ফেব্রুয়ারি পল্টন ময়দানের এক জনসভায় দীর্ঘ ভাষন দেন। তিনি মূলতঃ জিন্নাহ্‌-র কথারই পুনরুক্তি করে বলেন, পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা হবে উর্দু। রেডিওতে সরাসরি সম্প্রচারিত তার ভাষনে তিনি আরো উল্লেখ করেন কোন জাতি দুইটি রাষ্ট্রভাষা নিয়ে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যেতে পারেনি।

নাজিমুদ্দিনের বক্তৃতার প্রতিবাদে রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ ২৯শে জানুয়ারি প্রতিবাদ সভা এবং ৩০শে জানুয়ারি ঢাকায় ছাত্র ধর্মঘট পালন করে। সেদিন ছাত্র ও নেতৃবৃন্দ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আমতলায় সম্বেত হয়ে ৪ঠা ফেব্রুয়ারি ধর্মঘট ও প্রতিবাদ সভা করার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে তারা তাদের মিছিল নিয়ে বর্ধমান হাউসের (বর্তমান বাংলা একাডেমী) দিকে অগ্রসর হয়[২]

১৯৫২ সালের ৩১শে জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার লাইব্রেরি হলে অনুষ্ঠিত সভায় মাওলানা ভাসানীর নেতৃত্বে ৪০ সদস্যের 'সর্বদলীয় কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রভাষা কর্মপরিষদ' গঠিত হয়[৩]

রেফ ট্যাগের জন্য হতে পারে। <ref name=Sri পৃ-৭৯/> এটাকে উদ্ধৃতি চিহ্নের মধ্যে আনতে হবে। <ref name="Sri পৃ-৭৯"/> এভাবে। --রাগিব (আলাপ | অবদান) ০৯:৫৬, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
না, কোন কাজ হল না। দেখি পরে ট্রাই করব। --মুনতাসির ১১:০৫, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
বুঝতে পারছি মনে হয়, sri নামের রেফারেন্স আছে, কিন্তু "sri পৃ-৭৯" নামে নাই। তাই ঐটাতে সমস্যা হচ্ছিলো। এবার দেখুন। --রাগিব (আলাপ | অবদান) ১২:২৯, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
অবশেষে সমস্যার সমাধান হয়েছে। আসলে সমস্যা ছিল প্রথম প্রতিক্রিয়া অনুচ্ছেদের শেষের রেফারেন্সে একটা / দেওয়া হয়নি, তাই নিচের অনেকটা অংশ রেফারেন্সের নিচে দেখাচ্ছিল। এখন ঠিক হয়েছে। ধন্যবাদ। --মুনতাসির ১৬:২০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
 তথ্যসূত্র:—
  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Bashir নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Sri নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. দৈনিক আজাদ, ফেব্রুয়ারি ১, ১৯৫২

শহীদ মিনারের উদ্বোধন[সম্পাদনা]

আজ শহভদ মিনার থেকে ফেরার সময় সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফন্ট প্রকাশিত একটি পুস্তিকা এনেছি যাতে বলা হচ্ছে ২৪ তারিখে প্রথম শহীদ মিনার উদ্বোধন করেন শহীদ শফিউরের পিতা। আমি সেটাই জানতাম। যদিও পরে ২৬ তারিখে সেটি আবার আজাদ সম্পাদক উদ্বোধন করেন। শফিউরের পিতার ব্যাপারটি আমি দেখি গাজীউল হককে জিজ্ঞেস করা যায় কীনা? Munirhasan ১৭:৪৮, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)

এইমাত্র খেয়াল করলাম অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আশি বছর গ্রন্থে ব্যাপারটা। শহীদ শফিউরের পিতার উদ্বোধনকে তিনি বলছেন অনানুষ্ঠানিক ও আবুল কালাম শামসুদ্দীনের উদ্বোধনকে আনুষ্ঠানিক। কিন্তু আহমদ রফিকের একুশের ইতিহাস আমাদের ইতিহাস বইয়ে শফিউরের পিতার ব্যাপারে কিছু নেই। --মুনতাসির ১৮:১৮, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
এই প্রশ্ন ইংরেজি উইকির নিবন্ধটাতেও উঠেছিলো বলে মনে হচ্ছে , তারিফ সম্ভবত এই ব্যাপারে বলতে পারবে। --রাগিব (আলাপ | অবদান) ১৮:০৪, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)
আজাদ সম্পাদক আবুল কালাম শামসুদ্দীন শহীদ মিনারের উদ্বোধন করেন এমন একটা কথা প্রচলিত থাকলেও স্বয়ং আজাদে এমন কোন খবর পাওয়া যায় নি। শামসুদ্দীন নিজেও তার আত্মজীবনীতে এমন ঘটনার উল্লেখ করেননি। ২৬ তারিখে আজাদ পত্রিকায় এমন প্রকাশিত হয় "অদ্য সকাল সাড়ে নয়টায় মেডিক্যাল কলেজ হোস্টেল প্রাঙ্গনে 'আজাদ' সম্পাদক জনাব আবুল কালাম শামসুদ্দীন শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ উদ্বোধন করিবেন", তবে পরে তার উদ্বোধনের কোন খবর পাওয়া যায় নি। অপরদিকে শফিউর রহমানের পিতার ২৪ তারিখে উদ্বোধন করার ব্যাপারটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। (সূত্র: আল-হেলাল, ৪৭৬-৭৭) ধন্যাবাদ --তারিফ এজাজ ১৬:৩৬, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ (UTC)

Translation/merger[সম্পাদনা]

Nayeem translated the English wiki article to Bangla and posted in his blog. I requested him to add his content here. Since he is new to wiki, it will be great if someone can take the content he added (after the interwiki links) and place them to the appropriate sections. --রাগিব (আলাপ | অবদান) ২০:০২, ৬ আগস্ট ২০০৮ (UTC)

বিভ্রান্তি[সম্পাদনা]

আবুল বরকতকে আহত অবস্থায় নেয়া হয়নি। তার মাথায় গুলি লাগে এবং মাথার খুলির অর্ধেকটাই উড়ে যায়। যার ফলে তিনি ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এরপর তাকে ভুল করে আহত মনে করে হাসপাতালে নেয়া হয়। এবং সম্ভবত তিনিই ২১ ফেব্রুয়ারীর প্রথম শহীদ। আর সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ সম্ভবত ১৪৪ ধারা ভাঙতে রাজি ছিল না। গুটিকয় ছাত্রনেতা যারা সরাসরি সংগ্রাম পরিষদের সাথে যুক্ত ছিলেন না,তাদের সিদ্ধান্তে ১৪৪ ধারা ভাঙা হয়। (এ সব তথ্য এম আর আখতার মুকুলের "একুশের দলিল" বই হতে প্রাপ্ত)। শহীদদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দেয়া উচিত ছিল। আর ঘটনার বর্ননা অনেক সংক্ষিপ্ত হয়ে পড়েছে, আরো বিস্তারিত দেয়ার দরকার ছিল। ইংরেজিটা সংক্ষিপ্ত সেটা নাহয় মানা যায়, কিন্তু বাংলাটা আরো সম্প্রসারিত হওয়া উচিত ছিল।--তানভী (talk) ১৭:০০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১০ (UTC)তানভী

নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্রের আলোকে জানা যায়, বরকতের তলপেটে গুলি লেগে কোমর ঝুলে পড়েছিল। তিনি সাথে সাথে শহীদ হননি। কয়েকজন তাঁকে ধরাধরি করে হাসপাতাল নিয়ে যাবার পথে তিনি পানি পান করতে চান। দয়া করে সঠিক উৎস থেকে ভালোভাবে জেনে নেবেন। রমীম (আলাপ) ১৭:১৯, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (ইউটিসি)

পুনর্লিখিত নিবন্ধ[সম্পাদনা]

প্রিয় সহকারী উইকিপিডিয়ানদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, আমি ভাষা আন্দোলন নিবন্ধটির উল্লেখযোগ্য পরিমাণ পরিবর্তন সাধনের পরিকল্পনা করেছি। পুরো নিবন্ধটি মূলত ইংরেজি উইকিতে থাকা নির্বাচিত নিবন্ধটির আদলে (en:Bengali Language Movement) সাজানো হয়েছে। ফলে বর্তমান ভার্সনের সাথে বেশ কিছু পরিবর্তন করতে হয়েছে। খসড়াটি দেখুন এইখানে। মূল পরিবর্তনগুলো হল:

  1. আন্দোলনের সূচনা অংশে গণপরিষদে ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের রাষ্ট্রভাষার দাবি, প্রথম প্রতিক্রিয়া, খাজা নাজিমুদ্দিনের সাথে চুক্তি, খাজা নাজিমুদ্দিনের সাথে চুক্তি, মুহম্মদ আলী জিন্নাহ্‌র ঢাকা সফরলিয়াকত আলি খানের ঢাকা সফর এ থাকা তথ্য সংক্ষেপিত ও সন্নিবিষ্ট করে আন্দোলনের সূচনা ও তার অন্তর্গত প্যারাগ্রাফ ১৯৪৮ এর উত্তেজনায় আঁটানো হয়েছে।
  2. ১৯৫২: ভাষা আন্দোলনের পুনর্জাগরন অংশে পুলিশ কর্মকর্তার ভাষ্য অনুচ্ছেদটুকু নিবন্ধ থেকে অপ্রয়োজনীয় বিবেচনায় বাদ দেওয়া হয়েছে। তবে তথ্যগুলো হারিয়ে যায়নি, বরং এম এ গোফরান নিবন্ধে আছে।
  3. ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের ভাষ্য, পরবর্তী ঘটনা (১৯৫২), চূড়ান্ত পর্যায় (১৯৫৩–৫৬), সংবিধান সংশোধন, ও প্রভাব - এ অনুচ্ছেদগুলোর এলোমেলো তথ্যগুলো বিন্যস্ত হয়েছে ১৯৫২ সাল পরবর্তী ঘটনাপ্রভাব অনুচ্ছেদে। এ ক্ষেত্রে তেমন কোন তথ্য বাদ যায়নি।

এ পরিবর্তনের ব্যাপারে কারও কোন আপত্তি বা পরামর্শ থাকলে তা উত্থাপনের অনুরোধ জানাচ্ছি। আর এ পরিবর্তনগুলো হচ্ছে নিবন্ধটিকে ভালো নিবন্ধের পর্যায়ে উন্নীত করার ব্যাপারটি মাথায় রেখে। তাই এর কিছু অংশ পুনর্লিখনের প্রয়োজন হতে পারে, এ ব্যাপারেও আপনাদের মতামত কাংখিত। ধন্যবাদান্তে--ফয়সল (আলাপ | অবদান) ১৯:২৬, ১৭ জুলাই ২০১০ (UTC)

বাংলা ভাষা আন্দোলন‎[সম্পাদনা]

অনুগ্রহপূর্বক বর্জ্জিত অংশ কোথাও সংরক্ষণ করুন। "সংবিধান সংশোধন"-এর পরিবর্তে অনুচ্ছেদের শিরোনাম "পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি" করার প্রস্তাব করছি। -Faizul Latif Chowdhury (আলাপ) ১৭:২১, ২০ জানুয়ারি ২০১২ (ইউটিসি)

পাতার ইতিহাস থেকে বের করা যাবে। আর এখানেও ব্যবহারকারী:Nasir8891/বাংলা_ভাষা_আন্দোলন/প্রথম প্রতিক্রিয়া লেখা আছে তথ্যগুলো।
নিচের অনুচ্ছেদের আলোচনাটি দেখার অনুরোধ করছি। --নাসির খান সৈকতআলাপ • ১৭:৪২, ২০ জানুয়ারি ২০১২ (ইউটিসি)

নিবন্ধের মান উন্নয়ন[সম্পাদনা]

বেশকিছু দিন ধরে আমি এই নিবন্ধটি আমার ব্যবহারকারী নামস্থান থেকে সম্পাদনা করছিলাম। ব্যবহারকারী:Nasir8891/বাংলা_ভাষা_আন্দোলন পাতা থেকে এটি দেখা যাবে। এখানে প্রতিটি পরিবর্তনের সম্পাদনা সারাংশ লেখা আছে। আর এই কারনে মূল পাতায় তথ্য যোগ করার সময় এতটা বিস্তারিত সারাংশ দেয়া হয়নি।

বর্তমানে নিবন্ধের কিছু অনুচ্ছেদ এবং তথ্য বিষয়ে আলোচনা এবং সমাধান প্রয়োজন

  1. প্রথম প্রতিক্রিয়া অনুচ্ছেদটি ২য় প্যারাটি বাংলা এবং ইংরেজি নিবন্ধ আলাদা। ব্যবহারকারী:Nasir8891/বাংলা_ভাষা_আন্দোলন/প্রথম প্রতিক্রিয়া অংশে অনুবাদ এবং বর্তমানে লেখা অংশটি চিহ্নিত করা হয়েছে
  2. ২১ ফেব্রুয়ারির ঘটনা অনুচ্ছেদটি পুনর্লেখন জরুরী
  3. পুলিশ কর্মকর্তার ভাষ্য এই অনুচ্ছেদটা ইংরেজিতে নাই, একমাত্র তথ্যসূত্র "দৈনিক আমারদেশ, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০০৭, প্রথম পাতা " যাচাই করা সম্ভব না হলে, আমি এটি বাদ দেয়ার পক্ষে
  4. ৮/৯ বছরের অহিদুল্লাহর মৃত্যুর কথা ২১ তারিখ লেখা আছে বাংলা পিডিয়াতে আবার আল হেলালের লেখা ইতিহাসে এই তারিখ ২২। কোনটা সঠিক?
  5. ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের ভাষ্য অনুচ্ছেদটা ইংরেজিতে নাই। একমাত্র তথ্যসূত্র http://www.shaptahik.com/v2/?Sup_Details=149
  6. সংবিধান সংশোধন এই অনুচ্ছেদের বেশ কিছু তথ্য অপসারণ করা হয়েছে, কারণ সেগুলোর তথ্যসূত্র নেই এবং ইংরেজি নিবন্ধের তথ্যগুলো লেখা নেই

--নাসির খান সৈকতআলাপ • ১৭:৩৮, ২০ জানুয়ারি ২০১২ (ইউটিসি)

পর্যালোচনা সংক্রান্ত[সম্পাদনা]

  • শাহাবুদ্দিন আহমদের [+ করা] প্রস্তাবে রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদকে এই সিদ্ধান্তটি জানিয়ে দেয়ার দায়িত্ব নেন আবদুল মোমিন এবং শামসুল আলম। - বাক্যগত সমস্যা
  • ঠিক করা হয়েছে
  • হস্টেল [= হোস্টেল] থেকে বয়রা [= বেয়ারারা] টুকরিতে করে ... সরবরাহ করতে থাকে। - ভাষাগত
  • ঠিক করা হয়েছে
  • দৈনিক আজাদের তথ্যমতে মৃতের সংখ্যা ছিল ৪ এবং সৈনিকের [=দৈনিক/সাপ্তাহিক না-কি আর্মি] তথ্যমতে ছিল ৮।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] [প্রয়োজনে মুছে ফেলতে হবে]
  • জরুরি এবং বাস্তবায়ন আবশ্যক।
  • "দৈনিক আজাদের তথ্যমতে মৃতের সংখ্যা ছিল ৪ এবং সাপ্তাহিক সৈনিকের মৃতের সংখ্যা উল্লেখ করা হয় ৮ জন।" -বাক্য ব্যবহার করা যেতে পারে। কিন্তু যেহেতু তথ্যসূত্র পাওয়া যাচ্ছে না তাই এই অংশটি অপসারণ করা হল।
  • ৬ জানুয়ারি ১৯৫৯ সালে সামরিক শাসন কোনো [?] সরকারী বিবৃতি জারি করে এবং ১৯৫৬ সালের সংবিধানে উল্লেখিত দুই রাষ্ট্র ভাষার উপর সরকারী অবস্থান পুণরায় ব্যক্ত করে। - শব্দগত
  • ঠিক করা হয়েছে
  • বেলা ২টার দিকে আইন পরিষদের সদস্যরা আইনসভায় যোগ দিতে এলে ছাত্ররা তাদের বাঁধা দেয় এবং সভায় তাদের দাবি [= প্রস্তাব] উত্থাপনের দাবি জানায়। - একটি দাবি পরিবর্তন করতে হবে
  • ঠিক করা হয়েছে
  • ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্ররা ২৩ ফেব্রুয়ারির রাত শেষে [ = ভোর রাতে] শহীদ মিনার তৈরির কাজ শুরু করে। - বাক্যগত
  • জরুরি এবং দুটো বক্তব্য সমন্বয় করা জরুরি।
  • "ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্ররা ২৩ ফেব্রুয়ারি রাতে শহীদ মিনার তৈরির কাজ শুরু করে।" পরিবর্তন করলাম। ভোর রাত দেয়া হল না কারণ পরের বাক্যেই বলা আছে। ২৪তারিখ ভোরে নির্মান শেষ হয়।

যা প্রয়োজন রয়েছে:

  • যেহেতু ২১শে ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে এ নিবন্ধ; তাই সবগুলো সংখ্যাই তারিখবাচক (১লা, ২রা, ৩রা ...) করা উচিত।
  • দরকার নেই। নিবন্ধে "এই দিবস "একুশে ফেব্রুয়ারি কিংবা ২১শে ফেব্রুয়ারি হিসেবে সমধিক পরিচিত" -এধরণের একটা বাক্য লিখলেই বিষয়টার সমাধান হয়ে যায়। যেহেতু প্রস্তাবিত প্রমিত বাংলায় লা, রা, ই ইত্যাদি ত্যাগ করতে বলা হয়েছে, নিবন্ধের পঠনযোগ্যতার স্বার্থে তাই সেই প্রমিত নিয়মটি অনুসরণের পক্ষপাতি আমি।
  • যথাসম্ভব ইংরেজি বর্জন
  • সাধারণ তেমন একটা নজরে তো এলো না।
  • আরো কিছু চিত্র সংযুক্তকরণ
  • সমর্থন, তবে আপাতত না হলেও ক্ষতি নেই।
  • চিত্র পাওয়া গেলে সংযোগজন করা যেতে পারে। আপাতত রফিকুল ইসলাম স্যারের ছবিগুলোই একমাত্র ভরসা। এখান থেকে ব্যবহার করা যেতে পারে। http://commons.wikimedia.org/wiki/Category:Photos_by_Rafiqul_Islam
  • [আরো দেখুন] অংশের কলেবর বৃদ্ধিকরণ।
  • সাধারণ, আপাতত না হলেও ক্ষতি নেই।
  • [কমন্স] অংশটি কার্যকর করতে হবে।
  • লিংক সংশোধন করা হয়েছে।
  • সাধু-চলিত মিশ্রণ দূষণীয়!
  • গ্রেপ্তার - গ্রেফতার; মেডিকেল - মেডিক্যাল; জিন্নাহ না-কি জিন্নাহ্‌ (গ্রেফতার, মেডিক্যাল মানানসই)
  • সাধারণ মেডিক্যাল ঠিক করেছি।

আরো যদি ভুল-ত্রুটি ধরা পড়ে জানাবো। ধন্যবাদ। - Subrata Roy (আলাপ) ১৭:১৩, ৩১ জানুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

আমার পর্যালোচনা শেষে সুব্রতদা'র লেখার নিচে নিচে মন্তব্য জানালাম। লাল চিহ্নিত বিষয়গুলো ঠিক করলেই নিবন্ধটি ভালো নিবন্ধ করা যায় অনায়াসে। কিছু বিষয়ে পুণরাবৃত্তি আছে, সেগুলো নির্বাচিত নিবন্ধের পর্যালোচনায় দেখা যেতে পারে। যত দ্রুত সমাধান হবে, তত দ্রুত ভালো নিবন্ধ হবে। ধন্যবাদ। —মঈনুল ইসলাম (আলাপ * অবদান) ১০:৩৪, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)
প্রস্তাবনা নিচে নিচে কিছু মন্তব্য লিখেছি। তালিকার গুরুত্বপূর্ণ সবগুলোই সমাধান করা হয়েছে। ভালো নিবন্ধ হিসাবে উন্নীত করা যায় মনে হচ্ছে।
মূল উদ্দেশ্য ছিলো নিবন্ধটিকে ফিচার্ড করা। নতুন অনুচ্ছেদে ফিচার্ডের জন্য রিভিউ লিখলে ভালো হয়। আমার মনে হয়েছে খুব বেশি হয়তো ত্রুটি পাওয়া যাবে না। যতদ্রুত সম্ভব শেষ করতে চাই। আর ফেব্রুয়ারীর ২ তারিখ।--নাসির খান সৈকতআলাপ • ১৯:৫৭, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

ভালো নিবন্ধে উত্তীর্ণ এবং নির্বাচিত নিবন্ধের পর্যালোচনা[সম্পাদনা]

নিবন্ধটিকে সুব্রতদা'র প্রাথমিক পর্যালোচনা ও মূল্যবান পরামর্শের ভিত্তিতে আমি দ্বিতীয় বার পর্যালোচনাপূর্বক "ভালো নিবন্ধ" হিসেবে উত্তীর্ণ করলাম। কারণ:

  • নিবন্ধটি সুলিখিত এবং প্রাঞ্জল।
  • এর অফলাইন তথ্য-উৎসগুলো ঘেঁটে দেখা সম্ভব হয়নি, তবে ব্যবহারকারী নাসির, বাংলা উইকিপিডিয়ার একজন বিশ্বস্থ ও আস্থাবান অবদানকারী, তাই এব্যাপারে তাঁকে বিশ্বাস করা হয়েছে।
  • নিবন্ধটির সমালোচনা অংশটি নিবন্ধের নিরপেক্ষতার পক্ষে গ্রহণযোগ্য।
  • এর আলোচনার ব্যাপ্তি ভাষা আন্দোলনের আদ্যোপান্ত তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে।
  • ছবির পরিমাণ একটু কম, তবে তা সহসা কাটিয়ে ওঠারও খুব সুযোগ নেই।

এসব বিবেচনায়, কিছু সংশোধন, পরিমার্জন এবং তথ্য বাতিলপূর্বক ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৩ (OldID: 1320507) সংস্করণটিকে ভালো নিবন্ধ হিসেবে উত্তীর্ণ করা হলো। —মঈনুল ইসলাম (আলাপ * অবদান) ২০:২৯, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

নির্বাচিত নিবন্ধের মনোনয়ন[সম্পাদনা]

এই নিবন্ধটিকে নির্বাচিত নিবন্ধ হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছি, এখন যে বিষয়গুলো সচেতনভাবে দেখতে হবে, তা হলো:

  • নিবন্ধে বেশ কিছু তথ্যের পূণরাবৃত্তি লক্ষণীয়, যা মনে আসছে:
  1. শহীদ মিনার নির্মাণের আলোচনা দুবার হয়েছে।
  2. শহীদ মিনারের বর্ণনা দিতে গিয়ে কে উদ্বোধন করলেন, তা একাধিকবার আলোচিত হয়েছে।
  3. ৮/৯ বছরের শিশু মৃত্যুর কথা একাধিকবার আলোচিত হয়েছে।

এই পুণরাবৃত্তিগুলো দূর করা যায়। আরো কিছু চোখে এলে জানাবো ইনশাল্লাহ। —মঈনুল ইসলাম (আলাপ * অবদান) ২০:২৯, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

নিবন্ধটিতে নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র যোগের ক্ষেত্রে আরও সচেতন হওয়া উচিত। কেননা এ বিষয়টি সম্পর্কে কম বেশি আমরা অবগত হলেও উইকিপিডিয়ার নীতি অনুযায়ী আমরা নিবন্ধটি গল্পের মত তথ্যসূত্র ছাড়া যোগ করতে পারি না। আমি যেখানে যেখানে তথ্যসূত্র প্রয়োজন তা চিহ্নিত করার চেষ্টা করছি, যাতে অন্য ব্যবহারকারীদের ঐ তথ্যগুলোর জন্য তথ্যসূত্র খুঁজে, নিবন্ধে যোগে সুবিধা হয়। যেকোন নিবন্ধে,
  • যে তথ্যে কোন ব্যাক্তিবিশেষ সম্পর্কে কোন কিছু দাবি করা হয়েছে তাতে তথ্যসূত্র যোগের আবশ্যকীয়তা রয়েছে।
  • কোন পরিসংখ্যানিক পার্থক্য দাবি করলে তাতেও তথ্যসূত্রের দাবি রাখে। --বেলায়েত (আলাপ | অবদান)
ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান পরামর্শ ও মন্তব্যের জন্যে যা উন্নত চিন্তা-ভাবনার বহিঃপ্রকাশ বটে। কিন্তু, নিবন্ধটি যথেষ্ট তথ্যপূর্ণ ও সময়জনিত গুরুত্বের দাবীদার। কিন্তু, তথ্যসূত্র প্রয়োজনের দাবি নিয়ে নিবন্ধের গতিশীলতা কিংবা ব্যবহারকারীদের থামিয়ে রাখা উচিত নয়। লক্ষ্যণীয় যে, নিবন্ধের লাল লিঙ্ককে সবুজকরণে কমপক্ষে ৩টি নিবন্ধ (শ্রীশচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, কামরুদ্দীন আহমদ, ফকির শাহাবুদ্দীন) তৈরি করতে হয়েছে আমাকে। স্বল্পসংখ্যক উইকি ব্যবহারকারীদের মাঝখান থেকে নিবন্ধে তথ্যসূত্র প্রদানের লক্ষ্যে ভবিষ্যৎ বাণী করা ভীষণ কষ্টকর ও দুরুহ ব্যাপার বলে মনে করছি। নিবন্ধের আকার, প্রকৃতি, গুরুত্বতার পাশাপাশি ২৫,৩০২টি (এ সময় পর্যন্ত) নিবন্ধ থেকে নির্বাচিত ৫টির (মাত্র!) একটি ভাষাবিজ্ঞান-কে (যাতে তথ্যসূত্র দাবি করা হয়েছে) তুলনা করলে অনেকাংশেই সফল এ নিবন্ধটি। ব্যক্তিগত অভিমত -
  • যে-সকল জায়গায় সত্যতা দাবি রয়েছে তা অবলোপন করা হোক; কিংবা
  • সত্যতা ট্যাগ অপসারণ করা হোক (এ মাসের জন্যে)
  • নির্বাচিত নিবন্ধরূপে আত্মপ্রকাশ ঘটানোর লক্ষ্যে প্রশাসকদের দ্রুত হস্তক্ষেপ করা প্রয়োজন; কেননা, মাসের ৭টি দিন কিন্তু ইতিমধ্যেই হারিয়ে গেল।
ধন্যবাদ সহযোগে - Suvray ১৫:১২, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)
সুব্রতদা, আমি আপনার আবেগীয় ব্যাপারটি বুঝতে পারছি। কিন্তু, নিবন্ধের মানের সাথে আপষ করে নিবন্ধকে উইকিপিডিয়ার সর্বোচ্চ মানের নিবন্ধ হিসেবে চিহ্নিত করা, উচিত হবে কি? যদি নিবন্ধের মানের সাথে এমন আপষ করা হয় তাহলে, বাংলা উইকিপিডিয়ায় এমন অনেক নিবন্ধ রয়েছে যাকে আপনি নির্বাচিত বলতে পারেন। তাছাড়া আপনি হয়তো লাল লিঙ্কের সাথে আপষ করতে পারেন যে নীতির উপরে উইকিপিডিয়ার বিশ্বাসযোগ্য, সেই তথ্যসূত্রের সাথে কি আপষ করা ঠিক হবে একটা নির্বাচিত নিবন্ধের জন্য? আমি আপনার প্রথম অভিমতের সাথে একমত, যে সকল তথ্যে সূত্র জোড়ালো নয়, তা বাদ দেওয়া উচিত। সময় যেহেতু স্বল্প তাই আমরা এ কাজটি করে দেখতে পারি নিবন্ধটি কেমন দাঁড়ায়।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৭:৪৫, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)
বেলায়েত ভাইয়ের সাথে আমিও একমত। আবেগ আর হুজুগ নিয়ে চললে হবে না। নিয়মকে নিয়মের মতোই চলতে হবে। বরং হয়তো, সময় কম বলে খোঁজটা হবে আরো জোরালো। তবে যে ট্যাগ সাঁটা হয়েছে, তার বাস্তবায়ন হওয়া উচিত। —মঈনুল ইসলাম (আলাপ * অবদান) ০৫:০৮, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

আপডেট

  • শহীদ মিনার তৈরী ও উদ্বোধনের কথা একটি অনুচ্ছেদে নিয়ে আসা হয়েছে।
  • ৮/৯ বছরের শিশুর কথা একাধিকবার উল্লেখ করা হয়েছে বলেছেন, আমি খুব দ্রুত নিবন্ধটি দেখেছে এবং ২১ ফেব্রুয়ারির ঘটনা অনুচ্ছেদে মাত্র একবার পেয়েছি। অন্য কোথাও থাকলে জানাবেন, সংশোধন করে দেব।
  • সুব্রত দা প্রথম প্রস্তাব ছিলো চিহ্নিত অংশগুলো অপসারণ করা, অন্যথা ট্যাগগুলো অপসারণ করা। সুব্রত দা প্রস্তাবের সাথে একমত, তার প্রস্তাবের ভুল ব্যাক্ষা করার জন্য বেলায়েতভাই এবং মঈনুল ভাইয়ের প্রতি বিরক্ত।
  • দ্রুত সমাধানে পৌছানোর লক্ষে ট্যাগ যুক্ত অংশগুলোর প্রায় সবগুলো অপসারণ করা হয়েছে।
  • প্রথম অনুচ্ছেদে তথ্যসূত্র চাওয়াটা অবান্তর মনে হয়েছে, তবুও অনুরোধ রাখার স্বার্থে নিচের অনুচ্ছেদের তথ্যসূত্র প্রথম অনুচ্ছেদে যোগ করা হয়েছে।
  • পুলিশ কর্মকর্তার ভাষ্যক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের ভাষ্য অনুচ্ছেদদুটি ইংরেজি নিবন্ধে নেই, এবং ১বছরের বেশি সময় আগে আমি এটি অপসারণের প্রস্তাব করেছিলাম। কিন্তু অজানা আবেগীয় কারণে কেউই সেই অলোচনায় অংশগ্রহন করেনি।
নিবন্ধটি ভালো হিসাবে স্বীকৃতি দেয়ার ব্যপারে বেলায়েত ভাইএর প্রস্তাব ছিলো তথ্যসূত্র ট্যাগ যুক্ত অংশগুলো সংশোধন করা, সুব্রতদা ও মঈনুল ভাইয়ের রিভিউ অনুযায়ী এটি ভালো নিবন্ধের যোগ্যতা সম্পন্ন। সুব্রতদা ও মঈনুল ভাইয়ের রিভিউ-এর উপর ভিত্তি করেই নিবন্ধটি নির্বাচিত হিসাবে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য আলোচনা শুরু হয়। এবং বেলায়েত ভাই তথ্যসূত্রের কথাটি উল্লেখ করেন। ৩জনের রিভিউ এর উপর ভিত্তি করে নিবন্ধটিতে কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে।
তাই আমি এই নিবন্ধটি বর্তমান সংস্করণটি নির্বাচিত হিসাবে স্বীকৃতি দেয়ার প্রস্তাব করছি।--নাসির খান সৈকতআলাপ • ১২:২৮, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

নাসির, আমার বিশ্বাস আমি বা মঈনুল সুব্রতদার প্রস্তাবের ভুল ব্যাখ্যা করিনি, বরং আমাদের ব্যাখ্যাই সঠিক বলে আমি মনে করি। যদি এমনটাই হতো তাহলে সুব্রতদা অবশ্যই এই ব্যাপারটি পরিস্কার করতেন। তাছাড়া তথ্যসূত্র প্রয়োজন এই ট্যাগটি কারণ ছাড়াতো আর যোগ করা হয়নি, যে তা অপসারণ করতে বলা হবে। যদি এমন কোন তথ্যের সূত্র পাওয়া না যায়, তাহলে তথ্যটাই অবলোপন করা উচিত, শুধু ট্যাগ নয়। আপনি যদি এমন কিছু সম্পাদনা করে থাকেন, মানে সমস্যার সমাধান ছাড়া যদি ঐ ট্যাগ অপসারণ করে থাকেন তাহলে অনুরোধ করবো ট্যাগগুলো যথাস্থানে পুনঃস্থাপন করুন। তথ্যটির মেধা যাচাই করুন, যদি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই এর তথ্যসূত্র পাওয়া যাবে। নতুবা তথ্যটি অবলোপনে কোন ক্ষতি হবে বলে আমার মনে হয় না। তথ্যসূত্রের সমস্যার সমাধান হলেই বরং আমাদের এ মান নির্ণয়ের ব্যাপারে অগ্রসর হওয়া উচিত। কারণ নিবন্ধের মান যাচাইয়ে, এর মানের সাথে আপষ করা ঠিক হবে না।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৫:৪২, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

(বেলায়েত, নাসিরমঈনুল ভাই - প্রত্যেকের জ্ঞাতার্থে) আলোচ্য নিবন্ধটির বিষয়ে আমার অবস্থান ও ব্যাখ্যা নিশ্চিতকরণে -
  • যে-সকল জায়গায় সত্যতা দাবি রয়েছে তা অবলোপন করা হোক; [অর্থাৎ, সংশ্লিষ্ট বাক্য(গুলো) মুছে ফেলা সংক্রান্ত)
  • সত্যতা ট্যাগ অপসারণ করা হোক (এ মাসের জন্যে) [অর্থাৎ, বাক্যের শেষ অংশ থেকে ট্যাগ অপসারণ করা সংক্রান্ত]
  • নির্বাচিত নিবন্ধরূপে আত্মপ্রকাশ ঘটানোর লক্ষ্যে প্রশাসকদের দ্রুত হস্তক্ষেপ করা প্রয়োজন; কেননা, মাসের ১০টি দিন কিন্তু ইতিমধ্যেই হারিয়ে গেল। [অর্থাৎ, অন্যান্য প্রশাসকের অংশগ্রহণ, যাতে পূর্বঘোষিত ফেব্রুয়ারি মাসে নিবন্ধটিকে প্রধান পাতায় হাজির করা যায়। কিন্তু, দুঃখজনক বিষয় হলো বিজ্ঞ প্রশাসকমণ্ডলী উইকিতে অনুপস্থিত রয়েছেন যা উইকির গতিশীলতাকে হ্রাস করাচ্ছে]
আবেগ বিষয়ে কথার বেশ মারপ্যাঁচ হতে পারে! তাই রণে ভঙ্গ দিয়েছিলাম। যদি বক্তব্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতাম, তাহলে কি নতুন নিবন্ধ সৃষ্টি হতো!! আসলে কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী আমি!!! প্রশাসক মানে কি এই যে নিজেকে হাত গুটিয়ে নেয়া। আমার ধারণা কিন্তু ঠিক তার উল্টো। আমি মনে করি, প্রতিটি নিবন্ধের খুঁটিনাটি বিষয়গুলোতে অভিজ্ঞজনদের নিয়মিতভাবে ব্যাপক সংস্পর্শ থাকা উচিত। কিন্তু শুরু-শেষ; শেষ-শুরু দিয়ে যদি নিবন্ধ হয় তাহলে অগ্রগতি হবে কিরূপে তা আমার বোধগম্য নয়। বেশ কষ্টদায়ক ও যন্ত্রণাদায়ক অনুভূতি যে নিবন্ধের আন্তঃউইকি'র ১৮টির মধ্যে দু'টিতে নির্বাচিত নিবন্ধ হয়েছে; অথচ মূল ভাষায়ই নেই। এ ধরনের নিবন্ধগুলো অন্যান্য উইকিতে ব্যাপকভাবে রয়েছে যা বাংলা উইকিকে ঘিরে সৃষ্ট।
* নির্বাচিত বা ভাল নিবন্ধের মনোনয়ন তাহলে করবে কে? নব্য একজন ব্যবহারকারী নিশ্চয়ই নয়!
* সত্যতা ট্যাগ যদি সাটানো হয়, তাহলে কোন নিবন্ধ কি অগ্রসর হতে পারবে? তবে সচেতন ব্যবহারকারী মাত্রেই উচিত হবে ট্যাগ না সেটে নিবন্ধকে যথোপযুক্তভাবে সম্প্রসারণ সর্বোপরি বাংলা উইকি'র বিকাশের লক্ষ্যে আন্তরিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া; পিছিয়ে নিয়ে যাওয়া নয়! নির্মল সহযোগিতাই একান্ত কাম্য।
তবে, নিবন্ধের মানের বিষয়ে অবশ্যই সকলকেই একমত পোষণ করা বাঞ্ছনীয়।
এখন মূল প্রশ্ন হলো নিবন্ধটি কি আসলেই আলোর মুখ দেখবে অর্থাৎ প্রথম পাতায় যাবে? না-কি তিমির, সে-তো তিমিরেই রয়ে যাবে! তবে, আমি মনে করি যে বর্তমান প্রেক্ষাপটে ঐক্যমতের প্রেক্ষিতেই নিবন্ধটিকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে দ্রুত এগিয়ে নিয়ে যাওয়া উচিত। আশা করি আমি আমার অবস্থান তুলে ধরতে পেরেছি। - Suvray ১৬:৫৩, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)
নিবন্ধটি পর্যালোচনা/নির্বাচিত করার জন্য এখন সময় বেঁধে দেওয়া উচিত। এবং প্রয়োজনে একটি সাইট নোটিশ দিয়ে বা আলোচনা সভায় সকলকে জানানো যেতে পারে। এ সময়ের মধ্যে কারও কোন আপত্তি বা পরামর্শ থাকলে তা আলোচনা সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে। ফেব্রুয়ারির শুরুতে না হোক, মাসের যেকোন সময়ে এটি নির্বাচিত নিবন্ধ বলে উত্তীর্ণ হলেই তা প্রথম পাতায় নেওয়া যাবে।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৭:৫৭, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

নির্বাচিত নিবন্ধ হিসাবে স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

নির্বাচিত নিবন্ধ হিসাবে প্রথম পাতায় ব্যবহারের জন্য একটি অনুচ্ছেদ তৈরী করতে হবে। সাথে একটা ছবি লাগবে। আমি নিচের অনুচ্ছেদটি প্রস্তাব করিছি। তবে এটি আরও একটু ছোটো করতে পারলে ভালো হয়।


বাংলা: ২১শে ফেব্রুয়ারি ১৯৫২: পুরাতন কলাভবন প্রাঙ্গণে ঐতিহাসিক ছাত্রসভার একাংশ

ভাষা আন্দোলন ছিল তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে (বর্তমান বাংলাদেশ) সংঘটিত একটি সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক আন্দোলন। বাংলা ভাষাকে ঘিরে সৃষ্ট এ আন্দোলনের মাধ্যমে তৎকালীন পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণ দাবীর বহিঃপ্রকাশ ঘটে। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে এ আন্দোলন চূড়ান্ত রূপ ধারণ করলেও বস্তুত এর বীজ বপিত হয়ছিল বহু আগে, অন্যদিকে এর প্রতিক্রিয়া এবং ফলাফল ছিল সুদূরপ্রসারি। ১৯৪৭ সালে দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে ব্রিটিশ ভারত ভাগ হয়ে পাকিস্তানের উদ্ভব হয়। কিন্তু পাকিস্তানের দু’টি অংশ - পূর্ব পাকিস্তান এবং পশ্চিম পাকিস্তানের মধ্যে সাংস্কৃতিক, ভৌগোলিক ও ভাষাগত দিক থেকে অনেক মৌলিক পার্থক্য বিরাজ করছিল। ১৯৪৮ সালে পাকিস্তান সরকার ঘোষণা করে যে, উর্দুই হবে পাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা। এ ঘোষণার প্রেক্ষাপটে পূর্ব পাকিস্তানে অবস্থানকারী বাংলাভাষী সাধারণ জনগণের মধ্যে গভীর ক্ষোভের জন্ম হয় ও বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। ফলস্বরূপ বাংলাভাষার সম-মর্যাদার দাবিতে পূর্ব পাকিস্তানে আন্দোলন দ্রুত দানা বেধে ওঠে। আন্দোলন দমনে পুলিশ ১৪৪ ধারা জারি করে ঢাকা শহরে সমাবেশ-মিছিল ইত্যাদি বে-আইনী ও নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি (৮ ফাল্গুন ১৩৫৮) এ আদেশ অমান্য করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বহু সংখ্যক ছাত্র ও প্রগতিশীল কিছু রাজনৈতিক কর্মী মিলে মিছিল শুরু করেন। মিছিলটি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের কাছাকাছি এলে পুলিশ ১৪৪ ধারা অবমাননার অজুহাতে আন্দোলনকারীদের ওপর গুলিবর্ষণ করে। শহীদদের রক্তে রাজপথ রঞ্জিত হয়ে ওঠে। শোকাবহ এ ঘটনার অভিঘাতে সমগ্র পূর্ব পাকিস্তানে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ক্রমবর্ধমান গণআন্দোলনের মুখে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার শেষাবধি নতি স্বীকার করতে বাধ্য হয় এবং ১৯৫৬ সালে বাংলা ভাষাকে পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি প্রদান করে। ২০০০ সালে ইউনেস্কো বাংলা ভাষা আন্দোলন, মানুষের ভাষা এবং কৃষ্টির অধিকারের প্রতি সম্মান জানিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে যা বৈশ্বিক পর্যায়ে সাংবার্ষিকভাবে গভীর শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে উদযাপন করা হয়। (বাকি অংশ পড়ুন...)

সেমি প্রটেক্টেড[সম্পাদনা]

প্রথমেই সকল ব্যবহারকারী বিশেষ করে এই নিবন্ধের সাথে জড়িত ব্যবহারকারীদের অভিনন্দন। নিবন্ধটি এখন নির্বাচিত নিবন্ধ হিসেবে উত্তীর্ণ হয়েছে। এ নিবন্ধটির এখন প্রচারণা প্রয়োজন। আমার অভিজ্ঞতা বলে এ নিবন্ধটির লিঙ্ক সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করলে প্রথম কিছুদিন এতে বেনামী ব্যবহারকারীদের সম্পাদনা বাড়বে, তাই অপ্রত্যাশিত ভ্যান্ডালিজম এড়াতে নিবন্ধটি সাময়িকভাবে সেমি প্রটেক্টেড করা হল, এ সময় বেনামী বা আইপি ব্যবহারকারীরা এতে সম্পাদনা করতে পারবেন না।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ০৪:০১, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (ইউটিসি)

তথ্যসংক্রান্ত ভুল-ত্রুটি সম্পর্কে[সম্পাদনা]

বাংলা উইকিপিডিয়ার নির্বাচিত/উৎকৃষ্ট/প্রচ্ছদ নিবন্ধগুলোর একটি বাংলা ভাষা আন্দোলন। আক্ষেপের বিষয় যে নিবন্ধটি মানসম্পন্ন নয়। তথ্যগত ছাড়াও শৈলীগত অনেক ভুল রয়েছে। যেমন, ১৯৪৭ থেকে ১৯৫৫ পর্যন্ত বর্তমান বাংলাদেশের নাম ছিল পূর্ব বাংলা; ১৯৫৫ সালের ১৪ই অক্টোবর এর পূর্ব পাকিস্তান নামকরণ করা হয়। অথচ পূর্ব বাংলার নাম উল্লেখ না করে পূর্ব পাকিস্তানের নাম উল্লিখিত হয়েছে। তাছাড়া নিবন্ধটি মাত্রাতিরিক্ত উইকিসংযোগময়আফতাবুজ্জামান ও অন্যান্য নিরীক্ষক ও প্রশাসকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। - St.teresa (আলাপ) ০৬:১৫, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (ইউটিসি)

পুনশ্চ অনেক আগেই ত্রুটিবিচ্যুতিগুলো চোখে পড়লেও নিরীক্ষক অধিকার নেই বলে নিবন্ধটি সম্পাদনায় উৎসাহিত হইনি। কিন্তু ভাষার মাসে এই বহুল পঠিত নিবন্ধের ত্রুটিগুলো মেনে নিতে পারছি না। ত্রুটিবিচ্যুতিগুলো শোধরাতে আমাকে নিরীক্ষণ অধিকার দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। ধন্যবাদ। - St.teresa (আলাপ) ০৬:৪২, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (ইউটিসি)

অধিকারের সাথে সম্পাদনার সম্পর্ক ঠিক বুঝতে পারিনি। আপনিতো সম্পাদনা করতে পারবেন। ~ যুদ্ধমন্ত্রী আলাপ ০৯:১৬, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (ইউটিসি)

উইকিপিডিয়ার কোন অধিকার নিয়ে আমি বিন্দুমাত্র ভাবিত নই, তবুও শুধু এই নিরীক্ষক অধিকার চাচ্ছি যাতে করে নিরীক্ষণ-আবশ্যক এমন নিবন্ধগুলো চটজলদি সংশোধন করা যায় সে জন্যে। সম্পাদনায় তাৎক্ষনিকতা আছে বলেই না উইকিপিডিয়ায় স্বেচ্ছাশ্রম দেই। সেই তাৎক্ষনিকতাই যদি না থাকে তো সম্পাদনায় উৎসাহ পাই না। যেমন, শুধু প্রথম বাক্য ছাড়াও অনেক জায়গায় এই নিবন্ধ সংশোধন করা উচিত। হয়তো সংশোধন করেও ফেলতাম যদি না এই বিলম্ব না হতো। আমি ধ্বংসপ্রবণ নই; একের অধিক নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র যাচাই না করে কোন সম্পাদনাই করি না। তাই নিরীক্ষণ অধিকার চেয়েছিলাম যাতে করে কোন রকম বিলম্ব ব্যতিরেকে উইকিপিডিয়া সম্পাদনায় উৎসাহ পাই। অন্যান্য অধিকার নিয়ে আমার কোন মাথাব্যথা নেই। ধন্যবাদ। - St.teresa (আলাপ) ১৩:১৬, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (ইউটিসি)

St.teresa আপনি সম্পাদনা করুন, সারাংশে কারণও লিখে দিন। --আফতাবুজ্জামান (আলাপ) ১৫:৫২, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (ইউটিসি)