২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ
Stade de France 1000 023.jpg
ফ্রান্সর সাঁ-দ্যনির স্তাদ দ্য ফ্রান্সে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে
বিবরণ
তারিখবাছাইপর্ব:
২২ জুন – ২৫ আগস্ট ২০২১
চূড়ান্ত পর্ব:
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ – ২৮ মে ২০২২
দলচূড়ান্ত পর্ব: ৩২
মোট: ৮০ (৫৪টি অ্যাসোসিয়েশন থেকে)
পরিসংখ্যান
ম্যাচ১২৪
গোল সংখ্যা৩৬৯ (ম্যাচ প্রতি ২.৯৮টি)
দর্শক সংখ্যা৪৩,২৭,২৫৫ (ম্যাচ প্রতি ৩৪,৮৯৭ জন)
শীর্ষ গোলদাতাফ্রান্স করিম বেনজেমা (১৫টি গোল)
সর্বশেষ হালনাগাদ: ৪ মে ২০২২

২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ হচ্ছে উয়েফা কর্তৃক আয়োজিত ইউরোপীয় দলগুলোর ফুটবল প্রতিযোগিতার ৬৭তম আসর এবং ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নস ক্লাব হতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে নামে পরিবর্তন করার পর ৩০তম আসর।

এই আসরের ফাইনাল রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের ক্রেস্তভস্কি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।[১] ২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের বিজয়ী দল ২০২২ উয়েফা সুপার কাপে ২০২১–২২ উয়েফা ইউরোপা লিগের বিজয়ী দলের বিরুদ্ধে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। একই সাথে উভয় দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে ২০২২–২৩ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে খেলার জন্য উত্তীর্ণ হবে।

দল বণ্টন[সম্পাদনা]

উয়েফার ৫৫টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ৫৪টি রাষ্ট্রের সর্বমোট ৭৯টি দল ২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে অংশগ্রহণ করবে (শুধুমাত্র লিশটেনস্টাইন এর ব্যতিক্রম, কারণ তারা কোনো ঘরোয়া লিগ আয়োজন করে না)। উয়েফা দেশ গুণাঙ্ক নিয়ম অনুযায়ী উয়েফার অ্যাসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং করা হয়, যার মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় প্রত্যেক অ্যাসোসিয়েশন হতে কতটি দল অংশগ্রহণ করবে তা নির্ধারণ করা হবে:

  • অ্যাসোসিয়েশন ১–৪ হতে ৪টি করে দল খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • অ্যাসোসিয়েশন ৫–৬ হতে ৩টি করে দল খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • অ্যাসোসিয়েশন ৭–১৫ হতে ২টি করে দল খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • অ্যাসোসিয়েশন ১৬–৫৫ (ব্যতিক্রম লিশটেনস্টাইন) হতে ১টি করে দল খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • ২০২০–২১ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ এবং ২০২০–২১ উয়েফা ইউরোপা লিগের বিজয়ীদের এই আসরে খেলার একটি অতিরিক্ত প্রবেশাধিকার রয়েছে, যার মাধ্যমে তারা যদি তাদের ঘরোয়া লিগের মাধ্যমে ২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জন না করেও এই আসরে অংশগ্রহণ কতে পারবে।

অ্যাসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য, ২০২০ সালের উয়েফা দেশ গুণাঙ্ক অনুযায়ী প্রত্যেক সদস্য রাষ্ট্র হতে কতটি দল খেলবে তা বরাদ্দ করা হয়েছে, যেটি ২০১৫–১৬ মৌসুম হতে ২০১৯–২০ মৌসুম পর্যন্ত ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় তাদের ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত।[২]

এই দেশ গুণাঙ্কের দল বরাদ্দ ছাড়াও, নিম্নে উল্লেখিত ক্ষেত্রে অ্যাসোসিয়েশন হতে অতিরিক্ত দলও এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারে:

  • (ইউসিএল) – ২০২০–২১ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ বিজয়ী দলের জন্য অতিরিক্ত স্থান।
  • (ইউইএল) – ২০২০–২১ উয়েফা ইউরোপা লিগ বিজয়ী দলের জন্য অতিরিক্ত স্থান।
২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য অ্যাসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং
অব. অ্যাসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল টীকা
 স্পেন ১০২.২৮৩
 ইংল্যান্ড ৯০.৪৬২
 জার্মানি ৭৪.৭৮৪
 ইতালি ৭০.৬৫৩
 ফ্রান্স ৫৯.২৪৮
 পর্তুগাল ৪৯.৪৪৯
 রাশিয়া ৪৫.৫৪৯
 বেলজিয়াম ৩৭.৯০০
 ইউক্রেন ৩৬.১০০
১০  নেদারল্যান্ডস ৩৫.৭৫০
১১  তুরস্ক ৩৩.৬০০
১২  অস্ট্রিয়া ৩২.৯২৫
১৩  ডেনমার্ক ২৯.২৫০
১৪  স্কটল্যান্ড ২৭.৮৭৫
১৫  চেক প্রজাতন্ত্র ২৭.৩০০
১৬  সাইপ্রাস ২৬.৭৫০
১৭   সুইজারল্যান্ড ২৬.৪০০
১৮  গ্রিস ২৬.৩০০
১৯  সার্বিয়া ২৫.৫০০
অব. অ্যাসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল টীকা
২০  ক্রোয়েশিয়া ২৪.৮৭৫
২১  সুইডেন ২২.৭৫০
২২  নরওয়ে ২১.৭৫০
২৩  ইসরায়েল ১৯.৬২৫
২৪  কাজাখস্তান ১৯.২৫০
২৫  বেলারুশ ১৮.৮৭৫
২৬  আজারবাইজান ১৮.৭৫০
২৭  বুলগেরিয়া ১৭.৩৭৫
২৮  রোমানিয়া ১৬.৭০০
২৯  পোল্যান্ড ১৬.৬২৫
৩০  স্লোভাকিয়া ১৫.৮৭৫
৩১  লিশটেনস্টাইন ১৩.৫০০
৩২  স্লোভেনিয়া ১৩.০০০
৩৩  হাঙ্গেরি ১২.৮৭৫
৩৪  লুক্সেমবুর্গ ৮.০০০
৩৫  লিথুয়ানিয়া ৭.৮৭৫
৩৬  আর্মেনিয়া ৭.৬২৫
৩৭  লাতভিয়া ৭.৬২৫
অব. অ্যাসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল টীকা
৩৮  আলবেনিয়া ৭.৩৭৫
৩৯  উত্তর মেসিডোনিয়া ৭.৩৭৫
৪০  বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৬.৮৭৫
৪১  মলদোভা ৬.৭৫০
৪২  আয়ারল্যান্ড ৬.৭০০
৪৩  ফিনল্যান্ড ৬.৫০০
৪৪  জর্জিয়া ৫.৭৫০
৪৫  মাল্টা ৫.৭৫০
৪৬  আইসল্যান্ড ৫.৩৭৫
৪৭  ওয়েলস ৫.০০০
৪৮  উত্তর আয়ারল্যান্ড ৪.৮৭৫
৪৯  জিব্রাল্টার ৪.৭৫০
৫০  মন্টিনিগ্রো ৪.৩৭৫
৫১  এস্তোনিয়া ৪.৩৭৫
৫২  কসোভো ৪.০০০
৫৩  ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ৩.৭৫০
৫৪  অ্যান্ডোরা ২.৮৩১
৫৫  সান মারিনো ০.৬৬৬

দল[সম্পাদনা]

নিম্নে উল্লেখিত ছকে বন্ধনীগুলো প্রতিটি দল কীভাবে এই আসরে প্রবেশ করেছে তা নির্দেশ করে:

  • চ্যা: চ্যাম্পিয়নস লিগ চ্যাম্পিয়ন
  • ইউ: ইউরোপা লিগ চ্যাম্পিয়ন
  • ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ: পূর্ববর্তী মৌসুম শেষে লিগের পয়েন্ট তালিকায় অবস্থান
  • পরিত্যক্ত-: ইউরোপে করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারীর কারণে জাতীয় অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা পরিত্যক্ত মৌসুম শেষে লিগের পয়েন্ট তালিকায় অবস্থান; করোনাভাইরাসের মহামারীর প্রতিক্রিয়া হিসেবে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় সকল দলের অংশগ্রহণে নির্দেশিকা অনুসারে উয়েফার অনুমোদন প্রয়োজন।[৩]
২০২১–২২ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে উত্তীর্ণ দল (পর্ব অনুসারে)
গ্রুপ পর্ব
ইংল্যান্ড চেলসিচ্যা (৪র্থ) ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (২য়) ইতালি এসি মিলান (২য়) রাশিয়া জিনিত সেন্ট পিটার্সবার্গ (১ম)
স্পেন ভিয়ারিয়ালইউ (৭ম) ইংল্যান্ড লিভারপুল (৩য়) ইতালি আতালান্তা (৩য়) বেলজিয়াম ক্লাব ব্রুজ (১ম)
স্পেন আতলেতিকো মাদ্রিদ (১ম) জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ (১ম) ইতালি ইয়ুভেন্তুস (৪র্থ) ইউক্রেন দিনামো কিয়েভ (১ম)
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ (২য়) জার্মানি আরবি লাইপৎসিশ (২য়) ফ্রান্স লিল (১ম) নেদারল্যান্ডস আয়াক্স (১ম)
স্পেন বার্সেলোনা (৩য়) জার্মানি বরুসিয়া ডর্টমুন্ড (৩য়) ফ্রান্স পারি সাঁ-জেরমাঁ (২য়) তুরস্ক ইস্তাম্বুল বাশাকশেহির (১ম)
স্পেন সেভিয়া (৪র্থ) জার্মানি ভলফসবুর্গ (৪র্থ) পর্তুগাল স্পোর্টিং সিপি (১ম)
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি (১ম) ইতালি ইন্টার মিলান (১ম) পর্তুগাল পোর্তু (২য়)
প্লে-অফ পর্ব
অস্ট্রিয়া রেড বুল জালৎসবুর্গ (১ম) ডেনমার্ক প্রোয়েনপি (১ম)
তৃতীয় বাছাইপর্ব
চ্যাম্পিয়ন পথ লিগ পথ
স্কটল্যান্ড র‍েঞ্জার্স (১ম) চেক প্রজাতন্ত্র স্লাভিয়া প্রাহা (১ম) ফ্রান্স মোনাকো (৩য়) বেলজিয়াম খেন্ট (২য়)
পর্তুগাল বেনফিকা (২য়) ইউক্রেন শাখতার দোনেৎস্ক (২য়)
রাশিয়া স্পার্তাক মস্কো (২য়)
দ্বিতীয় বাছাইপর্ব
চ্যাম্পিয়নস পথ লিগ পথ
সাইপ্রাস ওমোনিয়া (১ম) গ্রিস অলিম্পিয়াকোস (১ম) নেদারল্যান্ডস এইন্থোভেন (২য়) ডেনমার্ক মিচিল্যান (২য়)
সুইজারল্যান্ড ইয়াং বয়েজ (১ম) সার্বিয়া রেড স্টার বেলগ্রেড (১ম) তুরস্ক গালাতাসারায় (২য়) স্কটল্যান্ড সেল্টিক (১ম)
অস্ট্রিয়া রাপিড ভিয়েনা (২য়) চেক প্রজাতন্ত্র স্পার্তা প্রাহা (২য়)
প্রথম বাছাইপর্ব
ক্রোয়েশিয়া দিনামো জাগরেব (১ম) রোমানিয়া ক্লুজ (১ম) লাতভিয়া রিগা (১ম) মাল্টা হিবেরনিয়ান্স (পরিত্যক্ত-২য়)
সুইডেন মালমো (১ম) পোল্যান্ড লেগিয়া ওয়ারশ (১ম) আলবেনিয়া তেউতা দুরেস (১ম) আইসল্যান্ড ভালুর (পরিত্যক্ত-১ম)
নরওয়ে বুদো গ্লিমত (১ম) স্লোভাকিয়া স্লোভান ব্রাতিস্লাভ (১ম) উত্তর মেসিডোনিয়া স্কেন্দিয়া (১ম) ওয়েলস কোনাহ'স কায় (১ম)
ইসরায়েল ম্যাকাবি তেল আবিব (১ম) স্লোভেনিয়া মুরা (১ম) বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা বোরাৎস বানিয়া লুকা (১ম) উত্তর আয়ারল্যান্ড লিনফিল্ড (১ম)
কাজাখস্তান আস্তানা (১ম) হাঙ্গেরি ফেরেন্তসভারোস (১ম) মলদোভা শেরিফ তিরাস্পোল (১ম) জিব্রাল্টার লিঙ্কন রেড ইম্পস (১ম)
বেলারুশ শাখতিয়র সলিগরস্ক (১ম) লুক্সেমবুর্গ ফোলা এশ (১ম) প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড শামরক রোভার্স (১ম) মন্টিনিগ্রো বুদুচনোস্ত (১ম)
আজারবাইজান নেফতচি (১ম) লিথুয়ানিয়া জালগিরিস (১ম) ফিনল্যান্ড হেলসিঙ্কি (১ম) এস্তোনিয়া ফ্লোরা (১ম)
বুলগেরিয়া লুদোগোরেতস রাজগ্রাদ (১ম) আর্মেনিয়া আলাশকের্ত (১ম) জর্জিয়া (রাষ্ট্র) দিনামো তিবি‌লিসি (১ম)
প্রাথমিক পর্ব
কসোভো দ্রিতা (১ম) ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ হাভনার বোলতফেলাগ (১ম) অ্যান্ডোরা ইন্টার ক্লাব দেস্কালদেস (১ম) সান মারিনো ফোলগোরে (১ম)

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন MCI PAR RBL BRU
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি ১৮ ১০ +৮ ১২ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ২–১ ৬–৩ ৪–১
ফ্রান্স প্যারিস সাঁ-জারমাঁ ১৩ +৫ ১১ ২–০ ৩–২ ৪–১
জার্মানি আরবি লিপজিগ ১৫ ১৪ +১ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ২–১ ২–২ ১–২
বেলজিয়াম ক্লাব ব্রুজ ২০ −১৪ ১–৫ ১–১ ০–৫
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন LIV ATM POR MIL
ইংল্যান্ড লিভারপুল ১৭ +১১ ১৮ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ২–০ ২–০ ৩–২
স্পেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ −১ ২–৩ ০–০ ০–১
পর্তুগাল পোর্তো ১১ −৭ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ১–৫ ১–৩ ১–০
ইতালি মিলান −৩ ১–২ ১–২ ১–১
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ সি[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন AJX SPO DOR BES
নেদারল্যান্ডস আয়াক্স ২০ +১৫ ১৮ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ৪–২ ৪–০ ২–০
পর্তুগাল স্পোর্টিং সিপি ১৪ ১২ +২ [ক] ১–৫ ৩–১ ৪–০
জার্মানি বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ১০ ১১ −১ [ক] ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ১–৩ ১–০ ৫–০
তুরস্ক বেশিকতাশ ১৯ −১৬ ১–২ ১–৪ ১–২
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার
টীকা:
  1. হেড-টু-হেড পয়েন্ট: স্পোর্টিং সিপি ৩, ডর্টমুন্ড ৩; হেড-টু-হেড গোল পার্থক্য: স্পোর্টিং সিপি +১, ডর্টমুন্ড −১.

গ্রুপ ডি[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন RMA INT SHE SHK
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ১৪ +১১ ১৫ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ২–০ ১–২ ২–১
ইতালি ইন্টার মিলান +৩ ১০ ০–১ ৩–১ ২–০
মলদোভা শেরিফ তিরাস্পোল ১১ −৪ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ০–৩ ১–৩ ২–০
ইউক্রেন শাখতার দোনেৎস্ক ১২ −১০ ০–৫ ০–০ ১–১
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ ই[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন BAY BEN BAR DKV
জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ ২২ +১৯ ১৮ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ৫–২ ৩–০ ৫–০
পর্তুগাল বেনফিকা −২ ০–৪ ৩–০ ২–০
স্পেন বার্সেলোনা −৭ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ০–৩ ০–০ ১–০
ইউক্রেন ডায়নামো কিয়েভ ১১ −১০ ১–২ ০–০ ০–১
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ এফ[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন MUN VIL ATA YB
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ১১ +৩ ১১ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ২–১ ৩–২ ১–১
স্পেন ভিলারিয়াল ১২ +৩ ১০ ০–২ ২–২ ২–০
ইতালি আতালান্তা ১২ ১৩ −১ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ২–২ ২–৩ ১–০
সুইজারল্যান্ড ইয়ং বয়েজ ১২ −৫ ২–১ ১–৪ ৩–৩
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ জি[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন LOSC SAL SEV WOL
ফ্রান্স লিল +৩ ১১ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ১–০ ০–০ ০–০
অস্ট্রিয়া রেড বুল স্ল্যাজবার্গ +২ ১০ ২–১ ১–০ ৩–১
স্পেন সেভিলা ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ১–২ ১–১ ২–০
জার্মানি উলভসবার্গ ১০ −৫ ১–৩ ২–১ ১–১
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

গ্রুপ এইচ[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন JUV CHE ZEN MAL
ইতালি ইয়ুভেন্তুস ১০ +৪ ১৫ নকআউট পর্বে উত্তীর্ণ ১–০ ৪–২ ১–০
ইংল্যান্ড চেলসি ১৩ +৯ ১৩ ৪–০ ১–০ ৪–০
রাশিয়া জেনিত সেন্ট পিটার্সবার্গ ১০ ১০ ইউরোপা লিগে স্থানান্তরিত ০–১ ৩–৩ ৪–০
সুইডেন মালমো ১৪ −১৩ ০–৩ ০–১ ১–১
উৎস: উয়েফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: টাইব্রেকার

নকআউট পর্ব[সম্পাদনা]

১৬ দলের পর্ব[সম্পাদনা]

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
রেড বুল স্ল্যাজবার্গ অস্ট্রিয়া ২–৮ জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ ১–১ ১–৭
স্পোর্টিং সিপি পর্তুগাল ০–৫ ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি ০–৫ ০–০
বেনফিকা পর্তুগাল ৩–২ নেদারল্যান্ডস আয়াক্স ২–২ ১–০
চেলসি ইংল্যান্ড ৪–১ ফ্রান্স লিল ২–০ ২–১
অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ স্পেন ২–১ ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ১–১ ১–০
ভিলারিয়াল স্পেন ৪–১ ইতালি ইয়ুভেন্তুস ১–১ ৩–০
ইন্টার মিলান ইতালি ১–২ ইংল্যান্ড লিভারপুল ০–২ ১–০
প্যারিস সাঁ-জারমাঁ ফ্রান্স ২–৩ স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ১–০ ১–৩

কোয়ার্টার-ফাইনাল[সম্পাদনা]

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
চেলসি ইংল্যান্ড ৪–৫ স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ১–৩ ৩–২ (অ.স.প.)
ম্যানচেস্টার সিটি ইংল্যান্ড ১–০ স্পেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ১–০ ০–০
ভিলারিয়াল স্পেন ২–১ জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ ১–০ ১–১
বেনফিকা পর্তুগাল ৪–৬ ইংল্যান্ড লিভারপুল ১–৩ ৩–৩

সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
ম্যানচেস্টার সিটি ইংল্যান্ড ৫–৬ স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ৪–৩ ১–৩ (অ.স.প.)
লিভারপুল ইংল্যান্ড ৫–২ স্পেন ভিলারিয়াল ২–০ ৩–২

ফাইনাল[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "UEFA competitions to resume in August"UEFA.com। Union of European Football Associations। ১৭ জুন ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২০ 
  2. "Country coefficients 2019/20"UEFA.com। Union of European Football Associations। ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  3. "Guidelines on eligibility principles for 2020/21 UEFA Club Competitions – COVID 19" (PDF)UEFA.com। Union of European Football Associations। ২৩ এপ্রিল ২০২০। ২৫ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ নভেম্বর ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]