বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার,
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের লোগো.svg
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের চিত্রলিপি
দায়িত্ব
কেএম নুরুল হুদা

১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ থেকে
মনোনয়নদাতাবাংলাদেশ সরকার
নিয়োগকর্তাবাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি
মেয়াদকাল৫ বছর
সর্বপ্রথম৭ জুলাই ১৯৭২
ওয়েবসাইটecs.gov.bd

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বা সংক্ষেপে সিইসি হলেন সাংবিধানিক সংস্থা বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের প্রধান, তিনি রাষ্ট্রে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সাংবিধানিক ভাবে ক্ষমতা প্রাপ্ত। বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনার হলেন কে.এম. নুরুল হুদা। 

নিয়োগ ও অপসারণ[সম্পাদনা]

প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারদের বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি নিয়োগ প্রদান করেন। সংবিধান অনুযায়ী প্রধান নির্বাচন কমিশনার যেদিন প্রথম অফিস করবেন সেদিন থেকে পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য নিয়োগপ্রাপ্ত হন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার-পদে অধিষ্ঠিত এমন কোন ব্যক্তি প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগলাভের যোগ্য হবেন না। অন্য কোনো নির্বাচন কমিশনার অনুরূপ পদে কর্মাবসানের পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার রূপে নিয়োগলাভের যোগ্য হবেন, তবে অন্য কোনোভাবে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগ লাভেরযোগ্য হবেন না।[১]

দায়িত্ব[সম্পাদনা]

একজন নির্বাচন কমিশনার হিসাবে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন ছাড়াও প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচন কমিশনের সভাপতি রূপে কাজ করেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনারগণের তালিকা[সম্পাদনা]

প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসাবে যারা দায়িত্ব পালন করেছেন। তারা হলেন-[২]

নাম মেয়াদকাল
বিচারপতি এম ইদ্রিস ০৭ জুলাই ১৯৭২ - ০৭ জুলাই ১৯৭৭
বিচারপতি এ কে এম নূরুল ইসলাম ০৮ জুলাই ১৯৭৭ - ১৭ মে ১৯৮৫
বিচারপতি চৌধুরী এ.টি.এম মাসুদ ১৭ মে ১৯৮৫ - ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০
বিচারপতি সুলতান হোসেন খান ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০ - ২৪ ডিসেম্বর ১৯৯০
বিচারপতি আব্দুর রউফ ২৫ ডিসেম্বর ১৯৯০ - ১৮ এপ্রিল ১৯৯৫
বিচারপতি এ.কে.এম সাদেক ২৭ এপ্রিল ১৯৯৫ - ০৬ এপ্রিল ১৯৯৬
মোহাম্মদ আবু হেনা ০৯ এপ্রিল ১৯৯৬ - ০৮ মে ২০০০
এম এ সাঈদ ২৩ মে ২০০০ - ২২ মে ২০০৫
বিচারপতি এম. এ. আজিজ ২৩ মে ২০০৫ - ২১ জানুয়ারি ২০০৭
ডঃ এ.টি.এম. শামসুল হুদা ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ - ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১২
কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২ - ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
কে এম নুরুল হুদা ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ - চলমান

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]